২০২২-এ ইউক্রেনে রুশ আক্রমণ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসন ২০২২
মূল যুদ্ধ: রুশ-ইউক্রেন সংঘাত
2022 Russian invasion of Ukraine.svg
২৬ জুন ২০২২ তারিখের সামরিক অবস্থা
       ইউক্রেন শাসিত
       রাশিয়া ও রুশপন্থি সেনাদের দ্বারা দখলকৃত
আরও বিস্তারিত মানচিত্রের জন্য, Russo-Ukrainian War detailed map (ইংরেজি ভাষায়) দেখুন
তারিখ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ (2022-02-24) – চলমান (৪ মাস ও ২ দিন)
অবস্থান
অবস্থা

চলমান

অধিকৃত
এলাকার
পরিবর্তন
ইউক্রেন
বিবাদমান পক্ষ
[খ]
সমর্থন:

 ইউক্রেন

সেনাধিপতি ও নেতৃত্ব প্রদানকারী
হতাহত ও ক্ষয়ক্ষতি
এখন পর্যন্ত অজ্ঞাত ইউক্রেনের হিসেবে:
শতাধিক নিহত৷[৮]

রাশিয়া ২০২২ সালের ২৪শে ফেব্রুয়ারি ইউক্রেন আক্রমণ করে।[৯] এই আক্রমণটিকে আন্তর্জাতিকভাবে আগ্রাসন হিসেবে বিবেচনা করা হয়।[১০][১১][১২] এটি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর থেকে ইউরোপের সবচেয়ে বড় শরণার্থী সংকটের সূত্রপাত করে,[১৩][১৪] ৩.৯ মিলিয়নেরও বেশি ইউক্রেনীয় দেশ ছেড়েছে,[১৫] এবং আরও লক্ষাধিক অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত হয়।[১৬]

এই আক্রমণটি চলমান রুশ-ইউক্রেনীয় যুদ্ধের একটি বড় বৃদ্ধিকে চিহ্নিত করে, যা ইউক্রেনীয় মর্যাদার বিপ্লবের পর ২০১৪ সালে শুরু হয়েছিল। রাশিয়া পরবর্তীকালে ক্রিমিয়াকে অধিভুক্ত করে, এবং রুশ-সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদীরা ইউক্রেনের দক্ষিণ-পূর্ব দোনবাস অঞ্চলের কিছু অংশ দখল করে, সেখানে যুদ্ধের সূত্রপাত করে।[১৭][১৮] রাশিয়া ২০২১ সালে ইউক্রেন সীমান্তে একটি বড় সামরিক মহড়া শুরু করে, তাদের সরঞ্জাম সহ ১,৯০,০০০ সৈন্য সংগ্রহ করেছিল। রুশ রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনের রাষ্ট্রত্বের অধিকারকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছিলেন,[১৯][২০] এবং ইউক্রেনকে রুশ-ভাষী ও জাতিগত রুশ সংখ্যালঘুদের নিপীড়নকারী নব্য-নাৎসিদের দ্বারা আধিপত্যের অভিযোগে অভিযুক্ত করেছিলেন।[২১] পুতিন বলেছেন যে উত্তর আটলান্টিক চুক্তি সংস্থা (ন্যাটো) ২০০০-এর দশকের গোড়ার দিকে পূর্ব দিকে সম্প্রসারণ করে রাশিয়ার নিরাপত্তাকে হুমকির মুখে ফেলেছে – ন্যাটো দ্বারা বিরোধিত একটি দাবি[২২] – এবং ইউক্রেনকে জোটে যোগদানে বাধা দেওয়ার দাবি জানিয়েছে।[২৩] মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও অন্যান্যরা রাশিয়াকে ইউক্রেন আক্রমণ বা আক্রমণ করার পরিকল্পনার জন্য অভিযুক্ত করেছিল, যা রুশ কর্মকর্তারা ২০২২ সালের ২৩শে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বারবার অস্বীকার করেছিলেন।[২৭]

রাশিয়া স্বঘোষিত গণপ্রজাতন্ত্রী দোনেৎস্কগণপ্রজাতন্ত্রী লুহানস্কে ২০২২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারি স্বীকৃতি দেয়, দোনবাসের দুটি স্ব-ঘোষিত রাষ্ট্র রাশিয়াপন্থী বিদ্রোহীদের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত।[২৮] পরের দিন, রাশিয়ার ফেডারেশন কাউন্সিল বিদেশে সামরিক শক্তি ব্যবহারের অনুমোদন দেয় এবং রুশ সেনারা উভয় অঞ্চলে প্রবেশ করে।[২৯] ২৪শে ফেব্রুয়ারি,[৩০] সকালে আক্রমণ শুরু হয়, যখন পুতিন ইউক্রেনকে "অসামরিকীকরণ ও ডিনাজিফাই" করার জন্য একটি "বিশেষ সামরিক অভিযান" ঘোষণা করেন।[৩১][৩২] কয়েক মিনিট পরে, রাজধানী কিয়েভ সহ ইউক্রেনের সর্বত্র ক্ষেপণাস্ত্র ও বিমান হামলা হয়, এর পরেই একাধিক দিক থেকে একটি বড় স্থল আক্রমণ শুরু হয়।[৩৩][৩৪] এর প্রতিক্রিয়ায়, ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতি ভলোদিমির জেলেনস্কি সামরিক আইন ও সাধারণ সংহতি জারি করেছিলেন।[৩৫][৩৬]

রাশিয়া, বেলারুশইউক্রেনের দুটি বিদ্রোহী অঞ্চল (ক্রিমিয়া ও দোনবাস) থেকে বহুমুখী আক্রমণ শুরু হয়েছিল। চারটি প্রধান সামরিক আক্রমণের ফ্রন্ট গড়ে উঠেছে: কিয়েভ আক্রমণ, উত্তর-পূর্ব ইউক্রেন আক্রমণ, পূর্ব ইউক্রেন আক্রমণদক্ষিণ ইউক্রেন আক্রমণ। রাশিয়ার সামরিক বাহিনী পশ্চিম ইউক্রেনের অনেক দূর পর্যন্ত বিমান ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে। রুশ বাহিনী চেরনিহিভ, খারকিভ, খেরসন, কিয়েভ, মারিউপোল ও সুমি সহ মূল বসতিসমূহের কাছে পৌঁছেছে বা অবরোধ করেছে,[৩৭] কিন্তু কঠোর ইউক্রেনীয় প্রতিরোধ ও অভিজ্ঞ লজিস্টিক এবং অপারেশনাল চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করেছে, যা রুশ বাহিনীর অগ্রগতিকে বাধা দেয়।[৩৮][৩৯] আক্রমণ শুরু করার তিন সপ্তাহ পরে, রুশ সামরিক বাহিনী দক্ষিণে আরও সাফল্য উপভোগ করেছিল, যখন ক্রমবর্ধমান লাভ বা অন্যত্র অচলাবস্থা তাদের এট্রিশন যুদ্ধে বাধ্য করেছিল, যার ফলে বেসামরিক হতাহতের সংখ্যা বেড়ে যায়।[৪০]

আন্তর্জাতিকভাবে এই হামলার ব্যাপক নিন্দা করা হয়। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ হামলার নিন্দা করে একটি প্রস্তাব গৃহীত হয় এবং সম্পূর্ণভাবে হামলা প্রত্যাহারের দাবি জানায়। আন্তর্জাতিক বিচার আদালত রাশিয়াকে সামরিক অভিযান স্থগিত করার নির্দেশ দেয় এবং ইউরোপীয় কাউন্সিল রাশিয়াকে বহিষ্কার করে। অনেক রাষ্ট্র নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে, যা রাশিয়া ও বিশ্বের অর্থনীতিকে প্রভাবিত করে,[৪১] এবং ইউক্রেনকে মানবিক ও সামরিক সহায়তা প্রদান করে।[৪২] সারা বিশ্বে প্রতিবাদ হয়; রাশিয়ায় প্রতিবাদকারীরা গণগ্রেফতার এবং "যুদ্ধ" ও "আক্রমণ" শব্দগুলো নিষিদ্ধ করা সহ[৩৪] সংবাদ মাধ্যম সেন্সরশিপ বৃদ্ধির সম্মুখীন হয়।[৪৩][৪৪] অনেক কোম্পানি রাশিয়া ও বেলারুশ থেকে তাদের পণ্য ও পরিষেবা প্রত্যাহার করে এবং রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় অর্থায়নে পরিচালিত মিডিয়া সম্প্রচার নিষিদ্ধ করা হয় ও অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক যুদ্ধাপরাধের অভিযোগের তদন্ত শুরু করেছে।[৪৫]

পটভূমি[সম্পাদনা]

সোভিয়েত-পরবর্তী প্রসঙ্গ ও কমলা বিপ্লব[সম্পাদনা]

১৯৯১ সালে সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের (ইউএসএসআর) পরে, ইউক্রেনরাশিয়া ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক বজায় রেখেছিল। ইউক্রেন ১৯৯৪ সালে একটি অ-পারমাণবিক অস্ত্র রাষ্ট্র হিসাবে পারমাণবিক অস্ত্রের অপ্রসারণ সংক্রান্ত চুক্তিতে যোগ দিতে সম্মত হয়েছিল। ইউক্রেনের প্রাক্তন সোভিয়েত পারমাণবিক অস্ত্রসমূহ রাশিয়ায় সরিয়ে ফেলা হয়েছিল এবং নষ্ট করা হয়েছিল।[৪৬] বিনিময়ে, রাশিয়া, যুক্তরাজ্য (ইউকে) ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র (ইউএস) নিরাপত্তা আশ্বাসের বুদাপেস্ট মেমোরেন্ডামের মাধ্যমে ইউক্রেনের আঞ্চলিক অখণ্ডতা ও রাজনৈতিক স্বাধীনতা বজায় রাখতে সম্মত হয়েছিল।[৪৭][৪৮] রাশিয়া ১৯৯৯ সালে ইউরোপীয় নিরাপত্তার সনদের অন্যতম স্বাক্ষরকারী ছিল, যা "প্রতিটি অংশগ্রহণকারী রাষ্ট্রের অন্তর্নিহিত অধিকারকে পুনর্নিশ্চিত করেছে যাতে তারা বিকশিত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে জোটের চুক্তিসমূহ সহ নিরাপত্তা ব্যবস্থা বেছে নিতে বা পরিবর্তন করতে পারে"।[৪৯] সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের পরের বছরগুলিতে, ১৯৯৩ সালের রুশ সাংবিধানিক সংকট, আবখাজিয়া যুদ্ধ (১৯৯২–১৯৯৩) ও প্রথম চেচেন যুদ্ধের (১৯৯৪–১৯৯৬) মতো রাশিয়ার সঙ্গে জড়িত আঞ্চলিক নিরাপত্তা হুমকির আংশিক প্রতিক্রিয়া হিসাবে, বেশ কয়েকটি প্রাক্তন পূর্ব ব্লকের রাষ্ট্র ন্যাটোতে যোগদান করেছিল। রুশ নেতারা এই সম্প্রসারণকে পশ্চিমা শক্তির অনানুষ্ঠানিক আশ্বাসের যে (ন্যাটো পূর্ব দিকে প্রসারিত হবে না) লঙ্ঘন বলে বর্ণনা করেছেন।[২৩][৫০]

২০০৪ সালের ইউক্রেনীয় রাষ্ট্রপতি নির্বাচন বিতর্কিত ছিল। নির্বাচনী প্রচারণার সময়, বিরোধী প্রার্থী ভিক্টর ইউশচেঙ্কোকে টিসিডিডি ডাইঅক্সিন দ্বারা বিষা প্রদান করা হয়েছিলেন;[৫১][৫২] পরে তিনি নিজেকে রুশ সম্পৃক্ততাইয় জড়িয়ে ফেলেছিলেন।[৫৩] নভেম্বরে, নির্বাচন পর্যবেক্ষকদের ভোট কারচুপির অভিযোগ সত্ত্বেও প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর ইয়ানুকোভিচকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।[৫৪] বৃহৎ শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ সফলভাবে দুই মাসের সময়কালে ফলাফলকে চ্যালেঞ্জ করেছিল, যা কমলা বিপ্লব নামে পরিচিত হয়েছিল। ব্যাপক নির্বাচনী জালিয়াতির কারণে ইউক্রেনের সুপ্রিম কোর্ট কর্তৃক প্রাথমিক ফলাফল বাতিল করার পর, দ্বিতীয় দফায় পুনঃরান নির্বাচনী অনুষ্ঠিত হয়, ভিক্টর ইউশচেঙ্কোকে রাষ্ট্রপতি ও ইউলিয়া তিমোশেঙ্কোকে প্রধানমন্ত্রী হিসাবে ক্ষমতায় আনা হয় এবং ইয়ানুকোভিচকে বিরোধি দলে রাখা হয়।[৫৫] কমলা বিপ্লবকে প্রায়শই ২১শ শতাব্দীর প্রথম দিকের অন্যান্য প্রতিবাদ আন্দোলনের সঙ্গে একত্রিত করা হয়, বিশেষ করে প্রাক্তন ইউএসএসআর-এর মধ্যে, যা রঙ বিপ্লব নামে পরিচিত। অ্যান্থনি কর্ডেসম্যানের মতে, রুশ সামরিক কর্মকর্তারা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় রাষ্ট্রসমূহের দ্বারা প্রতিবেশী রাষ্ট্রসমূহকে অস্থিতিশীল করার এবং রাশিয়ার জাতীয় নিরাপত্তাকে দুর্বল করার প্রচেষ্টা হিসাবে এই ধরনের রঙের বিপ্লবকে চিহ্নিত করেছিল।[৫৬] রুশ রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন ২০১১–২০১৩ রুশ বিক্ষোভের সংগঠকসমূহকে ইউশচেঙ্কোর প্রাক্তন উপদেষ্টা হিসেবে অভিযুক্ত করেছেন এবং প্রতিবাদগুলিকে কমলা বিপ্লব রাশিয়ায় স্থানান্তর করার প্রচেষ্টা হিসাবে বর্ণনা করেছিলেন।[৫৭] এই সময়ের মধ্যে পুতিনের পক্ষে সমাবেশগুলিকে "কমলা-বিরোধী বিক্ষোভ" বলা হত।[৫৮]

২০০৮-এর বুখারেস্ট শীর্ষ সম্মেলনে, ইউক্রেনজর্জিয়া ন্যাটোতে যোগ দিতে চেয়েছিল। ন্যাটো সদস্যদের মধ্যে প্রতিক্রিয়া বিভক্ত ছিল; পশ্চিম ইউরোপীয় দেশসমূহ রাশিয়ার বিরোধিতা এড়াতে সদস্যপদ অ্যাকশন প্ল্যান (এমএপি) প্রস্তাবের বিরোধিতা করেছিল, যখন মার্কিন রাষ্ট্রপতি জর্জ ডব্লিউ বুশ তাদের ভর্তির জন্য চাপ দিয়েছিলেন।[৫৯] ন্যাটো শেষ পর্যন্ত ইউক্রেন ও জর্জিয়া ম্যাপ প্রস্তাব করতে অস্বীকার করেছিল, তবে একটি সম্মত বিবৃতিতে জানানিয়েছিল যে "এই রাষ্ট্রসমূহ ন্যাটোর সদস্য হবে"। পুতিন জর্জিয়া ও ইউক্রেনের ন্যাটো সদস্যপদের আবেদনের তীব্র বিরোধিতা করেন।[৬০] ২০২২-এর আক্রমণের আগের মাসসমূহে, ইউক্রেনের ন্যাটোতে যোগদানের সম্ভাবনা অনাসন্ন ছিল।[৬১]

প্রস্তাবনা[সম্পাদনা]

উত্তেজনা বৃদ্ধি[সম্পাদনা]

৫০৩ পদাতিক রেজিমেন্টের ২য় ব্যাটালিয়নের ইউএস প্যারাট্রুপাররা ২০২২ সালের ২৩শে ফেব্রুয়ারি ইতালির অ্যাভিয়ানো বিমান ঘাঁটি থেকে লাটভিয়ার উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। রাশিয়ার সামরিক মহড়ার সময়ে পূর্ব ইউরোপে হাজার হাজার মার্কিন সেনা মোতায়েন করা হয়েছিল।[৬২]

রাশিয়া ২০২১ সালের মার্চ মাস থেকে এপ্রিল মাস পর্যন্ত রাশিয়া-ইউক্রেনীয় সীমান্তের কাছে একটি বড় সামরিক বিল্ড আপ শুরু করেছিল, তারপরে রাশিয়া ও বেলারুশ উভয়ের মধ্যে ২০২১ সালের অক্টোবর মাস থেকে ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যে দ্বিতীয় বিল্ড আপ হয়েছিল।[৬৩] এই উন্নয়নের সময়, রুশ সরকার বারবার তাদের ইউক্রেন আক্রমণ বা আক্রমণ করার পরিকল্পনার বিষয়টি অস্বীকার করেছিল ছিল;[২৫][৬৪] যারা অস্বীকৃতি জারি করেছিল তাদের মধ্যে ২০২১ সালের নভেম্বরে পুতিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ, ২০২২ সালের জানুয়ারিতে উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই রিয়াবকভ,[২৪] ২০২২ সালে ২০ই ফেব্রুয়ারি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে নিজুক্ত রুশ রাষ্ট্রদূত আনাতোলি আন্তোনোভ[২৫] ও ২০২২ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি চেক প্রজাতন্ত্রে নিযুক্ত রুশ রাষ্ট্রদূত আলেকজান্ডার জেমিভস্কি রয়েছেন।[২৬]

রুশ অস্বীকৃতির পরে ২০২১ সালের ডিসেম্বর মাসের গোড়ার দিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র রুশ আক্রমণ পরিকল্পনার গোয়েন্দা তথ্য প্রকাশ করেছিল, যার মধ্যে ইউক্রেনের সীমান্তের কাছে রুশ সৈন্য ও সরঞ্জাম দেখানো কৃত্রিম উপগ্রহ ভিত্তিক আলোকচিত্র ছিল।[৬৫] গোয়েন্দারা আক্রমণের সময় হত্যা বা নিরপেক্ষ করার জন্য মূল সাইট ও ব্যক্তিদের একটি রুশ তালিকার অস্তিত্বের কথা জানিয়েছিল।[৬৬] মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এমন প্রতিবেদন প্রকাশ করতে থাকে, যা আক্রমণের পরিকল্পনার সঠিক ভবিষ্যদ্বাণী করে।[৬৬]

রাশিয়ার অভিযোগ ও দাবি[সম্পাদনা]

ন্যাটোর মহাসচিব জেনস স্টলটেনবার্গের সঙ্গে ইউক্রেনের উপ-প্রধানমন্ত্রী ওলহা স্টেফানিশিনা ২০২২ সালের ১০ই জানুয়ারি সম্ভাব্য রুশ আক্রমণের বিষয়ে একটি সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন।

আক্রমণের আগের মাসগুলিতে, রুশ কর্মকর্তারা ইউক্রেনকে উত্তেজনা, রুশ ভীতি ও ইউক্রেনে রুশ ভাষাভাষীদের দমনের জন্য অভিযুক্ত করেছিল। তারা ইউক্রেন, ন্যাটো ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের অ-ন্যাটো মিত্রদের একাধিক নিরাপত্তা দাবিও তুলেছিল। এই কাজগুলিকে ভাষ্যকার ও পশ্চিমা কর্মকর্তারা যুদ্ধকে ন্যায্যতা দেওয়ার প্রচেষ্টা হিসাবে বর্ণনা করেছিল।[৬৭][৬৮] পুতিন ২০২১ সালের ৯ই ডিসেম্বর বলেছিলেন, যে "রুশ ভীতি হল গণহত্যার দিকে প্রথম পদক্ষেপ"।[৬৯][৭০] পুতিনের দাবি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দ্বারা প্রত্যাখ্যান করা হয়েছিল,[৭১] এবং গণহত্যার রুশ দাবি ব্যাপকভাবে ভিত্তিহীন বলে প্রত্যাখ্যান করা হয়েছিল।[৭২][৭৩][৭৪]

ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতি জেলেনস্কি ঘোষণা করেছিলেন, যে ১৬ই ফেব্রুয়ারি হল আক্রমণের জন্য একটি অনুমানিত তারিখ, এটি "ঐক্য দিবস" হবে। ইউক্রেনীয়দের "আমাদের জাতীয় পতাকা ঝুলিয়ে রাখতে, নীল ও হলুদ ফিতা লাগাতে এবং সারা বিশ্বের কাছে আমাদের ঐক্য দেখাতে" এবং সেইসাথে ১০:০০ ইইটি (ইউটিসি+২) এর সময় সর্বজনীন স্থানে জাতীয় সঙ্গীত গাইতে উৎসাহিত করা হয়েছিল।[৭৫][৭৬]

২১শে ফেব্রুয়ারি একটি বক্তৃতায়,[৭৭] পুতিন ইউক্রেনীয় রাষ্ট্রের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন, তিনি বলেন, যে "ইউক্রেন কখনোই প্রকৃত রাষ্ট্রের ঐতিহ্য ছিল না"।[৭৮] তিনি রাষ্ট্রিকে সোভিয়েত রাশিয়ার তৈরি বলে বর্ণনা করেন।[১৯] একটি আক্রমণকে ন্যায্যতা দেওয়ার জন্য, পুতিন ইউক্রেনীয় সমাজ ও সরকারকে নব্য-নাৎসিবাদের দ্বারা আধিপত্যের অভিযোগে অভিযুক্ত করেছিলেন, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জার্মান-অধিকৃত ইউক্রেনে সহযোগিতার ইতিহাসের কথা বলেছিলেন,[২১][৭৯] এবং তিনি ইহুদিদের পরিবর্তে রুশ খ্রিস্টানদেরকে নাৎসি জার্মানির প্রকৃত শিকার হিসাবে বর্ণনা করেছিলেন।[৩২][৭১] যদিও ইউক্রেনে নব্য-নাৎসি আজভ ব্যাটালিয়নরাইট সেক্টর সহ একটি অতি-ডান প্রান্ত রয়েছে,[৮০][৮১] বিশ্লেষকরা পুতিনের বক্তব্যকে ইউক্রেনের মধ্যে থাকা অতি-ডান গোষ্ঠীর প্রভাবের অতিরঞ্জিত বর্ণনা হিসাবে উল্লেখ করেছিল; সরকার, সামরিক বা নির্বাচকমণ্ডলীতে মতাদর্শের জন্য ব্যাপক সমর্থন নেই।[৬৭][২১] ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতি জেলেনস্কি, যিনি ইহুদি, পুতিনের অভিযোগকে তিরস্কার করেছিলেন, বলেন যে তার ঠাকুরদা নাৎসিদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে সোভিয়েত সেনাবাহিনীতে কাজ করেছিলেন;[৮২] তার পরিবারের সদস্যদের মধ্যে তিনজন হলোকাস্টে মারা যান।[৮৩]

পুতিন ও তার দীর্ঘদিনের বিশ্বস্ত প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শোইগু[৮৪]

রাশিয়া দ্বিতীয় সেনা মহড়ার সময়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রন্যাটোর কাছে ইউক্রেনকে ন্যাটোতে যোগদান থেকে বিরত রাখার জন্য একটি আইনত বাধ্যতামূলক ব্যবস্থা ও ন্যাটোর পূর্ব ইউরোপীয় সদস্য রাষ্ট্রসমূহে অবস্থানরত বহুজাতিক বাহিনীকে অপসারণ করার দাবি জারি করেছিল।[৮৫] ন্যাটো যদি একটি "আক্রমনাত্মক পথ" অনুসরণ করে, তাহলে রাশিয়া অনির্দিষ্ট সামরিক প্রতিক্রিয়ার হুমকি দিয়েছে।[৮৬] এই দাবীসমূহকে ব্যাপকভাবে ব্যাখ্যা করা হতো অব্যবহারযোগ্য হিসেবে; মধ্য ও পূর্ব ইউরোপে ন্যাটোর নতুন সদস্যরা জোটে যোগ দিয়েছিল কারণ তাদের জনগণ ব্যাপকভাবে ন্যাটো ও ইইউ কর্তৃক প্রদত্ত নিরাপত্তা ও অর্থনৈতিক সুযোগের দিকে অগ্রসর হতে পছন্দ করেছিল এবং তাদের সরকারসমূহ রুশ অযৌক্তিকতা থেকে সুরক্ষা চেয়েছিল।[৮৭] ইউক্রেনকে ন্যাটোতে যোগদান থেকে বিরত রাখার একটি আনুষ্ঠানিক চুক্তির দাবিকে পশ্চিমা কর্মকর্তারা অব্যবহারযোগ্য হিসাবেও দেখেছিলে, কারণ এটি চুক্তির "খোলা দরজা" নীতির লঙ্ঘন করবে, যদিও ন্যাটো ইউক্রেনের যোগদানের অনুরোধ মেনে নেওয়ার কোনো ইচ্ছা দেখায়নি।[৮৮]

আক্রমণ ও প্রতিরোধ[সম্পাদনা]

২৪শে ফেব্রুয়ারি থেকে ৪ই মার্চ পর্যন্ত আক্রমণের একটি অ্যানিমেটেড মানচিত্র।

পুতিন ২৪শে ফেব্রুয়ারি মস্কো সময় (ইউটিসি+৩) ০৬:০০ টা'র কিছু আগে ঘোষণা করেছিলেন, যে তিনি পূর্ব ইউক্রেনে একটি "বিশেষ সামরিক অভিযান" শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।[৮৯][৯০] তার ভাষণে, পুতিন বলেছিলেন যে ইউক্রেনের ভূখণ্ড দখল করার কোন পরিকল্পনা নেই এবং তিনি ইউক্রেনের জনগণের আত্মনিয়ন্ত্রণের অধিকারকে সমর্থন করেন।[৯১] তিনি বলেছিলেন, যে "কার্যক্রমের" উদ্দেশ্য দোনবাসের প্রধানত রুশ-ভাষী অঞ্চলের "জনগণকে রক্ষা করা" ছিল, পুতিনের মতে দোনবাসের রুশ-ভাষী অঞ্চলের জনগণ "আট বছর ধরে কিয়েভ শাসন দ্বারা সংঘটিত অপমান ও গণহত্যার মুখোমুখি হচ্ছে"।[৯২]

পুতিন আরও বলেছিলেন, যে রাশিয়া ইউক্রেনের "অসামরিকীকরণ ও ডিনাজিফিকেশন (নাৎসিবাদের সমস্ত উপাদানকে অপসারণ)" চেয়েছিল।[৯৩] পুতিনের ঘোষণার কয়েক মিনিটের মধ্যেই কিয়েভ, খারকিভ, ওডেসাদোনবাস অঞ্চলে বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গিয়েছিল।[৯৪] রাশিয়ার গুপ্তচর সংস্থা এফএসআই জন্য একটি কথিত ফাঁস বিজ্ঞপ্তি দাবি করে, যে পুতিনের ইউক্রেন আক্রমণ করার পরিকল্পনা সম্পর্কে গোয়েন্দা সংস্থাকে সতর্ক করা হয়নি।[৯৫][৯৬]

হামলার পরপরই, জেলেনস্কি ইউক্রেনের সামরিক আইন চালু করার ঘোষণা দেন;[৯৭] একই সন্ধ্যায়, তিনি ১৮ বছর থেকে ৬০ বছর বয়সী সমস্ত ইউক্রেনীয় পুরুষদের একটি সাধারণ সংহতির আদেশ প্রদান করেছিলেন।[৩৬] রুশ সৈন্যরা উত্তর দিকে বেলারুশ থেকে (কিভের দিকে); উত্তর-পূর্ব দিকে রাশিয়া থেকে (খারকিভের দিকে); পূর্ব দিকে গণপ্রজাতন্ত্রী দোনেৎস্কগণপ্রজাতন্ত্রী লুহানস্ক থেকে; এবং দক্ষিণ দিকে ক্রিমিয়া থেকে ইউক্রেনে প্রবেশ করেছিল।[৯৮]

রুশ সরঞ্জাম ও যানবাহনসমূহকে একটি সাদা রঙের জেড সামরিক চিহ্ন (একটি নন-সিরিলীয় অক্ষর) দিয়ে চিহ্নিত করা হয়েছিল, যা বন্ধুত্বপূর্ণ গোলাগুলি প্রতিরোধের একটি পরিমাপ বলে মনে করা হয়।[৬৩]

হতাহত ও মানবিক প্রভাব[সম্পাদনা]

হতাহত[সম্পাদনা]

বাহিনী প্রাণহানি সময়কাল সূত্র
বেসামরিক ২,৭৩৪–৩,০০০ নিহত
(শুধুমাত্র মারিউপোলখারকিভ)
২৪ ফেব্রুয়ারি – ১৬ মার্চ ২০২২ ইউক্রেনীয় সরকার[৯৯][১০০][১০১]
৮৪৭ নিহত ২৪ ফেব্রুয়ারি – ১৮ মার্চ ২০২২ জাতিসংঘ[১০২]
ইউএএফ, এনজিইউ, ও স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী ২,৮৭০ নিহত ২৪ ফেব্রুয়ারি – ২ মার্চ ২০২২ রুশ সরকার[১০৩]
২,০০০–৪,০০০ নিহত ২৪ ফেব্রুয়ারি – ৯ মার্চ ২০২২ মার্কিন অনুমান[১০৪]
১,৩০০ নিহত ২৪ ফেব্রুয়ারি – ১২ মার্চ ২০২২ ইউক্রেনীয় সরকার[১০৫]
রুশ সশস্ত্র বাহিনী ৪৯৮ নিহত ২৪ ফেব্রুয়ারি – ২ মার্চ ২০২২ রুশ সরকার[১০৬]
৩,০০০–১০,০০০ নিহত[ঘ] ২৪ ফেব্রুয়ারি – ১৮ মার্চ ২০২২ মার্কিন অনুমান[১০৭]
১৪,৪০০ জন নিখোঁজ ২৪ ফেব্রুয়ারি – ১৯ মার্চ ২০২২ ইউক্রেনীয় সরকার[১০৮]
গণপ্রজাতন্ত্রী দোনেৎস্ক বাহিনী ১৯৯ নিহত ২৪ ফেব্রুয়ারি – ১০ মার্চ ২০২২ গণপ্রজাতন্ত্রী দোনেৎস্ক[১০৯]

রুশ সামরিক ক্ষয়ক্ষতির ক্ষেত্রে, ইউক্রেনের অনুমান অনেক বেশি ছিল, যখন তাদের নিজস্ব ক্ষয়ক্ষতির ক্ষেত্রে রুশ অনুমান কম ছিল। কৃত্রিম উপগ্রহ থেকে তোলা ছবি ও সামরিক ক্রিয়াকলাপের ভিডিও চিত্র সহ বিভিন্ন উত্স থেকে যুদ্ধের মৃত্যুর অনুমান করা যেতে পারে।[১১০] সুইডেনের উপসালা বিশ্ববিদ্যালয়ের শান্তি ও সংঘর্ষ গবেষণা বিভাগের একজন গবেষকের মতে, ইউক্রেনের সরকার মনোবল বাড়ানোর লক্ষ্যে একটি ভুল তথ্য প্রচারে নিযুক্ত ছিল এবং পশ্চিমা মিডিয়া সাধারণত তার দাবিগুলি মেনে নিতে খুশি ছিল, যখন রাশিয়া সম্ভবত তার নিজের হতাহতের সংখ্যা কমিয়ে উপস্থাপন করেছিল। ইউক্রেনও তার নিজের সামরিক মৃত্যুর বিষয়ে শান্ত থাকার প্রবণতা দেখায়।[১১১]

যুদ্ধের মধ্যে বেসামরিক মৃত্যুর পাশাপাশি সামরিক মৃত্যুর সংখ্যা নির্ভুলভাবে নির্ধারণ করা অসম্ভব।[১১২][১১০] জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনারের কার্যালয় (ওএইচসিএইচআর) বেসামরিক হতাহতের সংখ্যা জাতিসংঘের প্রত্যয়িত সংখ্যার চেয়ে যথেষ্ট বেশি বলে মনে করে।[১১৩]

রাশিয়ার সৈন্য ছাড়া, যুদ্ধে ইউক্রেনের পাশাপাশি ১২ টি রাষ্ট্রের অন্তত ২৯ জন মারা গেছে। নীচে বিদেশী মৃতদের জাতীয়তার একটি তালিকা রয়েছে।

২০২২ সালে ইউক্রেনে রাশিয়ার আক্রমণে বিদেশী হতাহতের সংখ্যা
রাষ্ট্র মৃত্যু তথ্যসূত্র(সমূহ)
গ্রিস ১২ [১১৪][১১৫]
আজারবাইজান [১১৬]
বেলারুশ [১১৭][১১৮][১১৯]
যুক্তরাষ্ট্র [১২০][১২১]
আফগানিস্তান [১২২]
আলজেরিয়া [১২৩]
আর্মেনিয়া [১২৪]
বাংলাদেশ [১২৫]
ভারত [১২৩][১২৬]
ইরাক [১২৭]
আয়ারল্যান্ড [১২৮]
ইসরায়েল [১২৯]

প্রতিক্রিয়া[সম্পাদনা]

আন্তর্জাতিক সংস্থা[সম্পাদনা]

জাতিসংঘ[সম্পাদনা]

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের রেজোলিউশন ইএস-১১/১ ভোট ইউক্রেন আক্রমণের নিন্দা করে এবং সম্পূর্ণভাবে রুশ সেনা প্রত্যাহারের দাবি জানায়।
  পক্ষে
  বিপক্ষে
  বিরত ছিল
  অনুপস্থিত
  সদস্য নয়

জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস ২৩শে ফেব্রুয়ারি অবিলম্বে ইউক্রেনে আগ্রাসন বন্ধ করার জন্য রাশিয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল।[১৩০]

রাশিয়া ২৫শে ফেব্রুয়ারি জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের একটি খসড়া প্রস্তাবে ভেটো দিয়েছিল, যাতে প্রত্যাশিতভাবে রুশ ফেডারেশনের আগ্রাসনের জন্য কঠোর ভাষায় নিন্দা করা হয়েছিল। ১১টি দেশ পক্ষে ভোট দেয় এবং চীন, ভারত ও সংযুক্ত আরব আমিরাত বিরত থাকে।[১৩১] জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ একটি অনুরূপ প্রস্তাবে ভোট দেওয়ার জন্য জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের একটি জরুরি বিশেষ অধিবেশন অনুষ্ঠিত করার জন্য ভোট দিয়েছিল,[১৩২] যা ২৮ ফেব্রুয়ারি আহ্বান করা হয়েছিল।[১৩৩] জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ ২ মার্চ ১৪১-৫ ভোট দিয়ে রাশিয়াকে যুদ্ধ বন্ধ করার এবং তার সমস্ত সামরিক বাহিনী প্রত্যাহারের দাবি জানায়; আলজেরিয়া, বাংলাদেশ, চীন, ভারত, পাকিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকা সহ ৩৫ টি দেশ ভোট দানে বিরত ছিল, যখন বেলারুশ, ইরিত্রিয়া, উত্তর কোরিয়া ও সিরিয়া ছিল রাশিয়ার সমর্থক ছিল। রাশিয়ার জাতিসংঘের প্রতিনিধি বলেছেন, যে এই প্রস্তাব গৃহীত হলে তা আরও সহিংসতা বাড়াতে পারে।[১৩৪]

১ মার্চ জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদের একটি বৈঠকের সময়, রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভের বক্তৃতার প্রতিবাদে ১০০ জনেরও বেশি কূটনীতিক ওয়াক আউট করেছিলেন।[১৩৫][১৩৬][১৩৭]

ন্যাটো[সম্পাদনা]

মার্কিন এফ-৩৫এস ২৭শে ফেব্রুয়ারি এস্তোনিয়ার এমারি বিমান ঘাঁটিতে পৌঁছায়।[১৩৮]

পূর্ব ইউরোপের অনেক ন্যাটো সদস্য রাষ্ট্র ৪ নং অনুচ্ছেদের অধীনে নিরাপত্তা পরামর্শ শুরু করে।[১৩৯] এস্তোনীয় সরকারের প্রধানমন্ত্রী কাজা ক্যালাসের একটি বিবৃতি জারি করে বলেছে: "রাশিয়ার ব্যাপক আগ্রাসন সমগ্র বিশ্বের জন্য ও সমস্ত ন্যাটো রাষ্ট্রসমূহের জন্য হুমকিস্বরূপ, এবং ন্যাটো মিত্রদের প্রতিরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য অতিরিক্ত ব্যবস্থা বাস্তবায়নের জন্য মিত্রদের নিরাপত্তা জোরদার করার জন্য ন্যাটোর পরামর্শ শুরু করতে হবে। রাশিয়ার আগ্রাসনের সবচেয়ে কার্যকর প্রতিক্রিয়া হল ঐক্য।"[১৪০] স্টলটেনবার্গ ২৪শে ফেব্রুয়ারি নতুন পরিকল্পনা ঘোষণা করেন, যা "ন্যাটো রেসপন্স ফোর্স সহ যেখানে তাদের প্রয়োজন, সেখানে সক্ষমতা ও বাহিনী মোতায়েন করতে আমাদের সক্ষম করবে"।[১৪১] আক্রমণের পর, ন্যাটো বাল্টিক, পোল্যান্ড ও রোমানিয়াতে সামরিক স্থাপনা[১৪২] বাড়ানোর পরিকল্পনা ঘোষণা করে।[১৪৩][১৪৪]

২৫শে ফেব্রুয়ারি জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকের পর, স্টলটেনবার্গ ঘোষণা করেছিলেন যে ন্যাটো রেসপন্স ফোর্সের কিছু অংশ, প্রথমবারের মতো, পূর্ব সীমান্তের ন্যাটো সদস্য রাষ্ট্রে মোতায়েন করা হবে। তিনি বলেছিলেন, যে বর্তমানে ফ্রান্সের নেতৃত্বাধীন বাহিনীতে অত্যন্ত উচ্চ প্রস্তুতি জয়েন্ট টাস্ক ফোর্সের (ভিজিটিএফ) উপাদানসমূহ অন্তর্ভুক্ত থাকবে।[১৪৫] মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ২৪শে ফেব্রুয়ারি ঘোষণা করেছিল, যে এটি ইতিমধ্যেই ইউরোপে থাকা ৫,০০০ জনের সঙ্গে যোগ দিতে ৭,০০০ জন সৈন্য মোতায়েন করবে।[১৪৫] ন্যাটো বাহিনীর মধ্যে ইউএসএস হ্যারি এস. ট্রুম্যানের ক্যারিয়ার স্ট্রাইক গ্রুপ ৮ রয়েছে, যেটি একটি পরিকল্পিত মহড়ার অংশ হিসেবে আগের সপ্তাহে ভূমধ্যসাগরে প্রবেশ করেছিল। ক্যারিয়ার স্ট্রাইক গ্রুপটিকে ন্যাটো কমান্ডের অধীনে রাখা হয়েছিল, এটি শীতল যুদ্ধের পর প্রথমবারের মতো ঘটেছিল।[১৪৬]

রাশিয়া যখন তাদের আক্রমণের নেতৃত্বে ইউক্রেনের সীমান্তে বাহিনী গড়ে তুলতে শুরু করেছিল, তখন নিরপেক্ষ রাষ্ট্র ফিনল্যান্ডসুইডেন উভয়ই ন্যাটোর সঙ্গে তাদের সহযোগিতা বৃদ্ধি করেছিল।[১৪৭] উভয় রাষ্ট্রই ন্যাটোর শান্তির জন্য অংশীদারিত্বের সদস্য হিসাবে জরুরী ন্যাটো শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিয়েছিল এবং উভয়ই আক্রমণের নিন্দা করেছিল এবং ইউক্রেনকে সহায়তা দিয়েছিল। রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা ২৫শে ফেব্রুয়ারি ফিনল্যান্ড ও সুইডেনকে হুমকি দিয়েছিলেন, যে তারা ন্যাটোতে যোগদানের চেষ্টা করলে "সামরিক ও রাজনৈতিক পরিণতি" ভোগ করবে।[১৪৮] ফিনিশ ও সুইডিশ উভয় জনমত আক্রমণের পর ন্যাটোতে যোগদানের পক্ষে স্থানান্তরিত হয়।[১৪৯] ফিনল্যান্ডের পার্লামেন্টকে ন্যাটোতে যোগদানের জন্য গণভোট আয়োজনের জন্য একটি জনসাধারণের আবেদন প্রয়োজনীয় ৫০,০০০ টি স্বাক্ষরে পৌঁছেছিল, যা ১লা মার্চ একটি সংসদীয় আলোচনার প্ররোচনা প্রদান করেছিল।[১৫০]

ন্যাটো মহাসচিব জেনস স্টলটেনবার্গ ৮ মার্চ সতর্ক করে দিয়েছিলেন, যে "যদি কোনও ন্যাটো রাষ্ট্র বা ন্যাটো অঞ্চলের বিরুদ্ধে কোনও আক্রমণ হয়, তবে তা উত্তর আটলান্টিক চুক্তির ৫ নং অনুচ্ছেদকে ট্রিগার করবে"।[১৫১] জো বাইনের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভান ১৩ মার্চ রাশিয়াকে ন্যাটো অঞ্চলের কোনও অংশে আঘাত করার জন্য ন্যাটোর পূর্ণ প্রতিক্রিয়ার বিষয়ে সতর্ক করেছিলেন।[১৫২]

টীকা[সম্পাদনা]

  1. The Donetsk People's Republic is a separatist state that declared its independence in May 2014, while receiving recognitions from its neighboring partially recognized quasi-state, the de facto state of South Ossetia, and Russia (since 2022).[১]
  2. The Luhansk People's Republic is a separatist state that declared its independence in May 2014, while receiving recognitions from its neighboring partially recognized quasi-state, the de facto state of South Ossetia, and Russia (since 2022).[২][৩]
  3. Some Russian forces invaded from Belarusian territory.[৪] Belarusian president Alexander Lukashenko also stated that Belarusian troops could take part in the invasion if needed.[৫]
  4. উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; MiddleUSestimate নামের সূত্রটির জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "South Ossetia recognises independence of Donetsk People's Republic"। Information Telegraph Agency of Russia। ২৭ জুন ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৩১ জানুয়ারি ২০২২ 
  2. Alec, Luhn (৬ নভেম্বর ২০১৪)। "Ukraine's rebel 'people's republics' begin work of building new states"The Guardian (ইংরেজি ভাষায়)। Donetsk। সংগ্রহের তারিখ ৩১ জানুয়ারি ২০২২The two 'people's republics' carved out over the past seven months by pro-Russia rebels have not been recognised by any countries, and a rushed vote to elect governments for them on Sunday was declared illegal by Kiev, Washington and Brussels. 
  3. "Общая информация" [General Information]। Official site of the head of the Lugansk People's Republic (রুশ ভাষায়)। ১২ মার্চ ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ মার্চ ২০১৮11 июня 2014 года Луганская Народная Республика обратилась к Российской Федерации, а также к 14 другим государствам, с просьбой о признании её независимости. К настоящему моменту независимость республики признана провозглашенной Донецкой Народной Республикой и частично признанным государством Южная Осетия. [Translated: On June 11, 2014, the Luhansk People's Republic turned to the Russian Federation, as well as to 14 other states, with a request to recognize its independence. To date, the republic's independence has been recognized by the proclaimed Donetsk People's Republic and the partially recognized state of South Ossetia.] 
  4. Lister, Tim; Kesa, Julia (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Ukraine says it was attacked through Russian, Belarus and Crimea borders"CNN। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  5. Rodionov, Maxim; Balmforth, Tom (২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Belarusian troops could be used in operation against Ukraine if needed, Lukashenko says"Reuters। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  6. "ইউক্রেনের বড় বড় শহর, সেনাঘাঁটি এবং বিমানবন্দরে রুশ ক্ষেপণাস্ত্র হামলা, মৃত্যু বাড়ছে"। www.bbc.com। বিবিসি বাংলা। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  7. "Ukraine's Zelensky declares martial law, vows victory"Agence France-PresseThe Times of Israel। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  8. Trofimov, Yaroslav; Cullison, Alan; Forrest, Brett; Simmons, Ann M. (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Russia Attacks Ukraine, Drawing Broad Condemnation"। The Wall Street Journal। সংগ্রহের তারিখ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  9. উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; WashPost_what_counts_invasion নামের সূত্রটির জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  10. "UN resolution against Ukraine invasion: Full text"Al Jazeera। ২ মার্চ ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মার্চ ২০২২The General Assembly ... [d]eplores in the strongest terms the aggression by the Russian Federation against Ukraine in violation of Article 2 (4) of the Charter 
  11. Scheffer, David J. (১৭ মার্চ ২০২২)। "Can Russia Be Held Accountable for War Crimes in Ukraine?"Council on Foreign Relations। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মার্চ ২০২২Russia's invasion of Ukraine constitutes the crime of aggression under international law. 
  12. Hirsch, Francine (২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Putin's Memory Laws Set the Stage for His War in Ukraine"Lawfare। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মার্চ ২০২২Putin, like Stalin, has launched a war of aggression while calling it a special operation aimed at aiding civilians and 'restoring the peace.' 
  13. Blake, Daniel Keane, Elly (১৫ মার্চ ২০২২)। "What is the Homes for Ukraine refugees scheme and how do you apply?"Evening Standard। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মার্চ ২০২২ 
  14. "Ukrainian exodus could be Europe's biggest refugee crisis since World War II"El Pais। ৩ মার্চ ২০২২। 
  15. "Situation Ukraine Refugee Situation"United Nations High Commissioner for Refugees। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মার্চ ২০২২ 
  16. Ratcliffe, Rebecca; Clayton, Abené; Gabbatt, Adam; Chao-Fong, Léonie; Lock, Samantha; Ambrose, Tom (১৯ মার্চ ২০২২)। "Biden outlines 'consequences' if China aids Russia – as it happened"The Guardianআইএসএসএন 0261-3077। ১৮ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মার্চ ২০২২ 
  17. Kirby, Jen (২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Putin's invasion of Ukraine, explained"Vox। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মার্চ ২০২২ 
  18. "Conflict in Ukraine"Global Conflict TrackerCouncil on Foreign Relations। ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মার্চ ২০২২ 
  19. Perrigo, Billy (২২ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "How Putin's Denial of Ukraine's Statehood Rewrites History"Time। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মার্চ ২০২২ 
  20. "Putin Says He Does Not Plan to 'Restore Empire'"The Moscow Times। ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মার্চ ২০২২ 
  21. Abbruzzese, Jason (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Putin says he is fighting a resurgence of Nazism. That's not true."NBC News। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  22. "NATO-Russia relations: the facts"NATO। ২৭ জানুয়ারি ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০২২NATO is a defensive alliance. Our purpose is to protect our member states. Every country that joins NATO undertakes to uphold its principles and policies. This includes the commitment that 'NATO does not seek confrontation and poses no threat to Russia,' as reaffirmed at the Brussels Summit this year. NATO enlargement is not directed against Russia. Every sovereign nation has the right to choose its own security arrangements. This is a fundamental principle of European security, one that Russia has also subscribed to and should respect. In fact, after the end of the Cold War, Russia committed to building an inclusive European security architecture, including through the Charter of Paris, the establishment of the OSCE, the creation of the Euro-Atlantic Partnership Council, and the NATO-Russia Founding Act. 
  23. Wiegrefe, Klaus (১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "NATO's Eastward Expansion: Is Vladimir Putin Right?"Der Spiegelআইএসএসএন 2195-1349। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মার্চ ২০২২ 
  24. Farley, Robert; Kiely, Eugene (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Russian Rhetoric Ahead of Attack Against Ukraine: Deny, Deflect, Mislead"FactCheck.org। Photograph by Aris Messinis (Agence-France Presse)। Annenberg Public Policy Center। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২Nov. 28 – ... 'Russia has never hatched, is not hatching and will never hatch any plans to attack anyone,' Peskov said. ... Jan. 19 – ... Ryabkov ... 'We do not want and will not take any action of aggressive character. We will not attack, strike, invade, quote unquote, whatever Ukraine.' 
  25. Taylor, Adam (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Russia's attack on Ukraine came after months of denials it would attack"The Washington Post। Photograph by Evgeniy Maloletka (Associated Press)। Nash Holdingsআইএসএসএন 0190-8286ওসিএলসি 2269358। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূলঅর্থের বিনিময়ে সদস্যতা প্রয়োজন থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২On Sunday ... "There is no invasion. There is no such plans," Antonov said. 
  26. Fořtová, Klára (৮ মার্চ ২০২২)। "Velvyslanec Ukrajiny v Česku denně promlouvá, ruský mlčí a je 'neviditelný'"iDNES (Czech ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২Zmejevský ... 'Důrazně jsme odmítli jako nepodložená obvinění Ruska z přípravy, agrese vůči Ukrajině a fámy o vstupu ruských jednotek na ukrajinské území,' stojí v něm. 
  27. [২৪][২৫][২৬]
  28. Hernandez, Joe (২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Why Luhansk and Donetsk are key to understanding the latest escalation in Ukraine"। Photograph by Aleksey Filippov (Agence-France Presse) via Getty ImagesNPR। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২  অজানা প্যারামিটার |orig-date= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য)
  29. উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; Hodge 2022 নামের সূত্রটির জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  30. Nikolskaya, Polina; Osborn, Andrew (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Russia's Putin authorises 'special military operation' against Ukraine"Reuters। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  31. Grunau, Andrea; von Hein, Matthias; Theise, Eugen; Weber, Joscha (২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Fact check: Do Vladimir Putin's justifications for going to war against Ukraine add up?"Deutsche Welle। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  32. Waxman, Olivia B. (৩ মার্চ ২০২২)। "Historians on What Putin Gets Wrong About 'Denazification' in Ukraine"Time। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  33. "Russia attacks Ukraine"CNN। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  34. Kirby, Paul (৯ মার্চ ২০২২)। "Why is Russia invading Ukraine and what does Putin want?"BBC News। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  35. "Ukrainian president signs decree on general mobilisation of population -Interfax"Reuters। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  36. "Zelensky signs decree declaring general mobilization"Interfax-Ukraine। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  37. Beaumont, Peter (৮ মার্চ ২০২২)। "Focus on Kyiv deadlock obscures Russia's success in south Ukraine"The Guardian। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  38. Sabbagh, Dan (৮ মার্চ ২০২২)। "Russia 'solving logistics problems' and could attack Kyiv within days – experts"The Guardian। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  39. Jones, Sam; Rathbone, John Paul; Sevastopulo, Demetri (১২ মার্চ ২০২২)। "'A serious failure': scale of Russia's military blunders becomes clear"Financial Times। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  40. "Ukraine war in maps: Tracking the Russian invasion"BBC News। ২০ মার্চ ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  41. Chernova, Anna; Cotovio, Vasco; Thompson, Mark (২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Sanctions slams Russian economy"CNN। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  42. উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; Al-Jazeera-2022-02-28 নামের সূত্রটির জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  43. Morin, Rebecca; Subramanian, Courtney; Collins, Michael; Garrison, Joey; Groppe, Maureen (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "World leaders condemn Russian invasion of Ukraine; EU promises 'harshest' sanctions – live updates"USA Todayআইএসএসএন 0734-7456। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  44. Stewart, Briar; Seminoff, Corinne; Kozlov, Dmitry (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "More than 1,700 people detained in widespread Russian protests against Ukraine invasion"CBC NewsAssociated Press। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  45. Corder, Mike (৩ মার্চ ২০২২)। "ICC prosecutor launches Ukraine war crimes investigation"Associated Press। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  46. Budjeryn, Mariana। "Issue Brief #3: The Breach: Ukraine's Territorial Integrity and the Budapest Memorandum" (PDF)Woodrow Wilson International Center for Scholars। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  47. Vasylenko, Volodymyr (১৫ ডিসেম্বর ২০০৯)। "On assurances without guarantees in a 'shelved document'"The Day। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  48. Harahan, Joseph P. (২০১৪)। "With Courage and Persistence: Eliminating and Securing Weapons of Mass Destruction with the Nunn-Luger Cooperative Threat Reduction Programs" (PDF)DTRA History Series। Defense Threat Reduction Agency। এএসআইএন B01LYEJ56H। ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  49. "Istanbul Document 1999"। Organization for Security and Co-operation in Europe। ১৯ নভেম্বর ১৯৯৯। ১ জুন ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  50. Hall, Gavin E. L. (১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Ukraine: the history behind Russia's claim that Nato promised not to expand to the east"The Conversation। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  51. Leung, Rebecca (১১ ফেব্রুয়ারি ২০০৯)। "Yushchenko: 'Live And Carry On'"CBS NewsCBS। ২৫ অক্টোবর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  52. "Study: Dioxin that poisoned Yushchenko made in lab"Kyiv Post। London: Businessgroup। Associated Press। ৫ আগস্ট ২০০৯। আইএসএসএন 1563-6429। ৩১ জানুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  53. "Yushchenko to Russia: Hand over witnesses"Kyiv Post। Businessgroup। ২৮ অক্টোবর ২০০৯। আইএসএসএন 1563-6429। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  54. "The Supreme Court findings" (ইউক্রেনীয় ভাষায়)। Supreme Court of Ukraine। ৩ ডিসেম্বর ২০০৪। ২২ জুন ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  55. "Ukraine-Independent Ukraine"Encyclopædia Britannica OnlineEncyclopædia Britannica। ১৫ জানুয়ারি ২০০৮। ১৫ জানুয়ারি ২০০৮ তারিখে মূলঅর্থের বিনিময়ে সদস্যতা প্রয়োজন থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  56. Cordesman, Anthony H. (২৮ মে ২০১৪)। "Russia and the 'Color Revolution'"। Center for Strategic and International Studies। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  57. "Putin calls 'color revolutions' an instrument of destabilization – Dec. 15, 2011"Kyiv PostInterfax Ukraine। ১৫ ডিসেম্বর ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  58. "Антиоранжевый митинг проходит на Поклонной горе" [Anti-orange rally takes place on Poklonnaya Hill] (রুশ ভাষায়)। RIA Novosti। ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  59. Brown, Colin (৩ এপ্রিল ২০০৮)। "EU allies unite against Bush over Nato membership for Georgia and Ukraine"। The Independent। পৃষ্ঠা 24। 
  60. Evans, Michael (৫ এপ্রিল ২০০৮)। "President tells summit he wants security and friendship"। The Times। পৃষ্ঠা 46। President Putin, in a bravura performance before the world's media at the end of the Nato summit, warned President Bush and other alliance leaders that their plan to expand eastwards to Ukraine and Georgia "didn't contribute to trust and predictability in our relations. 
  61. Wong, Edward; Jakes, Lara (১৩ জানুয়ারি ২০২২)। "NATO Won't Let Ukraine Join Soon. Here's Why."The New York Times। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  62. "173rd Airborne Brigade battalion heads to Latvia as Ukraine comes under Russian attack"Stars and Stripes। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  63. Schogol, Jeff (২২ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Here's what those mysterious white 'Z' markings on Russian military equipment may mean"Task & Purpose। North Equity। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২[B]ottom line is the 'Z' markings (and others like it) are a deconfliction measure to help prevent fratricide, or friendly fire incidents. 
  64. "Putin attacked Ukraine after insisting for months there was no plan to do so. Now he says there's no plan to take over."CBS NewsKharkiv: CBS (প্রকাশিত হয় ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  65. Harris, Shane; Sonne, Paul (৩ ডিসেম্বর ২০২১)। "Russia planning massive military offensive against Ukraine involving 175,000 troops, U.S. intelligence warns"অর্থের বিনিময়ে সদস্যতা প্রয়োজনThe Washington PostNash Holdings। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২[U].S. intelligence has found the Kremlin is planning a multi-frontal offensive as soon as early next year involving up to 175,000 troops ... . 
  66. Merchant, Normaan (২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "US intel predicted Russia's invasion plans. Did it matter?"AP News। Photographs by Alexei Alexandrov and Alex Brandon (AP Photo)। Washington, D.C.: Associated PressAssociated Press। ১ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  67. Li, David K.; Allen, Jonathan; Siemaszko, Corky (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Putin using false 'Nazi' narrative to justify Russia's attack on Ukraine, experts say"NBC News। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  68. "US accuses Moscow of creating Ukraine invasion pretext with 'genocide' claims"France 24Agence France-Presse। ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  69. "Putin Says Conflict in Eastern Ukraine 'Looks Like Genocide'"The Moscow Times। ১০ ডিসেম্বর ২০২১। ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  70. "Путин заявил о геноциде на Донбассе" [Putin announced the genocide in the Donbas]। Rossiyskaya Gazeta (রুশ ভাষায়)। ৯ ডিসেম্বর ২০২১। ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  71. Stanley, Jason (২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "The antisemitism animating Putin's claim to 'denazify' Ukraine"The Guardian। ১ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  72. "Ukraine crisis: Vladimir Putin address fact-checked"BBC News। ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২২। ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  73. Hinton, Alexander (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Putin's claims that Ukraine is committing genocide are baseless, but not unprecedented"The Conversation। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  74. "Disinformation About the Current Russia-Ukraine Conflict – Seven Myths Debunked"Directorate-General for European Neighbourhood Policy and Enlargement Negotiations (সংবাদ বিজ্ঞপ্তি)। ২৪ জানুয়ারি ২০২২। ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  75. "Ukrainians Display Patriotism On First Day Of Unity Amid Uncertainty About Russian Invasion"RadioFreeEurope/RadioLiberty। ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  76. Hendrix, Steve; Khurshudyan, Isabelle (১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "With solidarity, apathy and a few songs, Ukraine's Unity Day reflects a weary nation"Washington Post। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  77. "Extracts from Putin's speech on Ukraine"Reuters। ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২২। ১ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  78. Düben, Björn Alexander (১ জুলাই ২০২০)। "'There is no Ukraine': Fact-Checking the Kremlin's Version of Ukrainian History"LSE International HistoryLondon School of Economics। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  79. Campbell, Eric (৩ মার্চ ২০২২)। "Inside Donetsk, the separatist republic that triggered the war in Ukraine"Australian Broadcasting Corporation। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  80. Berger, Miriam (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Russian President Valdimir Putin says he will 'denazify' Ukraine. Here's the history behind that claim."The Washington Post। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  81. Campbell, Eric (৩ মার্চ ২০২২)। "Inside Donetsk, the separatist republic that triggered the war in Ukraine"Australian Broadcasting Corporation। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  82. Lawler, Dave; Basu, Zachary (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Ukrainian President Zelensky says Putin has ordered invasion as country prepares for war"Axios। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  83. Li, David K.; Allen, Jonathan; Siemaszko, Corky (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Putin using false 'Nazi' narrative to justify Russia's attack on Ukraine, experts say"NBC News। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  84. "Ukraine conflict: Who's in Putin's inner circle and running the war?"BBC News। ২ মার্চ ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  85. Tétrault-Farber, Gabrielle; Balmforth, Tom (১৭ ডিসেম্বর ২০২১)। "Russia demands NATO roll back from East Europe and stay out of Ukraine"Reuters। ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  86. MacKinnon, Mark (২১ ডিসেম্বর ২০২১)। "Putin warns of unspecified military response if U.S. and NATO continue 'aggressive line'"The Globe and Mail। ১৫ জানুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  87. Szayna, Thomas S. (২৯ অক্টোবর ১৯৯৭)। "The Enlargement of NATO and Central European Politics"Woodrow Wilson International Center for Scholars। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  88. Coyer, Cassandre (২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Why is Ukraine not in NATO and is it too late to join? Here's what experts, NATO say"The Miami Herald। ১ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  89. উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; Meduza_Putin_announces_invasion নামের সূত্রটির জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  90. Haltiwager, John (২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Russian President Vladimir Putin announces military assault against Ukraine in surprise speech"MSN। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  91. "Full text: Putin's declaration of war on Ukraine"The Spectator। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২। 
  92. Hinton, Alexander (২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Putin's claims that Ukraine is committing genocide are baseless, but not unprecedented"The Conversation 
  93. "Ukraine conflict: Russian forces attack after Putin TV declaration"BBC News। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  94. Sheftalovich, Zoya (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Putin announces 'special military operation' in Ukraine"Politico। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  95. Fenton, Rosaleen; Phoutinane, Ketsuda (৮ মার্চ ২০২২)। "'Leaked Russian report spy' says Ukraine invasion a 'total failure'"Daily Record। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  96. Ago, 14 Hours (৮ মার্চ ২০২২), 'Only defeat': Leaked Russian FSB report identifies Ukraine invasion as a 'total failure', সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  97. Lock, Samantha (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Russia-Ukraine crisis live news: Putin has launched 'full-scale invasion', says Ukrainian foreign minister – latest updates"The Guardian। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  98. Peltz, Jennifer; Lederer, Edith (২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "'It's too late': Russian move roils UN meeting on Ukraine"AP News। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  99. "'Why? Why? Why?' Ukraine's Mariupol descends into despair"AP News। ১৬ মার্চ ২০২২। ১৬ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মার্চ ২০২২ 
  100. "Shells rain down on Kharkiv as Ukraine's army stands firm"BBC News। ১৭ মার্চ ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  101. "At least 500 Kharkiv city residents killed so far in war with Russia – emergency service"Reuters। ১৬ মার্চ ২০২২। ১৬ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  102. "Ukraine: Civilian casualties as of 24.00 18 March 2022 [EN/RU/UK] - Ukraine"ReliefWeb (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  103. "Moscow: Nearly 500 of its troops have been killed in Ukraine"WHDH। ২ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  104. "Up to 6,000 Russians may have been killed in Ukraine so far, U.S. official estimates"। CBS News। ৯ মার্চ ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  105. "Around 1,300 Ukrainian troops killed since start of Russian invasion"। The Jerusalem Post। ১২ মার্চ ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  106. "Russia says 498 of its soldiers killed, 1,597 wounded in Ukraine – RIA"Reuters। ২ মার্চ ২০২২। ২ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  107. "Mounting Russian casualties in Ukraine lead to more questions about its military readiness"CNN। ১৮ মার্চ ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  108. Interfax-Ukraine (১৯ মার্চ ২০২২)। "Russia loses 14,400 personnel, 466 tanks, 95 aircraft in Ukraine since Feb 24 – General Staff"। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  109. The DPR stated 212 of its servicemen were killed and 1,049 wounded between 1 Jan and 10 March 2022,[১] of which 13 died and 50 were wounded between 1 Jan and 25 February 2022,[২] leaving a total of 199 killed and 1,044 wounded in the period of the Russian invasion.
  110. "As Russian Troop Deaths Climb, Morale Becomes an Issue, Officials Say"New York Times। ১৭ মার্চ ২০২২। ১৬ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  111. Why is it so hard to get accurate death tolls in the Russia-Ukraine war?
  112. Isabelle Khurshudyan and Griff Witte, Civilians are dying in Ukraine. But exactly how many remains a mystery., Washington Post (26 February 2022).
  113. "Ukraine: Civilian casualties as of 24.00 15 March 2022 [EN/RU/UK] – Ukraine"ReliefWeb। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  114. "Greece says 10 expats killed in Ukraine, summons Russian ambassador"। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  115. "Two more Greek expats killed in strikes in Ukraine"Proto Thema। ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২। ৫ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  116. "Səfirlik: Ukraynada həlak olan 4 azərbaycanlının nəşlərinin ölkəyə göndərilməsi planlaşdırılır – YENİLƏNİB" [Embassy: It is planned to send the remains of 4 Azerbaijanis killed in Ukraine to the country]। Azerbaijan Press Agency [az] (আজারবাইজানী ভাষায়)। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  117. "Two Belarusians were killed in Korosten, which was shelled from Belarus"Ukrainska Pravda। ১০ মার্চ ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  118. Visegrád 24 [@visegrad24] (১৩ মার্চ ২০২২)। "The Belarusian volunteer fighting for Ukraine, Aliaksej Skoblia, was killed in battle near Kyiv today. He died while covering the retreat of his brothers-in-arms after an ambush on his squad. One day, a free Belarus with its white-red-white flag will return. R.I.P. t.co/dTETeyhVhv" (টুইট)। ১৪ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মার্চ ২০২২টুইটার-এর মাধ্যমে। 
  119. Viačorka, Franak [@franakviacorka] (১৩ মার্চ ২০২২)। "R.I.P. Belarusian soldier in the Armed Forces of Ukraine Aliaksej Skoblia "Tur" died today near Kyiv. Tur was the group's deputy commander when his squad was ambushed. He perished, covering the retreat of his brothers. t.co/hQLlM2O37k" (টুইট)। ১৪ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২টুইটার-এর মাধ্যমে। 
  120. Schwirtz, Michael (১৩ মার্চ ২০২২)। "Brent Renaud, an American journalist, is killed in Ukraine."The New York Timesআইএসএসএন 0362-4331। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  121. "US citizen among people killed by Russian shelling in Chernihiv, Ukrainian police say"CNN। ১৭ মার্চ ২০২২। 
  122. "Afghan student Mumtaz killed in Ukraine in Russian invasion"The Namal। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  123. Hassan, Jennifer; Masih, Niha (১ মার্চ ২০২২)। "Indian, Algerian students killed in Ukraine; others stranded during Russia's invasion beg for help"Washington Post। ১ মার্চ ২০২২ তারিখে মূলঅর্থের বিনিময়ে সদস্যতা প্রয়োজন থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  124. "Armenian civilian killed in Ukraine"Public Radio of Armenia। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  125. "Ukraine: Bangladeshi Sailor Killed in Missile Attack Was His Family's Sole Breadwinner"The Wire। ৩ মার্চ ২০২২। ৪ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  126. Razdan, Nidhi (১ মার্চ ২০২২)। Ghosh, Deepshikha, সম্পাদক। "Indian Student, Killed In Ukraine, Was Standing In A Grocery Store Queue"। ১ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  127. Shakir, Layal (২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Kurdish student reportedly killed in Ukraine-Russia conflict"Rudaw। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  128. "Fox News cameraman Pierre Zakrzewski killed in Ukraine: network"France 24। ১৫ মার্চ ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  129. Yegorov, Ilya (৩ মার্চ ২০২২)। "Friends of Israeli killed in Ukraine raising funds to bring him to burial in Israel"Israel Hayom। ৮ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ মার্চ ২০২২ 
  130. "'Give Peace a Chance', Secretary-General Urges Russian Federation at Security Council Meeting on Ukraine, Saying too Many People Have Died | Meetings Coverage and Press Releases"জাতিসংঘ। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  131. Ryan, Missy (২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "At U.N., Russia vetoes U.S. resolution condemning Ukraine invasion"The Washington Post। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  132. Nichols, Michelle (২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "U.N. Security Council calls rare General Assembly session on Ukraine"Reuters। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  133. Tawfik, Nada (২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Rare UN meeting gets under way"BBC News। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  134. Pamuk, Humeyra; Landay, Jonathan (২ মার্চ ২০২২)। "U.N. General Assembly in historic vote denounces Russia over Ukraine invasion"Reuters 
  135. Nebehay, Stephanie (১ মার্চ ২০২২)। "Western envoys, allies walk out on Lavrov speech to UN rights forum"Reuters। ১ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২More than 100 diplomats from some 40 Western countries and allies including Japan walked out of a speech by Russian Foreign Minister Sergei Lavrov to the top U.N. human rights forum on Tuesday in protest over Russia's invasion of Ukraine. 
  136. Cumming-Bruce, Nick (১ মার্চ ২০২২)। "Diplomats walk out of Lavrov's speech at the U.N. in Geneva."The New York Times। ১ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২Ukraine's ambassador to the United Nations in Geneva led the walkout, which left a largely empty conference hall to hear the remarks by Foreign Minister Sergey V. Lavrov at a conference on disarmament. 
  137. Shah, Furvah (১ মার্চ ২০২২)। "UN diplomats walk out on Russian minister's speech in protest at Ukraine invasion"The Independent। ১ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২Dozens of officials, including those from Britain, the US and the European Union, left the UN Human Rights Council meeting in Geneva, Switzerland on Tuesday as a video message from Vladimir Putin's ally played. 
  138. "U.S. sending F-35s jets to Baltics, extends stay of its troops"Reuters। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২। ১ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  139. Cook, Lorne (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "NATO vows to defend its entire territory after Russia attack"AP News। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  140. Brad, Lendon; Vasco, Cotovio (২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Poland and Baltic countries trigger consultations under NATO article 4"CNN। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  141. Timsit, Annabelle; Rauhala, Emily (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "NATO 'more united and determined than ever' after Russia's 'brutal act of war' on Ukraine"The Washington Post। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  142. "Statement by the North Atlantic Council on Russia's attack on Ukraine"। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২Today, we have held consultations under Article 4 of the Washington Treaty. We have decided, in line with our defensive planning to protect all Allies, to take additional steps to further strengthen deterrence and defence across the Alliance. 
  143. "NATO puts warplanes on alert, to increase troop presence on eastern flank"The Star। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  144. Cook, Lorne। "NATO leaders agree to bolster eastern forces after invasion"ABC News। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  145. "NATO Agrees To Partial Deployment Of Response Force To Eastern Member Countries"RadioFreeEurope/RadioLiberty। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  146. Coleman, Julie (২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "NATO takes command of US carrier strike group as allies send more jets and warships to deter Russia's threat against Ukraine"Business Insider। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  147. Hautala, Heli (২ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Russia Is Driving Sweden and Finland Closer to NATO"Foreign Policy। ১ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  148. Paúl, María (২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২)। "Russia threatens Finland and Sweden over potential NATO membership"The Washington Post। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  149. Jacobsen, Stine; Ahlander, Johan (৪ মার্চ ২০২২)। "Russian invasion of Ukraine forces Swedes to rethink NATO membership"Reuters। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  150. "Ukraine war: MPs in Finland mull petition for a referendum on joining NATO"Euronews। ১ মার্চ ২০২২। ১ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০২২ 
  151. "NATO chief warns Russia away from attacking supply lines supporting Ukraine"CBC। ৮ মার্চ ২০২২। 
  152. "Russia Hitting NATO Even Accidentally Will Spur 'Full' Response: Sullivan"Newsweek। ১৩ মার্চ ২০২২। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]