কালি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
জার্মানিতে কালির বোতল।

কালি তরল বা পেস্ট জাতীয় যেটি ইমেজ, টেক্সট, বা নকশা রং করতে ব্যবহার করা হয়। কালি কলম, ব্রাশ, বা পালক দিয়ে ছবি আঁকার বা লেখার জন্য ব্যবহার করা হয়। প্রাচীনকালে কাদার ওপর দাগ কেটে কিংবা শক্ত কোনো কিছুর ওপর আঁচড় দিয়ে লেখার কাজটা সারা হতো। কিন্তু বর্তমানে কালির ব্যাবহার সব কিছু সহজ করে দিয়েছে।

শ্রেণী[সম্পাদনা]

কালি সূত্রে আলাদা হয়, কিন্তু সাধারণত চারটি উপাদান জড়িত:

  • কালারেন্স
  • মাধ্যম
  • রঞ্জকদ্রব্য
  • ক্যারিয়ার পদার্থ

কালি সাধারণত চার শ্রেণীর অন্তর্গত:[১]

  • জলীয়
  • তরল
  • প্রতিলিপি করে লেপন
  • গুঁড়া

কালারেন্স[সম্পাদনা]

রঙ দ্রুত হয়, কিন্তু আরো ব্যয়বহুল, রঙের কম সঙ্গতিপূর্ণ, এবং ডাইসের চেয়ে পরিসীমা কম। [১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

Magnified line drawn by a fountain pen.

প্রথম ঝরনা কলম তৈরি হয় যা জলাধার কলম, মাদ আল মুইজ, মিশরের খলিফার সময় ৯৫৩ খ্রিস্টাব্দে যা হাত বা জামাকাপড় নষ্ট করবে না। [২]

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

  • Cueppers, Christoph (1989). "On the Manufacture of Ink." Ancient Nepal - Journal of the Department of Archaeology, Number 113, August–September 1989, pp. 1–7. [The Tibetan text and translation of a section of the work called, Bzo gnas nyer mkho'i za ma tog by 'Jam-mgon 'Ju Mi-pham-rgya-mtsho (1846–1912) describing various traditional Tibetan techniques of making inks from different sources of soot, and from earth, puffballs, dung, ser-sha - a yellow fungus, and the fruit of tsi dra ka (Ricinus communis).]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ১.০ ১.১ Kipphan, Helmut (2001), Handbook of print media: technologies and production methods (Illustrated সংস্করণ), Springer, পৃ: 130–144, আইএসবিএন 3-540-67326-1 
  2. CE Bosworth, A Mediaeval Islamic Prototype of the Fountain Pen? Journal of Semitic Studies, 26(2):229-234, 1981

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]