১২শ শতাব্দীতে মুসলিম ইতিহাসের সময়রেখা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন


ইসলামের ইতিহাসের সময়রেখা: ৬ষ্ঠ | ৭ম | ৮ম | ৯ম | ১০ম | ১১শ | ১২শ | ১৩শ | ১৪শ | ১৫শ | ১৬শ | ১৭শ | ১৮শ | ১৯শ | ২০শ | ২১শ শতাব্দী

১২শ শতাব্দী (১১০১–১২০০ খ্রিষ্টাব্দ/৪৯৪ – ৫৯৭ হিজরি)[সম্পাদনা]

  • ১১০১: ফাতেমীয় খলিফা আল-মুসতালির মৃত্যু, আল-আমির বি-আহকামিল্লাহ ক্ষমতালাভ করেন।
  • ১১০৫: সেলজুক সুলতান বারকিয়ারুকের মৃত্যু, প্রথম মুহাম্মদের ক্ষমতালাভ।
  • ১১০৬: আল মুতাওয়িদ ইউসুফ বিন তাশফিনের মৃত্যু।
  • ১১০৭: রুম সুলতান প্রথম কিলিজ আরসালানের মৃত্যু, মালিক শাহর ক্ষমতালাভ।
  • ১১০৮: জিরি শাসক তামিনের মৃত্যু, ইয়াহিয়ার ক্ষমতালাভ।
  • ১১১১: দার্শনিক ইমাম গাজ্জালির মৃত্যু।
  • ১১১৬: রুম সুলতান মালিক শাহর মৃত্যু, মাসুদের ক্ষমতালাভ।
  • ১১১৮: সেলজুক সুলতান মুহাম্মদের মৃত্যু, দ্বিতীয় মাহমুদের ক্ষমতালাভ। আব্বাসীয় খলিফা আল-মুসতাজিরের মৃত্যু, আল-মুসতারশিদের ক্ষমতালাভ। স্পেনে খ্রিষ্টানরা জারাগোজা দখল করে।
  • ১১২১: ফাতেমীয় খলিফা আল-আমির বি-আহকামিল্লাহর মৃত্যু, আল-হাফিজের ক্ষমতালাভ।
  • ১১২৭: ইমাদউদ্দিন জেনগি মসুলে জেনগি শাসন প্রতিষ্ঠা করেন।
  • ১১২৮: খোয়ারিজমশাহ কুতবউদ্দিন মুহাম্মদের মৃত্যু, আতসিজের ক্ষমতালাভ।
  • ১১৩০: সেলজুক সুলতান দ্বিতীয় মাহমুদের মৃত্যু, দ্বিতীয় তুগরুলের ক্ষমতালাভ।
  • ১১৩৫: আব্বাসীয় খলিফা আল-মুসতারশিদ নিহত হন, আল-রশিদ ক্ষমতালাভ করেন। সেলজুক সুলতান দ্বিতীয় তুগরুলের মৃত্যু, মাসুদের ক্ষমতালাভ।
  • ১১৩৬: আব্বাসীয় খলিফা আল-রশিদ ক্ষমতাচ্যুত, আল-মুক্বতাফির ক্ষমতালাভ।
  • ১১৪৪: ইমাদউদ্দিন জেনগি খ্রিষ্টানদের নিকট থেকে এডেসা জয় করেন, দ্বিতীয় ক্রুসেড
  • ১১৪৬: ইমাদউদ্দিন জেনগির মৃত্যু, নুরউদ্দিন জেনগির ক্ষমতালাভ।
  • ১১৪৭: মাগরিবে আলমোহাদদের হাতে আলমোরাভিরা ক্ষমতাচ্যুত হয়।
  • ১১৪৮: উত্তর আফ্রিকায় জিরি শাসনের সমাপ্তি হয়। দামেস্কের অবরোধ প্রতিহত করা হয়।
  • ১১৪৯: ফাতেমীয় খলিফা আল-হাফিজের মৃত্যু, আজ-জাহিরের ক্ষমতালাভ।
  • ১১৫২: সেলজুক সুলতান মাসুদের মৃত্যু, তৃতীয় মালিক শাহর ক্ষমতালাভ। উত্তর আফ্রিকায় হামাদি শাসন সমাপ্ত হয়।
  • ১১৫৩: সেলজুক সুলতান তৃতীয় মালিক শাহর মৃত্যু, দ্বিতীয় মুহাম্মদের ক্ষমতালাভ।
  • ১১৫৪: ফাতেমীয় খলিফা আজ-আহিরের মৃত্যু, আল-ফাইজের ক্ষমতালাভ।
  • ১১৫৬: রুম সুলতান মাসুদের মৃত্যু, দ্বিতীয় কিলিজ আরসালানের ক্ষমতালাভ।
  • ১১৫৯: সেলজুক সুলতান দ্বিতীয় মুহাম্মদের মৃত্যু, সুলাইমানের ক্ষমতালাভ।
  • ১১৬০: আব্বাসীয় খলিফা আল-মুক্বতাফির মৃত্যু, আল-মুসতানজিদের ক্ষমতালাভ। ফাতেমীয় খলিফা আল-ফাইজের মৃত্যু, আল-আদিদের ক্ষমতালাভ।
  • ১১৬১: সেলজুক সুলতান সুলাইমানের মৃত্যু, আরসালান শাহর ক্ষমতালাভ।
  • ১১৬৩: আলমোহাদ শাসক আবদুল মুমিনের মৃত্যু, প্রথম ইউসুফের ক্ষমতালাভ।
  • ১১৭০: আব্বাসীয় খলিফা আল-মুসতানজিদের মৃত্যু, আল-মুসতাদির ক্ষমতালাভ।
  • ১১৭১: ফাতেমীয় খলিফা আল-আদিদের মৃত্যু। ফাতেমীয় খিলাফতের সমাপ্তি। সালাহউদ্দিন মিশরে আইয়ুবীয় রাজবংশ প্রতিষ্ঠা করেন।
  • ১১৭২: খোয়ারিজম শাহ আরসালানের মৃত্যু, সুলতান শাহর ক্ষমতালাভ।
  • ১১৭৩: তুকুশ শাহ কর্তৃক খোয়ারিজম শাহ সুলতান শাহ ক্ষমতাচ্যুত হন।
  • ১১৭৪: সালাহউদ্দিন সিরিয়াকে একীভূত করেন।
  • ১১৭৫: ঘুরিরা গুজ তুর্কিদের পরাজিত করে এবং গজনি দখল করে নেয়।
  • ১১৭৬: সেলজুক সুলতান আরসালান শাহর মৃত্যু, তৃতীয় তুগরুলের ক্ষমতালাভ।
  • ১১৭৯: আব্বাসীয় খলিফা আল-মুসতাদির মৃত্যু, আন-নাসিরের ক্ষমতালাভ।
  • ১১৮৫: আলমোহাদ শাসক প্রথম ইউসুফের মৃত্যু, ইয়াকুবের ক্ষমতালাভ।
  • ১১৮৬: ঘুরিরা পাঞ্জাব থেকে গজনভিদের উৎখাত করে।
  • ১১৮৭: সালাহউদ্দিন খ্রিষ্টানদের নিকট থেকে জেরুজালেম পুনরায় অধিকার করেন, তৃতীয় ক্রুসেড
  • ১১৯১: ঘুরিরাজপুতদের মধ্যে তরাইনের প্রথম যুদ্ধ সংঘটিত।
  • ১১৯২: তরাইনের দ্বিতীয় যুদ্ধ
  • ১১৯৩: সালাহউদ্দিনের মৃত্যু। আল-আজিজ উসমানের ক্ষমতালাভ।
  • ১১৯৪: মুসলিমরা দিল্লি জয় করে। সেলজুক শাসনের সমাপ্তি হয়।
  • ১১৯৯: খোয়ারিজম শাহ তুকুশ শাহর মৃত্যু, আলাউদ্দিনের ক্ষমতালাভ। আলমোহাদ শাসক ইয়াকুবের মৃত্যু, মুহাম্মদ আন-নাসিরের ক্ষমতালাভ। ঘুরিরা উত্তর ভারতবাংলা জয় করে। এই শতাব্দীর শেষ নাগাদ বৈশ্বিক মুসলিম জনসংখ্যা সামগ্রিকভাবে ৬% বৃদ্ধি পায়।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]