ফ্রান্সিসকো পিসার্‌রো

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ফ্রান্সিস্‌কো পিসার্‌রো
Francisco Pizarro.jpeg
জন্ম আনুমানিক. ১৪৭১ বা ১৪৭৬
ত্রুহিয়ো (Trujillo), স্পেন
মৃত্যু ২৬ জুন ১৫৪১ (বয়স ৬৫–৭০)
লিমা, পেরু
জাতীয়তা স্পেনীয়
পেশা দখলদার
যে জন্য পরিচিত স্পেনীয় সাম্রাজ্যের জন্য দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশের পশ্চিমে অবস্থিত ইনকা সাম্রাজ্য দখল
স্বাক্ষর

ফ্রান্সিস্‌কো পিসার্‌রো, লোস আতাবিয়োসের প্রথম মার্কেস (স্পেনীয় ভাষায়: Francisco Pizarro, 1 º Marqués de Atabillos los) (১৪৭১ বা ১৪৭৬২৬শে জুন, ১৫৪১) ছিলেন একজন স্পেনীয় দখলদার (Spanish conquistador) যিনি ষোড়শ শতাব্দীতে স্পেনের রাজা প্রথম চার্লসের জন্য ইনকা সাম্রাজ্য দখল করেন এবং ১৫৩৫ সালে পেরুর রাজধানী, লিমা আবিষ্কার করেন।

পারিবারিক পরিচয়[সম্পাদনা]

ফ্রান্সিস্‌কো পিসার্‌রো জন্মগ্রহণ করেন স্পেনের ত্রুহিয়ো (Trujillo) শহরে, যা বর্তমানে স্পেনের এক্সত্রেমাদুরা (Extremadura) অঞ্চলে অবস্থিত। বিভিন্ন সূত্র তাঁর জন্মের বছর নিয়ে বিভিন্ন মত জানায়। কিছু সূত্র বলে তাঁর জন্মের বছর হচ্ছে ১৪৭১ সাল, আবার কিছু সূত্র জানায় তিনি ১৪৭৫ থেকে ১৪৭৮ সালের মধ্যে যে কোন এক সময় জন্মগ্রহণ করেন। ফ্রান্সিস্‌কো পিসার্‌রো ছিলেন গোনসালো পিসার্‌রো রোদ্রিগেস দে আগিলার (Gonzalo Pizarro Rodríguez de Aguilar) (১৪৪৬ – ১৫২২) এবং ফ্রান্সিস্‌কা গোনসালেস মাতেওস (Francisca González Mateos)–এর জারজ সন্তান। তাঁর পিতা ছিলেন স্পেনীয় জেনারেল গোনসালো ফের্নানদেস দে করদোবা (Gonzalo Fernández de Córdoba)–এর পদাতিক সৈন্যবাহিনীর কর্নেল। জানা যায় যে, গোনসালো পিসার্‌রো রোদ্রিগেস দে আগিলারের চাচাত বোনের পুত্র ছিল হের্নান কোর্তেস, যিনি ১৫২১ সালে উত্তর আমেরিকা মহাদেশের দক্ষিণে অবস্থিত আজটেক সাম্রাজ্য দখল করেন এবং তা স্পেনের অধীনে আনেন।

ইনকা সাম্রাজ্য দখল[সম্পাদনা]

পিসার্‌রোর আগমনের কিছু আগে থেকেই ইনকা সাম্রাজ্যের অশনি সংকেত বেজে ওঠে। আনুমানিক ১৫২৫ সালের দিকে নিকটবর্তী প্যারাগুয়ে থেকে চিরিউয়ানো গোষ্ঠীর সৈন্যরা পর্তুগিজ দখলদার আলেক্সো গার্সিয়াকে নিয়ে প্রথম তাদের আক্রমণ করে। তবে ইনকারা সেই আক্রমণ প্রতিহত করতে সক্ষম হয়। তখন থেকেই স্পেনীয় সৈনিকদের দ্বারা সিফিলিস, বসন্ত রোগ এবং অন্যান্য সংক্রামক ব্যাধি এ অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়তে থাকে।

মহামতি সম্রাট তোপা ইনকা (Topa Inca) ইনকা সাম্রাজ্যে ১৪৯৩ সাল পর্যন্ত শাসন করেন। তাঁর পরে সিংহাসনে আসীন হন উত্তরসূরী সম্রাট উয়াইনা কাপাক (Huayna Capac) যিনি সাম্রাজ্য বিস্তারে বেশ মনোযোগী ছিলেন। এর কিছুকালের মধ্যে উয়াইনা কাপাক এবং তার নিয়োজিত উত্তরাধিকারী মারা যান অজানা কারণে। ধারণা করা হয় ইউরোপীয়দের আমদানীকৃত কোন সংক্রামক ব্যধিতে তাঁদের মৃত্যু হয়।

উয়াইনা কাপাকের মৃত্যুর পর তার দুই ছেলে উয়াসকার (Huáscar) ও আতাউয়ালপা (Atahualpa) ক্ষমতার দ্বন্দ্বে লিপ্ত হন এবং ১৫৩২ সালে আতাউয়ালপা জয়ী হয়ে সিংহাসনে অধিষ্ঠিত হন। অন্তর্কলহের কারণে তাঁরা ইতোমধ্যেই দুর্বল হয়ে পড়েছিলেন।

এসময় স্পেনীয় দখলদার (conquistador) ফ্রান্সিসকো পিসার্‌রো ১৮০ জন সশস্ত্র সৈন্য নিয়ে দক্ষিণ আমেরিকার প্রশান্ত মহাসাগরীয় উপকূলে। পেরুর উপকূলে আবির্ভূত হন। ইনকা রাজধানী কুসকো (Cusco) থেকে দূরবর্তী কাহামার্কা (Cajamarca) শহরে সম্রাট আতাউয়ালপা সৈন্যদের নিয়ে ক্যাম্পিং করেছেন শুনে পিসার্‌রো সেদিকে এগিয়ে যান।

১৫৩২ সালের ১৫ নভেম্বর পিসার্‌রো তাঁর দলবল নিয়ে কাহামার্কায় উপস্থিত হন। তারা সম্রাটের সম্মানে একটি ভোজের আয়োজন করে। সম্রাট দাওয়াত গ্রহণ করেন। পরদিন স্পেনীয়রা কৌশলে সম্রাট আতাউয়ালপা ও তার যোদ্ধাদের এক জায়গায় ঘিরে ফেলে এবং তার সৈন্যদের হত্যা করে। সম্রাট বন্দী হন।

সম্রাট বন্দী অবস্থায় থেকে স্পেনীয়দের ভাষা কিছুটা আয়ত্ত করেন এবং তার মুক্তিপণ হিসেবে দুই ঘর ভর্তি রূপা ও এক ঘর ভর্তি সোনা দিতে চান। স্পেনীয়রা সেই মুক্তিপণ হস্তগত করার পরপরই সম্রাটকে হত্যা করে। কারণ তারা ইতিমধ্যে বুঝে নিয়েছিল তারা স্বর্ণের অবারিত গুপ্তধনের সন্ধান পেয়েছে। আতাউয়ালপাকে হত্যার পর সম্রাটের সৈন্যদের সাথে স্পেনীয়দের যুদ্ধে ইনকা যোদ্ধাদের পরাজয় বরণ করতে হয়। স্পেনীয়দের কাছে কামান, বন্দুক এবং ঘোড়া ছিল যার বিপরীতে বর্শা, গদা, লাঠিসোটা টিকতে পারেনি।

ইনকা সৈন্য পরাজিত হবার পর স্পেনীয়রা ১৫৩৩ সালে ইনকা রাজধানী, কুসকো (Cusco) দখল করে এবং তার পর থেকেই ইনকা সম্রাজ্যে বস্তুত স্পেনীয় শাসন শুরু হয়। পরবর্তী বছরগুলোতে স্পেনীয়রা তাদের উপর জোর জুলুমসহ ইনকা সভ্যতার বড় বড় স্থাপত্য, মন্দির ও বাড়িঘর ধ্বংস করে দেয়। ইনকা সভ্যতার নিদর্শনসমূহ যা মূলত মূল্যবান ধাতুতে গড়া ছিল তা তারা গলিয়ে ফেলে স্বর্ণ-রৌপ্যের লোভে।

ফ্রান্সিসকো পিসার্‌রো ইনকা সাম্রাজ্যের ধারাবাহিকতা বজায় আছে এমনটা দেখাতে আতাউয়ালপাকে হত্যা করার পর তার এক ভাই তোপাক উয়ালপা (Túpac Huallpa)-কে সিংহাসনে বসায়। তোপাক উয়ালপা গুটিবসন্ত রোগের কারণে মৃত্যুবরণ করলে স্পেনীয়রা আতাউয়ালপার আরেক ভ্রাতা মানকো ইনকা (Manco Inca)-কে সিংহাসনে বসায়। ইতিমধ্যে ফ্রান্সিস্‌কো পিসার্‌রো এবং তার সহকর্মী দিয়েগো দে আলমাগ্রো (Diego de Almagro)–এর মধ্যে স্বর্ণরৌপ্যের ভাগাভাগি নিয়ে যুদ্ধ শুরু হয় এবং ১৫৩৮ সালে পিসার্‌রোর ভ্রাতারা আলমাগ্রোকে যুদ্ধে পরাজিত করে এবং তাকে হত্যা করে। মানকো স্পেনীয়দের এই হানাহানির সুযোগ নিয়ে পালিয়ে গিয়ে দুর্গম পাহাড়ি এলাকা বিলকাবাম্বা (Vilcabamba)-তে আশ্রয় নেয় এবং নতুন রাজধানী পত্তন করে। সেখান থেকে মানকো স্পেনীয় শাসনের বিরুদ্ধে গুপ্ত যুদ্ধ পরিচালনা করত। এভাবে কয়েক দশক স্পেনীয়দের সাথে গুপ্ত যুদ্ধ পরিচালনা করার পর, পিসার্‌রোর মৃত্যুর প্রায় একত্রিশ বছর পর ১৫৭২ সালে স্পেনীয়রা বিলকাবাম্বার অবস্থান খুজেঁ পায় এবং বিলকাবাম্বাও তারা ধ্বংস করে দেয়। মানকোর পরাজয়ের মধ্য দিয়ে সর্বশেষ ইনকা সম্রাট ও তার শহরের পতন ঘটে।

লিমা শহর আবিস্কার[সম্পাদনা]

ইনকা সম্রাজ্য দখল করার পর, ফ্রান্সিস্‌কো পিসার্‌রো ১৫৩৫ সালের ১৮ই জানুয়ারী ইনকা সম্রাজ্যের মধ্য তীরের অঞ্চলে সিউদাদ দে লোস রেইয়েস (Ciudad de los Reyes) (রাজাদের শহর) নামে একটি শহর আবিস্কার করেন এবং তা স্পেনীয় ইনকা প্রদেশের রাজধানী হয়। এই শহরের নাম পরে লিমা রাখা হয়।

মৃত্যু[সম্পাদনা]

১৫৪১ সালের ২৬শে জুন লিমায় পিসার্‌রোর শত্রু আলমাগ্রোর পুত্র এবং তার বারো সহকারীরা পিসার্‌রোর প্রাসাদে আক্রমণ করে এবং সেখানে পিসার্‌রোকে হত্যা করে।