গ্যারি কেহিল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(Gary Cahill থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
গ্যারি কেহিল
Gary Cahill 20170315.jpg
২০১৭ সালে গ্যারি কেহিল
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম গ্যারি জেমস কেহিল[১]
জন্ম (1985-12-19) ১৯ ডিসেম্বর ১৯৮৫ (বয়স ৩৩)[২]
জন্ম স্থান ড্রনফিল্ড, ইংল্যান্ড
উচ্চতা ৬ ফুট ৪ ইঞ্চি (১.৯৩ মি)[৩]
মাঠে অবস্থান রক্ষণভাগের খেলোয়াড়
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান ক্লাব চেলসি
জার্সি নম্বর ২৩
যুব পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন
0000–২০০০ এএফসি ড্রনফিল্ড
২০০০–২০০৪ অ্যাস্টন ভিলা
জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন*
বছর দল উপস্থিতি (গোল)
২০০৪–২০০৮ অ্যাস্টন ভিলা ২৮ (১)
২০০৪–২০০৫বার্নলি (ধার) ২৭ (১)
২০০৭–২০০৮শেফিল্ড ইউনাইটেড (ধার) ১৬ (২)
২০০৮–২০১২ বোল্টন ওয়ান্ডারার্স ১৩০ (১৩)
২০১২– চেলসি ১৮৯ (১৩)
জাতীয় দল
২০০৪–২০০৫ ইংল্যান্ড অনূর্ধ্ব-২০ (০)
২০০৭ ইংল্যান্ড অনূর্ধ্ব-২১ (০)
২০১০– ইংল্যান্ড ৫৮ (৪)
  • পেশাদারী ক্লাবের উপস্থিতি ও গোলসংখ্যা শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগের জন্য গণনা করা হয়েছে এবং ১৪ মে ২০১৮ তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

† উপস্থিতি(গোল সংখ্যা)।

‡ জাতীয় দলের হয়ে খেলার সংখ্যা এবং গোল ১৫ এপ্রিল ২০১৮ তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

গ্যারি জেমস কেহিল (/ˈkhɪl/ KAY-hil;[৪] জন্ম: ১৯ ডিসেম্বর ১৯৮৫) হলেন একজন ইংরেজ পেশাদার ফুটবলার, যিনি প্রিমিয়ার লীগ ক্লাব চেলসি এবং ইংল্যান্ড জাতীয় দলের হয়ে একজন রক্ষণভাগের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেন।

কেহিল এএফসি ড্রনফিল্ডের যুব পর্যায়ের হয়ে খেলার মাধ্যমে ফুটবল জগতে পদার্পণ করেন। ২০০০ সালে, তিনি অ্যাস্টন ভিলার একাডেমীতে যোগদান করেন এবং তার উন্নয়নের যাত্রা অব্যাহত রাখেন। ২০০৪ সালে, তিনি এক মৌসুমের জন্য ধারে বার্নলিতে যোগদান করেন, যেখানে তিনি ভালো খেলার প্রদর্শনের পর, অ্যাস্টন ভিলার মূল একাদশে যোগদান করেন। পরবর্তীতে তিনি তার স্থানীয় ক্লাব শেফিল্ড ইউনাইটেডে তিন মাসের জন্য ধারে যোগদান করেন। ২০০৮ সালের ৩০শে জানুয়ারি তারিখে, তিনি প্রায় ৫ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে বোল্টন ওয়ান্ডারার্সে যোগদান করেন, যেখানে তিনি চার মৌসুম অতিবাহিত করেন। বোল্টন ওয়ান্ডারার্সের হয়েও কেহিল তার অসাধারণ খেলা অব্যাহত রাখেন, এর ফলে তিনি ক্লাবটির মূল একাদশে স্থান করে নেন। উক্ত ক্লাবের হয়ে তিনি ১৩০টি লীগ ম্যাচে খেলেছেন, যেখানে ১৩টি লীগ গোল করেছেন। ২০১২ সালের জানুয়ারি মাসে, কেহিল প্রায় ৭ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে প্রিমিয়ার লীগ ক্লাব চেলসির সাথে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেন। কেহিল চেলসির হয়ে তার প্রথম মৌসুমেই উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ, এফএ কাপ জয়লাভ করেন। পরবর্তীতে তিনি উয়েফা ইউরোপা লীগ, ইএফএল কাপ এবং প্রিমিয়ার লীগ ট্রফি জয়লাভ করেন।

২০১০ সালে, ইংল্যান্ডের হয়ে খেলার মাধ্যমে তিনি আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অভিষেক করেন। এপর্যন্ত তিনি ৫০-এর অধিক ম্যাচ খেলেছেন। তিনি ২০১৪ ফিফা বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। তার কাছে ইংল্যান্ড অথবা আয়ারল্যান্ডের হয়ে খেলার সুযোগ ছিল, কিন্তু তিনি ইংলেন্দকে বেছে নিয়েছিলেন। ২০০৯ সালের জুন মাসে, কাজাখস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচের জন্য সর্বপ্রথম জাতীয় দলের ডাক পান। অতঃপর ২০১০ সালের ৩রা সেপ্টেম্বর তারিখে, বুলগেরিয়ার বিরুদ্ধে বদলি খেলোয়াড় হিসেবে খেলার মাধ্যমে অভিষেক করেন। ২০১১ সালের ২৯শে মার্চ তারিখে, কেহিল প্রথমবারের মতো ইংল্যান্ডের হয়ে কোন ম্যাচ শুরু করেন; উক্ত ম্যাচটি ছিল ঘানার বিরুদ্ধে। ২০১২ উয়েফা ইউরোর বাছাইপর্বের এক ম্যাচে বুলগেরিয়ার বিরুদ্ধে গোল করার মাধ্যমে তিনি প্রথমবারের মতো জাতীয় দলের হয়ে গোল করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Updated squads for 2017/18 Premier League confirmed"। Premier League। ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  2. Hugman, Barry J., সম্পাদক (২০১০)। The PFA Footballers' Who's Who 2010–11। Edinburgh: Mainstream Publishing। পৃষ্ঠা 71। আইএসবিএন 978-1-84596-601-0 
  3. "G. Cahill: Summary"Soccerway। Perform Group। সংগ্রহের তারিখ ১৬ এপ্রিল ২০১৮ 
  4. adidas Football, Gary Cahill Round The Bridge – Gamedayplus Episode 7 – adidas Football, সংগ্রহের তারিখ ১৭ নভে ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]