হিলডে মানগোল্ড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
হিলডে মানগোল্ড
চিত্র:Hilde Mangold-en.jpg
জন্ম২০শে অক্টোবর, ১৮৯৮
গোটা, জার্মানি
মৃত্যু৪ঠা সেপ্টেম্বর, ১৯২৪
ফ্রাইবুর্গ, জার্মানি
জাতীয়তাজার্মান
কর্মক্ষেত্রভ্রূণবিজ্ঞান
পরিচিতির কারণভ্রূণীয় আবেশন ও সংগঠক

হিলডে মানগোল্ড (জার্মান: Hilde Mangold, ২০শে অক্টোবর, ১৮৯৮ – ৪ঠা সেপ্টেম্বর, ১৯২৪) (জন্মকালীন পারিবারিক নাম প্র্যোশোল্ট Proescholdt) একজন জার্মান ভ্রূণবিজ্ঞানী ছিলেন। তিনি ১৯২৩ সালে প্রকাশিত একটি অভিসন্দর্ভের জন্য বিশেষভাবে স্মরণীয় হয়ে আছেন, যার উপর ভিত্তি করে তাঁর উচ্চশিক্ষায়তনিক উপদেষ্টা হান্স ষ্পেমান ১৯৩৫ সালে ভ্রূণীয় সংগঠক আবিষ্কারের জন্য চিকিৎসাবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন।[১] এটি খুবই বিরল সংখ্যক ডক্টরেট অভিসন্দর্ভের একটি, যার ফলে সরাসরি নোবেল পুরস্কার প্রদান করা হয়।[২] মানগোল্ড যে সাধারণ ক্রিয়াটি প্রদর্শন করেন, সেটি ভ্রূণীয় আবেশন নামে পরিচিত, অর্থাৎ, কীভাবে কিছু কিছু কোষ অন্যান্য কোষের বিকাশের পথ নিয়ন্ত্রণের ক্ষমতা রাখে, সেই ব্যাপারটি। আবেশন এখন পর্যন্ত একটি মৌলিক ধারণা এবং এটির উপরে এখনও গবেষণা অব্যাহত আছে।[২][৩]

জীবনী[সম্পাদনা]

হিলডে প্র্যোশোল্ট ১৮৯৮ সালের ২০শে অক্টোবর তারিখে মধ্য-পূর্ব জার্মানির ট্যুরিঙেন প্রদেশের গোটা শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি সাবানের কারখানার মালিক এর্নেস্ট প্র্যোশোল্ট ও তার স্ত্রী গেরট্রুডে-র দ্বিতীয় সন্তান ছিলেন। তিনি ১৯১৮ ও ১৯১৯ সালে দুইটি ষান্মাসিক পর্ব ধরে ইয়েনা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন এবং এর পরে ফ্রাংকফুর্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থানান্তরিত হন। সেখানেও তিনি দুইটি ষান্মাসিক পর্ব অতিবাহিত করেন। সেখানেই তিনি পরীক্ষামূলক ভ্রূণবিজ্ঞানের উপরে প্রখ্যাত ভ্রূণবিজ্ঞানী হান্স ষ্পেমানের একটি বক্তৃতা শোনেন। বক্তৃতাটি শুনে তিনি ভ্রূণবিজ্ঞানে অধ্যয়নে উৎসাহিত হন। ফ্রাংকফুর্টের পরে তিনি ফ্রাইবুর্গের প্রাণীবৈজ্ঞানিক ইনস্টিটিউটে পড়াশোনা করেন। এখানে তিনি ষ্পেমানের প্রধান সহকারী অটো মানগোল্ডের সাথে পরিচিত হন ও পরে তাকে বিয়ে করেন। ষ্পেমানের নির্দেশনায় তিনি ১৯২৩ সালে তাঁর ডক্টরেট অভিসন্দর্ভটি রচনা সমাপ্ত করেন, যার শিরোনাম ছিল উ্যবার ইনডুকৎসিওন ফন এমব্রিওনাল-আনলাগেন ডুর্শ ইমপ্লান্টাৎসিওন আর্টফ্রেমডার অর্গানিজাটোরেন (অর্থাৎ "ভিন প্রজাতি থেকে প্রাপ্ত সংগঠকসমূহের বপনের দ্বারা ভ্রূণীয় আদিপদার্থের আবেশন")

প্রাণীবিজ্ঞানের ডক্টরেট উপাধি অর্জনের পরে হিলডে তাঁর স্বামী ও নবজাতক পুত্র ক্রিস্টিয়ানের সাথে বার্লিন নগরীতে চলে আসেন। এর কিছুদিন পরে বার্লিনের বাসায় গ্যাসচালিত উত্তাপক যন্ত্রের বিস্ফোরণের শিকার হয়ে প্রচণ্ডভাবে দগ্ধ হয়ে হিলডে মৃত্যুবরণ করেন।[৪] তিনি তাঁর অভিসন্দর্ভের ফলাফলগুলির প্রকাশনা দেখে যাবার আগেই মারা যান। তাঁর সন্তান পরবর্তীতে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে মৃত্যুবরণ করেন।[৫]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Mangold, Hilde (Proescholdt) by Marilyn Bailey Ogilvie and Joy Dorothy Harvey in The Biographical Dictionary of Women in Science.
  2. Developmental Biology. 10th ed. by Scott F. Gilbert.
  3. "Spemann and Mangold's Discovery of the Organizer" 
  4. "Hilde Mangold (1898-1924) | The Embryo Project Encyclopedia"embryo.asu.edu 
  5. Hilde Proescholdt Mangold by Veronica Reardon Mondrinos in Women in the Biological Sciences, page 304.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]