বর্গক্ষেত্র

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বর্গক্ষেত্রের চিত্র

সমতলীয় জ্যামিতিতে বর্গক্ষেত্র বলতে ৪টি সমান বাহু বা ভূজ বিশিষ্ট বহুভূজ, তথা চতুর্ভূজকে বোঝায়, যার প্রত্যেকটি অন্তঃস্থ কোণ এক সমকোণ বা নব্বই ডিগ্রীর সমান।

গণনাসূত্র[সম্পাদনা]

একটি বর্গক্ষেত্র, যার প্রতিটি বাহুর দৈর্ঘ্য s, তার পরিসীমার P পরিমাপের সূত্র হল

P=4s

এবং বর্গক্ষেত্রটির ক্ষেত্রফল A পরিমাপের সূত্র হল

A=s^2

বর্গ বলতে অনেক সময় কোন সংখ্যার দ্বিতীয় শক্তিমাত্রা (2nd power) বোঝানো হয়ে থাকে। আএইঅউ

বৈশিষ্ট্য[সম্পাদনা]

বর্গক্ষেত্রের প্রতিটি অন্তঃস্থ কোণ এক সমকোণ বা ৯০ ডিগ্রীর সমান। বর্গক্ষেত্রের কর্ণ দুইটি সমান। অন্যভাবে বলা যায় যে, কোন রম্বসের কর্ণ দুইটি সমান হলে তাকে বর্গক্ষেত্র বলে। বর্গক্ষেত্রের কর্ণের দৈর্ঘ্য তার বাহুর দৈর্ঘ্যের \sqrt{2} (প্রায় ১.৪১) গুন।

অন্যান্য তথ্য[সম্পাদনা]

  • যদি একটি বৃত্ত বর্গক্ষেত্রকে পরিবেষ্টন করে, তাহলে বৃত্তটির ক্ষেত্রফল হল বর্গক্ষেত্রটির ক্ষেত্রফলের \pi/\sqrt{2} (প্রায় ২.২২) গুন।
  • কোন বৃত্ত যদি বর্গক্ষেত্রের ভিতরে অন্তঃবৃত্ত হিসাবে থাকে, তাহলে বৃত্তটির ক্ষেত্রফল বর্গক্ষেত্রটির ক্ষেত্রফলের \pi/4 (প্রায় ০.৭৯) গুন।
  • সমান পরিসীমার কিন্তু বর্গক্ষেত্র নয়, এমন কোন আয়তক্ষেত্র বা রম্বসের চাইতে বর্গক্ষেত্রের আয়তন বেশি হয়ে থাকে।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]