১৯৬৫-৬৬ সালের ইন্দোনেশীয় গণহত্যা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
১৯৬৫-৬৬ সালের ইন্দোনেশীয় গণহত্যা
নিউ অর্ডারে রূপান্তর-এর অংশ-এর অংশ
Anti PKI Literature.jpg
অভ্যুত্থানের চেষ্টার জন্য পিকেআইকে দোষারোপ করে অ্যান্টি-পিকেআই বই
স্থানইন্দোনেশিয়া
তারিখ১৯৬৫-১৯৬৬
লক্ষ্যইন্দোনেশিয়ার কমিউনিস্ট পার্টি(পিকেআই) সদস্য, সমর্থক, গেরওয়ানি সদস্য, জাতিগত জাভাদেশীয় অবাঙ্গন,[১] নাস্তিক, "কাফির" এবং "জাতিগত চীনা"[২]
হামলার ধরনজনগণের রাজনৈতিক নির্মূলকরণ, গণহত্যা, পরিকল্পিত গণহত্যা[২]
নিহত১,০০০,০০০[৩]: থেকে ৩,০০০,০০০[৩]:[৪][৫][৬]
হামলাকারী দলইন্দোনেশীয় সেনা এবং বিভিন্ন ডেথ স্কোয়াড, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, সুইডেন এবং অন্যান্য পশ্চিমা সরকারগুলির দ্বারা সমর্থিত[৭][৮][৯][১০]

১৯৬৫-৬৬ সালের ইন্দোনেশীয় গণহত্যা (ইন্দোনেশীয় পরিকল্পিত গণহত্যা,[২][৩]:[১১] ইন্দোনেশীয় কমিউনিস্ট গণহত্যা,[১২][১৩] বা ১৯৬৫ ট্র্যাজেডি) (ইন্দোনেশীয়: Pembunuhan Massal Indonesia & Pembersihan G.30.S/PKI) ১৯৬৫-১৯৬৬ সালের বেশ কিছু মাস ধরে ইন্দনেশিয়ায় ঘটেছিল, যার মাধ্যমে ইন্দনেশিয়ার ডানপন্থী সরকার ও সৈন্য বাহিনী, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, সুইডেন এবং অন্যান্য পশ্চিমা সরকারগুলির দ্বারা সমর্থনে, গণ-হত্যাকাণ্ড চলেছিল। এই হত্যাকান্ডে খুন হয় অন্তত ১,০০০,০০০ (দশ লক্ষ) ইন্দোনেশিয়ার কমিউনিস্ট পার্টি(পিকেআই) সদস্য, ইন্দোনেশিয়ার কমিউনিস্ট পার্টির সমর্থক, বামপন্থী, গেরওয়ানি মহিলা, জাতিগত জাভাদেশীয় অবাঙ্গন[১], নাস্তিক, "কাফির" এবং "জাতিগত চীনা" মানুষ। ৩০ সেপ্টেম্বর আন্দোলনের উপর অভ্যুত্থানের মিথ্যা অভযোগ দাগিয়ে দিয়ে একটি কমিউনিস্ট বিরোধী হত্যাকাণ্ড হিসাবে শুরু হয়েছিল। প্রাথমিকভাবে অনুমান করা হয়েছিল যে ৫০০,০০০ (পাঁচ লক্ষ) থেকে ১,০০০,০০০ (দশ লক্ষ)-এরও বেশি লোক মারা গিয়েছে,[৩]:[৪][৫][৬] সাম্প্রতিক অনুমান বলে ২,০০০,০০০ (বিশ লক্ষ) থেকে ৩,০০০,০০০ (ত্রিশ লক্ষ) মানুষকে হত্যা করা হয়েছিল।[১৪][১৫] এই হত্যাকাণ্ড নিউ অর্ডারে রূপান্তর এবং পিকেআইকে রাজনৈতিক শক্তি হিসাবে নির্মূল করার একটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা ছিল, বিশ্বব্যাপী স্নায়ুযুদ্ধে এর প্রভাব ছিল।[১৬] এই উত্থানের ফলে রাষ্ট্রপতি সুকর্ণের পতন ঘটে এবং সুহার্তোর তিন দশকের অত্যাচারী রাষ্ট্রপতিত্বের সূচনা হয়।

বেশিরভাগ ইন্দোনেশীয় ইতিহাসের পাঠ্যপুস্তকগুলিতে হত্যার বিষয়টি বাদ দেওয়া হয়েছে এবং সুহার্তো শাসনের অধীনে তাদের দমন করার কারণে ইন্দোনেশীয়রা এই বিশয়ে আলোচনার খুব কম সুযোগ পেয়েছে। কমিউনিস্টরা আবার শক্তিশালি হতে পারে এই সতর্কতা ও ভীতি সুহার্তোর মতবাদের একটি প্রধান চিহ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছিল এবং এটি আজও কার্যকর রয়েছে।[১৭]

যদিও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রিটিশ সরকারের সর্বোচ্চ স্তরে ঐক্যমত্য ছিল যে "সুকর্ণকে বরখাস্ত করা" জরুরি (১৯৬২ সালের সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স এজেন্সি (সি আই এ)-র স্মারকলিপি থেকে পাওয়া),[১৮] এবং কমিউনিস্ট বিরোধী সেনা অফিসার এবং ইউনাইটেড স্টেটস আর্মি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বিস্তৃত যোগাযোগের অস্তিত্ব আছে – ১,২০০ অফিসারদের প্রশিক্ষণ দেওয়া "উচ্চস্তরের সামরিক ব্যক্তি সহ", এবং অস্ত্র ও অর্থনৈতিক সহায়তা প্রদান[১৯][২০] – সিআইএ হত্যাকাণ্ডে সক্রিয় জড়িত থাকার বিষয়টি অস্বীকার করেছিল। ২০১৭ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে নথিভুক্ত দলিলগুলি প্রকাশ করেছে যে মার্কিন সরকার শুরু থেকেই গণহত্যার সম্পর্কে বিশদ জ্ঞান রাখে এবং ইন্দোনেশীয় সেনাবাহিনীর পদক্ষেপের সমর্থক ছিল।[৮][২১][২২] হত্যাকাণ্ডে মার্কিন সহকারিতা, যার মধ্যে ইন্দোনেশীয় ডেথ স্কোয়াডগুলিতে পিকেআই কর্মকর্তাদের বিস্তৃত তালিকা সরবরাহ করা অন্তর্ভুক্ত ছিল,[৩০] এর আগে ইতিহাসবিদ ও সাংবাদিকরা প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।[১৬][২১] ১৯৬৮ সালের সিআইএ-র একটি গোপন প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে এই গণহত্যা "বিংশ শতাব্দীর সবচেয়ে ভয়াবহ গণহত্যা হিসাবে প্রথম সারিতে পড়ে, এই সারিতে রয়েছে ১৯৩০-এর দশকের সোভিয়েত পার্জ, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় নাৎসি গণহত্যা এবং ১৯৫০-এর দশকের গোড়ার দিকে মাওবাদীদের ঘটনা।"[৩১][৩২] দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস[৩৩], টাইম"[৩৪], ব্রিটিশ ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশন (বিবিসি)[৩৫], ইউ. এস. নিউস & ওয়ার্ল্ড রিপোর্ট[৩৬] এই গণহত্যাকে সমর্থন করে প্রছার চালিয়েছিল, পশ্চিমা সরকার দ্বারা নির্ধারিত পররাষ্ট্রনীতি অনুসরণ করে।[৩৫]

বিদেশী সমর্থন[সম্পাদনা]

টীকা[সম্পাদনা]

  1. Ricklefs (1991), p. 288.
  2. Melvin, Jess (২০১৭)। "Mechanics of Mass Murder: A Case for Understanding the Indonesian Killings as Genocide"। Journal of Genocide Research19 (4): 487–511। ডিওআই:10.1080/14623528.2017.1393942অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  3. Robinson, Geoffrey B. (২০১৮)। The Killing Season: A History of the Indonesian Massacres, 1965–66Princeton University Pressআইএসবিএন 978-1-4008-8886-3 
  4. Melvin, Jess (২০১৮)। The Army and the Indonesian Genocide: Mechanics of Mass MurderRoutledge। পৃষ্ঠা 1। আইএসবিএন 978-1-138-57469-4 
  5. Mark Aarons (2007). "Justice Betrayed: Post-1945 Responses to Genocide." In David A. Blumenthal and Timothy L. H. McCormack (eds). The Legacy of Nuremberg: Civilising Influence or Institutionalised Vengeance? (International Humanitarian Law). Martinus Nijhoff Publishers. আইএসবিএন ৯০০৪১৫৬৯১৭ p. 80.
  6. The Memory of Savage Anticommunist Killings Still Haunts Indonesia, 50 Years On, Time
  7. Robinson, Geoffrey B. (২০১৮)। The Killing Season: A History of the Indonesian Massacres, 1965–66Princeton University Press। পৃষ্ঠা 206–207। আইএসবিএন 978-1-4008-8886-3In short, Western states were not innocent bystanders to unfolding domestic political events following the alleged coup, as so often claimed. On the contrary, starting almost immediately after October 1, the United States, the United Kingdom, and several of their allies set in motion a coordinated campaign to assist the army in the political and physical destruction of the PKI and its affiliates, the removal of Sukarno and his closest associates from political power, their replacement by an army elite led by Suharto, and the engineering of a seismic shift in Indonesia's foreign policy towards the West. They did this through backdoor political reassurances to army leaders, a policy of official silence in the face of the mounting violence, a sophisticated international propaganda offensive, and the covert provision of material assistance to the army and its allies. In all these ways, they helped to ensure that the campaign against the Left would continue unabated and its victims would ultimately number in the hundreds of thousands. 
  8. Melvin, Jess (২০ অক্টোবর ২০১৭)। "Telegrams confirm scale of US complicity in 1965 genocide"Indonesia at MelbourneUniversity of Melbourne। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০১৭The new telegrams confirm the US actively encouraged and facilitated genocide in Indonesia to pursue its own political interests in the region, while propagating an explanation of the killings it knew to be untrue. 
  9. Simpson, Bradley (২০১০)। Economists with Guns: Authoritarian Development and U.S.–Indonesian Relations, 1960–1968Stanford University Press। পৃষ্ঠা 193। আইএসবিএন 978-0-8047-7182-5Washington did everything in its power to encourage and facilitate the army-led massacre of alleged PKI members, and U.S. officials worried only that the killing of the party's unarmed supporters might not go far enough, permitting Sukarno to return to power and frustrate the [Johnson] Administration's emerging plans for a post-Sukarno Indonesia. This was efficacious terror, an essential building block of the neoliberal policies that the West would attempt to impose on Indonesia after Sukarno's ouster. 
  10. Perry, Juliet (২১ জুলাই ২০১৬)। "Tribunal finds Indonesia guilty of 1965 genocide; US, UK complicit"। CNN। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুন ২০১৭ 
  11. Robert Cribb (2004). "The Indonesian Genocide of 1965–1966." In Samuel Totten (ed). Teaching about Genocide: Approaches, and Resources. Information Age Publishing, pp. 133–143. আইএসবিএন ১৫৯৩১১০৭৪X
  12. Roosa, John। "The 1965–66 Politicide in Indonesia: Toward Knowing Who Did What to Whom and Why"Stanford 
  13. "The Indonesian Politicide of 1965–66: How Could it Have Happened?"। Maastricht University। 
  14. Indonesia's killing fields ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ তারিখে. Al Jazeera, 21 December 2012. Retrieved 24 January 2016.
  15. Gellately, Robert; Kiernan, Ben (জুলাই ২০০৩)। The Specter of Genocide: Mass Murder in Historical PerspectiveCambridge University Press। পৃষ্ঠা 290–291আইএসবিএন 0-521-52750-3। সংগ্রহের তারিখ ১৯ অক্টোবর ২০১৫ 
  16. Bevins, Vincent (২০ অক্টোবর ২০১৭)। "What the United States Did in Indonesia"The Atlantic। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০১৭ 
  17. Varagur, Krithika (২৩ অক্টোবর ২০১৭)। "Indonesia Revives Its Communist Ghosts"U.S. News & World Report। সংগ্রহের তারিখ ২৩ অক্টোবর ২০১৭ 
  18. Allan ও Zeilzer 2004, পৃ. ??.
    Westad (2005, pp. 113, 129) notes that, prior to the mid-1950s—by which time the relationship was in definite trouble—the US actually had, via the CIA, developed excellent contacts with Sukarno.
  19. "[Hearings, reports and prints of the House Committee on Foreign Affairs] 91st: PRINTS: A-R."। hdl:2027/uc1.b3605665?urlappend=%3Bseq=440 
  20. Macaulay, Scott (17 February 2014). The Act of Killing Wins Documentary BAFTA; Director Oppenheimer’s Speech Edited Online. Filmmaker. Retrieved 12 May 2015.
  21. "Files reveal US had detailed knowledge of Indonesia's anti-communist purge"The Associated Press via The Guardian। ১৭ অক্টোবর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১৮ অক্টোবর ২০১৭ 
  22. Dwyer, Colin (১৮ অক্টোবর ২০১৭)। "Declassified Files Lay Bare U.S. Knowledge Of Mass Murders In Indonesia"NPR। সংগ্রহের তারিখ ২১ অক্টোবর ২০১৭ 
  23. Kadane, Kathy (২১ মে ১৯৯০)। "U.S. Officials' Lists Aided Indonesian Bloodbath in '60s"The Washington Post। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুলাই ২০১৭ 
  24. U.S. Seeks to Keep Lid on Far East Purge Role. Associated Press via Los Angeles Times, 28 July 2001. Retrieved 4 September 2015.
  25. Vickers (2005), p. 157; Friend (2003), p. 117.
  26. Bellamy, J. (2012). Massacres and Morality: Mass Atrocities in an Age of Civilian Immunity. Oxford University Press. আইএসবিএন ০১৯৯২৮৮৪২৯. p. 210.
  27. McDonald (1980), p. 53; Friend (2003), p. 115.
  28. 185. Editorial Note. Office of the Historian. Retrieved 24 December 2015.
  29. Thomas Blanton (ed). CIA stalling State Department histories: State historians conclude U.S. passed names of communists to Indonesian Army, which killed at least 105,000 in 1965-66. National Security Archive Electronic Briefing Book No. 52., 27 July 2001. Retrieved 6 September 2015.
  30. [২৩][২৪][২৫][২৬] Although some PKI branches organised resistance and reprisal killings, most went passively to their deaths.[২৬][২৭][২৮][২৯]
  31. Mark Aarons (2007). "Justice Betrayed: Post-1945 Responses to Genocide." In David A. Blumenthal and Timothy L. H. McCormack (eds). The Legacy of Nuremberg: Civilising Influence or Institutionalised Vengeance? (International Humanitarian Law). Martinus Nijhoff Publishers. আইএসবিএন ৯০০৪১৫৬৯১৭ p. 81.
  32. David F. Schmitz (২০০৬)। The United States and Right-Wing Dictatorships, 1965–1989Cambridge University Press। পৃষ্ঠা 48–9। আইএসবিএন 978-0-521-67853-7 
  33. John Roosa (২০০৬)। Pretext for Mass Murder: The September 30th Movement and Suharto's Coup D'État in Indonesia। The University of Wisconsin Press। পৃষ্ঠা 27 
  34. Samuel Totten, William Parsons, Israel Charny (1997). Century of Genocide: Eyewitness Accounts and Critical Views. pg. 245. Routledge; 1 edition. আইএসবিএন ০৮১৫৩২৩৫৩০
  35. Gerard DeGroot (২০০৮)। The Sixties Unplugged: A Kaleidoscopic History of a Disorderly Decade। Macmillan। পৃষ্ঠা 390। আইএসবিএন 9780330539333 
  36. US News and World Report, 6 June 1966

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]