মন্টিনেগ্রোর সামরিক বাহিনী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মন্টিনেগ্রোর সশস্ত্র বাহিনী
Montenegrin: Vojska Crne Gore
Znak vcg.gif
প্রধান কার্যালয় পোডগোরিকা
নেতৃত্ব
President Filip Vujanović
প্রতিরক্ষা মন্ত্রী Boro Vučinić
Chief of Staff Major General Dragan Milosavljević
লোকবল
সেনাবাহিনীর বয়স ১৮+
সক্রিয় কর্মিবৃন্দ ৬,৫০০ ১৩৬তম
ব্যয়
বাজেট ৪৯.৯ মিলিয়ন ইউরো

মন্টিনেগ্রোর সামরিক বাহিনী (মন্টিনেগ্রিন: Vojska Crne Gore) মধ্য-২০০৬ সালের মন্টিনেগ্রিন স্বাধীনতার পর এখনও নির্মীয়মান পর্যায়ে রয়েছে।

সার্বিয়া ও মন্টিনেগ্রোর যৌথ সামরিক বাহিনী থেকে মন্টিনেগ্রো ৬,৫০০ জনের একটি শক্তিশালী সামরিক বাহিনী উত্তরাধিকারসূত্রে প্রাপ্ত হয়। কার্যকরী বাহিনীর সদস্য সংখ্যা ২,৫০০ জনে নামিয়ে আনার সিদ্ধান্ত ঘোষিত হয়। এই বাহিনী সম্পূর্ণত স্বেচ্ছাসেবকদের নিয়ে গঠিত। মন্টিনেগ্রোর রাষ্ট্রপতি ফিলিপ ভুজানোভিক ২০০৬ সালের ৩০ অগস্ট বাধ্যতামূলকভাবে সামরিক বাহিনীতে যোগদানের প্রথা অবলুপ্ত করেন।

সার্বিয়া ও মন্টিনেগ্রোর প্রায় সমগ্র নৌবাহিনীটিই মন্টিনেগ্রোর হস্তগত হয়। তবে এটি আকারে ও ক্ষমতায় উপকূলরক্ষী বাহিনীর মতো করে ছোটো করা হয়েছে। মন্টিনেগ্রোর বৈমানিক শাখাটির সংগ্রহেত একটি ৮ জি-৪ সুপার গ্যালেব থাকলেও, এই রাষ্ট্রের কোনো যুদ্ধবিমান বাহিনী রাখার পরিকল্পনা নেই। বরং কয়েকটি পরিবহণ হেলিকপ্টার ও সম্ভবত বিমান প্রতিরক্ষার জন্য একটি সশস্ত্র হেলিকপ্টার বাহিনী রাখা হবে।

মন্টিনেগ্রো ন্যাটোর সদস্যপদ পেতে ইচ্ছুক। বর্তমানে এই রাষ্ট্র ন্যাটোর পার্টনারশিপ ফর পিস কর্মসূচি ও ইন্ডিভিজুয়াল পার্টনারশিপ অ্যাকশন প্ল্যান (আইপিএপিএস)-এর সদস্য। ২০০৮ সালের ৫ নভেম্বর, মন্টিনেগ্রো মেম্বারশিপ অ্যাকশন প্ল্যান-এর সদস্যপদের আবেদন জানিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী মাইলো দুকানোভিক আশা করেন ২০০৯ সালের মধ্যেই তা মঞ্জুর হবে। মন্টিনেগ্রো অ্যাড্রিয়াটিক সনদ-এর সদস্য।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]