২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব (কনমেবল)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব (কনমেবল)
টুর্নামেন্টের বিবরণ
তারিখসমূহ৮ অক্টোবর ২০১৫ - ১০ অক্টোবর ২০১৭
দলসমূহ১০ (১টি কনফেডারেশন থেকে)
প্রতিযোগিতার পরিসংখ্যান
ম্যাচ খেলেছে৯০
গোল সংখ্যা২৪২ (ম্যাচ প্রতি ২.৬৯টি)
উপস্থিতি২৯,৮৫,৭৯৪ (ম্যাচ প্রতি ৩৩,১৭৫ জন)
শীর্ষ গোলদাতাউরুগুয়ে এদিনসন কাভানি (১০ গোল)
সর্বশেষ হালনাগাদ: ১০ অক্টোবর ২০১৭

এটি হচ্ছে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের ২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব যেখানে উত্তীর্ণ দলগুলো রাশিয়ায় অনুষ্ঠিত ২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে। এই অঞ্চলের বাছাইপর্বে শুধুমাত্র দক্ষিণ আমেরিকান ফুটবল কনফেডারেনের (কনমেবল) সদস্যপদপ্রাপ্ত জাতীয় দলগুলো খেলতে সক্ষম হয়েছে। কনমেবলের দলগুলোর জন্য সর্বমোট ৪.৫টি স্থান (৪টি সরাসরি স্থান এবং ১টি আন্ত-কনফেডারেশন প্লে-অফ স্থান) বিশ্বকাপের জন্য সহজলভ্য রয়েছে।[১]

বিন্যাস[সম্পাদনা]

বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের গঠন গত ৫ টুর্নামেন্ট ধরে একই রয়েছে। এই অঞ্চলের বাছাইপর্বে সর্বমোট ১০টি দল একটি লীগে প্রতিযোগিতা করে, যেখানে দলগুলো হোম-ও-অ্যাওয়ে রাউন্ড-রবিন খেলায় অংশগ্রহণ করে। এই লীগ খেলা শেষে শীর্ষ ৪টি দল ২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে, এবং ৫ম স্থান অধিকারী দল আন্ত-কনফেডারেশন প্লে-অফের জন্য উন্নীত হয়।

এবারের বাছাইপর্বের সময়সূচী অন্যান্যবারের মতো এবার পূর্ব-নির্ধারিত ছিল না, এই বারের সময়সূচী একটি ড্রয়ের মাধ্যমে নির্ধারণ করা হয়েছে, যেটি রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গের স্ট্রেলনায় অবস্থিত কনস্টান্টিনোভস্কি প্যালেসে ২০১৫ সালের ২৫ জুলাই, ১৮:০০ এমএসকে (ইউটিসি+৩) ২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপের প্রস্তুতিমূলক ড্রয়ে নির্ধারণ করা হয়।[২]

সময়সূচীজনক সমস্যার কারণে, আর্জেন্টিনা এবং ব্রাজিল স্বয়ংক্রিয়ভাবে যথাক্রমে দল ৪ এবং ৫ হিসেবে স্থান অধিকার করে। এর ফলে এটা নিশ্চিত হয় যে কোন একটি দল এই দুই দলের সাথে যেকোনো যুগল ম্যাচদিনে খেলতে পারবে না।[৩][৪] কনমেবলের বাকি ৮টি দলকে ড্রয়ের মাধ্যমে দল ১ থেকে ১০-এ স্থান দেওয়া হয় (৪ এবং ৫ ব্যতীত)।

প্রবেশক[সম্পাদনা]

কনমেবলের অন্তর্গত ১০টি জাতীয় দল এই বাছাইপর্বে প্রবেশ করে।[৫]

নোট: বোল্ড আকারে চিহ্নিত দলগুলো বিশ্বকাপের জন্য উন্নীত হয়েছে। ইটালিক আকারে চিহ্নিত দলটি আন্ত-কনফেডারেশন প্লে-অফের জন্য অগ্রসর হয়েছে।

ড্রয়ে
অবস্থান[৬]
দল প্রতিযোগিতা শুরুর পূর্বে
ফিফা র‌্যাঙ্কিং[৭]
 কলম্বিয়া
 চিলি
 প্যারাগুয়ে ৬১
 আর্জেন্টিনা
 ব্রাজিল
 ইকুয়েডর ৩১
 ভেনেজুয়েলা ৬৯
 বলিভিয়া ৬৭
 পেরু ৫০
১০  উরুগুয়ে ২০

সময়সূচী[সম্পাদনা]

এই বাছাইপর্বের জন্য সর্বমোট ১৮টি ম্যাচদিন ছিল: ৪টি ২০১৫ সালে, ৮টি ২০১৬ সালে, এবং ৬টি ২০১৭ সালে।[৮]

২০১৫
ম্যাচদিন তারিখ
ম্যাচদিন ১ ৫-১৩ অক্টোবর ২০১৫
ম্যাচদিন ২
ম্যাচদিন ৩ ৯-১৭ নভেম্বর ২০১৫
ম্যাচদিন ৪
২০১৬
ম্যাচদিন তারিখ
ম্যাচদিন ৫ ২১-২৯ মার্চ ২০১৬
ম্যাচদিন ৬
ম্যাচদিন ৭ ২৯ আগস্ট - ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬
ম্যাচদিন ৮
ম্যাচদিন ৯ ৩-১১ অক্টোবর ২০১৬
ম্যাচদিন ১০
ম্যাচদিন ১১ ৭-১৫ নভেম্বর ২০১৬
ম্যাচদিন ১২
২০১৭
ম্যাচদিন তারিখ
ম্যাচদিন ১৩ ২০-২৮ মার্চ ২০১৭
ম্যাচদিন ১৪
ম্যাচদিন ১৫ ২৮ আগস্ট - ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭
ম্যাচদিন ১৬
ম্যাচদিন ১৭ ২-১০ অক্টোবর ২০১৭
ম্যাচদিন ১৮

২০১৭ সালের ৬-১৪ নভেম্বর আন্ত-কনফেডারেশন প্লে-অফের খেলার সময়সূচী নির্ধারণ করা হয়েছে।[৯]

পয়েন্ট তালিকা[সম্পাদনা]

অব দল খে ড্র হা স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন
 ব্রাজিল ১৮ ১২ ৪১ ১১ +৩০ ৪১ ২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপের জন্য উত্তীর্ণ ২–২ ৩–০ ২–১ ৩–০ ৩–০ ৩–০ ২–০ ৫–০ ৩–১
 উরুগুয়ে ১৮ ৩২ ২০ +১২ ৩১ ১–৪ ০–০ ৩–০ ১–০ ৩–০ ৪–০ ২–১ ৪–২ ৩–০
 আর্জেন্টিনা ১৮ ১৯ ১৬ +৩ ২৮ ১–১ ১–০ ৩–০ ০–০ ১–০ ০–১ ০–২ ২–০ ১–১
 কলম্বিয়া ১৮ ২১ ১৯ +২ ২৭ ১–১ ২–২ ০–১ ২–০ ০–০ ১–২ ৩–১ ১–০ ২–০
 পেরু ১৮ ২৭ ২৬ +১ ২৬ আন্ত-কনফেডারেশন প্লে-অফের জন্য অগ্রসর ০–২ ২–১ ২–২ ১–১ ৩–৪ ১–০ ২–১ ২–১ ২–২
 চিলি ১৮ ২৬ ২৭ −১ ২৬ ২–০ ৩–১ ১–২ ১–১ ২–১ ০–৩ ২–১ ৩–০[ক] ৩–১
 প্যারাগুয়ে ১৮ ১৯ ২৫ −৬ ২৪ ২–২ ১–২ ০–০ ০–১ ১–৪ ২–১ ২–১ ২–১ ০–১
 ইকুয়েডর ১৮ ১০ ২৬ ২৯ −৩ ২০ ০–৩ ২–১ ১–৩ ০–২ ১–২ ৩–০ ২–২ ২–০ ৩–০
 বলিভিয়া ১৮ ১২ ১৬ ৩৮ −২২ ১৪ ০–০ ০–২ ২–০ ২–৩ ০–৩[খ] ১–০ ১–০ ২–২ ৪–২
১০  ভেনেজুয়েলা ১৮ ১০ ১৯ ৩৫ −১৬ ১২ ০–২ ০–০ ২–২ ০–০ ২–২ ১–৪ ০–১ ১–৩ ৫–০
উৎস: ফিফা
শ্রেণীবিভাগের নিয়মাবলী: বাছাইপর্ব টাইব্রেকার
টীকা:
  1. বলিভিয়া তাদের দলে একজন অযোগ্য খেলোয়াড়, নেলসন ক্যাবরেরাকে খেলানোর ফলস্বরূপ ফিফা চিলিকে ৩–০ গোলে জয় পুরস্কৃত করে। মূলত বলিভিয়া চিলির সাথে ০–০ গোলে ড্র করেছিল। নেলসন ক্যাবরেরা পূর্বে প্যারাগুয়ের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছেন এবং যোগ্যতা নিয়ম পূরণ করেননি।[১০]
  2. বলিভিয়া তাদের দলে একজন অযোগ্য খেলোয়াড়, নেলসন ক্যাবরেরাকে খেলানোর ফলস্বরূপ ফিফা পেরুকে ০–৩ গোলে জয় পুরস্কৃত করে। মূলত বলিভিয়া পেরুকে ২–০ গোলে হারিয়েছিল। নেলসন ক্যাবরেরা পূর্বে প্যারাগুয়ের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছেন এবং যোগ্যতা নিয়ম পূরণ করেননি।[১০]

ম্যাচ[সম্পাদনা]

ম্যাচদিন ১[সম্পাদনা]





ম্যাচদিন ২[সম্পাদনা]





ম্যাচদিন ৩[সম্পাদনা]



চিলি 1–1 কলম্বিয়া
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 45,316
রেফারি: Enrique Cáceres (Paraguay)


ম্যাচদিন ৪[সম্পাদনা]


ভেনেজুয়েলা 1–3 ইকুয়েডর
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 41,659
রেফারি: Gery Vargas (Bolivia)



ম্যাচদিন ৫[সম্পাদনা]

বলিভিয়া 2–3 কলম্বিয়া
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 16,765
রেফারি: Wilton Sampaio (Brazil)




ম্যাচদিন ৬[সম্পাদনা]

কলম্বিয়া 3–1 ইকুয়েডর
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 38,400
রেফারি: Enrique Osses (Chile)


ভেনেজুয়েলা 1–4 চিলি
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 24,101
রেফারি: Diego Haro (Peru)


ম্যাচদিন ৭[সম্পাদনা]

বলিভিয়া 0–3
Awarded[note ২]
 পেরু
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 25,765
রেফারি: José Argote (Venezuela)



আর্জেন্টিনা 1–0 উরুগুয়ে
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 34,597
রেফারি: Julio Bascuñán (Chile)

ম্যাচদিন ৮[সম্পাদনা]


চিলি 3–0
Awarded[note ৩]
 বলিভিয়া
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 30,000
রেফারি: Ricardo Marques (Brazil)

ভেনেজুয়েলা 2–2 আর্জেন্টিনা
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 42,000
রেফারি: Roddy Zambrano (Ecuador)

ব্রাজিল 2–1 কলম্বিয়া
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 36,609
রেফারি: Patricio Loustau (Argentina)

ম্যাচদিন ৯[সম্পাদনা]




ব্রাজিল 5–0 বলিভিয়া
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 30,013
রেফারি: Wilson Lamouroux (Colombia)

ম্যাচদিন ১০[সম্পাদনা]

বলিভিয়া 2–2 ইকুয়েডর
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 18,033
রেফারি: Mario Díaz de Vivar (Paraguay)

কলম্বিয়া 2–2 উরুগুয়ে
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 47,000
রেফারি: Néstor Pitana (Argentina)


চিলি 2–1 পেরু
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 30,662
রেফারি: Roddy Zambrano (Ecuador)

ম্যাচদিন ১১[সম্পাদনা]

কলম্বিয়া 0–0 চিলি
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 45,916
রেফারি: Wilton Sampaio (Brazil)



ব্রাজিল 3–0 আর্জেন্টিনা
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 53,490
রেফারি: Julio Bascuñán (Chile)

ভেনেজুয়েলা 5–0 বলিভিয়া
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 49,750
রেফারি: Andrés Cunha (Uruguay)

ম্যাচদিন ১২[সম্পাদনা]

বলিভিয়া 1–0 প্যারাগুয়ে
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 13,285
রেফারি: Christian Ferreyra (Uruguay)


আর্জেন্টিনা 3–0 কলম্বিয়া
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 24,000
রেফারি: Roddy Zambrano (Ecuador)

চিলি 3–1 উরুগুয়ে
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 42,011
রেফারি: Enrique Cáceres (Paraguay)

ম্যাচদিন ১৩[সম্পাদনা]





ভেনেজুয়েলা 2–2 পেরু
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 35,920
রেফারি: Enrique Cáceres (Paraguay)

ম্যাচদিন ১৪[সম্পাদনা]

বলিভিয়া 2–0 আর্জেন্টিনা
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 26,943
রেফারি: Wilmar Roldán (Colombia)


চিলি 3–1 ভেনেজুয়েলা
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 33,136
রেফারি: Andrés Cunha (Uruguay)

ব্রাজিল 3–0 প্যারাগুয়ে
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 45,000
রেফারি: Víctor Carrillo (Peru)

ম্যাচদিন ১৫[সম্পাদনা]




ব্রাজিল 2–0 ইকুয়েডর
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 38,000
রেফারি: Mario Díaz de Vivar (Paraguay)

পেরু 2–1 বলিভিয়া
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 60,000
রেফারি: Andrés Cunha (Uruguay)

ম্যাচদিন ১৬[সম্পাদনা]

বলিভিয়া 1–0 চিলি
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 31,555
রেফারি: Wilmar Roldán (Colombia)

কলম্বিয়া 1–1 ব্রাজিল
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 47,500
রেফারি: Jesús Valenzuela (Venezuela)



ম্যাচদিন ১৭[সম্পাদনা]

বলিভিয়া 0–0 ব্রাজিল
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 34,725
রেফারি: Fernando Rapallini (Argentina)


আর্জেন্টিনা 0–0 পেরু
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 47,960
রেফারি: Wilton Sampaio (Brazil)

চিলি 2–1 ইকুয়েডর
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 35,000
রেফারি: Sandro Ricci (Brazil)

ম্যাচদিন ১৮[সম্পাদনা]

ব্রাজিল 3–0 চিলি
প্রতিবেদন (ফিফা)
প্রতিবেদন (কনমেবল)
দর্শক সংখ্যা: 41,008
রেফারি: Roddy Zambrano (Ecuador)




আন্ত-কনফেডারেশন প্লে-অফ[সম্পাদনা]

The draw for the inter-confederation play-offs was held as part of the 2018 FIFA World Cup Preliminary Draw on 25 July 2015, starting 18:00 MSK (UTC+3), at the Konstantinovsky Palace in Strelna, Saint Petersburg.[৩] The fifth-placed team from CONMEBOL was drawn against the first-placed team from OFC, with the CONMEBOL team hosting the second leg.[১৬] 2018 FIFA World Cup qualification (inter-confederation play-offs)

উত্তীর্ণ দল[সম্পাদনা]

নিম্নে উল্লেখিত দলগুলো কনমেবল থেকে চূড়ান্ত পর্বে খেলার জন্য উত্তীর্ণ হয়েছে:

দল অংশগ্রহণ নিশ্চিত
করার মাধ্যম
অংশগ্রহণ নিশ্চিত
করার তারিখ
এই প্রতিযোগিতায় পূর্ববর্তী অংশগ্রহণ
 ব্রাজিল বিজয়ী 0২০১৭-০৩-২৮২৮ মার্চ ২০১৭ ২০ (১৯৩০, ১৯৩৪, ১৯৩৮, ১৯৫০, ১৯৫৪, ১৯৫৮, ১৯৬২, ১৯৬৬, ১৯৭০, ১৯৭৪, ১৯৭৮, ১৯৮২, ১৯৮৬, ১৯৯০, 1994, 1998, 2002, 2006, 2010, 2014)
 উরুগুয়ে Runners-up 0২০১৭-১০-১০১০ অক্টোবর ২০১৭ 12 (1930, 1950, 1954, 1962, 1966, 1970, 1974, 1986, 1990, 2002, 2010, 2014)
 আর্জেন্টিনা Third place 0২০১৭-১০-১০১০ অক্টোবর ২০১৭ 16 (1930, 1934, 1958, 1962, 1966, 1974, 1978, 1982, 1986, 1990, 1994, 1998, 2002, 2006, 2010, 2014)
 কলম্বিয়া Fourth place 0২০১৭-১০-১০১০ অক্টোবর ২০১৭ 5 (1962, 1990, 1994, 1998, 2014)
1 Bold indicates champions for that year. Italic indicates hosts for that year.

গোলদাতা[সম্পাদনা]

There were 242 goals scored in 90 matches, for an average of 2.69 goals per match.

10 goals
7 goals
6 goals
5 goals
4 goals
3 goals
2 goals
1 goal
1 own goal

নোট[সম্পাদনা]

  1. The match between Argentina and Brazil was originally scheduled to be played on 12 November 2015, 21:00 UTC−3, but was postponed to the following day due to bad weather.[১১]
  2. FIFA awarded Peru a 3–0 win as a result of Bolivia fielding the ineligible player Nelson Cabrera, after Bolivia had defeated Peru 2–0. Nelson Cabrera had previously represented Paraguay and did not meet eligibility rules.[১০]
  3. FIFA awarded Chile a 3–0 win as a result of Bolivia fielding the ineligible player Nelson Cabrera, after the match had finished 0–0. Nelson Cabrera had previously represented Paraguay and did not meet eligibility rules.[১০]
  4. Chile were sanctioned by FIFA to play one home match (against Bolivia on 6 September 2016) away from Estadio Nacional Julio Martínez Prádanos, Santiago due to homophobic chants by the team’s fans, with a possible ban on a second match subject to a probation period of two years.[১২] Since Chile committed another infringement during this period, a second match ban on playing at Estadio Nacional Julio Martínez Prádanos will be served (against Venezuela on 28 March 2017).[১৩] Chile was sanctioned with a ban on playing at Estadio Nacional Julio Martínez Prádanos for two further matches (against Paraguay on 31 August 2017 and against Ecuador on 5 October 2017) after similar incidents.[১৪]
  5. The match between Peru and Bolivia was originally scheduled to be played at the Estadio Nacional, but was moved to the Estadio Monumental "U" due to poor conditions of the pitch at the Estadio Nacional.[১৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Current allocation of FIFA World Cup™ confederation slots maintained"। FIFA.com। ৩০ মে ২০১৫। 
  2. "A unanimous decision: A draw will determine the classifications for the World Cup and CONMEBOL Tournaments"। CONMEBOL.com। ২৩ জানুয়ারি ২০১৫। 
  3. "Preliminary Draw procedures"। FIFA.com। ৯ জুলাই ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুলাই ২০১৫ 
  4. "Draw Procedures – South American Zone" (PDF)। FIFA.com। 
  5. "Road to Russia with new milestone"। FIFA.com। ১৫ জানুয়ারি ২০১৫। 
  6. "Fifa World Cup 2018 qualifying group draw: As it happened"। International Business Times। ২৫ জুলাই ২০১৫। 
  7. "FIFA/Coca-Cola World Ranking – October 2015 (CONMEBOL)"FIFA.com। Fédération Internationale de Football Association। ১ অক্টোবর ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১ অক্টোবর ২০১৫ 
  8. "South American teams know the roadmap to reach Russia-2018"। CONMEBOL.com। ২৫ জুলাই ২০১৫। 
  9. "FIFA Calendar"। FIFA.com। 
  10. "Bolivia sanctioned for fielding ineligible player"FIFA.com। ১ নভেম্বর ২০১৬। 
  11. "Argentina v Brazil postponed due to wet weather"। goal.com। ১২ নভেম্বর ২০১৫। 
  12. "FIFA sanctions several football associations after discriminatory chants by fans"। FIFA.com। ২৭ মে ২০১৬। 
  13. "Several football associations sanctioned after discriminatory and unsporting conduct of fans"। FIFA.com। ৪ অক্টোবর ২০১৬। 
  14. "Several member associations sanctioned for incidents during FIFA World Cup qualifiers and friendlies"FIFA.com। ১৯ ডিসেম্বর ২০১৬। 
  15. "Perú vs Bolivia se jugará en el Estadio Monumental" (Spanish ভাষায়)। Peruvian Football Federation। ৪ আগস্ট ২০১৭। 
  16. "The Preliminary Draw results in full"। FIFA.com। ২৫ জুলাই ২০১৫। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]