আন্তর্জাতিক সম্পর্ক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

আন্তর্জাতিক সম্পর্ক (ইংরেজি: International Relations, সংক্ষেপে IR) রাষ্ট্রবিজ্ঞানের একটি শাখা যেখানে আন্তর্জাতিক ঘটনাবলি এবং রাষ্ট্রগুলির মধ্যকার বিশ্ব ইস্যুসমূহ আন্তর্জাতিক ব্যবস্থা-র প্রেক্ষাপটে আলোচিত হয়। এর মূল বিষয়বস্তু রাষ্ট্রের ভূমিকা, আন্তর্জাতিক সংস্থাসমূহ, বেসরকারী সংস্থাসমূহ, এবং বহুজাতিক কর্পোরেশনসমূহ। এটি একাধারে একটি শিক্ষায়তনিক ও সরকারী নীতি-সংক্রান্ত ক্ষেত্র, এবং এটি ইতিবাচক (positive) বা আদর্শিক (normative) দুই-ই হতে পারে, কেননা জ্ঞানের এ শাখাটি বৈদেশিক নীতি বিশ্লেষণ ও প্রণয়ন উভয় ক্ষেত্রেই ব্যবহার করা হয়।

আর্ন্তজাতিক সর্ম্পকের সংজ্ঞায় অধ্যাপক পামার ও পারকিন্স বলেছেন, " বিশ্বসম্প্রদায়ের মত আর্ন্তজাতিক সর্ম্পকের অধ্যয়নও পরিবর্তনশীল।"

রাষ্ট্রবিজ্ঞান ছাড়াও আন্তর্জাতিক সম্পর্কের উপর জ্ঞানের অন্য অনেক শাখার প্রভাব আছে, যেমন - অর্থশাস্ত্র, ইতিহাস, আন্তর্জাতিক আইন, দর্শন, ভূগোল, সমাজবিজ্ঞান, নৃবিজ্ঞান, মনোবিজ্ঞান, এবং সাংস্কৃতিক গবেষণা। এতে আলোচিত বিভিন্ন ইস্যুগুলির মধ্যে আছে বিশ্বায়ন এবং সমাজ ও রাষ্ট্রের সার্বভৈমত্বের উপর বিশ্বায়নের প্রভাব, বাস্তু সহনশীলতা, নিউক্লীয় শক্তির বিস্তার, জাতীয়তাবাদ, অর্থনৈতিক উন্নতি, সন্ত্রাসবাদ, পরিকল্পিত অপরাধ, মানব নিরাপত্তা, এবং মানবাধিকার

== ইতিহাস

==

আন্তর্জাতিক সর্ম্পকের ইতিহাস কয়েক হাজার বছরের পুরানো। ব্যারি বুজান ও রিচার্ড লিটলের মতে, খ্রিস্টপূর্ব ৩৫০০ অব্দে সুমেরীয় শহরগুলোর মধ্যে আন্ত:যোগাযোগ থেকেই আন্তর্জাতিক সর্ম্পকের শুরু। স্বাধীন রাষ্ট্রসমূহভিত্তিক আন্তর্জাতিক সর্ম্পকের ইতিহাসের শুরু ১৬৪৮ সালের ওয়েস্টফেলিয়া চুক্তির মাধ্যমে। এই চুক্তির মাধ্যমে আধুনিক রাষ্ট্রব্যবস্থার ধারণার সূচনা হয়।