আগাদির সঙ্কট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
এসএমএস প্যান্থার, আগাদির সঙ্কটের সময় গানবোট কূটনীতির হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছিল

আগাদির সঙ্কট ([[[ইংরেজি ভাষা|ইংরেজি]]: Agadir Crisis) বা দ্বিতীয় মরোক্কান সঙ্কট বলতে মরক্কোর শহর আগাদিরকে কেন্দ্র করে ১৯১১ খ্রিস্টাব্দে উদ্ভূত আন্তর্জাতিক টানাপোড়েনকে বোঝায়। এটি ১৯১১ খ্রিস্টাব্দের জুলাই থেকে নভেম্বর মাস পর্যন্ত অব্যাহত ছিল। ফরাসিরা ১৯১১ সালের এপ্রিল মাসে মরক্কোর ফেজ শহরের নিয়ন্ত্রণ নিলে মরক্কোর নিরপেক্ষতার ব্যাপারে প্রথম মরোক্কান সঙ্কটে নেয়া চুক্তিটি লঙ্ঘিত হয়। আপাতদৃষ্টিতে জার্মানি তার নিজের অর্থনৈতিক স্বার্থ রক্ষার জন্য প্যান্থার নামের একটি গানবোট মরক্কোর আগাদির শহরে পাঠায়। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে জার্মানি একটি ঔপনিবেশিক শক্তি হিসেবে নিজের শক্তি প্রদর্শনের উদ্দেশ্যেই এটি করেছিল, কেননা তখন ছিল বিশ্বজুড়ে উপনিবেশবাদের জয়জয়কার। শেষ পর্যন্ত জার্মানি মরক্কোকে ফরাসি প্রভাবাধীন একটি এলাকা হিসেবে মেনে নেয়। এই ছাড়ের প্রতিদানে জার্মানি আফ্রিকাতে তাদের উপনিবেশ ক্যামেরুনের সাথে ফরাসি অধিকৃত কঙ্গোর কিছু অংশ যোগ করে নেয়। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের আগে আন্তর্জাতিক উত্তেজনা বৃদ্ধির একটি অন্যতম ঘটনা ছিল এই আগাদির সঙ্কট। এই ঘটনার ফলে যুক্তরাজ্য, জার্মানির নৌশক্তি ও আগ্রাসী মনোভাবের সম্পর্কে সচেতন হয় এবং জার্মানিকে ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের বিরুদ্ধে প্রত্যক্ষ হুমকি হিসেবে বিবেচনা করা শুরু করে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]