টম কারেন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(Tom Curran (cricketer) থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
টম কারেন
Tom Curran cricketer.jpg
২০১৭ সালের গৃহীত স্থিরচিত্রে টম কারেন
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামটমাস কেভিন কারেন
জন্ম (1995-03-12) ১২ মার্চ ১৯৯৫ (বয়স ২৪)
কেপ টাউন, পশ্চিম কেপ, দক্ষিণ আফ্রিকা
উচ্চতা৬ ফুট ০ ইঞ্চি (১.৮৩ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম
সম্পর্ককেভিন কারেন (পিতামহ)
কেভিন কারেন (পিতা)
স্যাম কারেন (ভ্রাতা)
বেন কারেন (ভ্রাতা)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৬৮২)
২৬ ডিসেম্বর ২০১৭ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ টেস্ট৪ জানুয়ারি ২০১৮ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ২৪৮)
২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
শেষ ওডিআই২ মার্চ ২০১৯ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
ওডিআই শার্ট নং৫৯
টি২০আই অভিষেক
(ক্যাপ ৭৯)
২৩ জুন ২০১৭ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
শেষ টি২০আই১০ মার্চ ২০১৯ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
টি২০আই শার্ট নং৫৯
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০১৩–বর্তমানসারে (দল নং ৫৯)
২০১৮কলকাতা নাইট রাইডার্স (দল নং ৫৯)
২০১৮–সিডনি সিক্সার্স
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১৩ ৫৮ ৬৯
রানের সংখ্যা ৬৬ ৭১ ১,২১১ ৪৯১
ব্যাটিং গড় ৩৩.০০ ২৩.৬৬ ১৭.৫৫ ১৭.৫৩
১০০/৫০ ০/০ ০/০ ০/৫ ০/০
সর্বোচ্চ রান ৩৯ ৩৫ ৬০ ৪৪
বল করেছে ৩৯৬ ৫৫৭ ১০,১৭৩ ৩,০৪৪
উইকেট ১৮ ১৯২ ১০৪
বোলিং গড় ১০০.০০ ৩২.২৭ ২৮.৬১ ২৭.৫০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ১/৬৫ ৫/৩৫ ৭/২০ ৫/১৬
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/– ৪/— ২০/– ২৩/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১০ মার্চ, ২০১৯

টমাস কেভিন কারেন (ইংরেজি: Tom Curran; জন্ম: ১২ মার্চ, ১৯৯৫) পশ্চিম কেপ প্রদেশের কেপ টাউনে জন্মগ্রহণকারী দক্ষিণ আফ্রিকান বংশোদ্ভূত প্রথিতযশা ইংরেজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য হিসেবে টেস্ট, একদিনের আন্তর্জাতিক ও টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণ করছেন। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে সারে দলের প্রতিনিধিত্ব করছেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতে ফাস্ট-মিডিয়াম বোলিং করে থাকেন। এছাড়াও, নিচেরসারিতে ডানহাতে কার্যকরী ব্যাটিং করে থাকেন টম কারেন

শৈশবকাল[সম্পাদনা]

জিম্বাবুয়ের সাবেক আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার কেভিন কারেনের সন্তান তিনি। তার অপর ভ্রাতৃদ্বয় বেন কারেন নর্দাম্পটনশায়ারের ব্যাটসম্যান এবং স্যাম কারেন ইংল্যান্ড ও সারে দলের অল-রাউন্ডার হিসেবে খেলছেন। এছাড়াও, তার পিতামহ কেভিন কারেন, সিনিয়র প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

কেপ টাউনে জন্মগ্রহণকারী টম কারেন জিম্বাবুয়ের প্রিপারেটরি স্কুল স্প্রিংভ্যাল হাউজে পড়াশোনার করেছেন। এরপর হারারে সেন্ট জর্জেস কলেজে অধ্যয়ন করেন। ক্রিকেট খেলায় অসামান্য প্রতিভার দরুণ হিল্টন কলেজে চলে যান। অতঃপর ইংল্যান্ডের ওয়েলিংটন কলেজে পড়াশোনার সুযোগ পান।

ঘরোয়া ক্রিকেট[সম্পাদনা]

কোয়াজুলু-নাটাল ইনল্যান্ডের পক্ষে অনূর্ধ্ব-১৫, অনূর্ধ্ব-১৭ ও অনূর্ধ্ব-১৯ স্তরের ক্রিকেটে প্রতিনিধিত্ব করেছেন টম কারেন।[১] বিদ্যালয় ক্রিকেটে অংশগ্রহণের সুবাদে তার ক্রীড়া প্রতিভা সারের সাবেক অধিনায়ক ইয়ান গ্রেগের চোখে পড়ে। ২০১২ সালে সারের দ্বিতীয় একাদশে খেলার জন্যে তাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়। ঐ বছরের সেপ্টেম্বর মাসে বার্কশায়ারের ওয়েলিংটন কলেজে স্থানান্তরিত হন তিনি।[২]

আগস্ট, ২০১৩ সালে লিস্ট এ ক্রিকেটে সারের জ্যেষ্ঠদের দলে সদস্যরূপে অভিষেক ঘটে তার ও এসেক্সের বিপক্ষে খেলেন। এপ্রিল, ২০১৪ সালে কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিপক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষিক্ত হন টম কারেন। আগস্ট, ২০১৭ সালে টি২০ গ্লোবাল লীগের উদ্বোধনী আসরে কেপ টাউন নাইট রাইডার্সের সদস্যরূপে অন্তর্ভূক্ত হন।[৩] তবে, অক্টোবর, ২০১৭ সালে ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকা কর্তৃপক্ষ নভেম্বর, ২০১৮ সাল পর্যন্ত প্রতিযোগিতাটি স্থগিত করে ও পরবর্তীতে বাতিল ঘোষণা করে।[৪]

২০১৮ সাল থেকে ভারতীয় ঘরোয়া ক্রিকেটে কলকাতা নাইট রাইডার্স ও ২০১৮-১৯ মৌসুমে অস্ট্রেলীয় ঘরোয়া ক্রিকেটের বিগ ব্যাশ লীগে সিডনি সিক্সার্সের পক্ষে খেলে আসছেন। ২০১৮ সালের ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের আসরে কলকাতা নাইট রাইডার্সের খেলোয়াড় মিচেল স্টার্ক আহত হলে তিনি তার স্থলাভিষিক্ত হন।[৫] এ পর্যায়ে ৫ খেলায় অংশ নিয়ে ৬ উইকেট দখল করেন তিনি।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সেপ্টেম্বর, ২০১৫ সালে ইংল্যান্ড পারফরম্যান্স প্রোগ্রাম দলের সদস্যরূপে মনোনীত হন। অক্টোবর, ২০১৫ সালে ইংল্যান্ডে আবাসিক মর্যাদা লাভ করেন।[৬] শ্রীলঙ্কা সফরে ইংল্যান্ড লায়ন্সের পক্ষে খেলাকালীন ইসিবি থেকে ওয়েস্ট ইন্ডিজ গমনের জন্যে ডাক আসে তার। এ পর্যায়ে দুইটি এ-টেস্টে অংশ নিয়ে দশ উইকেট পেয়েছিলেন।

ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ সালে প্রথমবারের মতো ইংল্যান্ডের ওডিআই দলে খেলার জন্য আমন্ত্রিত হন। ২০১৬-১৭ মৌসুমে ওয়েস্ট ইন্ডিজ গমনে ওডিআই দলে জ্যাক বলের শূন্যস্থান পূরণে দলে রাখা হয়।[৭]

জুন, ২০১৭ সালে সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টুয়েন্টি২০আই দলে খেলার জন্য মনোনীত হন।[৮] ২৩ জুন, ২০১৭ তারিখে টানটনে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টুয়েন্টি২০আইয়ে অভিষেক ঘটে তার।[৯]

সেপ্টেম্বর, ২০১৭ সালে সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওডিআই সিরিজ খেলার উদ্দেশ্যে ইংরেজ দলের অন্যতম সদস্যরূপে নির্বাচিত হন।[১০] ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ তারিখে সাউদাম্পটনে সিরিজের পঞ্চম খেলায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওডিআই অভিষেক হয় টম কারেনের।[১১]

অ্যাশেজ সিরিজ[সম্পাদনা]

নভেম্বর, ২০১৭ সালে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত ২০১৭-১৮ মৌসুমের অ্যাশেজ সিরিজে স্টিভেন ফিনের পরিবর্তে ইংরেজ টেস্ট দলে যুক্ত হন।[১২]

বক্সিং ডে উপলক্ষ্যে এমসিজিতে চতুর্থ টেস্ট শুরুর পূর্বক্ষণে ক্রেগ ওভারটন আহত হলে ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৭ তারিখে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টম কারেনের টেস্ট অভিষেক ঘটে।[১৩][১৪] ডেভিড ওয়ার্নারকে মিড-অন অঞ্চলে ৯৯ রানে কট আউটে বিদায়ের আনন্দ মাটি হয়ে যায়। টেলিভিশনের ধারণকৃত চিত্রে দেখা যায় যে, টম কারেন ক্রিজের ভিতরে পা রাখেন ও নো-বলের মুখোমুখি হন। এরপর অবশ্য ডেভিড ওয়ার্নার তার সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন ও ঐ দিন তিনি উইকেটশূন্য অবস্থায় ছিলেন। এরফলে, গত চারবছরে তৃতীয় ইংরেজ বোলার হিসেবে বেন স্টোকসমার্ক উডের পর নো-বলের দায়ে প্রথম টেস্ট উইকেট লাভ থেকে বঞ্চিত হন।[১৫] স্টিভ স্মিথকে আউট করে প্রথম টেস্ট উইকেট পান।[১৬]

এপ্রিল, ২০১৯ সালে ক্রিকেট বিশ্বকাপকে ঘিরে টম কারেনকে ইংল্যান্ড দলের ১৫-সদস্যের একজনরূপে অন্তর্ভূক্ত করা হয়।[১৭][১৮]

ঘরোয়া ক্রিকেটে অসামান্য ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শনের স্বীকৃতিস্বরূপ ২০১৫ সালে ক্রিকেট রাইটার্স ক্লাবের পক্ষ থেকে বর্ষসেরা তরুণ ক্রিকেটারের সম্মাননায় ভূষিত হন তিনি।[১৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. https://cricketarchive.com/Archive/Players/1305/1305044/Miscellaneous_Matches.html
  2. http://www.espncricinfo.com/england/content/player/550235.html
  3. "T20 Global League announces final team squads"T20 Global League। ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৭ 
  4. "Cricket South Africa postpones Global T20 league"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১০ অক্টোবর ২০১৭ 
  5. "KKR sign Tom Curran for injured Starc"Cricbuzz (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৪-০২ 
  6. http://www.espncricinfo.com/england/content/story/923515.html
  7. "Tom Curran called up to England ODI squad"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  8. "Livingstone, Crane in England T20 squad"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১২ জুন ২০১৭ 
  9. "South Africa tour of England, 2nd T20I: England v South Africa at Taunton, Jun 23, 2017"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জুন ২০১৭ 
  10. "England name squad for West Indies T20 and ODIs"। England and Wales Cricket Board। 
  11. "5th ODI (D/N), West Indies tour of England at Southampton, Sep 29 2017"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  12. "Curran to replace Finn in Australia"ESPNCricinfo.com। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৭ 
  13. "Tom Curran to debut for England cricket team in Melbourne Ashes Test"Hindustan Times (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-১২-২৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-১২-২৫ 
  14. "4th Test, England tour of Australia and New Zealand at Melbourne, Dec 26-30 2017"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  15. "Curran reveals truth of no-ball agony"ESPN Cricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-১২-২৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-১২-২৬ 
  16. "England debutant Tom Curran admits no-ball dismissal will 'haunt' him"Fox Sports (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-১২-২৭। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-১২-২৭ 
  17. "Jofra Archer misses World Cup cut but included to play Ireland, Pakistan"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৭ এপ্রিল ২০১৯ 
  18. "England leave out Jofra Archer from World Cup squad"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ১৭ এপ্রিল ২০১৯ 
  19. Playfair Cricket Annual, 2016 edition, p. 226.

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]