জাহাজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
একটি ইতালীয় জাহাজ

জাহাজ (ইংরেজি: Ship) এক ধরণের বৃহদাকারের জলযানবিশেষ যা নদী কিংবা সমুদ্রে চলাচলের উপযোগী করে যাত্রী কিংবা মালামাল পরিবহণের কার্য্যে ব্যবহার করা হয়। আধুনিক সভ্যতার বিস্তারে এই নৌযানের অবদান অনস্বীকার্য। এখন পর্যন্ত এ নৌপরিবহনই সবচেয়ে সস্তা পরিবহন হিসেবে বিবেচ্য। পূর্বের ভেলাজাতীয় ও পালবাহী যান বর্তমানে পানির নীচ দিয়ে চলাচলেরও ক্ষমতাসম্পন্ন হয়েছে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে অক্ষশক্তির কাছে মিত্রশক্তির প্রায় ৫,১৫০টি জাহাজ হারিয়ে যায়।[১]

পানিতে ভাসার ব্যাখ্যা[সম্পাদনা]

তরল পদার্থে নিমজ্জিত একটি বস্তু উপরের দিকে যে বল অনুভব করে তা বস্তুটি দ্বারা অপসারিত তরলের ওজনের সমান। তাই দুই হাজার টনের একটি জাহাজ পানিতে ডুবতে থাকবে যতক্ষণ না এটি দুই হাজার টন পানিকে অপসারণ করবে। যদি যদি জাহাজটি ডুবে যাবার আগেই দুই হাজার টন কেজি পানিকে অপসারণ করে ফেলে তাহলে জাহাজটি আর না ডুবে এবার ভেসে থাকবে। এটা সম্ভব হবে জাহাজের ঘনত্বকে জাহাজ দ্বারা অপসারিত পানির ঘনত্বের চেয়ে কম করে দিলে। জাহাজের ভেতরে ফাঁকা স্থান রেখে এটা করা হয়। ফলে জাহাজ সমান ওজনের পানিকে অপসারণ করে ফেলার পর ভেসে থাকে।

মেয়াদকাল[সম্পাদনা]

অধিকাংশ সমুদ্র চলাচলের উপযোগী কার্গো জাহাজের গড় আয়ু ২০ থেকে ৩০ বছর। প্লাইউড কিংবা ফাইবারগ্লাস দিয়ে জাহাজ তৈরী করা হলে তা ত্রিশ থেকে চল্লিশ বছর পর্যন্ত চলাচলের উপযোগী থাকে। শক্ত কাঠের তৈরী জাহাজ আরো বেশী সময় ব্যবহৃত হয়ে থাকে; তবে এর জন্যে নিয়মিত রক্ষণাবেক্ষনের প্রয়োজন। সতর্কভাবে রক্ষণাবেক্ষনের মাধ্যমে স্টিলের পাটাতনের জাহাজ শতাধিক বছর কর্মক্ষমতা প্রদর্শন করে। নষ্ট হয়ে যাওয়া জাহাজকে শীপব্রেকারে স্ক্রেপের জন্যে পাঠানো হয়। জাদুঘর কিংবা কৃত্রিমভাবে প্রদর্শনের জন্যেও এর পুণর্ব্যবহার হয়ে থাকে।

অনেক জাহাজই ভূমিতে তৈরী করা হয় না। আগুন, সংঘর্ষ, ডুবে যাবার মাধ্যমে এর জীবনকাল শেষ হয়ে যায়। জাতিসংঘের তথ্য মোতাবেক জানা যায়, মহাসাগরের তলদেশে তিন মিলিয়নেরও অধিক জাহাজের ভগ্নাবশেষ জমা পড়ে আছে।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Sea Lanes in Wartime - The American Experience 1775-1945, 2nd edition, by Albion, Robert Greenhalgh and Pope, Jennie Barnes, Archon Books, 1968.
  2. Arango, Tim (2007-09-11). "Curse of the $500 million sunken treasure". Money.cnn.tv. Retrieved 2009-09-19.