মেটেবুক প্রিনা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মেটেবুক প্রিনা
Grey-breasted Prinia (Prinia hodgsonii) eyeing Lannea coromandelica fruit W IMG 7890.jpg
eyeing Lannea coromandelica fruit in Shamirpet, Rangareddy district, Andhra Pradesh, India.
সংরক্ষণ অবস্থা
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ/রাজ্য: Animalia
পর্ব: Chordata
শ্রেণী: Aves
বর্গ: Passeriformes
পরিবার: Cisticolidae
গণ: Prinia
প্রজাতি: P. hodgsonii
দ্বিপদী নাম
Prinia hodgsonii
Blyth, 1844

মেটেবুক প্রিনা (বৈজ্ঞানিক নাম: Prinia hodgsonii) ছোট আকৃতির পাখি।[২]

আকার[সম্পাদনা]

মেটেবুক প্রিনা ছোট আকৃতির তৃণচারী পাখি। গায়ের রং মেটে-বাদামি। প্রাপ্তবয়স্ক পাখির পিঠের দিকে জলপাই-বাদামি পালক থাকে। দেহের নিচের দিক সাদা, বুকের পাশ ধূসর, তলপেট পীতাভ বর্ণের। লেজ লম্বায় ৫ সেন্টিমিটার। দেহের দৈর্ঘ্য ১১ সেন্টিমিটার। ওজন ৬ গ্রাম। ছেলে ও মেয়ে পাখির চেহারা অভিন্ন। চোখ অনুজ্জ্বল, সামান্য বাদামি-কমলা, ঠোঁট কালো। অপ্রাপ্তবয়স্ক পাখির দেহতলে হলদে আভা থাকে। ডানা ও লেজের প্রান্তদেশ লালচে হয়।[২]

স্বভাব[সম্পাদনা]

মেটেবুক প্রিনা প্রধানত দল বেঁধে চলে ও বসবাস করে। এরা সাধারণত আবাদি জমির ধারে, বৃক্ষতলে, লতাগুল্মের ঝোপে, কাশবনের পরিষ্কার জায়গায় বিচরণ করে।[২]

খাদ্য[সম্পাদনা]

পিঁপড়া, শুঁয়ো পোকা, গুবরে পোকা ও ফুলের মধু আছে এদের খাবারের প্রধান তালিকায়।[২]

প্রজননকাল[সম্পাদনা]

প্রজনন মৌসুমে পালকের রং পরিবর্তন হয় এবং কাছাকাছি অনেক পাখি দেখা যায়। ঘাসবনে শুকনো ঘাস, পাতা ও নল দিয়ে মাটির কাছে মোচা আকৃতির বাসা বানায়। তিন-চারটি ডিম দেয়। ডিম ফোটে ১১ দিনে বা তারও বেশি সময়ে। মা ও বাবা পাখি উভয়ে মিলে সংসারে কাজ করে।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. BirdLife International (2012)। "Prinia hodgsonii"IUCN Red List of Threatened Species. Version 2012.1International Union for Conservation of Nature। সংগৃহীত 16 July 2012 
  2. ২.০ ২.১ ২.২ ২.৩ ২.৪ মেটেবুক প্রিনা,সৌরভ মাহমুদ, দৈনিক প্রথম আলো। ঢাকা থেকে প্রকাশের তারিখ: ২১-১২-২০১২ খ্রিস্টাব্দ।