পুরু চাকতি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

পুরু চাকতি (ইংরেজি: Thick disc) অনেক সর্পিল ছায়াপথের এমন একটি অঞ্চল যেখানে অপেক্ষাকৃত প্রবীণ এবং ধাতু-স্বল্প তারার অস্তিত্ব পাওয়া যায়। আমাদের আকাশগঙ্গা যেহেতু একটি আদর্শ সর্পিল ছায়াপথ সেহেতু এতেও এমন একটি চাকতি রয়েছে। আকাশগঙ্গার প্রধান তল থেকে উল্লম্বভাবে উপরে বা নিচে ১ কিলো পারসেকের বাইরে, কিন্তু হেলোর পূর্বে যেসব তারা রয়েছে তারাই পুরু চাকতির বাসিন্দা। এই অঞ্চলে তারার ঘনত্ব সরু চাকতির তুলনায় বেশ কম। সরু চাকতির তারার সাথে এখানকার তারার আরও কিছু পার্থক্য রয়েছে:

  1. পুরু চাকতির তারাদের কক্ষপথ (আকাশগঙ্গার কেন্দ্রকে আবর্তনরত) সরু চাকতির তারাদের তুলনায় অনেক উৎকেন্দ্রিক
  2. এদের আবর্তনের দিকও অনেক ক্ষেত্রে সরু চাকতির তারাদের তুলনায় উল্টো, অর্থাৎ তাদের প্রতীপ গতি রয়েছে।
  3. এরা অপেক্ষাকৃত লাল, প্রবীণ, ধাতু-স্বল্প

গঠন প্রক্রিয়া[সম্পাদনা]

অনেকদিন ধরে পুরু চাকতির অস্তিত্বের কারণ নিয়ে বিজ্ঞানীরা সন্দিহান ছিলেন। কিভাবে এই চাকতি গঠিত হতে পারে সে নিয়ে বিজ্ঞানীরা তিনটি অনুকল্প প্রস্তাব করছিলেন। অবশ্যই এই প্রস্তাবগুলো করা হয়েছিল আমাদের আকাশগঙ্গাকে পর্যবেক্ষণ করে। কিন্তু পরবর্তীতে তারা বুঝতে পারেন তিনটির মধ্যে দুটি অনুকল্পই পর্যবেক্ষণের সাথে মিলে না। কেবল শেষ অনুকল্পটিই বর্তমানে পর্যবেক্ষণের সাথে সামঞ্জস্য বিধান করতে পারছে। তাই বর্তমানে তৃতীয় অনুকল্পটিকেই মূল তত্ত্ব হিসেবে গ্রহণ করছেন অধিকাংশ বিজ্ঞানীরা। অনুকল্পগুলো এবং সেগুলো বাতিল বা গৃহীত হওয়ার কারণ এখানে উল্লেখ করা হচ্ছে:

  1. অরীয় কক্ষীয় অভিপ্রয়াণ: সরু চাকতির তারাগুলো অরীয় কক্ষীয় অভিপ্রয়াণ এর মাধ্যমে ধীরে ধীরে আকাশগঙ্গার সরু চাকতি থেকে দূরে সরে গেছে। কিন্তু এটি সত্য হলে পুরু চাকতির তারাদের উৎকেন্দ্রিকতা এত বেশি হওয়ার কথা না। পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে এই অনুকল্প যতটা ভবিষ্যদ্বাণী করে তার চেয়ে অনেক বেশি অতি উচ্চ ও অতি নিম্ন উৎকেন্দ্রিকতার তারা রয়েছে।
  2. সরু চাকতির তারাদের উত্তাপ প্রদাণ: অনেক আগে অনেক বড় এবং তাৎক্ষণিক কোন সংঘর্ষের কারণে সরু চাকতির তারারা খুব কম সময়ের মধ্যে অনেক বেশি উত্তপ্ত হয়ে গিয়েছিল। এর ফলে তাদের গতিশক্তি বেড়ে গেছে এবং তারা ছুটোছুটি করতে করতে পুরু চাকতিতে চলে গেছে। কিন্তু এটি পুরোপুরি সত্য হলে অতি উচ্চ উৎকেন্দ্রিকতার তারাদের সংখ্যা পর্যবেক্ষণের তুলনায়ও অনেক বেশি হওয়ার কথা। তাই এটিও বাতিল হয়ে গেছে।
  3. বিবৃদ্ধি এবং অঙ্গীভূতকরণ: আমাদের ছায়াপথকে আবর্তনরত কিছু বামন ছায়াপথ-কে আমাদের ছায়াপথ গ্রাস করেছে অর্থাৎ সেই বামনটির বিবৃদ্ধি বা এক্রিশন ঘটেছে। সেই বামন ছায়াপথের তারাগুলোই পুরু চাকতিতে থিতু হয়েছে। অথবা হয়ত অপেক্ষাকৃত বেশি সময় ধরে আকাশগঙ্গা অন্য ছায়াপথকে অঙ্গীভূত করেছে। এই দুটি প্রক্রিয়াই বলে, পুরু চাকতির তারারা আকাশগঙ্গার ভেতরে তৈরি হয়নি বরং বাইরে থেকে এসেছে। এটিই বর্তমানে সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য তত্ত্ব।[১]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Marion Dierickx, Rainer J. Klement, Hans-Walter Rix, Chao Liu, Observational Evidence from SDSS for a Merger Origin of the Milky Way's Thick Disk, Astrophysical Journal; arXiv:1009.1616v1 [astro-ph.GA]