এপিটিটিউড (সফটওয়্যার)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
অ্যাপটিটিউড
Aptitude.png
উন্নয়নকারী ড্যানিয়েল ব্রোস
সর্বশেষ সংস্করণ ০.৫.১ / জুলাই ২০, ২০০৯; ৫ বছর আগে (২০০৯-০৭-20)
লেখা হয়েছে সি++
অপারেটিং সিস্টেম গনু/লিনাক্স, আইওএস
প্লাটফর্ম প্রধানত ডেবিয়ান এবং অন্যান্য
ধরণ প্যাকেজ ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম
লাইসেন্স জিএনইউ জেনারেল পাবলিক লাইসেন্স
ওয়েবসাইট packages.debian.org/aptitude

অ্যাপটিটিউড (ইংরেজি: Aptitude) হল অ্যাডভান্সড প্যাকেজিং টুল (এপিটি) এর একটি ফ্রন্ট-এন্ড। এটি ব্যবহারকরীকে সফটওয়্যার প্যাকেজসমূহের একটি তালিকা প্রদর্শন করে এবং এর মাধ্যমে সয়ংক্রিয়ভাবে কোনো প্যাকেজ ইনস্টল করা অথবা মুছে ফেলা যায়। ফ্ল্যাক্সিবল সার্চ প্যাটার্ণ ব্যবহার করে এখানে বিশেষ কার্যকর একটি অনুসন্ধান ব্যবস্থা তৈরী করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে এটি ডেবিয়ানে ব্যবহারের উদ্দেশ্যে তৈরী করা হয়েছিল কিন্তু পরবর্তীতে কানেকটিভার মত আরপিএম ভিত্তিক ডিস্ট্রিবিউশনসমূহে ব্যবহার উপযোগী করা হয়।

অ্যাপটিটিউড এনকার্সেস কম্পিউটার টারমিনাল লাইব্রেরীর উপর ভিত্তি করে তৈরী করা। এটি ব্যবহারের ফলে সফটওয়্যারটির ইন্টারফেসে সাধারণভাবে প্রশলিত কিছু বৈশিষ্ট অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। উদাহারণ হিসাবে পুল ডাউন মেনুর কথা বলা যেতে পারে, গ্রাফিকাল ইউজার ইন্টারফেসের(জিইউআইস) ক্ষেত্রে এটি অত্যান্ত পরিচিত একটি বৈশিষ্ট।

এই ইন্টারফেসের পাশাপাশি এর একটি কমান্ড লাইন ইন্টারফেস রয়েছে। এটির কমান্ড লাইন ইন্টারফেসে এপিটি ফ্যামিলির টুলগুলো যুক্ত করা হয়েছে। একই সাথে এখানে প্রায় সকল এপিটি-গেট কমান্ড লাইন অপশনসমূহ ব্যবহার করা হয়েছে। এর ফলে এপিটিউড এপিটি-গেট এর একটি কার্যকর বিকল্প হিসাবে ব্যবাহর করা যায়। কিন্তু একই সাথে অ্যাপটিটিউড এবং এপিটি-গেট ব্যবহার করা উচিত না। কারণ এটি এই সফটওয়্যারগুলো প্রত্যেক ব্যবহারকারীর জন্য আলাদাভাবে রেকর্ড করে থাকে। নতুন সংস্করণগুলোতে জিটিকে+ ইন্টারফেস ব্যবহার করা হয়েছে। যদিপ এটি এখনো পরীক্ষামূলক পর্যায়ে রয়েছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

অ্যাপটিটিউড তৈরী করা হয়েছিল ১৯৯৯ সালে। সেই সময় টারমিনাল ভিত্তিক দুটি এপিটি ফ্রন্ট-এন্ড ছিল। ডিসেলেক্ট প্রোগ্রামটি ব্যবহার করা হত ডেবিয়ানে প্যাকেজসমূহ একীকরণের জন্য। এপিটি তৈরীর বেশ আগে থেকেই এই টুলটি ব্যবহার করা হয়। কনসোল-এপিটি প্রোগ্রামটিকে বলা হয় ডিসেলেক্টের একটি সহযোগী প্রকল্প হিসাবে। অ্যাপটিটিউড তৈরী করা হয়েছিল কনসোল-এপিটি এর থেকে আরও বেশি বৈশিষ্ট ব্যবহারের উপযোগী করে। অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড ডিজাইনের মাধ্যমে আরও কার্যকর এই সফটওয়্যারটি তৈরী করা হয়েছিল।

অ্যাপটিটিউডের প্রথম পাবলিক রিলিজ ছিল ০.০.১ সংস্করণ। ১৮ নভেম্ভর ১৯৯৯ সালে এটি প্রথম প্রকাশ করা হয়। সেই সময় এটি কিছু সংখ্যক কাজ করতে পারতো। এটি ব্যবহার করে শুধুমাত্র প্যাকেজসমূহের তালিকা দেখা যেত, কিন্তু কোনো প্যাকেজই ডাউনলোড বা ইন্সটল করা যেত না। ০.০.৪এ সংস্করণ থেকে এই বৈশিষ্টগুলোও যোগ করা হয়। এই সংস্করণটি ডেবিয়ান ২.২ (কোড নাম: "potato") তে যুক্ত করা হয়েছিল।

২০০০ সালের শেষের দিকে পূর্ণাঙ্গ ইউজার ইন্টারফেস নতুন করে লেখা হয়েছিল। libsigc++ কলব্যাক লাইব্রেরী ব্যবহার করে একটি নতুন আর্কিটেকচার তৈরী করা হয়েছিল, পাশাপাশি আধুনিক ইউজেট টুলকীট যেমন জিটিকে+ এবং কিইউটি এর বৈশিষ্টও অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল।

এর মাধ্যমে গ্রাফিকাল ইউজার ইন্টারফেস পূর্বের মত করা সম্ভব হয়। পুল-ডাউন মেনু এবং পপআপ উইন্ডো মত বৈশিষ্টগুলো সংযোজন করা সহজ হয়। অ্যাপটিটিউডের একটি ব্যতিক্রম বৈশিষ্ট ছোটো আকারের একটি মাইনসুপার সংযোজন করা হয়েছিল এই সংস্করণে। কোড পুনর্লিখনের এর পর অ্যাপটিটিউডের ০.২.০ সংস্করণ প্রকাশ করা হয়। পরবর্তীতে ডেবিয়ান ৩.০ এর সাথে অ্যাপটিটিউড ০.২.১১.১ প্রকাশ করা হয়। এই সময়ের মধ্যে কনসোল-এপিটি প্রকল্প মেইনটেইনারদের কাছে অধিক গ্রহনযোগ্যতা পায় এবং ডেবিয়ান থেকে এটি অপসারণ করা হয়। অ্যাপটিটিউড আইফোন অপারেটিং সিস্টেম এ অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

বর্তমানে লঞ্চপ্যাডে[সম্পাদনা]

সংস্করণ ০.৬.৩ (২১-০৬-২০১০) এর পর বুরস অ্যাপটিটিউডের ডেভলপমেন্ট লঞ্চপ্যাডে স্থানান্তর করা হয়েছে।

ইস্টারএগ[সম্পাদনা]

গুগল সামার অফ কোড[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]


বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:Debian