মোমেন্ট পরিমাপক স্কেল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

মোমেন্ট পরিমাপক স্কেল(MMS বা MW ,M)একটি নির্দিষ্ট ধরনের স্কেল, যা ভূমিকম্প বিশেষজ্ঞরা কোনো ভূমিকম্পের আকার নির্ণয়ে ব্যবহার করেন।স্কেলটি মূলত ১৯৩০-এর যুগের রিখটার স্কেল (এমএল) কে পেছনে ফেলার জন্য ১৯৭০-এর দশকে তৈরি হয়েছিল।।যদিও সূত্র গুলো আলাদা তবুও নতুন স্কেলে পুরনো স্কেলের পরিমাপক মানগুলি একই রাখা হয়েছে। রিখটার স্কেলের সাথে যথাযথ কিছু স্বীকার্যের অধীনে এই লগারিদমিক স্কেলে এক ধাপ বৃদ্ধি পেলে মোট শক্তি ১০১.৫ বা ৩২ গুণ বৃদ্ধি পায় এবং দুই ধাপ বাড়লে নির্গত শক্তি ১০৩ বা ১০০০ গুণ বৃদ্ধি পায়। তাই একটি ৭.০ আকারের ভূমিকম্প ৬.০ আকারের ভূমিকম্পের থেকে ৩২ গুণ এবং ৫.০ আকারের ভুমিকম্পের থেকে ১০০০ গুণ বেশি শক্তিশালী বা ১০০০ গুণ বেশি শক্তি নির্গত করে।

মোমেন্ট পরিমাপ ভুমিকম্পের ভৌগলিক মোমেন্টের ওপর নির্ভর করে তৈরি করা হয়েছে।ভৌগলিক মোমেন্ট হল ফাটলের কাছের স্থানের পাথরের কৃন্তন গুনাঙ্ক , ফাটলের উপর স্খলনের গড় পরিমাণ এবং স্খলনের মোট ক্ষেত্রফল এর গুণফল।

২০০২ সালের জানুয়ারি মাস থেকে বড় ভূমিকম্পের আকার নির্ধারণ করতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভূতাত্ত্বিক জরিপ (United States Geological Survey) এই স্কেলকে ব্যবহার করছে।

ভূমিকম্পের আকার সম্পর্কিত বিভিন্ন জনপ্রিয় খবরের রিপোর্টগূলো পরিমাপক স্কেল্গুলির মধ্যে পার্থক্য বোঝাতে সাধারণত ব্যর্থ হয় এবং তাই প্রায়ই তারা এটিকে রিখটার পরিমাপ হিসাবে উল্লেখ করে। যেহেতু স্কেলগুলো কিছু নির্দিষ্ট আরোপিত শর্তের অধীনে একই ফলাফল দেখায় , তাই এর মধ্যে এই দ্বিধা (confusion) টুকু নগণ্য।