টিটো ভিলানোভা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
টিটো ভিলানোভা
Tito Vilanova (2012).jpg
২০১২ সালে ভিলানোভা
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম ফ্রান্সেস্ক ভিলানোভা ই বায়ো
জন্ম (১৯৬৮-০৯-২৪)২৪ সেপ্টেম্বর ১৯৬৮
জন্ম স্থান বেলকাইর দি’এম্পোরদা, স্পেন
মৃত্যু ২৫ এপ্রিল ২০১৪(২০১৪-০৪-২৫) (৪৫ বছর)
মৃত্যুর স্থান বার্সেলোনা, স্পেন
উচ্চতা ১.৭৮ মি (৫ ফু ১০ ইঞ্চি)
মাঠে অবস্থান মিডফিল্ডার
তারূণ্যের কর্মজীবন
১৯৮৪–১৯৮৮ বার্সেলোনা
বলিষ্ঠ কর্মজীবন*
বছর দল উপস্থিতি (গোল)
১৯৮৮–১৯৯০ বার্সেলোনা বি ৫২ (৬)
১৯৯০–১৯৯২ ফিগুএরেস ৭২ (৬)
১৯৯২–১৯৯৫ সেল্টা ভিগো ২৬ (১)
১৯৯৫–১৯৯৬ বাদায়োজ ৩৩ (২)
১৯৯৬–১৯৯৭ মায়োর্কা ১০ (০)
১৯৯৭–১৯৯৮ লেইদা ২১ (৩)
১৯৯৮–২০০০ এলচে ৬৩ (৬)
২০০০–২০০১ গ্রেমনেট (০)
মোট ২৮০ (২৪)
দলসমূহ পরিচালিত
২০০৩–২০০৪ প্যালাফ্রুগেল
২০০৭–২০০৮ বার্সেলোনা বি (সহকারি)
২০০৮–২০১২ বার্সেলোনা (সহকারি)
২০১২– ২০১৩ বার্সেলোনা
* পেশাদারী ক্লাবের উপস্থিতি ও গোলসংখ্যা শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগের জন্য গণনা করা হয়েছে।
† উপস্থিতি(গোল সংখ্যা)।

ফ্রান্সেস্ক ‘‘টিটো’’ ভিলানোভা ই বায়ো (স্পেনীয়: Francesc Vilanova i Bayo; ১৭ সেপ্টেম্বর ১৯৬৮ - ২৫ এপ্রিল ২০১৪) একজন প্রাক্তন স্পেনীয় ফুটবলার এবং ম্যানেজার। তিনি মূলত মিডফিল্ডার হিসেবে খেলতেন।

পেশাদার খেলোয়াড় হিসেবে লা লিগায় সেল্তা দে বিগোর হয়ে তিনটি মৌসুমে ২৬টি খেলায় মাঠে নেমেছিলেন ভিলানোভা। পেশাদার খেলোয়াড়ের ক্যারিয়ার শেষ করে তিনি পেপ গার্দিওলার অধীনে বার্সেলোনার সহকারী ম্যানেজার হিসেবে কাজ করেন। চার বছরে ১৪টি শিরোপা জিতা দলের অংশ ছিলেন তিনি।[১]

২০১২ সালে গার্দিওলার প্রস্থানের পর তিনি বার্সেলোনার ম্যানেজারের দায়িত্ব গ্রহণ করেন।[২] প্রথম মৌসুমেই তার অধীনে দল লা লিগা শিরোপা জিতে। ২০১৩ সালের জুলাইয়ে, অসুস্থতার কারণে তিনি ম্যনেজারের পদ থেকে ইস্তফা দেন। এর ১০ মাস পর ২০১৪ সালের ২৫ এপ্রিল তিনি মৃত্যু বরণ করেন।

খেলুড়ে ক্যারিয়ার[সম্পাদনা]

১৯৯০ সালে, বার্সেলোনার যুব প্রকল্প থেকে বের হওয়ার পর, প্রথম দলে বেশি জায়গা না পাওয়ায় ভিলানোভা দল ছেড়ে দেন।[১] ১৯৯১–৯২ মৌসুমে, তিনি স্থানীয় তৃতীয় সারির দল ফিগুয়েরেসে যোগদান করেন। পরের মৌসুমে, তিনি প্রথম সারির দল সেল্টা ভিগোতে যোগ দেন। দলে তিনটি মৌসুম কাটালেও, তাকে খুব কমই মাঠে নামতে দেখা যায়। ১৯৯৫ সালে, ভিলানোভা দ্বিতীয় সারির দল বাদায়োজ-এ যোগ দেন এবং ৩৩ খেলায় ২ গোল করেন। ১৯৯৬–৯৭ মৌসুমে টিটো যোগ দেন মায়োর্কায়। সেখানে তিনি ১০ খেলায় শূন্য গোল করেন। এছাড়া, তিনি লেইদা ও এলচে ক্লাবের হয়েও খেলেন। সর্বশেষ ২০০০–০১ মৌসুমে গ্রেমনেটের হয়ে খেলে ভিলানোভা অবসর গ্রহণ করেন।[৩][৪]

লেইদাতে খেলার সময়, ১৯৯৮ কোপা কাতালুনিয়ায়, বার্সেলোনার বিপক্ষে একটি খেলায় মাঠে নামেন ভিলানোভা। ঐ খেলায় বার্সেলোনার তৎকালীন প্রধান কোচ লুইস ফন গালের পরিবর্তে বার্সেলোনারকোচের দায়িত্ব পালন করেন তারই সহকারি জোসে মরিনহো। খেলায় টিটো একটি গোল করেন। এতে করে, ম্যানেজার হিসেবে মরিনহোর বিপক্ষে, প্রথম গোল করার কৃতিত্ব অর্জন করেন তিনি।[৫]

কোচিং ক্যারিয়ার[সম্পাদনা]

২০০৩–০৪ মৌসুমে স্পেনের চতুর্থ লীগের দল এফসি প্যালাফ্রুগেলের কোচ হিসেবে ভিলানোভা তার কোচিং ক্যারিয়ার শুরু করেন। প্যালাফ্রুগেল তখন কাতালান লীগে অবনমন আতঙ্কে ভুগছিল।[৬][৭] তেরেসা এফসি-তে টেকনিক্যাল পরিচালক হিসেবে কাজ করার পর তাকে বার্সেলোনা বি দলে গার্দিওলার অধীনে সহকারি ম্যানেজারের দায়িত্ব দেয়া হয়, দলটি তখন চতুর্থ সারিতে খেলছিল।[১]

২০০৮ সালের গ্রীষ্মে, বার্সেলোনা বি দলকে তৃতীয় সারিতে উন্নীত করিয়ে দিলে, গার্দিওলাকে ফ্রাংক রাইকার্ডের পরিবর্তে মূল দলের প্রধান ম্যানেজার ও ভিলানোভাকে জোহান নেস্কেনস-এর পরিবর্তে সহকারি ম্যানেজারের দায়িত্ব দেওয়া হয়।[১] ক্যাম্প ন্যুতে তার প্রথম মৌসুম ছিল বার্সেলোনার ইতিহাসে সেরা মৌসুম। ঐ মৌসুমে বার্সেলোনা প্রথম স্পেনীয় ক্লাব হিসেবে ট্রেবল জেতে।[৮] এছাড়াও এক পঞ্জিকাবর্ষে সম্ভাব্য ছয়টি শিরোপার সবকয়টিই জেতে তারা।[৯]

২০১২ সালের ২৭ এপ্রিল, সংবাদ সম্মেলনে বার্সেলোনা গার্দিওলার প্রস্থান নিশ্চিত করে, এর সাথে তারা ভিলানোভাকে গার্দিওলার উত্তরসূরি ঘোষনা করে।[১০] ১৫ জুন, ভিলানোভা বার্সার সাথে দুই বছরের চুক্তি সাক্ষর করেন।[১১]

২৫ এপ্রিল ২০১৪ অনুসারে।

দল কার্যকাল শুরু কার্যকাল শেষ রেকর্ড[১২]
খেলা জয় ড্র পরাজয় স্ব.গো বি.গো গো.পা জয় %
বার্সেলোনা ১ জুলাই ২০১২[৮] ১৮ ডিসেম্বর ২০১২[১৩] 7001270000000000000২৭ 7001230000000000000২৩ 7000200000000000000 7000200000000000000 7001770000000000000৭৭ 7001280000000000000২৮ +49 7001851900000000000৮৫.১৯
বার্সেলোনা ৬ জানুয়ারী ২০১৩[১৩] ২৩ জানুয়ারী ২০১৩[১৩] 7000500000000000000 7000300000000000000 7000100000000000000 7000100000000000000 7001160000000000000১৬ 7000600000000000000 +10 7001600000000000000৬০.০০
বার্সেলোনা ১ এপ্রিল ২০১৩[১৩] ১৯ জুলাই ২০১৩[১৪] 7001130000000000000১৩ 7000800000000000000 7000300000000000000 7000200000000000000 7001280000000000000২৮ 7001170000000000000১৭ +11 7001615400000000000৬১.৫৪
মোট 7001450000000000000৪৫ 7001340000000000000৩৪ 7000600000000000000 7000500000000000000 7002121000000000000১২১ 7001510000000000000৫১ +70 7001755600000000000৭৫.৫৬

সম্মাননা[সম্পাদনা]

সহকারী[সম্পাদনা]

বার্সেলোনা

ম্যানেজার[সম্পাদনা]

বার্সেলোনা

একক[সম্পাদনা]

স্বাস্থ্য সমস্যা এবং মৃত্যু[সম্পাদনা]

২০১২ সালের ১৯ ডিসেম্বর, বার্সেলোনা প্রকাশ করে, ভিলানোভা দ্বিতীয়বারের মত প্যারোটিড লালাগ্রন্থির ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন।[১৫][১৬] তার রোগ প্রথম নির্ণয় করা হয়েছিল প্রায় এক বছর আগে, ২০১১ সালের ২২ নভেম্বর।[১৭]

২০ ডিসেম্বর, ভিলানোভার অস্ত্রোপচার করা হয় এবং এরপর তাকে ছয় সপ্তাহ ধরে কেমোথেরাপি ও রেডিওথেরাপি চিকিৎসা দেওয়া হয়।[১৮] এ সময়ে তার পরিবর্তে কোচের দায়িত্ব পালন করছেন তার সহকারী জর্দি রাউরা। ২৫ মার্চ ভিলানোভা স্পেনে ফিরে আসেন।[১৯]

২০১৩ সালের ১৯ জুলাই, শারীরিক অবস্থার অবনতির কারণে ভিলানোভা বার্সেলোনার ম্যানেজারের পদ থেকে ইস্তফা দেন।[১৪][২০]

২০১৪ সালের ২৫ এপ্রিল, ক্যান্সার জটিলতার কারণে ভিলানোভা মৃত্যু বরণ করেন। এর এক সপ্তাহ আগে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটেছিল।[২১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ১.০ ১.১ ১.২ ১.৩ Marcet, Jaume (২২ জুন ২০০৮)। "Guardiola's right-hand man"। ফুটবল ক্লাব বার্সেলোনা। সংগৃহীত ২৬ এপ্রিল ২০১৪ 
  2. "Nou boss: Pep Guardiola's assistant Tito Vilanova to take over as Barca manager next season"। Mirror। ২৭ এপ্রিল ২০১২। সংগৃহীত ৬ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  3. Shaw, Duncan (২৮ ডিসেম্বর ২০০৮)। "Guardiola's dilemma: should I stay or should I go?"। Monsters and Critics। সংগৃহীত ৬ জানুয়ারি ২০১৩ 
  4. Ayala, Manuel (২১ ডিসেম্বর ২০০১)। "Xuts" [Kicks]El Mundo Deportivo (Catalan ভাষায়) (Barcelona)। সংগৃহীত ৬ জানুয়ারি ২০১৩ 
  5. "Tito Vilanova, el primer a marcar un gol a Mourinho com a entrenador" [ম্যানেজার মরিনহোর বিপক্ষে গোল করা প্রথম খেলোয়াড় টিটো ভিলানোভা] (Catalan ভাষায়)। ARA Barcelona। ৪ মে ২০১২। সংগৃহীত ৬ জানুয়ারি ২০১৩ 
  6. "Sempre ho ha tingut clar" [এটি সর্বদাই পরিষ্কার]El Punt (Catalan ভাষায়) (Girona)। ১ মে ২০১২। সংগৃহীত ৬ জানুয়ারি ২০১৩ 
  7. "De Palafrugell al Camp Nou en 10 anys" [১০ বছরে প্যালাফ্রুগেল থেকে ক্যাম্প ন্যুতে]Diari de Girona (Catalan ভাষায়)। ২৮ এপ্রিল ২০১২। সংগৃহীত ৬ জানুয়ারি ২০১৩ 
  8. ৮.০ ৮.১ "Guardiola: Barca are the "best team in the world""ইএসপিএন সকারনেট। ২৭ মে ২০০৮। সংগৃহীত ২৬ এপ্রিল ২০১৪ 
  9. "Guardiola: Barca are the "best team in the world""। ESPN Soccernet। ২৭ মে ২০০৮। সংগৃহীত ২৯ ডিসেম্বর ২০০৯ 
  10. "Vilanova follows Guardiola"। ESPN Soccernet। ২৭ এপ্রিল ২০১২। সংগৃহীত ৬ জানুয়ারি ২০১৩ 
  11. "Tito Vilanova to sign deal to become Barcelona manager"। BBC Sport। ১৪ জুন ২০১২। সংগৃহীত ৬ জানুয়ারি ২০১৩ 
  12. "FC Barcelona" (জার্মান ভাষায়)। kicker। সংগৃহীত ২৬ এপ্রিল ২০১৪ 
  13. ১৩.০ ১৩.১ ১৩.২ ১৩.৩ "FC Barcelona » Manager history"। World Football। সংগৃহীত ২৬ এপ্রিল ২০১৪ 
  14. ১৪.০ ১৪.১ "Tito Vilanova: Barcelona manager steps down through ill health"। বিবিসি স্পোর্ট। ১৯ জুলাই ২০১৩। সংগৃহীত ২৬ এপ্রিল ২০১৪ 
  15. "Tito recae en su enfermedad" [টিটো আবারও অসুস্থ] (Spanish ভাষায়)। Diario AS। ১৯ ডিসেম্বর ২০১২। সংগৃহীত ৭ জানুয়ারি ২০১৩ 
  16. "Tito Vilanova recae de su enfermedad" [টিটো আবারও অসুস্থ] (Spanish ভাষায়)। El Mundo Deportivo। ১৯ ডিসেম্বর ২০১২। সংগৃহীত ৭ জানুয়ারি ২০১৩ 
  17. "Tito Vilanova, operado de un tumor en Barcelona" [বার্সেলোনায় টিটো ভিলানোভার টিউমারের অস্ত্রোপচার] (Spanish ভাষায়)। La Vanguardia। ২২ নভেম্বর ২০১১। সংগৃহীত ৭ জানুয়ারি ২০১৩ 
  18. "Tito Vilanova será operado este jueves" [টিটো ভিলানোভার অস্ত্রোপচার বৃহস্পতিবার] (Spanish ভাষায়)। Barcelona's official website। ১৯ ডিসেম্বর ২০১২। সংগৃহীত ৭ জানুয়ারি ২০১৩ 
  19. "Welcome home, Tito"ফুটবল ক্লাব বার্সেলোনা। ২৫ মার্চ ২০১৩। সংগৃহীত ৩ এপ্রিল ২০১৩ 
  20. "Tito Vilanova deja el Barça" [Tito Vilanova leaves Barça]এল মুন্দো দেপোর্তিবো (স্পেনীয় ভাষায়)। ১৯ জুলাই ২০১৩। সংগৃহীত ২৬ এপ্রিল ২০১৪ 
  21. "Muere Tito Vilanova"মুন্দো দেপোর্তিবো। সংগৃহীত ২৬ এপ্রিল ২০১৪ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

ক্রীড়া অবস্থান
পূর্বসূরী
ইয়োহান নেসকেন্স
বার্সেলোনা সহকারী ম্যানেজার
২০০৮–২০১২


উত্তরসূরী
জর্দি রাউরা