১৯৫০ ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
১৯৫০ ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
বিবরণ
দল৩৪ (৩টি কনফেডারেশন থেকে)
পরিসংখ্যান
ম্যাচ২৬
গোল সংখ্যা১২১ (ম্যাচ প্রতি ৪.৬৫টি)
শীর্ষ গোলদাতাইংল্যান্ড জ্যাক রাউলি
মেক্সিকো হোরাসিও ক্যাসারিন
মেক্সিকো লুইস দে লা ফুয়েন্তে
যুগোস্লাভিয়া সমাজতান্ত্রিক যুক্তরাষ্ট্রীয় প্রজাতন্ত্র জেলজকো ক্যাজকোভস্কি
(প্রত্যেকে ৪ গোল)


১৯৫০ ফিফা বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বের ১৬ টি স্থানের জন্য মোট ৩৪ টি দল যোগ্যতা অর্জনের জন্য বাছাইপর্বে অংশগ্রহণ করে। স্বাগতিক হিসাবে ব্রাজিল এবং পূর্ববর্তী চ্যাম্পিয়ন হিসাবে ইতালি সরাসরি চূড়ার্ন্তপর্বে যোগ্যতা অর্জন করে এবং বাবি ১৪ টি স্থানের জন্য বাছাইপর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

অবশিষ্ট ৩২ টি দলকে ভৌগোলিক বিবেচনার ভিত্তিতে ১০ টি গ্রুপে বিভক্ত করা হয়:

  • গ্রুপ ১ থেকে ৬ - ইউরোপ: চূড়ান্তপর্বে ৭ টি স্থানের জন্য ১৮ টি দেশ (ইস্রায়েল এবং সিরিয়া সহ) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে।
  • গ্রুপ ৭ থেকে ৯ - আমেরিকা: চূড়ান্তপর্বে ৬ টি স্থানের জন্য ১০ টি দেশ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে।
  • গ্রুপ ১০ - এশিয়া: চূড়ান্তপর্বে ১ টি স্থানের জন্য ৪ টি দেশ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে।

তবে বাছাইপর্ব শেষে ভারত, স্কটল্যান্ড এবং তুরস্কের নাম প্রত্যাহারের কারণে কেবল ১৩ টি দলই চূড়ান্তপর্বে অংশ নিয়েছিল।

মোট ১৯ টি দল কমপক্ষে একটি বাছাইপর্বের ম্যাচ খেলেছে। বাছাইপর্বে মোট ২৬ টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয় এবং তাতে সর্বমোট ১২১ টি গোল হয় (প্রতি ম্যাচে গড়ে ৪.৬৫ গোল)।

নীচে বাছাইপর্বের ম্যাচসমূহের তারিখ এবং ফলাফল তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।

গ্রুপ[সম্পাদনা]

১০ টি গ্রুপের ভিন্নভিন্ন বিধি ছিল, যা নিম্নরূপ:

  • গ্রুপ ১ এ ৪ টি দল ছিল। প্রতিটি দল একে অপরের বিরুদ্ধে একবার করে খেলবে। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন এবং রানার-আপ চূড়ান্তপর্বে যোগ্যতা অর্জন করবে।
  • গ্রুপ ২, ৩ এবং ৪ এ প্রত্যেকটিতে ৩ টি করে দল ছিল। প্রতিটি গ্রুপের শক্তিশালী দল ছিল। এখানে দুই রাউন্ডে খেলা হবে:
    • প্রথম রাউন্ড: জয়ি দল সরাসরি ফাইনাল রাউন্ডে উঠবে। বিজিত ২ টি দল একে অপরের বিরুদ্ধে হোম-এন্ড-এওয়ে ভিত্তিতে খেলবে। বিজয়ী ফাইনাল রাউন্ডে যাবে।
    • ফাইনাল রাউন্ড: জয়ি দল হোম-এন্ড-এওয়ে ভিত্তিতে প্রথম রাউন্ডের বিজয়ীর বিরুদ্ধে খেলবে। বিজয়ী দল চূড়ান্তপর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।
  • গ্রুপ ৫ এ ৩ টি দল ছিল। দলগুলি একে অপরের বিরুদ্ধে হোম-এন্ড-এওয়ে ভিত্তিতে খেলেবে। গ্রুপ বিজয়ী দল চূড়ান্তপর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।
  • গ্রুপ ৬ এ ২ টি দল ছিল। দলগুলি একে অপরের বিরুদ্ধে হোম-এন্ড-এওয়ে ভিত্তিতে খেলেবে। গ্রুপ বিজয়ী দল চূড়ান্তপর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।
  • গ্রুপ ৭ এ ৩ টি দল ছিল। গ্রুপ বিজয়ী এবং রানার আপ চূড়ান্তপর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।
  • গ্রুপ ৮ এ ৪ টি দল ছিল। গ্রুপ বিজয়ী এবং রানার আপ চূড়ান্তপর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।
  • গ্রুপ ৯ এ ৩ টি দল ছিল। দলগুলি একে অপরের বিরুদ্ধে দুইবার খেলেবে। গ্রুপ বিজয়ী এবং রানার আপ চূড়ান্তপর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।
  • গ্রুপ ১০ এ ৪ টি দল ছিল। গ্রুপ বিজয়ী দল চূড়ান্তপর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।

গ্রুপ ১[সম্পাদনা]

অবস্থান দল খে ড্র হা গোপ গোবি গোপা
 ইংল্যান্ড ১৪ +১১
 স্কটল্যান্ড ১০ +৭
৩=  ওয়েলস -৫
৩=  আয়ারল্যান্ড ১৭ -১৩





ইংল্যান্ড যোগ্যতা অর্জন করে। স্কটল্যান্ডও যোগ্যতা অর্জন করে তবে নাম প্রত্যাহার করে নেয়।

গ্রুপ ২[সম্পাদনা]

প্রথম রাউন্ড[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট
 তুরস্ক +৭
 সিরিয়া −৭

সিরিয়া নাম প্রত্যাহার করে এবং বাকি ম্যাচটি খেলেনি।

তুরস্ক ফাইনাল রাউন্ডে উন্নীত হয়।

ফাইনাল রাউন্ড[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন
 তুরস্ক যোগ্যতা অর্জন করে তবে পরে প্রত্যাহার করে নেয়
 অস্ট্রিয়া প্রত্যাহার করে নেয়

অস্ট্রিয়া নাম প্রত্যাহার করে নেয় ফলে তুরস্ক স্বয়ংক্রিয়ভাবে চূড়ান্তপর্বে যোগ্যতা অর্জন করে। তবে পরে তুরস্কও নাম প্রত্যাহার করে নেয় এবং ফিফা গ্রুপের রানার্স-আপ পর্তুগালকে জায়গা দেওয়ার প্রস্তাব দেয় কিন্তু তারাও খেলতে রাজি হয়নি। ফিফা বিশ্বকাপে দুটি দল কমই রেখে দেয়, অন্য কোন দলকে সুযোগ না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।

গ্রুপ ৩[সম্পাদনা]

প্রথম রাউন্ড[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট
 যুগোস্লাভিয়া ১১ +৯
 ইসরায়েল ১১ −৯

'যুগোস্লাভিয়া' ফাইনাল রাউন্ডে উন্নীত হয়।

ফাইনাল রাউন্ড[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট
 ফ্রান্স
 যুগোস্লাভিয়া

সামগ্রিকভাবে ফ্রান্স ২-২ যুগোস্লাভিয়া এবং কে যোগ্যতা অর্জন করবে তা স্থির করার জন্য নিরপেক্ষ মাঠে একটি প্লে অফ ম্যাচ খেলা হয়।

যুগোস্লাভিয়া যোগ্যতা অর্জন করে এবং ফিফার ফ্রান্সকেও খেলার সুযোগ দেয়। ফ্রান্স প্রথমে তা গ্রহণ করে কিন্তু পরে প্রত্যাহার করে।

গ্রুপ ৪[সম্পাদনা]

প্রথম রাউন্ড[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট
  সুইজারল্যান্ড +৪
 লুক্সেমবুর্গ −৪

সুইজারল্যান্ড ফাইনাল পর্বে উন্নীত।

ফাইনাল রাউন্ড[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন
  সুইজারল্যান্ড যোগ্যতা অর্জন
 বেলজিয়াম প্রত্যাহার

বেলজিয়াম নাম প্রত্যাহার করে নেয় ফলে সুইজারল্যান্ড স্বয়ংক্রিয়ভাবে চূড়ান্তপর্বে যোগ্যতা অর্জন করে।

গ্রুপ ৫[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট
 সুইডেন +৪
 Ireland (FAI) −১
 ফিনল্যান্ড −৩



সুইডেন যোগ্যতা অর্জন করে। গ্রুপ পর্বের খেলা শেষ হওয়ার আগেই নাম প্রত্যাহার করে নেয় ফিনল্যান্ড। পরবর্তীতে আয়ারল্যান্ড (এফএআই) কে চূড়ান্ত পর্বে অংশগ্রহণের জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয় কিন্তু তারা ভ্রমণ ব্যয়ের কারণে সে সুযোগটি প্রত্যাখ্যান করে।[১]

১৯৪৯ সালের ২ অক্টোবর মালমোতে সুইডেন ফিনল্যান্ডকে ৮-১ গোলে হারায়।[২] তবে ফিফার ওয়েবসাইটে এই ম্যাচটি ম্যাচের তালিকায় বা গ্রুপের অবস্থানের অন্তর্ভুক্ত নয়।[৩] আরএসএসএসএফের ওয়েবসাইটটি "সুইডেন-এর দ্বিতীয়-দল খেলেছে" টীকার সাথে ম্যাচটি তালিকাভুক্ত করেছে এবং গ্রুপ অবস্থানে তা দেখায়নি।[৪]

গ্রুপ ৬[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট
 স্পেন +৪
 পর্তুগাল −৪

Spain qualified. Portugal were also invited to take part but they declined.

গ্রুপ ৭[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন
 বলিভিয়া যোগ্যতা অর্জন
 চিলি
 আর্জেন্টিনা নাম প্রত্যাহার

আর্জেন্টিনা নাম প্রত্যাহার করে নেয় ফলে বলিভিয়া এবং চিলি স্বয়ংক্রিয়ভাবে যোগ্যতা অর্জন করে।

গ্রুপ ৮[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন
 উরুগুয়ে যোগ্যতা অর্জন
 প্যারাগুয়ে
 ইকুয়েডর নাম প্রত্যাহার
 পেরু

ইকুয়েডর এবং পেরু নাম প্রত্যাহার করে নেয় ফলে উরুগুয়ে এবং প্যারাগুয়ে স্বয়ংক্রিয়ভাবে যোগ্যতা অর্জন করে।

গ্রুপ ৯[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট
 মেক্সিকো ১৭ +১৫
 মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৫ −৭
 কিউবা ১১ −৮





মেক্সিকো এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যোগ্যতা অর্জন করে।

গ্রুপ ১০[সম্পাদনা]

অব দল ম্যাচ স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন
 ভারত যোগ্যতা অর্জন করে, তবে পরে নাম প্রত্যাহার করে
 বার্মা নাম প্রত্যাহার
 ইন্দোনেশিয়া
 ফিলিপাইন
উৎস: rsssf.com

বার্মা, ইন্দোনেশিয়া এবং ফিলিপাইন ড্রয়ের আগেই নাম প্রত্যাহার করে নেয়, ফলে ভারত স্বয়ংক্রিয়ভাবে যোগ্যতা অর্জন করে। তবে পরবর্তীতে ভারত "এত দীর্ঘ পথ পাড়ি দেওয়ার ব্যয়ের কারণে" [৫] এবং এআইএফএফ ১৯৫২ সালের অলিম্পিকে অধিক মনোনিবেশ করায়[৬] নাম প্রত্যাহার করে নেয়। যদিও কিছু প্রতিবেদন বলা হয় যে, ফিফার একটি নিয়মের কারণে নাম প্রত্যাহার করা হয়; যেখানে বলা হয় যে খেলোয়াড়রা খালি পায়ে খেলতে পারবে না।[৭] ফিফা বিশ্বকাপে তিনটি দল কমই রাখে এবং অন্য কোন দলকে আর আমন্ত্রণ না করার সিদ্ধান্ত নেয়।

যোগ্যতা অর্জনকারী দল[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব ১৯৫০
Participating countries after 3 of the 16 qualifying countries withdrew.
দল চূড়ান্তপর্বে উপস্থিতি ধারাবাহিকতা সর্বশেষ উপস্থিতি
 বলিভিয়া 2nd 1 ১৯৩০
 ব্রাজিল (H) 4th 4 ১৯৩৮
 চিলি 2nd 1 ১৯৩০
 ইংল্যান্ড 1st 1
 ভারত 1st 1
 ইতালি (c) 3rd 3 ১৯৩৮
 মেক্সিকো 2nd 1 ১৯৩০
 প্যারাগুয়ে 2nd 1 ১৯৩০
 স্পেন 2nd 1 ১৯৩৪
 স্কটল্যান্ড 1st 1
 সুইডেন 3rd 3 ১৯৩৮
  সুইজারল্যান্ড 3rd 3 ১৯৩৮
 তুরস্ক 1st 1
 মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র 3rd 1 ১৯৩৪
 উরুগুয়ে 2nd 1 ১৯৩০
 যুগোস্লাভিয়া 2nd 1 ১৯৩০
  •  ভারত,  স্কটল্যান্ড এবং  তুরস্ক যোগ্যতা অর্জনের পরে নাম প্রত্যাহার করে।
  • (H) – স্বাগতিক হিসাবে স্বয়ংক্রিয়ভাবে যোগ্যতা লাভ করে
  • (c) – পূর্ববর্তী চ্যাম্পিয়ন হিসাবে স্বয়ংক্রিয়ভাবে যোগ্যতা লাভ করে

১৩ টি দলের মধ্যে ৬ টি দল পরবর্তী ১৯৫৪ সালের বিশ্বকাপের চূড়ান্তপর্বে যোগ্যতা অর্জন করতে ব্যর্থ হয়: বলিভিয়া, চিলি, প্যারাগুয়ে, স্পেন, সুইডেন এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

গোলদাতা[সম্পাদনা]

৪ গোল

৩ গোল

২ গোল

১ গোল

টীকা[সম্পাদনা]

  • At the start of 1950 there were, in effect, two Ireland teams, chosen by two rival associations. Both associations, the Northern Ireland-based IFA and the Republic of Ireland-based FAI claimed jurisdiction over the whole of Ireland and selected players from the whole island. As a result, several notable Irish players from this era played for both teams. Four players – Tom Aherne, Reg Ryan, Davy Walsh and Con Martin – actually played for both the FAI XI and the IFA XI in these qualifying rounds. FIFA intervened, after complaints from the FAI,[৮] and subsequently restricted players' eligibility based on the political border. In 1953 FIFA ruled neither team could be referred to as Ireland, decreeing that the FAI team be officially designated as the Republic of Ireland, while the IFA team was to become Northern Ireland.
  • For the third qualifying tournament in a row, the South American teams qualified automatically after withdrawals. In Group 7, Bolivia and Chile did play two matches between them, but they were not classified as official World Cup qualifiers by FIFA.
  • Burma, the Philippines and Indonesia all withdrew, so India qualified automatically. However, India withdrew later because of "disagreements over team selection and insufficient practice time.". India had never been able to qualify for the World Cup before and have never been able to do since then, which means they are the only team to have qualified for the World Cup and that never played a World Cup match.
  • Germany and Japan were both banned because of their actions during World War II, Italy, despite originally being a member of the Axis powers, was allowed to participate because it changed sides in 1943.

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. বিশ্বকাপের আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান করে www.independent.ie, February 22, 2004
  2. "WORLD CUP 1950"allworldcup.narod.ru। সংগ্রহের তারিখ ৩ আগস্ট ২০১৮ 
  3. "1950 FIFA World Cup Brazil ™ - Groups"FIFA.com। ৩ আগস্ট ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ আগস্ট ২০১৮ 
  4. "World Cup 1950 Qualifying"RSSSF.com। সংগ্রহের তারিখ ৩ আগস্ট ২০১৮ 
  5. "World Cup: US v England match recalls 1950 upset"BBC। ২ জুন ২০১০। 
  6. Cronin, Brian (১৯ জুলাই ২০১১)। "Did India withdraw from the 1950 World Cup because they were not allowed to play barefoot?"Los Angeles Times 
  7. [১]
  8. Ryan, Sean (১৯৯৭)। The Boys in Green: the FAI international story। Edinburgh: Mainstream Publishing। আইএসবিএন 1-85158-939-2  pp. 50.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:১৯৫০ ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব টেমপ্লেট:ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব