এদুয়ার্দো ফ্রেই মোন্তাল্‌বা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
এদুয়ার্দো ফ্রেই মোন্তাল্‌বা
চিলির ২৮তম রাষ্ট্রপতি
কার্যালয়ে
৩রা নভেম্বর, ১৯৬৪ – ৩রা নভেম্বর, ১৯৭০
পূর্বসূরী হোর্হে আলেস্‌সান্দ্রি
উত্তরসূরী সালবাদোর আইয়েন্দে
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম ১৬ই জানুয়ারি, ১৯১১
সান্তিয়াগো, চিলি
মৃত্যু ২২শে জানুয়ারি, ১৯৮২; ৭১ বছর বয়সে
সান্তিয়াগো, চিলি
জাতীয়তা চিলীয়
রাজনৈতিক দল পার্তিদো দেমোক্রাতিকা দে চিলে (Partido Demócrata Cristiano de Chile)
দাম্পত্য সঙ্গী মারিয়া রুইস-তাগ্‌লে হিমেনেস
ধর্ম রোমান ক্যাথলিক

এদুয়ার্দো নিকানোর ফ্রেই মোন্তাল্‌বা (স্পেনীয় ভাষায়: Eduardo Niconor Frei Montalva) (১৬ই জানুয়ারি, ১৯১১২২শে জানুয়ারি, ১৯৮২) ১৯৬৪ সাল থেকে ১৯৭০ সাল পর্যন্ত চিলির রাষ্ট্রপতি ছিলেন। মোন্তাল্‌বা চিলির এক ধনী ক্যাথলিক পরিবারে জন্ম নেন। তিনি ১৯৩৩ সালে চিলির ক্যাথলিক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিষয়ে স্নাতক হন এবং একই বিশ্ববিদ্যালয়ে শ্রমিক আইনের উপর অধ্যাপনা শুরু করেন। রক্ষণশীল দলের সদস্য হিসেবে রাজনীতি শুরু করলেও তিনি ফ্যাসিবাদ-বিরোধী ক্যাথলিক আন্দোলন ফালান্‌হে নাসিওনাল (Falange Nacional)-এর একজন প্রতিষ্ঠাদানকারী নেতায় পরিণত হন। দলটি ১৯৫৭ সালে পার্তিদো দেমক্রাতিকো ক্রিস্তিয়ানো নাম নেয় (Partido Demócratico Cristiano)। এর আগে ১৯৪৫ সালে তিনি চিলির পূর্তমন্ত্রী এবং ১৯৪৯ সালে চিলির সিনেটের সদস্য ছিলেন। তিনি ১৯৬৪ সালে সালবাদোর আইয়েন্দেকে বড় ব্যবধানে পরাজিত করে চিলির রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে জয়লাভ করেন। তবে বামপন্থী আইয়েন্দে যাতে ক্ষমতায় আসতে না পারে, এ জন্য মোন্তাল্‌বা মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ-র কাছ থেকে গোপনে প্রায় ৩০ লক্ষ মার্কিন ডলার সাহায্য পান, যা তাঁর নির্বাচনী প্রচারণায় তথা প্রোপাগান্ডায় ব্যয় করা হয়। [১]

তিনি শিক্ষা ও সমাজকল্যাণের সম্প্রসারণ, কৃষি সংস্কার, ও চিলির তামার খনিগুলির আংশিক জাতীয়করণের বিভিন্ন প্রকল্প শুরু করেন। চিলির তামার খনিগুলির মূল নিয়ন্ত্রণ তখন আমেরিকান কোম্পানিদের হাতে ছিল। কিন্তু তাঁর সংস্কার কাজগুলি রক্ষণশীলেরা পছন্দ করে নি। বামপন্থীরাও মুদ্রাস্ফীতি ও শ্রমিক অসন্তোষের ব্যাপারে তাঁর কাজকর্ম এবং সম্পদের কার্যকরী পুনর্বিতরণে তাঁর ব্যর্থতাকে সুনজরে দেখেনি। ফলে ১৯৭০ সালে বামপন্থী সালবাদোর আইয়েন্দে চিলির রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন এবং মোন্তাল্‌বা রাজনীতি থেকে অবসর নেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. এ সম্পর্কিত বিস্তারিত পড়ুন সিআইএ-র ওয়েবসাইটের এই পৃষ্ঠায়: https://www.cia.gov/library/reports/general-reports-1/chile/index.html#14