ফ্র্যাংক লয়েড রাইট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ফ্র্যাংক লয়েড রাইট
Frank Lloyd Wright LC-USZ62-36384.jpg
জন্ম ফ্র্যাংক লিনকন রাইট
(১৮৬৭-০৬-০৮)জুন ৮, ১৮৬৭
রিচল্যান্ড সেন্টার, উইসকনসিন
মৃত্যু এপ্রিল ৯, ১৯৫৯(১৯৫৯-০৪-০৯) (৯১ বছর)
ফিনিক্স,অ্যারিজোনা
জাতীয়তা আমেরিকান
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ইউনিভার্সিটি অফ উইসকনসিন-ম্যাডিসন
বিল্ডিংসমূহ
প্রকল্পসমূহ ইউসোনিয়ান হাউস
ব্রোডেকার সিটি

ফ্র্যাংক লয়েড রাইট (Frank Lloyd Wright) (৮ই জুন, ১৮৬৭৯ই এপ্রিল, ১৯৫৯) ছিলেন একজন আমেরিকান স্থপতি, ইন্টেরিওর ডিজাইনার, লেখক এবং শিক্ষক। তিনি ১,০০০ এরও বেশি স্ট্রাকচার ডিজাইন করেছেন এবং ৫৩২ টি তার তত্ত্বাবধানে শেষ হয়েছে। রাইট এমন ধরণের স্ট্রাকচারাল ডিজাইনে বিশ্বাস করতেন যা মানুষ ও তার চারপাশের পরিবেশের সাথে মেলবন্ধনে থাকবে, এই দর্শনকে তিনি বলতেন “অরগানিক আর্কিটেকচার” বা “জৈব স্থাপত্যশিল্প”। এই দর্শনের সবচেয়ে সেরা উদাহরণ হচ্ছে ফলিংওয়াটার (১৯৩৫) যাকে আমেরিকার স্থাপত্যবিদ্যার ইতিহাসে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ বলে ধরা হয়। রাইট স্থাপত্যশিল্পের প্রেইরি স্কুল আন্দোলনের একজন অগ্রদূত ছিলেন। তিনি আমেরিকার শহুরে বসবাসের জন্য অনন্য পরিকল্পনা তৈরি করেছিলেন, যা ইউসোনিয়ান হোম নামে সমধিক পরিচিত।

তিনি বিভিন্ন ধরণের ভবনের মৌলিক ও উদ্ভাবনীমূলক নকশা প্রণয়ন করেছিলেন, যার মধ্যে রয়েছে অফিস, চার্চ, বিদ্যালয়, স্কাইস্ক্র্যাপার, হোটেল এবং মিউজিয়াম। তিনি তার ভবনগুলোর আসবাবপত্র ও স্টেইনড গ্লাসের মত অভ্যন্তরীণ উপাদানগুলোরও ডিজাইন করেছিলেন। তার লেখা বইয়ের সংখ্যা ২০ টিরও বেশি, এর পাশাপাশি লিখেছেন অসংখ্য নিবন্ধ। তিনি ইউরোপ ও আমেরিকায় লেকচারার হিসেবে সুখ্যাতি অর্জন করেছিলেন। তার বর্ণীল ব্যক্তিগত জীবনের বিভিন্ন ঘটনা নিয়ে প্রায়ই পত্রপত্রিকায় খবর হত, তার মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ১৯১৪ সালে তার স্টুডিও তালিসিনে আগুন ও খুনের ঘটনা। তিনি তার জীবদ্দশায় সুপরিচিত ছিলেন। ১৯৯১ সালে আমেরিকান ইন্সটিটিউট অফ আর্কিটেকচার তাকে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ স্থপতি হিসেবে স্বীকৃতি জানায়।

ফ্র্যাংক লয়েড রাইট

প্রথম জীবন[সম্পাদনা]

ফ্র্যাংক লয়েড রাইট জন্মেছিলেন উইস্কন্সিন এর রীচল্যান্ড সেন্টার এ। তাঁর পিতা ছিলেন উইলিয়াম ক্যারী রাইট এবং মাতা আন্না লয়েড জোনস। তাঁর আসল নাম ছিল ফ্র্যাংক লিঙ্কন রাইট, পরে এটি পরিবর্তিত হয় যখন তাঁর পিতা মাতার বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। রাইটের বারো বছর বয়সে তাঁর পরিবার উইস্কন্সিনের ম্যাডিসনে বসবাস শুরু করে। এখানে তিনি ম্যাডিসন হাই স্কুলে পড়াশোনা করেন। গ্রীষ্মের ছুটিগুলো তিনি কাটাতেন তাঁর মামা জেমস লয়েড জোনস এর খামারে কাজ করে। এ সময়কার অভিজ্ঞতাই তাঁর মাঝে প্রকৃতির প্রতি শ্রদ্ধার সঞ্চার করে, যা পরবর্তীকালের কাজসমূহে খুঁজে পাওয়া যায়।

১৮৮৫ সালে রাইট ইউনিভার্সিটি অফ উইস্কিন্সনে পুরকৌশল বিদ্যার দুটি সেমিস্টার সম্পন্ন করেন। ১৮৮৭ সালে তিনি শিকাগোতে চলে যান।
শিকাগোতে তিনি বিখ্যাত স্থপতি জোসেফ ল্যীমান সীল্‌সবির অধীনে কাজ করা শুরু করেন। কিন্তু কাজের ধরণ মনঃপূত না হওয়ায় এক বছরের মাঝেই এ কাজ ছেড়ে দিয়ে তিনি অ্যাডলার ও লুইস সুলিভান এর ফার্মে কাজ করা শুরু করেন। সুলিভান বিশ্বাস করতেন আমেরিকান স্থাপত্য হওয়া উচিৎ আমেরিকানদের প্রয়োজনীয়তার ভিত্তিতে , ইউরোপীয়ান স্থাপত্যের ধারা অনুকরণে নয়। তাঁর এ বিশ্বাস পরবর্তীতে রাইটের উপর গভীর প্রভাব রেখেছিল।
সুলিভান এর মতবাদ ছিলো 'ব্যবহারের উদ্দেশ্য হতেই আকারের সৃষ্টি' (Form Follows Function)। রাইট তাঁর এই মতবাদকেই আরেকটু পরিবর্তন করে বিশ্বাস করতেন, ভবনের উদ্দেশ্য ও আকার দুটোরই সৃষ্টি একসাথেই, অর্থাৎ দুটোই আসলে এক (Form and Function are One)।

১৮৯৩ সালে তিনি সুলিভানের ফার্মে তাঁর কর্মজীবনের সমাপ্তি ঘটে। এ সময় শিকাগোতে রাইট তাঁর নিজস্ব ফার্ম প্রতিষ্ঠা করেন, ১৮৯৮ তে স্থান পরিবর্তন করে তিনি ওকপার্কে চলে যান।