বিষয়বস্তুতে চলুন

স্কাইরকেট লাইট প্রকল্প

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
স্কাইরকেট লাইট প্রকল্প
ওয়েবসাইটhttp://zaatarilights.tumblr.com/

সিরিয়ার নারীদের প্রতি যৌন সহিংসতার প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য স্কাইরকেট লাইট প্রকল্প তৈরি করা হয়েছিল। 'আল জাটারি শরনার্থী শিবিরের প্রতি তাবুতে' ও বাথরুমের কাছে সৌরশক্তি চালিত এলইডি লাইট স্থাপন করা হয়েছিল এবং জনসংখ্যার সহায়তার জন্য ক্যাম্পের মধ্যে “পরিপূরক স্কুল” স্থাপন করা হয়েছিল।[১] ২০১৩ সালের নভেম্বরে ম্যাক্স হল্যান্ড ও বেন ডেকার দ্বারা রকেটহাবের জন্য একটি ক্রাউডফান্ড তৈরী করা হয়েছিল এবং ২০১৪ সালের জানুয়ারিতে সেখানে প্রতি তাবু ও বাথরুমে লাইট স্থাপন করা হয়েছিল।[২]

পটভূমি, তহবিল সংগ্রহ ও বাস্তবায়ন[সম্পাদনা]

পটভূমি ও তহবিল সংগ্রহ[সম্পাদনা]

সিরিয়ার গৃহযুদ্ধের কারণে এই প্রকল্পের উন্নয়ন সমস্যার মুখোমুখি হয়েছিল। ২০১১ সাল থেকে এ যুদ্ধে দুই মিলিয়নেরও বেশি মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়। প্রতিবেশী দেশ জর্ডানের জাতারি শরণার্থী শিবিরে ৮০,০০০-১,৫০,০০০ ব্যক্তি রয়েছে, যাদের মধ্যে অনেকেই নারী ও শিশু। শিবিরের ট্রমা সেন্টার ও ওয়াশরুমগুলিতে বিদ্যুৎ নেই, রাতে মহিলাদের জন্য এটি অনিরাপদ এলাকা।[৩] হল্যান্ড এবং ড্রেকার ই-মেইলের মাধ্যমে সহযোগিতা করে বাস্তুচ্যুত সিরিয়ানদের সাহায্য করার জন্য একটি জনহিতকর প্রচেষ্টা তৈরি করে। তারা রাতে তাবু ও বাথরুমে আলো এবং শিশুদের পড়াশুনার জন্য স্কুল স্থাপনের মাধ্যমে মহিলা ও শিক্ষার্থীদের উপর মনোযোগ কেন্দ্রীভূত করার সিদ্ধান্ত নেয়। রকেটহাবের ক্রাউডফান্ডিং নভেম্বর ২০১৩ সালে শুরু হয়েছিল এবং ১ ডিসেম্বর ১০৪ জন তহবিলকারী ৪,০০০ ডলারের বেশি সংগ্রহ করে শেষ হয়।

প্রকল্প বাস্তবায়ন[সম্পাদনা]

হল্যান্ড এবং ডেকার ইলিয়ট টালবার্ট-গোল্ডস্টাইনের সাথে কাজ শুরু করে এবং তারা এনজিও কর্মকর্তাদের সাথে দেখা করে এর বাস্তবায়ন নিয়ে আলোচনা করে। আন্তর্জাতিক রেসকিউ কমিটি, জাতিসংঘের শরণার্থীদের জন্য হাইকমিশনার, অক্সফাম, সেভ দ্য চিলড্রেন এবং ইন্টারন্যাশনাল রিলিফ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ইনকর্পোরেটেড সৌর বাতি স্থাপনে সহযোগিতা করে। ২০১৪ সালের জানুয়ারিতে সেভ দ্য চিলড্রেন তিনটি কমিউনিটি তাঁবু পরিচালনা করে, এর মধ্যে "২ টি চাইল্ড-ফ্রেন্ডলি স্পেস" এবং আইআরডি দ্বারা পরিচালিত শিশুদের জন্য একটি প্রাতিষ্ঠানিক লাইব্রেরি স্থাপন করা হয়। শিশুরা এ লাইব্রেরিতে পড়াশুনা করে। অনুসন্ধানে দেখা যায় ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এই শরনাথী শিবিরে কোন লাইট ভাঙ্গা বা চুরি করা হয়নি। [৪]

খবর[সম্পাদনা]

ডেকার এবং হল্যান্ড শিবিরে তাদের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে ইএডবলিউওয়াল্ডভিউ এর জন্য একটি নিবন্ধ রচনা করেন।[৫] জাস্টিন সালহানি আটলান্টিক পোস্টে একটা ছোট প্রবন্ধে প্রকল্পটির বর্ণনা দিয়ে লিখে।[৬] ৩ জানুয়ারি যাদালিয়া স্কাইরকেট লাইট প্রজেক্টকে একটি মিডিয়া রাউন্ডআপে অন্তর্ভুক্ত করে।[৭]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Skyrocket Lights Project on Rockethub."। ২০১৬-০৩-০৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৮-০৩ 
  2. "Skyrocket Lights Project: Updates"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৮-০৩ 
  3. "Skyrocket Lights Project: Backgrounder"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৮-০৩ 
  4. "Skyrocket Lights Project: Updates"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৮-০৩ 
  5. "Syria First-Hand: Zaatari's Unclear Future (Ben Decker & Max Holland)"। EA WorldView। ২০১৪-০১-০২। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৪-০৭ 
  6. The Atlantic Post,
  7. Syria Page। "Syria Media Roundup (January 3)"। Jadaliyya.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৪-০৭