দূর সংবেদন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(Remote sensing থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মৃত্যু উপত্যকার Synthetic aperture radar চিত্র, সমবর্তন ব্যবহার করে বর্ণসংযোগ করা

তাত্বিকভাবে, কোনো কিছুর সরাসরি সংস্পর্শে না এসে সেই বিষয়-বস্তুর সম্বন্ধে তথ্য আহরণই হল দূর সংবেদনভূগোল ও ভূবিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখা (যেমন, উদকবিদ্যা, বাস্তুবিদ্যা, সমুদ্রবিজ্ঞান, হিমবিদ্যা, ভূতত্ত্ব)সহ বিভিন্ন বিষয়ে দূর সংবেনের ব্যবহার করা হয়।  এছাড়াও সামরিক, গয়েন্দা, বাণিজ্যিক, অর্থনৈতিক, পরিকল্পনা ও জনহিতকর ব্যবস্থাতে এর প্রয়োগ হয়ে থাকে। বর্তমান প্রয়োগ ক্ষেত্রে "দূর সংবেদন" বলতে কৃত্রিম উপগ্রহ বা বিমানধৃত সংবেদক প্রযুক্তিকেই বোঝাই, যা তড়িৎ-চুম্বকীয় তরঙ্গ-এর সাহায্যে পৃথিবীর বিভিন্ন বস্তুর (ভূপৃষ্ঠ, বায়ুমণ্ডল সমুদ্র সহ) শনাক্তকরণ ও শ্রেনিবিভাজনে সাহায্য করে। একে প্রাধানত দু'ভাগে ভাগ করা যেতে পারে, "স্বপ্রভ" দূর সংবেদন (যখন উপগ্রহ বা বিমান নিজেই তড়িৎ-সংকেত নির্গমন করে এবং তার প্রতিফলনকেই সংবেদক শনাক্ত করে।) ও "পরপ্রভ" দূর সংবেদন (যখন সূর্যরশ্মীর প্রতিফলন সংবেদক শনাক্ত করে।)।[১][২][৩][৪]

সংক্ষিপ্ত বর্ণনা[সম্পাদনা]

এই ভিডিওটিতে দেখানো হয়েছে গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্র-এ ল্যাণ্ডস্যাট উপগ্রহের চিত্র ব্যবহার করে সংরক্ষণ প্রয়োজনীন অঞ্চল গুলির চিহ্নিতকরন কিভাবে করা হয়েছে এবং উত্তরের মারিঙ্গা-লোপোরি-ওয়াম্বা (MLW) অঞ্চলের মানচিত্রাযন কিভাবে করা হয়েছে।

পরপ্রভ সংবেদকগুলি বিভিন্ন বস্তু ও পরিপার্শ্বস্থ স্থান থেকে নির্গত বা প্রতিফলিত বিকিরনকে আহরণ করে। প্রতিফলিত সৌরবিকিরণই পরপ্রব সংবেদক দ্বারা পরিমিত উৎসের অন্যতম photography, infrared, charge-coupled devices, and radiometers ইত্যাদি পরপ্রভ সংবেদকের উদাহরন। অন্যদিকে স্বপ্রভ সংবেদনের ক্ষেত্রে সংবেদক নিজেই তড়িৎ-সংকেত নর্গত করে এবং লক্ষ্য বস্তু হতে প্রতিফলিত বা প্রতিবিক্ষপিত বিকিরনকে শনাক্ত ও পরিমাপ করে। RADAR ও LiDAR স্বপ্রভ সংবেদনের উদা্রন, যেখনে সংকেত নির্গমন ও প্রত্যাবর্তনের ব্যবধান পরিমাপ করা হয়।

দূর সংবেদনের চিত্র-ভিত্তিক ব্যাখ্যা

দূর সংবেদন ব্যবস্থার মাধ্যমে দূর্গম ও বিপজ্জনক অঞ্চলের উপাত্ত সংগ্রহ সম্ভপর হয়েছে। দূর সংবেদনের এই ধরনের প্রয়োগের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল, আমাজন অববাহিকার মতো অঞ্চলে বৃক্ষচ্ছেদন পরিদর্শন, সুমেরু ও কুমেরু অঞ্চলে হিমবাহ বিষয়ক অধ্যয়ন, উপকূল ও সমুদ্রের গভীরতা পরিমাপের জন্য ধ্বনি-ভিত্তিক গভীরতা নির্ণয় ইত্যাদি। দূর সংবেদন মাঠে নেমে ব্যয়বহুল ও মন্থর উপাত্ত সংগ্রহের প্রয়োজনীয়তাকে লাঘব করেছে।

কৃত্রিম উপগ্রহ তড়িৎ-চুম্বকীয় বর্ণালীর বিভিন্ন অংশে ভূপৃষ্টের বৃহৎ অংশের উপাত্ত সংগ্রহ ও প্রেরনের মাধ্যমে দীর্ঘমেয়াদী ও স্বল্পমেয়াদী প্রাকৃতিক ঘটনা যেমন এল নিনো পরিদর্শনে গবেষকদের পর্যাপ্ত উপাত্ত সরবরাহ করে থাকে। অনান্য উল্লখযোগ্য প্রয়োগক্ষেত্র গুলি হল প্রাকৃতিক সম্পদের ব্যবস্থাপনা, ভূমি ব্যবহার ও সংরক্ষণ, কৃষি ইত্যাদি।[৫][৬]

এগুলিও দেখুন[সম্পাদনা]

অতিরিক্ত পঠন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

  • Schowengerdt, Robert A. (২০০৭)। Remote sensing: models and methods for image processing (3rd সংস্করণ)। Academic Press। পৃষ্ঠা 2। আইএসবিএন 978-0-12-369407-2 
  • Schott, John Robert (২০০৭)। Remote sensing: the image chain approach (2nd সংস্করণ)। Oxford University Press। পৃষ্ঠা 1। আইএসবিএন 978-0-19-517817-3 
  • Guo, Huadong; Huang, Qingni; Li, Xinwu; Sun, Zhongchang; Zhang, Ying (২০১৩)। "Spatiotemporal analysis of urban environment based on the vegetation–impervious surface–soil model" (Full text article available)Journal of Applied Remote Sensing8: 084597। doi:10.1117/1.JRS.8.084597বিবকোড:2014JARS....8.4597G 
  • Liu, Jian Guo & Mason, Philippa J. (২০০৯)। Essential Image Processing for GIS and Remote Sensing। Wiley-Blackwell। পৃষ্ঠা 4। আইএসবিএন 978-0-470-51032-2 
  • "Saving the monkeys"। SPIE Professional। সংগ্রহের তারিখ ১ জানু ২০১৬ 
  • Howard, A., et al., (আগস্ট ১৯, ২০১৫)। "Remote sensing and habitat mapping for bearded capuchin monkeys (Sapajus libidinosus): landscapes for the use of stone tools"। Journal of Applied Remote Sensing9 (1)। doi:10.1117/1.JRS.9.096020