হিটম্যান (সিরিজ)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
হিটম্যান (সিরিজ)
Hitman (game series) logo.jpg
ধরনস্টিলথ
ডেভেলপারআইও ইন্টারঅ্যাকটিভ
পরিবেশকএইডোস ইন্টারঅ্যাকটিভ (২০০০–৯)
স্কয়ার এনিক্স (২০০৯–)
পটভূমিমাইক্রোসফট উইন্ডোজ, এক্সবক্স, প্লেস্টেশন ২, গিমকিউব, এক্সবক্স ৩৬০, প্লেস্টেশন ৩, ওএস এক্স, আইওএস, এনড্রয়েড, উইন্ডোজ ফোন, প্লেস্টেশন ৪, প্লেস্টেশন ভিটা, এক্সবক্স ওয়ান
উৎপত্তি পটভূমিমাইক্রোসফট উইন্ডোজ
প্রথম প্রকাশহিটম্যান: কোডনেম ৪৭
১৯ নভেম্বর ২০০০
সর্বশেষ প্রকাশহিটম্যান
১১ মার্চ ২০১৬


হিটম্যান একটি স্টিলথ ভিডিও গেম সিরিজ যার নির্মাতা আইও ইন্টারঅ্যাকটিভ। প্রথমে এইডোস এবং সম্প্রতি স্কয়ার এনিক্স পরিবেশিত সিরিজটি খেলা যায় মাইক্রোসফট উইন্ডোজ এবং ভিডিও কনসোলে, যেমন এক্সবক্স, প্লে স্টেশন টু, গেম কিউব ইত্যাদি। গেমটির কাহিনী নিয়ে উপন্যাস লিখেছেন উইলিয়াম সি ডিট্জ, হিটম্যান: এনিমি উইদিন এবং হিটম্যান: ড্যামনেশন। ২০০৭ সালে গেমের আংশিক অনুসরণে একটি চলচ্চিত্র নির্মিত হয় যা নেতিবাচক সমালোচনা সত্ত্বেও ব্যবসাসফল হয়ে ওঠে। আরেকটি চলচ্চিত্র হিটম্যান: এজেন্ট ৪৭ মুক্তি পেয়েছে ২০১৫ সালে এবং সমালোচিত হয়েছে।

গেমটির কাহিনীর কেন্দ্রে আছে এজেন্ট ৪৭ (সহজভাবে শুধু ৪৭ বা মি.৪৭), একজন ক্লোন ভাড়াটে আততায়ী বা গুপ্তঘাতক। তবে অন্যান্য ভাড়াটে খুনি থেকে তার বিশেযত্ব হলো তার নিঃশব্দচারণ। সে নিখুঁতভাবে অত্যন্ত গোপনে টার্গেটকে খুন করে থাকে, যেকারণে ধনী ব্যক্তিদের কাছে তার চাহিদা আছে। গেমের মূল চিত্রনাট্যকার ছিলেন মর্টেন ইভারসেন। তিনি হিটম্যান: কোডনেম ৪৭হিটম্যান ২: সাইলেন্ট অ্যাসাসিন-এর চিত্রনাট্য লিখেছেন এবং হিটম্যান: কনট্রাক্টসহিটম্যান: ব্লাড মানি লিখতে সহায়তা করেছেন। জেসপার কিড অর্কেস্ট্রা ও ইলেকট্রনিকার সমন্বয়ে গেমটির সঙ্গীত স্কোর তৈরি করেছেন।

গেমপ্লে[সম্পাদনা]

গেমের প্রতি লেভেলের মূল কাজ হলো নির্দিষ্ট কোনো ব্যক্তিকে (একাধিক ব্যক্তিও হতে পারে) হত্যা করা। অধিকাংশ ক্ষেত্রে কাজ সমাধা করতে গেমারের বিভিন্ন সুযোগ ও পদ্ধতি থাকে। গেমার খুব গোপনে গুপ্তহত্যা করতে পারে, আবার নির্বিচারে গণহত্যাও করতে পারে। তবে গেমার যদি ধূর্ততার সাথে নিঃশব্দে লক্ষ্য পূরণ করতে পারে, তাকে গেমে বিশেষ অস্ত্র বা অর্থ দিয়ে পরস্কৃত করা হয়। শত্রুদের ধোঁকা দিতে বা রেস্ট্রিকটেড এরিয়ায় প্রবেশ করতে ৪৭ বহুধরনের ছদ্মবেশ ধারণ করতে পারে, যেমন শ্রমিক, পুলিশ অফিসার বা ওয়েটার। হিটম্যানের ফোকাস শত্রুদের ছায়ায় লুকিয়ে থাকা নয় বরং তাদের মধ্যে মিশে যাওয়ায়। আর রক্তারক্তি শুরু করার দায় গেমারের, কারণ প্রহরীরা সাধারণত উত্তেজিত না হলে গোলাগুলি করে না।

চরিত্রসমূহ[সম্পাদনা]

  • এজেন্ট ৪৭: একজন ভাড়াটে গুপ্তঘাতক যাকে ক্লোন করা হয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে ভয়ংকর পাঁচ অপরাধীর ডিএনএ থেকে। তার মাথার পেছনে বারকোড লেখা আছে 640509-040147, যার শেষ দুই অঙ্ক নিয়ে তার নাম রাখা হয়েছে। অভিনেতা ডেভিড ব্যাটেসন প্রতিটি হিটম্যান গেমেই এজেন্ট ৪৭ চরিত্রে কণ্ঠদান করেছেন।
  • ডায়ানা বার্নউড: এজেন্সিতে ৪৭-এর পরিচালক। সে-ই এজেন্ট ৪৭কে সব কাজ ও মিশন দেয় এবং তথ্য সরবরাহ করে।
  • এজেন্ট স্মিথ: খানিকটা অদক্ষ এক সিআইএ এজেন্ট যে এজেন্সির হয়ে কাজ করে। গুপ্তচরবৃত্তি করতে গিয়ে প্রায়ই সে ধরা পড়ে এবং নির্যাতিত হয়। পরে এজেন্সি তাকে উদ্ধার করার জন্য এজেন্ট ৪৭কে পাঠায়।
  • মেই-লিং: এক চীনা তরুণী। গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য দেয়ার বিনিময়ে এজেন্ট ৪৭ তাকে হংকংয়ের ক্রাইম লর্ড লী হংয়ের পতিতালয় থেকে উদ্ধার করে।[১] তবে পরে আবার তাকে দেখা যায় আরেক এশীয় ক্রাইম লর্ড হায়ামোটোর রক্ষিতা হিসেবে। হতবুদ্ধি ৪৭ আবার তাকে উদ্ধার করে।[২]
  • ড. অটো উলফগ্যাং ওর্ট-মেয়ার: ৪৭-এর স্রষ্টা এবং হিটম্যান: কোডনেম ৪৭-এর চূড়ান্ত খলনায়ক। এক অত্যন্ত বুদ্ধিমান ভয়ানক ব্যক্তি।

গেমের পর্বসমূহ[সম্পাদনা]

লুয়া ত্রুটি package.lua এর 80 নং লাইনে: module 'Module:Date' not found। ২০১৬ সাল পর্যন্ত সিরিজের ৬টি গেম রিলিজ হয়েছে যার সবগুলোই আইও ইন্টারঅ্যাকটিভ নির্মিত। এছাড়া এনড্রয়েডের জন্যও একাধিক হিটম্যান গেম রিলিজ হয়েছে।

  • হিটম্যান: কোডনেম ৪৭ (২০০০)
  • হিটম্যান ২: সাইলেন্ট অ্যাসাসিন (২০০২)
  • হিটম্যান: কনট্রাক্টস (২০০৪)
  • হিটম্যান: ব্লাড মানি (২০০৬)
  • হিটম্যান ট্রিলজি (২০০৭/১৩)
  • হিটম্যান: অ্যাবসল্যুশন (২০১২)
  • হিটম্যান গো (২০১৪)
  • হিটম্যান স্নাইপার (২০১৫)
  • হিটম্যান (২০১৬)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Mei Ling: You foreigner. Then you understand. Listen, you have to help me, please. They kidnapped me and then they brought me here... [...] First you have to get me out of here and then the combination is yours. Eidos Interactive Hitman Contracts 4-20-2004 (US)
  2. 47: Sill living a lousy life I see. I save you from Lee Hong and his Triad outfit in Hong Kong, and first thing after that mess, you're in it with another hotshot crimelord! Mei Ling: Well, I don't mind. The hours are short and the pay is good. But he is just an old rich bastard and I am bored now. Eidos Interactive Hitman 2: Silent Assassin 10-1-2002 (US)