৩৫ নং জাতীয় সড়ক (পুরাতন সংখ্যায়ন, ভারত)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পথের তথ্য
এএইচ১-এর অংশ
দৈর্ঘ্য৬১ কিমি (৩৮ মা)
প্রধান সংযোগস্থল
থেকে:বারাসত
প্রধান সংযোগস্থলবারাসাত-বসিরহাট রোড বারাসাত
হাবরা-নৈহাটি রোড হাবরা
১ নং রাজ্য সড়ক (পশ্চিমবঙ্গ) বনগাঁ
পর্যন্ত:পেট্রাপোল
অবস্থান
রাজ্যপশ্চিমবঙ্গ
প্রাথমিক
গন্তব্যস্থল
হাবড়া-গাইঘাটা-বনগাঁ
মহাসড়ক ব্যবস্থা
এনএইচ ৩৪ এনএইচ ৩৬

৩৫ নং মহাসড়কটি বারাসত থেকে বনগাঁ পেট্রাপোলের কাছে বাংলাদেশ সীমান্ত পর্যন্ত গেছে। এর দৈর্ঘ্য ৬১ কিমি।[১] এটি বিখ্যাত যশোর রোডের অংশ।

জাতীয় সড়ক ৩৫, যশোর রোড (পূর্ব), বারাসত

ইতিহাস[সম্পাদনা]

বাঙালি জমিদার কালী বাবু ১৭শ শতকে এই সড়কটি নির্মাণ করেন কলকাতা থেকে খুলনা পর্যন্ত। পরে ইংরেজরা সড়কটির উন্নয়ন ঘটায় যশোরের বিমানঘাটিতে যোগাযোগের জন্য। বর্তমানে এটি বারাসাত থেকে বনগাঁর বাংলাদেশ সীমান্ত পর্যন্ত ৩৫ নং জাতীয় সড়ক।

যানবাহন[সম্পাদনা]

এই জাতীয় সড়ক দিয়ে প্রায় ১০০০০ যানবাহন চলাচল করে। প্রতিদিন প্রায় ৫০০ টি ট্রাক ও কন্টেইনার এই জাতীয় সড়ক দিয়ে বাংলাদেশে যায়। ভারত ও বাংলাদেশের ৯০% ব্যবসা-বাণিজ্য এই জাতীয় সড়ক দ্বারা সম্পাদিত হয়।[২]

সম্প্রসারণ[সম্পাদনা]

ছয়ঘড়িয়ায় জাতীয় সড়ক ৩৫

কেন্দ্র সরকার এই জাতীয় সড়কটির সম্প্রসারণের উদ্যোগ নিয়েছে। জাতীয় সড়কটিকে ৪ লেনে উন্নীত করা হবে।বর্তমানে এই সড়কের উপরে অবস্থিত সমস্ত রেল ক্রসিংয়ে উড়ালপুল নির্মাণের সমীক্ষা চলছে।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "National Highways Starting and Terminal Stations"। Ministry of Road Transport & Highways। ২০১৫-১২-২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-১২-০২ 
  2. "Petrapole infrastructure to be beefed up"The Hindu Business Line 18 June 2006। ২০০৮-১০-০৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০২-১২