হরিচাঁদ গুরুচাঁদ বিশ্ববিদ্যালয়

স্থানাঙ্ক: ২২°৫৯′০৪″ উত্তর ৮৮°৪৬′৫১″ পূর্ব / ২২.৯৮৪৩২২৯° উত্তর ৮৮.৭৮০৯৩৫° পূর্ব / 22.9843229; 88.780935
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
হরিচাঁদ গুরুচাঁদ বিশ্ববিদ্যালয়
হরিচাঁদ গুরুচাঁদ বিশ্ববিদ্যালয়ের লোগো.png
ধরনসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়
স্থাপিত২০১৮; ৩ বছর আগে (2018)
অধিভুক্তিবিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন
আচার্যজগদীপ ধনখর, (পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল)
উপাচার্যতপন কুমার বিশ্বাস
অবস্থান, ,
৭৪৩২৪৫
,
২২°৫৯′০৪″ উত্তর ৮৮°৪৬′৫১″ পূর্ব / ২২.৯৮৪৩২২৯° উত্তর ৮৮.৭৮০৯৩৫° পূর্ব / 22.9843229; 88.780935
শিক্ষাঙ্গনগ্রামীণ
০.০৩৬ কিমি (৮.৮ একর)
ভাষাবাংলা, ইংরেজি

হরিচাঁদ গুরুচাঁদ বিশ্ববিদ্যালয় পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগনা জেলার চাঁদপাড়ায় প্রতিষ্ঠিত একটি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়।[১] এই বিশ্ববিদ্যালয়টি ২০১৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এটি পশ্চিমবঙ্গ সরকার পরিচালিত একটি গ্রামীণ বিদ্যায়তন বিশিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদ্যায়তনটি চাঁদপাড়ার নিকট দেবীপুর এলাকায় ১১২ নং জাতীয় সড়কের (যশোর রোড বা জাতীয় সড়ক ৩৫) পশ্চিম পাশে অবস্থিত।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

বীণাপাণি দেবীর জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে ২০১৮ সালের ১৫ নভেম্বর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যপাধ্যায় ঠাকুরনগরে ঠাকুর বাড়ি উপস্থিত হন। তিনি ঠাকুরনগরে আয়োজিত একটি জনসভায় হরিচাঁদ গুরুচাঁদ ঠাকুরের নামাঙ্কিত বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ঘোষণা করেন।[২][৩][৪] ঘোষণার দিনেই প্রস্তাবিত বিশ্ববিদ্যালয়টি তৈরির জন্য চাঁদপাড়ায় কৃষি দফতরের অধিনে থাকা ৮.৮ জমি চিহ্নিত করা হয়। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে জেলাশাসক অন্তরা আচার্য ১৫ নভেম্বরেই ওই জমিতে বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি-সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি ফলক স্থাপন করে।[৫]

কন্যাশ্রী বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ২০১৮ সহ হরিচাঁদ গুরুচাঁদ বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ২০১৮ পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় ২০১৮ সালের ২৮ নভেম্বর পাশ হয়।[৬] এর পরে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা ও বিদ্যায়তন নির্মাণের কার্যক্রম শুরু হয়। তবে ২০১৯ সালের সাধারণ নির্বাচনের পূর্বে হরিচাঁদ গুরুচাঁদ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার আইন পাশের ঘটনা নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গদের মধ্যে বিতর্ক দেখা যায়। রাজ্য বিধানসভার বিরোধী দল বিজেপি'র সভাপতি দিলীপ ঘোষ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার আইন পাশের ঘটনার উপর প্রশ্ন উত্থাপন করেন, তিনি সংবাদ মাধ্যমকে জানান- “রাজ্যে তৃণমূল ক্ষমতায় আসার এত দিন পরে কেন হরিচাঁদ-গুরুচাঁদের নামে বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে? মহাপুরুষদের নামে রাজনীতি হচ্ছে।” যদিও শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের জানান- হরিচাঁদ-গুরুচাঁদ ঠাকুরের নামে বিশ্ববিদ্যালয় তৈরির মাধ্যমে মতুয়া সম্প্রদায়ের ধর্মগুরুকে 'স্বীকৃতি' দেওয়া হল।[৭]

মমতা বন্দ্যপাধ্যায় ২০১৯ সালের ১১ জানুয়ারি বারাসতের যাত্রা উৎসবে থেকে বিশ্ববিদ্যালয়টির শিলান্যাস করেন।[৫] তপন কুমার বিশ্বাস ২০২১ সালের ৩০শে জানুয়ারি হরিচাঁদ গুরুচাঁদ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্য হিসাবে যোগদান করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রাথমিক পর্যায়ে বিজ্ঞান, কলা, ও শিক্ষা অনুষদ নিয়ে একাডেমিক কার্যক্রম শুরু হয়।

সংস্থা ও প্রশাসন[সম্পাদনা]

শাসন[সম্পাদনা]

বিশ্ববিদ্যালয়টি প্রশাসনিক আধিকারিকদের একটি পর্ষদ দ্বারা পরিচালিত হয়। পর্ষদটি বিশ্ববিদ্যালয় ও এর অধিভুক্ত কলেজসমূহের কার্যক্রম ও বিশ্ববিদ্যালয়ের তহবিল পর্যবেক্ষণ করে। তপন কুমার বিশ্বাস বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম ও বর্তমান উপাচার্য।[৮]

অনুষদ[সম্পাদনা]

হরিচাঁদ গুরুচাঁদ বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩ টি অনুষদে মোট ৪ টি বিভাগ রয়েছে। অনুষদসমূহ হল কলা অনুষদ, সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ অনুষদ ৩ শিক্ষা অনুষদ।[৯]

বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষদ ও অনুষদভুক্ত বিভাগসমূহ তালিকা আকারে প্রকাশ করা হল:

বিজ্ঞান অনুষদ কলা অনুষদ সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ অনুষদ শিক্ষা অনুষদ

তথ্য নেই

  • সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগ
  • শিক্ষা বিভাগ

পঠন-পাঠন[সম্পাদনা]

স্নাতক কোর্সের জন্য—কলা (বিএ) ও বিজ্ঞান (বিএসসি) শাখায় ভর্তির হতে উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সংশয় পত্র পরীক্ষার ভিত্তিতে বা কোনও সমমানের পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে একাধিক কোর্সে সরাসরি আবেদন করতে পারবেন। শিক্ষার্থীরা তাদের পরীক্ষার ফল ও উপলব্ধ আসনের সংখ্যা অনুযায়ী সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত হন। যে কেউ উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পাঁচ বছরের মধ্যে আবেদন করতে পারবেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "About HGU"www.harichandguruchanduniversity.com। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০২১ 
  2. "গাইঘাটা হরিচাঁদ গুরুচাঁদ বিশ্ববিদ্যালয়, বড়মা'কে বঙ্গবিভূষণ"। www.thewall.in। ১৫ নভেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুন ২০২১ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  3. "মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা, দ্রুত গাইঘাটার জমিতে নতুন বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড"। www.kolkata24x7.com। ১৬ নভেম্বর ২০১৮। ২৪ জুন ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুন ২০২১ 
  4. "Mamata announces new university in name of Harichand, Guruchand" (ইংরেজি ভাষায়)। www.devdiscourse.com। ১৫ নভেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০২১ 
  5. "হরিচাঁদ গুরুচাঁদ ঠাকুরের নামে নতুন বিশ্ববিদ্যালয়"। www.anandabazar.com। আনন্দবাজার পত্রিকা। ১২ জানুয়ারি ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুন ২০২১ 
  6. "The Harichand Guruchand University Act, 2017" (PDF)। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০২১ 
  7. "হরিচাঁদ-গুরুচাঁদ বিশ্ববিদ্যালয় বিল বিতর্কে মতুয়া ভোটব্যাঙ্কের তরজা"। eisamay.indiatimes.com। ২৯ নভেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুন ২০২১ 
  8. "Call for nomination for Vice-Chancellor, Biswa Bangla Biswabidyalaya, West Bengal" (PDF)। ২৪ জানুয়ারি ২০২১ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ মার্চ ২০২১ 
  9. "Faculties"। ২৪ জুন ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০২১ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]