আল্লাহর ৯৯ টি নাম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

আল্লাহর ৯৯টি নাম (আরবি: أسماء الله الحسنى‎), হলো কুরআনে, ও হাদিসে বর্ণিত ইসলাম ধর্মমতে ঈশ্বর, আল্লাহর, গুণবাচক নামের একটি তালিকা বা সংকলন।[১] ইসলাম ধর্মমতে, ঈশ্বরের বুনিয়াদি নাম বা ভিত্তি নাম একটিই, আর তা হলো আল্লাহ, কিন্তু তাঁর গুণবাচক নাম অনেকগুলো।

বিভিন্ন হাদীস অনুসারে, আল্লাহ'র ৯৯টি নামের একটি তালিকা আছে, কিন্তু তাদের মধ্যে কোনো সুনির্দিষ্ট ধারাবাহিক ক্রম নেই। তাই সম্মিলিত মতৈক্যের ভিত্তিতে কোনো সুনির্দিষ্ট তালিকাও নেই। তাছাড়া ক্বুরআন এবং হাদিসের বর্ণনা অনুসারে আল্লাহ'র সর্বমোট নামের সংখ্যা ৯৯-এর অধিক। অধিকন্তু আব্দুল্লাহ ইবনে মাসউদ কর্তৃক বর্ণিত একটা হাদিসে বর্ণিত হয়েছে যে, আল্লাহ তাঁর কিছু নাম মানবজাতির অজ্ঞাত রেখেছেন।[২]

উত্স এবং ইতিহাস[সম্পাদনা]

এই নামসমূহের ব্যাপারে ক্বুরআনের বর্ণনায় আল্লাহ তাআলার উদ্ধৃতি এসেছে

আল্লাহ বলে আহবান কর কিংবা রহমান বলে, যে নামেই আহবান কর না কেন, সব সুন্দর নাম তাঁরই। --- সূরা বনী-ইসরাঈল আয়াত ১১০।

অনেকগুলো হাদিস দ্বারাই প্রমাণিত যে,[৩] মুহাম্মাদ (সাঃ) আল্লাহ'র অনেকগুলো নাম-এর উল্লেখ করেছেন।

উদাহরণস্বরূপ, একটি বিশুদ্ধ হাদিসে হযরত আবু হোরায়রা (রাঃ) জনাব মুহাম্মাদ (সাঃ) এর উক্তি বর্ণনা করেন যে,

حَدَّثَنَا عَمْرٌو النَّاقِدُ، وَزُهَيْرُ بْنُ حَرْبٍ، وَابْنُ أَبِي عُمَرَ، جَمِيعًا عَنْ سُفْيَانَ، - وَاللَّفْظُ لِعَمْرٍو - حَدَّثَنَا سُفْيَانُ بْنُ عُيَيْنَةَ، عَنْ أَبِي الزِّنَادِ، عَنِ الأَعْرَجِ، عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ، عَنِ النَّبِيِّ صلى الله عليه وسلم قَالَ ‏"‏ لِلَّهِ تِسْعَةٌ وَتِسْعُونَ اسْمًا مَنْ حَفِظَهَا دَخَلَ الْجَنَّةَ وَإِنَّ اللَّهَ وِتْرٌ يُحِبُّ الْوِتْرَ ‏"‏ ‏.‏ وَفِي رِوَايَةِ ابْنِ أَبِي عُمَرَ ‏"‏ مَنْ أَحْصَاهَا ‏"‏

অর্থাৎ,

আল্লাহ তাআলার ৯৯টি নাম আছে; সেগুলোকে মুখস্থকারী ব্যক্তি জান্নাতে প্রবেশ করবে। যেহেতু আল্লাহ তাআলা বিজোড় (অর্থাৎ, তিনি একক, এবং এক একটি বিজোড় সংখ্যা), তিনি বিজোড় সংখ্যাকে ভালোবাসেন। আর ইবনে উমরের বর্ণনায় এসেছে যে, (শব্দগুলো হলো) "যে ব্যক্তি সেগুলোকে পড়বে"।[৪]

ক্বুরআনের বর্ণনায় আল্লাহ'র গুণবাচক নামসমূহকে "সুন্দরতম নামসমূহ" বলে উল্লেখ করা হয়েছে। (নিম্ন-বর্ণিত দেখুন সূরা আল আরাফ ৭:১৮০, বনী-ইসরাঈল 17:110, ত্বোয়া-হা 20:8, আল হাশ্‌র 59:24)।

ক্বুরআনে প্রাপ্ত আল্লাহ'র ৯৯টি নাম[সম্পাদনা]

এই তালিকার সর্বপ্রথম কলামে অডিও ফাইলের লিঙ্ক দেয়া আছে। সেগুলো শুনতে অসুবিধা হলে এইখানে সহায়তা দেখুন ।

# আরবীতে বর্ণান্তর অনুবাদ (আলোচ্য বিষয়বস্তুর উপর অর্থ নির্ভরশীল) ক্বুরআন-কারীমে এই নামের ব্যবহার
এই শব্দ সম্পর্কে  الله আল্লাহ আল্লাহ অসংখ্যবার ব্যবহৃত।
এই শব্দ সম্পর্কে  الرحمن আর রাহমান পরম দয়ালু সূরা তাওবাহ ব্যতীত প্রত্যেক সূরার শুরুতে, সূরা আর-রহমানে(সূরা নং:৫৫)[কুরআন 55:1] অনেকবার ব্যবহৃত।
এই শব্দ সম্পর্কে  الرحيم আর-রহী'ম অতিশয়-মেহেরবান সূরা তাওবাহ ব্যতীত প্রত্যেক সূরার শুরুতে, এবং আরো অসংখ্যবার ব্যবহৃত।
এই শব্দ সম্পর্কে  الملك আল-মালিক সর্বকর্তৃত্বময় 59:23, 20:114, 23:116
এই শব্দ সম্পর্কে  القدوس আল-কুদ্দুস নিষ্কলুষ, অতি পবিত্র 59:23, 62:1
এই শব্দ সম্পর্কে  السلام আস-সালাম নিরাপত্তা-দানকারী, শান্তি-দানকারী 59:23
এই শব্দ সম্পর্কে  المؤمن আল-মু'মিন নিরাপত্তা ও ঈমান দানকারী 59:23
এই শব্দ সম্পর্কে  المهيمن আল-মুহাইমিন পরিপূর্ন রক্ষণাবেক্ষণকারী 59:23
এই শব্দ সম্পর্কে  العزيز আল-আ'জীজ পরাক্রমশালী, অপরাজেয় 3:6, 4:158, 9:40, 48:7, 59:23
এই শব্দ সম্পর্কে ১০ الجبار আল-জাব্বার দুর্নিবার 59:23
এই শব্দ সম্পর্কে ১১ المتكبر আল-মুতাকাব্বিইর নিরঙ্কুশ শ্রেষ্ঠত্বের অধিকারী 59:23
এই শব্দ সম্পর্কে ১২ الخالق আল-খালিক্ব সৃষ্টিকর্তা 6:102, 13:16, 39:62, 40:62, 59:24
এই শব্দ সম্পর্কে ১৩ البارئ আল-বারী সঠিকভাবে সৃষ্টিকারী 59:24
এই শব্দ সম্পর্কে ১৪ المصور আল-মুছউইর আকৃতি-দানকারী 59:24
এই শব্দ সম্পর্কে ১৫ الغفار আল-গফ্ফার পরম ক্ষমাশীল 20:82, 38:66, 39:5, 40:42, 71:10
এই শব্দ সম্পর্কে ১৬ القهار আল-ক্বাহার কঠোর 12:39, 13:16, 14:48, 38:65, 39:4, 40:16
এই শব্দ সম্পর্কে ১৭ الوهاب আল-ওয়াহ্হাব সবকিছু দানকারী 3:8, 38:9, 38:35
এই শব্দ সম্পর্কে ১৮ الرزاق আর-রজ্জাক্ব রিযকদাতা 51:58
এই শব্দ সম্পর্কে ১৯ الفتاح আল ফাত্তাহ বিজয়দানকারী 34:26
এই শব্দ সম্পর্কে ২০ العليم আল-আ'লীম সর্বজ্ঞ 2:158, 3:92, 4:35, 24:41, 33:40
এই শব্দ সম্পর্কে ২১ القابض আল-ক্ববিদ্ব' সংকীর্ণকারী 2:245
এই শব্দ সম্পর্কে ২২ الباسط আল-বাসিত প্রশস্থকারী 2:245
এই শব্দ সম্পর্কে ২৩ الخافض আর-রফীই' উন্নতকারী 53:6
এই শব্দ সম্পর্কে ২৪ الرافع আর-রফীই' উন্নতকারী 58:11, 6:83
এই শব্দ সম্পর্কে ২৫ المعز আল-মুই'জ্ব সন্মান-দানকারী 3:26
এই শব্দ সম্পর্কে ২৬ المذل আল-মুদ্বি'ল্লু বেইজ্জতকারী 3:26
এই শব্দ সম্পর্কে ২৭ السميع আস্-সামিই' সর্বশ্রোতা 2:127, 2:256, 8:17, 49:1
এই শব্দ সম্পর্কে ২৮ البصير আল-বাছীর সর্ববিষয়-দর্শনকারী 4:58, 17:1, 42:11, 42:27
এই শব্দ সম্পর্কে ২৯ الحكم আল-হা'কাম অটল বিচারক 22:69
এই শব্দ সম্পর্কে ৩০ العدل আল-আ'দল পরিপূর্ণ-ন্যায়বিচারক 6:115
এই শব্দ সম্পর্কে ৩১ اللطيف আল-লাতীফ সকল-গোপন-বিষয়ে-অবগত 6:103, 22:63, 31:16, 33:34
এই শব্দ সম্পর্কে ৩২ الخبير আল-খ'বীর সকল ব্যাপারে জ্ঞাত 6:18, 17:30, 49:13, 59:18
এই শব্দ সম্পর্কে ৩৩ الحليم আল-হা'লীম অত্যন্ত ধৈর্যশীল 2:235, 17:44, 22:59, 35:41
এই শব্দ সম্পর্কে ৩৪ العظيم আল-আ'জীম সর্বোচ্চ-মর্যাদাশীল 2:255, 42:4, 56:96
এই শব্দ সম্পর্কে ৩৫ الغفور আল-গফুর পরম ক্ষমাশীল 2:173, 8:69, 16:110, 41:32
এই শব্দ সম্পর্কে ৩৬ الشكور আশ্-শাকুর গুনগ্রাহী 35:30, 35:34, 42:23, 64:17
এই শব্দ সম্পর্কে ৩৭ العلي আল-আ'লিইউ উচ্চ-মর্যাদাশীল 4:34, 31:30, 42:4, 42:51
৩৮ الكبير আল-কাবিইর সুমহান 13:9, 22:62, 31:30
৩৯ الحفيظ আল-হা'ফীজ সংরক্ষণকারী 11:57, 34:21, 42:6
৪০ المقيت আল-মুক্বীত সকলের জীবনোপকরণ-দানকারী 4:85
৪১ الحسيب আল-হাসীব হিসাব-গ্রহণকারী 4:6, 4:86, 33:39
৪২ الجليل আল-জালীল পরম মর্যাদার অধিকারী 55:27, 39:14, 7:143
৪৩ الكريم আল-কারীম সুমহান দাতা 27:40, 82:6
৪৪ الرقيب আর-রক্বীব তত্ত্বাবধায়ক 4:1, 5:117
৪৫ المجيب আল-মুজীব জবাব-দানকারী, কবুলকারী 11:61
৪৬ الواسع আল-ওয়াসি' সর্ব-ব্যাপী, সর্বত্র-বিরাজমান 2:268, 3:73, 5:54
৪৭ الحكيم আল-হাকীম পরম-প্রজ্ঞাময় 31:27, 46:2, 57:1, 66:2
৪৮ الودود আল-ওয়াদুদ (বান্দাদের প্রতি) সদয় 11:90, 85:14
৪৯ المجيد আল-মাজীদ সকল-মর্যাদার-অধিকারী 11:73
৫০ الباعث আল-বাই'ছ' পুনুরুজ্জীবিতকারী 22:7
৫১ الشهيد আশ্-শাহীদ সর্বজ্ঞ-স্বাক্ষী 4:166, 22:17, 41:53, 48:28
৫২ الحق আল-হা'ক্ব পরম সত্য 6:62, 22:6, 23:116, 24:25
৫৩ الوكيل আল-ওয়াকিল পরম নির্ভরযোগ্য কর্ম-সম্পাদনকারী 3:173, 4:171, 28:28, 73:9
৫৪ القوي আল-ক্বউইউ পরম-শক্তির-অধিকারী 22:40, 22:74, 42:19, 57:25
৫৫ المتين আল-মাতীন সুদৃঢ় 51:58
৫৬ الولي আল-ওয়ালিইউ অভিভাবক ও সাহায্যকারী 4:45, 7:196, 42:28, 45:19
৫৭ الحميد আল-হা'মীদ সকল প্রশংসার অধিকারী 14:8, 31:12, 31:26, 41:42
৫৮ المحصي আল-মুহছী সকল সৃষ্টির ব্যপারে অবগত 72:28, 78:29, 82:10-12
৫৯ المبدئ আল-মুব্দি' প্রথমবার-সৃষ্টিকর্তা 10:34, 27:64, 29:19, 85:13
৬০ المعيد আল-মুঈ'দ পুনরায়-সৃষ্টিকর্তা 10:34, 27:64, 29:19, 85:13
৬১ المحيي আল-মুহ'য়ী জীবন-দানকারী 7:158, 15:23, 30:50, 57:2
৬২ المميت আল-মুমীত মৃত্যু-দানকারী 3:156, 7:158, 15:23, 57:2
৬৩ الحي আল-হাইয়্যু চিরঞ্জীব 2:255, 3:2, 25:58, 40:65
৬৪ القيوم আল-ক্বাইয়্যুম সমস্তকিছুর ধারক ও সংরক্ষণকারী 2:255, 3:2, 20:111
৬৫ الواجد আল-ওয়াজিদ অফুরন্ত ভান্ডারের অধিকারী 38:44
৬৬ الماجد আল-মাজিদ শ্রেষ্ঠত্বের অধিকারী 85:15, 11:73,
৬৭ الواحد আল-ওয়াহি'দ এক ও অদ্বিতীয় 2:163, 5:73, 9:31, 18:110
৬৮ الصمد আছ্-ছমাদ অমুখাপেক্ষী 112:2
৬৯ القادر আল-ক্বদির সর্বশক্তিমান 6:65, 36:81, 46:33, 75:40
৭০ المقتدر আল-মুক্ব্তাদির নিরঙ্কুশ-সিদ্বান্তের-অধিকারী 18:45, 54:42, 54:55
৭১ المقدم আল-মুক্বদ্দিম অগ্রসরকারী 16:61, 17:34,
৭২ المؤخر আল-মুয়াক্খির অবকাশ দানকারী 71:4
৭৩ الأول আল-আউয়াল অনাদি 57:3
এই শব্দ সম্পর্কে ৭৪ الأخر আল-আখির অনন্ত, সর্বশেষ 57:3
৭৫ الظاهر আজ-জ'হির সম্পূর্নরূপে-প্রকাশিত 57:3
৭৬ الباطن আল-বাত্বিন দৃষ্টি হতে অদৃশ্য 57:3
৭৭ الوالي আল-ওয়ালি সমস্ত-কিছুর-অনিভাব্ক 13:11, 22:7
৭৮ المتعالي আল-মুতাআ'লি সৃষ্টির গুনাবলীর উর্দ্ধে 13:9
৭৯ البر আল-বার্ পরম-উপকারী, অনুগ্রহশীল 52:28
৮০ التواب আত্-তাওয়াব তাওবার তাওফিক দানকারী এবং কবুলকারী 2:128, 4:64, 49:12, 110:3
৮১ المنتقم আল-মুনতাক্বিম প্রতিশোধ-গ্রহণকারী 32:22, 43:41, 44:16
এই শব্দ সম্পর্কে ৮২ العفو আল-আ'ফঊ পরম-উদার 4:99, 4:149, 22:60
৮৩ الرؤوف আর-রউফ পরম-স্নেহশীল 3:30, 9:117, 57:9, 59:10
৮৪ مالك الملك মালিকুল-মুলক সমগ্র জগতের বাদশাহ্ 3:26
৮৫ ذو الجلال والإكرام যুল-জালালি-ওয়াল-ইকরাম মহিমান্বিত ও দয়াবান সত্তা 55:27, 55:78
৮৬ المقسط আল-মুক্ব্সিত হকদারের হক-আদায়কারী 7:29, 3:18
৮৭ الجامع আল-জামিই' একত্রকারী, সমবেতকারী 3:9
৮৮ الغني আল-গণিই' অমুখাপেক্ষী ধনী 3:97, 39:7, 47:38, 57:24
৮৯ المغني আল-মুগনিই' পরম-অভাবমোচনকারী 9:28
৯০ المانع আল-মানিই' প্রতিহতকারী 67:21
এই শব্দ সম্পর্কে ৯১ الضار আয্-যর ক্ষতিসাধনকারী 6:17
৯২ النافع আন্-নাফিই' কল্যাণকারী 30:37
৯৩ النور আন্-নূর পরম-আলো 24:35
৯৪ الهادي আল-হাদী পথ-প্রদর্শক 22:54
৯৫ البديع আল-বাদীই' অতুলনীয় 2:117, 6:101
৯৬ الباقي আল-বাক্বী চিরস্থায়ী, অবিনশ্বর 55:27
৯৭ الوارث আল-ওয়ারিস' উত্তরাধিকারী 15:23, 57:10
৯৮ الرشيد আর-রাশীদ সঠিক পথ-প্রদর্শক 2:256, 72:10
৯৯ الصبور আস-সবুর অত্যধিক ধৈর্যধারণকারী 2:153, 3:200, 103:3

ইসলামিক পরিভাষায় আল্লাহর সর্বশ্রেষ্ঠ নাম[সম্পাদনা]

বিভিন্ন হাদিস দ্বারা প্রমাণিত যে আল্লাহর নামসমূহের মধ্যে শ্রেষ্ঠ একটি নাম রয়েছে। ইসলামিক পরিভাষায় একে ইসমে আযম (অর্থ: "সর্বশ্রেষ্ঠ নাম") বলা হয়। এবং কেউ যদি এই নামসমূহের মাধ্যমে আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করবে, সেটা তিনি (আল্লাহ) অবশ্যই কবুল করবেন।

বিভিন্ন ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে হাদীসসমূহ বর্ণিত হয়েছে। যেমন, এক হাদিসে বর্ণিত হয়েছে, মুহাম্মাদ (সাঃ) এক ব্যক্তিকে দেখলেন সালাতে তাশাহহুদে সে এ বলে দুআ করছে :

হে আল্লাহ! আমি আপনার কাছে প্রার্থনা করছি -এ কথার উসীলায় যে, সকল প্রশংসা আপনার, আপনি ছাড়া কোনো ইলাহ নেই। আপনি দানশীল, আকাশমন্ডলী ও পৃথিবীর স্রষ্টা, হে মহিমময় ও মহানুভব! হে চিরঞ্জীব ও সর্ব সত্তার ধারক!- আপনার কাছে জান্নাত চাচ্ছি এবং মুক্তি চাচ্ছি জাহান্নাম থেকে।

মুহাম্মাদ (সাঃ) এ প্রার্থনা শুনে তার সাহাবীদের বললেন:

তোমরা কি জানো, সে কি দিয়ে দুআ করেছে? তারা বললেন, আল্লাহ ও তার রাসূল ভাল জানেন। তিনি বললেন: সে আল্লাহর মহান নাম দিয়ে দুআ করেছে। যে ব্যক্তি এ নামের মাধ্যমে দুআ করবে তার দুআ তিনি কবুল করবেন। (অন্য এক বর্ণনায় এসেছে যে, ইসমে আজম দিয়ে দুআ করেছে)

[৫][৬][৭]

অপর এক হাদিসে তিনি বলেন:

دعوة ذي النون إذا دعا بها وهو في بطن الحوت، (لا إله إلا أنت سبحانك إني كنت من الظالمين) لم يدع بها رجل مسلم في شيء قط إلا استجاب الله له.) أخرجه الترمذي وصححه الألباني)

অর্থাৎ,

ইউনুস (আঃ) এর প্রার্থনা -যখন তিনি মাছের পেটে ছিলেন- তুমি ব্যতীত কোনো ইলাহ নেই তুমি পবিত্র, মহান! আমি তো সীমালংঘনকারী। যে কোনো মুসলিম এ কথা দিয়ে প্রার্থনা করবে তার প্রার্থনা আল্লাহ কবুল করবেন। [৮]

তবে হাদিসসমূহে সুনির্দিষ্ট করে কোন একটি নামের কথা উল্লেখ করা হয় নি, যার কারনে ঠিক কোন নামটি সেই ইসমে আজম, সেটা নিয়ে ইসলামী ধর্মীয় বিশেষজ্ঞদের ভিতরে ব্যপক মতভেদ আছে।

কারো কারো মতে, যেহেতু এই নামটি দুআ' কবুলের ব্যপারে খুবই শক্তিশালী (অর্থাৎ, ব্যক্তিবিশেষ অসৎ উদ্দেশ্যে সেটা ব্যবহার করতে পারে), তাই আল্লাহ তাআলা নিজে (এবং সেই অনুযায়ী মুহাম্মাদ (সাঃ) ও) এই নামটি জনসমক্ষে প্রকাশ করেননি।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

এই নামগুলো দ্বারা কোনো ব্যক্তির নামকরণ[সম্পাদনা]

ইসলামিক মতানুসারে, হুবহু এই নামগুলো দ্বারা কোনো ব্যক্তির নামকরণ করার অনুমতি নেই।[৯] উদাহরণস্বরূপ, কারো নাম সরাসরি "আল-মালিক" রাখা যাবে না, বরং "মালিক" রাখা যেতে পারে। এটা এই বিশ্বাসের কারণে যে, কোনো সৃষ্টি, সৃষ্টিকর্তা আল্লাহ'র সমকক্ষ হতে পারে না। তাই নামগুলো ব্যবহার করা যাবে; কিন্তু "আল-" শব্দাংশ-সহ ব্যবহার করা যাবে না।[১০] অধিকন্তু, কিছু নাম ব্যবহার করা একেবারেই নিষিদ্ধ; কারণ সেই গুণাবলীগুলো মানুষের সম্পূর্ণ আয়ত্বের বাইরে। যেমন: "আল্লাহ", "খলিক্ব" ইত্যাদি।

তবে, যেকোনো নামের প্রথমে (ক্ষেত্রভেদে) "আব্দ"/"আব্দুল"/"আব্দুর"/"আব্দুস" শব্দাংশ (বাংলায় যার অর্থ "দাস" বা "গোলাম") যোগ করে সেটাকে কোনো ব্যক্তির নাম হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। যেমন: "খলিক্ব" (অর্থাৎ "সৃষ্টিকর্তা") ব্যক্তির নাম হিসেবে নিষিদ্ধ হলেও "আব্দুল খলিক্ব" (অর্থাৎ "সৃষ্টিকর্তার গোলাম") নামটি খুবই গ্রহণযোগ্য এবং মুসলমান সমাজে প্রচলিত।

এই ব্যপারে অন্যান্য ধর্মীয় মতবাদ[সম্পাদনা]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Fleming, Marrianne; Worden, David (2004)। Religious Studies for AQA; Thinking About God and Morality। Oxford: Heinemann Educational Publishers। আইএসবিএন 0-435-30713-4  |coauthors= প্যারামিটার অজানা, উপেক্ষা করুন (সাহায্য)
  2. Taymiyya, Ibn। The Goodly Word: al-Kalim al-Ṭayyib। Islamic Texts Society। পৃ: 72। আইএসবিএন 1903682150 
  3. Ibn Majah, Book of Du`a;[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] and by Imam Malik in his Muwatta', Kitab al-Shi`r[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]
  4. Sahih Muslim, 35:6475
  5. সুনান আবু দাউদ, কিতাবুস সালাত, হাদীস নং-১৪৯৫
  6. আল-আদাব আল-মুফরাদ (হাদিসের সংকলন), সংকলক: ইমাম বুখারী (রাঃ)
  7. নাসায়ী
  8. তিরমিজী(৪/২৬০)
  9. Are there any names which it is forbidden to use? If so, what are they?
  10. Prohibited Muslim Names.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]