ফিলিপ হেনশার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

ফিলিপ হেনশার (ইং: Philip Hensher) একজন তরুণ ব্রিটিশ ঔপন্যাসিক যিনি কর্মসূত্রে বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করে থাকেন। তিনি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকালীন প্রেক্ষাপটে রচিত সিন ফ্রম আর্লি লাইফ নামীয় উপন্যাসের রচয়িতা। ব্রিটেনের দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট সহ বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় তিনি নিয়মিত লিখে থাকেন।

জন্ম, শিক্ষা ও কর্মজীবন[সম্পাদনা]

তাঁর জন্ম দক্ষিণ লন্ডনে ১৯৬৫ খ্রিস্টাব্দের ২০ ফেব্রুয়ারি তারিখে। তিনি অক্সফোর্ডকেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়দ্বয়ে অধ্যয়ন করেছেন।

তিনি কথাসাহিত্যিক, সাহিত্য সমালোচক এবং সাংবাদিক হিসাবে খ্যাতি অর্জন করেছেন। ১৯৯৯ থেকে তিনি ব্রিটিশ লিটের‌্যারি সোসাইটির একজন সদস্য।

ফিলিপ হেনশার ব্রিটেনের খ্যাতিমান সমকামীদের একজন; তিনি জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক আইনজীবি জাবেদ মাহমুদকে স্বামী হিসাবে গ্রহণ করেছেন।

বর্তমানে তিনি ইউনিভার্সিটি অব বাথ স্পা'র একজন শিক্ষক। তিনি "কথাসাহিত্য" পড়িয়ে থাকেন। ইতোপূর্বে তিনি ইউনিভার্সিটি অব এক্সেটার-এ ক্রিয়েঠিভ রাইটিং-এর শিক্ষক হিসবে কাজ করেছেন।

সাহিত্যকৃতি[সম্পাদনা]

২০১৩ অবধি তাঁর প্রকাশিত গ্রন্থের সংখ্যা ৮ যার মধ্যে উপন্যাস ৬টি। ব্রিটেনের দ্য ইনডিপেন্ডেন্ট পত্রিকায় তিনি নিয়মিত লিখে থাকেন।[১] তাঁর নবতম গ্রন্থ দ্য এম্পারার ওয়ালয্‌ ২০১৪-এ প্রকাশিত হবে। ঐতিহাসিক পটভূমি তাঁর কাহিনীসমূহের প্রেক্ষাপট। মানবজীবনের অনুপুঙ্খ বর্ণনা তাঁর অন্যতম রচনা কৌশল।[২]

২০০৩ খ্রিস্টাব্দে ২০ জন শ্রেষ্ঠ তরুণ ব্রিটিশ ঔপন্যাসিকের তালিকায় তার নাম অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। তাঁর উপন্যাস দ্য নর্দান ক্লেমেন্সি ২০০৮ খ্রিস্টাব্দে বুকার পুরস্কারের জন্য বিবেচনাধীন গ্রন্থাবলীর সংক্ষিপ্ত তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল।

সিন ফ্রম আর্লি লাইফ[সম্পাদনা]

সিন ফ্রম আর্লি লাইফ ফিলিপ হেনশার বিরচিত একটি উপন্যাস যার প্রেক্ষাপট বাংলাদেশ। গ্রন্থটি ২০১২ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত। ১৯৭১-এর মুক্তিযুদ্ধকালীন পাকিস্তানী সেনাবাহিনীর বর্বরতা এবং মুক্তিকামী বাঙালীর সাহসিকতা উভয়ই এই উপন্যাসে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।[৩] "সিন ফম আর্লি লাইফ" প্রসঙ্গে ভারতীয় কথাসাহিত্যিক অমিতাভ ঘোষ বলেছেন, এই গ্রন্থ ফিলিপের একটি বড় মাপের কাজ। যুগপৎ সমমর্মিতা আর গল্প প্রতিভার বিস্ময়কর এক সাফল্য। এই উপন্যাস অনেক পুরস্কারের দাবী রাখে। আর ভারতীয় উপমহাদেশেই এই দাবী বেশী খাটে।[৪]

সিন ফ্রম আর্লি লাইফ মূলত এক উচ্চ মধ্যবিত্ত শ্রেণীর বাঙালি পরিবারের গল্প। এটি কিছুটা আত্মজৈবনিক যা কি-না এর নায়ক জাবেদ মাহমুদের বয়ানে স্মৃতিকথার আদলে ধরনে বিবৃত। এই বর্ণনায় রয়েছে গীতলতা। এটি আংশিকভাবে একজনের জীবনের গল্প, আংশিকভাবে একটি উপন্যাস।

উপন্যাসের শুরুতে আছে ঢাকা শহরের ধানমন্ডির বর্ণনাঃ "ধানমন্ডির রাস্তাঘাট নীরব, আর পাশজুড়ে গাছের সারি, সব গাছই গোড়া থেকে চার ফুট সাদা রঙ করা, পিঁপড়াদের হাত থেকে গাছগুলোকে বাঁচাতেই এমন করা হয়েছে। "পিঁপড়ারা সাদা রঙের ওপর দিয়ে হাঁটতে পারে না";- আমার মা প্রায়ই বলতেন: "তারা অন্যের চোখে-পড়ে-যাওয়ার আতঙ্কে ভোগে। তাই গাছের কা-টা সাদা করে রাখা।" আমি আজো জানি না কথাটির কতখানি সত্য।..."। ফিলিপ হেনশারের বন্ধু জাবেদ মাহমুদ ১৯৭০ খ্রিস্টাব্দের শেষাশেষি তখনকার পাকিস্তানের প্রাদেশিক রাজধানী ঢাকায় জন্ম গ্রহণ করে। তার জন্মের এক বৎসরের মধ্যেই দেশের পূর্বাংশ-পূর্ব পাকিস্তান-একটি রক্তক্ষয়ী স্বাধীনতা যুদ্ধের মাধ্যমে পশ্চিমাংশ থেকে আলাদা হয়ে যায়। গৃহযুদ্ধের শিকার অগণন নিরীহ বাঙ্গালীর বেদনাবহ রক্তপাতের মধ্য দিয়ে ১৯৭১-এর ডিসেম্বরের ১৬ ডিসেম্বর দক্ষিণ এশিয়ায়র মানচিত্রে একটা নতুন দেশের অভ্যূদয় ঘটে যার নাম "বাংলাদেশ"। এটি কেবল স্মৃতিকথা নয়, এটি মুক্তির জন্য বিংশ শতাব্দীতে সংঘটিত রক্ষক্ষয়ী এক মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসও বটে। বালক সাদির নিখুঁত বয়ানে পাঠক জানতে পারে একটি পরিবার কী করে দখলদার পাকিস্তানী সেনাদের হাত থেকে নিজেদের রক্ষা করতে সক্ষম হয়েছিল। [৫]

প্রকাশনা[সম্পাদনা]

  • Other Lulus (Hamish Hamilton, 1994)
  • Kitchen Venom (Hamish Hamilton, 1996 ) Winner of the Somerset Maugham Award
  • Pleasured (Chatto and Windus, 1998) Shortlisted for the Guardian Book Award
  • The Bedroom of the Mister's Wife (Chatto and Windus, 1999)
  • The Mulberry Empire (Flamingo, 2002) Longlisted for the Booker Prize and shortlisted for the WHSmith Prize
  • The Fit (4th Estate, 2004)
  • The Northern Clemency (4th Estate, 2008) Shortlisted for the Man Booker Prize and for the Commonwealth Prize
  • King of the Badgers (4th Estate, 2011)
  • Scenes from Early Life (4th Estate, 2012) Shortlisted for the Green Carnation Prize and winner, Ondaatje Prize
  • The Emperor Waltz (4th Estate, forthcoming in April 2014)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Philip Hensher
  2. STAFF PROFILE FOR DR PHILIP HENSHER
  3. SCENES FROM EARLY LIFE BY PHILIP HENSHER
  4. Philip Hensher’s "Scenes from Early Life"
  5. SCENES FROM EARLY LIFE

বহি:সংযোগ[সম্পাদনা]