২০১৩ আফ্রিকা কাপ অব নেশন্স

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
২০১৩ আফ্রিকা কাপ অব নেশন্স
  • Afrika-beker van Nasies 2013
  • AFCON 2013
  • CAN 2013
প্রতিযোগিতার লোগো
টুর্নামেন্টের বিবরণ
স্বাগতিক দেশদক্ষিণ আফ্রিকা
তারিখসমূহ১৯ জানুয়ারি-১০ ফেব্রুয়ারি
দলসমূহ১৬ (১টি কনফেডারেশন থেকে)
ভেন্যু(সমূহ)৫ (৫টি আয়োজক শহরে)
শীর্ষস্থানীয় অবস্থান
চ্যাম্পিয়ন নাইজেরিয়া (৩য় শিরোপা)
রানার-আপ বুর্কিনা ফাসো
তৃতীয় স্থান মালি
চতুর্থ স্থান ঘানা
প্রতিযোগিতার পরিসংখ্যান
ম্যাচ খেলেছে৩২
গোল সংখ্যা৬৯ (ম্যাচ প্রতি ২.১৬টি)
উপস্থিতি৭,২৯,০০০ (ম্যাচ প্রতি ২২,৭৮১ জন)
শীর্ষ গোলদাতানাইজেরিয়া ইমানুয়েল ইমেনিকি
ঘানা ওয়াকাসো মুবারক
(প্রত্যেকেই ৪ গোল)
সেরা খেলোয়াড়বুর্কিনা ফাসো জোনাথন পিত্রোইপা

২০১৩ আফ্রিকা কাপ অব নেশন্স বা অরেঞ্জ আফ্রিকা কাপ অব নেশন্স (ইংরেজি: 2013 Africa Cup of Nations, Orange Africa Cup of Nations) টেলিযোগাযোগ প্রতিষ্ঠান অরেঞ্জের সাথে ব্যবসায়িক চুক্তি সম্পাদনজনিত কারণে ২০১৩ সালের আফ্রিকা কাপ অব নেশন্স ফুটবল প্রতিযোগিতার নামকরণ করা হয়েছে। এটি আফ্রিকা কাপ অব নেশন্সের ২৯তম আসর যা ১৯ জানুয়ারি থেকে ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩ তারিখ পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আফ্রিকা মহাদেশে আয়োজিত ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপ পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছে আফ্রিকান ফুটবল কনফেডারেশন (ক্যাফ)।[১] নাইজেরিয়া, অ্যাঙ্গোলা, গ্যাবন, বিষুবীয় গিনিকে দরপত্রে হারিয়ে লিবিয়া প্রতিযোগিতাটির স্বাগতিক দেশের মর্যাদা লাভ করে। কিন্তু লিবিয়ার গৃহযুদ্ধ শুরু হওয়ার প্রেক্ষিতে দক্ষিণ আফ্রিকার সাথে তারা সাল অদল-বদল করে। ফলে, ২০১৩ সালের প্রতিযোগিতা দক্ষিণ আফ্রিকায় হচ্ছে এবং ২০১৭ সালে লিবিয়ায় অনুষ্ঠিত হবে। সেপ্টেম্বর, ২০১১ সালে কায়রোতে অনুষ্ঠিত ক্যাফের নির্বাহী পরিষদের সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।[২]

এ বছরের প্রতিযোগিতার বিজয়ী দল নাইজেরিয়া আফ্রিকান ফুটবল কনফেডারেশন (ক্যাফ)-এর প্রতিনিধি হিসেবে ২০১৩ সালে ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত ফিফা কনফেডারেশন্স কাপে অংশ নিবে।[৩]

স্বাগতিক দেশ[সম্পাদনা]

আফ্রিকার পাঁচটি দেশ স্বাগতিক দেশের মর্যাদা লাভের জন্যে দরদাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়। তন্মধ্যে দুইটি দেশ যৌথভাবে অংশগ্রহণ করেছিল। দেশগুলো হচ্ছে:-

এছাড়াও নিম্নোক্ত দেশসমূহ নিলাম ডাকে অংশগ্রহণ করেনি:-[৪]

যোগ্যতা নির্ধারণ[সম্পাদনা]

সর্বমোট ৪৭টি দেশের জাতীয় ফুটবল দল যোগ্যতা নির্ধারণী খেলায় অংশ নেয়। প্রতিযোগিতার স্বাগতিক দেশরূপে দক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় ফুটবল দল স্বয়ংক্রিয়ভাবে উত্তীর্ণ হয়। লিবিয়ায় গৃহযুদ্ধের কারণে স্বাগতিক দেশ হতে পারেনি। অনেকগুলো দল প্রতিযোগিতার মূল পর্বে পুণরায় ফিরে আসে। চার বছর যাবৎ অনুপস্থিতির পর দক্ষিণ আফ্রিকা খেলে। ইথিওপিয়া ১৯৮২ সালের পর যোগ্যতা লাভ করে। নাইজেরিয়া, গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গো, টোগো, আলজেরিয়া ২০১২ সালে না খেললেও এবার খেলে। ক্যাপভার্দে দলও অংশ নেয়। গতবারের যৌথ স্বাগতিক দেশ - গ্যাবন এবং বিষুবীয় গিনি, লিবিয়া, সেনেগাল, সুদান, গিনি, বতসোয়ানা প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে ব্যর্থ হয়। দক্ষিণ সুদান ক্যাফের সদস্য না হওয়ায় অংশগ্রহণের সুযোগ পায়নি।

মাঠ[সম্পাদনা]

সকল স্থানাঙ্কের মানচিত্র: ওপেনস্ট্রীটম্যাপ 
এই হিসেবে স্থানাঙ্ক ডাউনলোড করুন: KML · GPX
জোহানেসবার্গ ডারবান পোর্ট এলিজাবেথ
এফএনবি স্টেডিয়াম মোজেস মাভিদা স্টেডিয়াম নেলসন ম্যান্ডেলা বে স্টেডিয়াম
২৬°১৪′৫.২৭″ দক্ষিণ ২৭°৫৮′৫৬.৪৭″ পূর্ব / ২৬.২৩৪৭৯৭২° দক্ষিণ ২৭.৯৮২৩৫২৮° পূর্ব / -26.2347972; 27.9823528 (Soccer City) ২৯°৪৯′৪৬″ দক্ষিণ ৩১°০১′৪৯″ পূর্ব / ২৯.৮২৯৪৪° দক্ষিণ ৩১.০৩০২৮° পূর্ব / -29.82944; 31.03028 (Moses Mabhida Stadium) ৩৩°৫৬′১৬″ দক্ষিণ ২৫°৩৫′৫৬″ পূর্ব / ৩৩.৯৩৭৭৮° দক্ষিণ ২৫.৫৯৮৮৯° পূর্ব / -33.93778; 25.59889 (Nelson Mandela Bay Stadium)
ধারণক্ষমতা: ৯৪,৭০০ ধারণক্ষমতা: ৫৪,০০০ ধারণক্ষমতা: ৪৮,০০০
নেল্সপ্রুট রাস্টেনবার্গ
২৫°২৭′৪২″ দক্ষিণ ৩০°৫৫′৪৭″ পূর্ব / ২৫.৪৬১৭২° দক্ষিণ ৩০.৯২৯৬৮৯° পূর্ব / -25.46172; 30.929689 (Mbombela Stadium) ২৫°৩৪′৪৩″ দক্ষিণ ২৭°০৯′৩৯″ পূর্ব / ২৫.৫৭৮৬° দক্ষিণ ২৭.১৬০৭° পূর্ব / -25.5786; 27.1607 (Royal Bafokeng Stadium)
মম্বেলা স্টেডিয়াম রয়্যাল বাফোকেং স্টেডিয়াম
ধারণক্ষমতা: ৪১,০০০ ধারণক্ষমতা: ৪২,০০০

অনুশীলন মাঠসমূহ[সম্পাদনা]

স্বাগতিক শহর মাঠসমূহ
ডারবান মোজেস মাভিদা স্টেডিয়াম
জোহানেসবার্গ ডবসনভিল স্টেডিয়াম, মিলপার্ক স্টেডিয়াম, অরল্যান্ডো স্টেডিয়াম, র‌্যান্ড স্টেডিয়াম[৫]
নেল্সপ্রুট
পোর্ট এলিজাবেথ গেলভ্যান্ডেল স্টেডিয়াম, এনএমএমইউ স্টেডিয়াম, ওয়েস্টবোর্ন ওভাল, জুইদে স্টেডিয়াম[৬]
রাস্টেনবার্গ

ম্যাচ আফিসিয়াল[সম্পাদনা]

নিম্নলিখিত রেফারীগণ ২০১৩ আফ্রিকা কাপ অফ নেশন্সের খেলা পরিচালনার জন্য নির্বাচিত হয়েছেন।[৭]

রেফারী
সহকারী রেফারী

গ্রুপ পর্ব[সম্পাদনা]

গ্রুপ এ[সম্পাদনা]

দল খে জয় ড্র হার গপ গবি গপ পয়েন্ট
 দক্ষিণ আফ্রিকা +২
 কেপ ভার্দ +১
 মরক্কো
 অ্যাঙ্গোলা −৩

অ্যাঙ্গোলা ০-০ মরক্কো
প্রতিবেদন




কেপ ভার্দ ২-১ অ্যাঙ্গোলা
এফ. ভ্যারেলা গোল ৮১'
হেলদন গোল ৯০+১'
প্রতিবেদন নান্দো গোল ৩৩' (আত্মঘাতি গোল)

গ্রুপ বি[সম্পাদনা]

দল খে জয় ড্র হার গপ গবি গপ পয়েন্ট
 ঘানা +৪
 মালি
 গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্র
 নাইজার −৪





গ্রুপ সি[সম্পাদনা]

দল খে জয় ড্র হার গপ গবি গপ পয়েন্ট
 বুর্কিনা ফাসো +৪
 নাইজেরিয়া +২
 জাম্বিয়া
 ইথিওপিয়া −৬





গ্রুপ ডি[সম্পাদনা]

দল খে জয় ড্র হার গপ গবি গপ পয়েন্ট
 কোত দিভোয়ার +৪
 টোগো +১
 তিউনিসিয়া −২
 আলজেরিয়া −৩
কোত দিভোয়ার ২-১ টোগো
ইয়াইয়া তোরে গোল ৮'
জেরবিনহো গোল ৮৮'
প্রতিবেদন জনাথন আয়িতে গোল ৪৫+২'

তিউনিসিয়া ১-০ আলজেরিয়া
ইউসেফ মাসাকনি গোল ৯০+১' প্রতিবেদন




নক-আউট পর্ব[সম্পাদনা]

কোয়ার্টার-ফাইনাল সেমি-ফাইনাল ফাইনাল
                   
২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩ – ডারবান        
  দক্ষিণ আফ্রিকা  ১ (১)
৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩ – ডারবান
  মালি (পেনাল্টি শ্যুট)  ১ (৩)  
  মালি  ১
৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩ – রাস্টেনবার্গ
    নাইজেরিয়া    
  কোত দিভোয়ার  ১
১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩ – জোহানেসবার্গ
  নাইজেরিয়া    
  নাইজেরিয়া  
৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩ – নেল্সপ্রুট
    বুর্কিনা ফাসো  ০
  বুর্কিনা ফাসো (অতিরিক্ত)  
৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩ – নেল্সপ্রুট
  টোগো  ০  
  বুর্কিনা ফাসো (পেনাল্টি)  ১ (৩) তৃতীয় স্থান
২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩ – পোর্ট এলিজাবেথ
    ঘানা  ১ (২)  
  ঘানা     মালি  
  কেপ ভার্দ  ০     ঘানা  ১
৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩ – পোর্ট এলিজাবেথ

কোয়ার্টার ফাইনাল[সম্পাদনা]




সেমি-ফাইনাল[সম্পাদনা]


স্থান নির্ধারণী[সম্পাদনা]

ফাইনাল[সম্পাদনা]

নাইজেরিয়া ১-০ বুর্কিনা ফাসো
সানডে এম্বিএ গোল ৪০' প্রতিবেদন

বিজয়ী[সম্পাদনা]

 ২০১৩ আফ্রিকা কাপ অব নেশন্স চ্যাম্পিয়ন 
নাইজেরিয়া-এর পতাকা
নাইজেরিয়া
৩য় শিরোপা

সেরা খেলোয়াড়[সম্পাদনা]

প্রতিযোগিতায় সেরা ক্রীড়ানৈপুণ্যের ভিত্তিতে নিম্নবর্ণিত পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে:[৯]

অরেঞ্জ প্রতিযোগিতার সেরা খেলোয়াড়
পেপসি প্রতিযোগিতার শীর্ষ গোলদাতা
স্যামসাং প্রতিযোগিতার পরিচ্ছন্ন খেলোয়াড়
নিশান প্রতিযোগিতার সেরা গোল
সেরা একাদশ
গোলরক্ষক ডিফেন্ডার মিডফিল্ডার ফরোয়ার্ড
নাইজেরিয়াভিনসেন্ত এনিয়েমা
বুর্কিনা ফাসো বাকারি কোনে
কেপ ভার্দনান্দো মারিয়া নেভেস
নাইজেরিয়া এফি এমব্রোস
বুর্কিনা ফাসোজোনাথন পিত্রোইপা
কোত দিভোয়ারসিয়াকা তাইনে
মালিসেদো কেইতা
নাইজেরিয়াজন অবি মাইকেল
নাইজেরিয়াভিক্টর মোজেস
ঘানাআসামোহ গায়েন
নাইজেরিয়াইমানুয়েল এমেনিকে

গোলদাতা[সম্পাদনা]

৪ গোল
৩ গোল
২ গোল
১ গোল