সেশেলের ভূগোল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

সেশেলস হলো একটি ক্ষুদ্র দ্বীপদেশ যা মাদাগাস্কারের উত্তর পূর্বে সোমালি সমুুুুদ্র এবং সোমালিয়ার মেগাদিশু থেকে ৮৩৫ মাইল (১৩৪৪) কি.মি. দূরে অবস্থিত।সেশেলস প্রায় ৪°থেকে ১০° উত্তর

অক্ষাংশে

শে ও ৪৬° পূর্ব থেকে ৫৪°পূর্ব দ্রাঘিমাংশের মধ্যে অবস্থিত।সেশেলস ছোটবড় ১১৫ টি গ্রীষ্মমন্ডলীয় দ্বীপের সমষ্টি যার বেশিরভাগই ক্ষুদ্র এবং জনবসতিহীন।সম্পূর্ণ দ্বীপপুঞ্জটির আয়তন ৪৫২ বর্গ কি.মি. হলেও এর একচেটিয়া অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রায় ১৩৩৬৫৫৯ বর্গ কি.মি. এলাকাজুড়ে বিস্তৃত। ৯০০০০ জনসংখ্যার প্রায় ৯০%" মাহে,৯% প্রস্লিনলা ডিগু নামক দ্বীপে বাস করে।মাহে দ্বীপপুঞ্জটির আয়তনের এক তৃতী য়াংশ করেছে

মহাদেশ : আফ্রিকা

অঞ্চল: ভারত মহাসাগর

আয়তন:১৮০তম

মোট আয়তন: ৪৫২ বর্গ কি.মি.(১৭৫ বর্গ মাইল)

ভূমি:১০০%

পানি:০%

উপকূলরেখা:৪৯১ কি.মি.(৩০৫ মাইল)

সীমানা: নেই

সর্বোচ্চ বিন্দু: মোর্নে সেসেলস(৯০৫ মিটার)

সর্বনিম্ন বিন্দু: ভারত মহাসাগর

একচেটিয়ে অর্থনৈতিক অঞ্চল:১৩৩৬৫৫৯ কি.মি.(৫১৬০৪৮ মাইল২)

এই দ্বীপদেশটি দুটি স্বতন্ত্র দ্বীপপুঞ্জে বিভক্ত। গ্রানাইটিক বা ইনার দ্বীপপুঞ্জ, যা বিশ্বের একমাত্র গ্রানাইটিক শিলা সমুদ্রিয় দ্বীপ এবং বহিঃস্থ প্রবাল দ্বীপ।গ্রানাইটিক দ্বীপপুঞ্জ হলো বিশ্বের প্রাচীনতম সমুদ্র দ্বীপপুঞ্জ, বাইরের প্রবালীয় দ্বীপগুলো অপেক্ষাকৃত নতুন যদিও অলডাব্রা গ্রুপ(Aldabra) এবং সেন্ট পিয়ের বা

ফারকুহার গ্রুপ গ্রানাইটিক দ্বীপগুলোর মতোই পুরাতন। উত্থিত প্রবাল দ্বীপগুলো তাদের ইতিহাসে বেশ কয়েকবার উত্থিত ও নিমজ্জিত হয়েছে।সবছেয়ে সাম্প্রতিক নজ্জনটিটন ছিল ১২৫০০০ বছর আগে।

ভৌত গঠন

৪৫ টি দ্বীপ নিয়ে ইনার বা গ্রানাইটিক দ্বীপপুঞ্জ গঠিত যার মোট আয়তন ২৪৭.২ বর্গ কি.মি. যা সেশেলস এর ৫৪% এবং জনসংখ্যার ৯৯% এর বেশি এখানে বসবাস করে।এই দ্বীপপুঞ্জের দ্বীপগুলো পাথুরে, বেশিরভাগেরই সরু উপকূলীয় পথ রয়েছে এবং ৯১৪ মিটার পর্যন্ত উচুু পাহাড়ে ঢাকা।গ্রানাইটিক বা ইনার দ্বীপপুঞ্জের সবথেকে বড় দ্বীপ মাহে (mahe)যার আয়তন ১৫৬.৭ বর্গ কি.মি.(৬১ বর্গ মাইল) অপর দ্বীপগুলো হচ্ছে

                                                                                                                                                                    ★প্রসলিন দ্বীপ( praslin)

★সিলুয়েট দ্বীপ(silhouette)

★ লা ডিগু(la digue)

আবার এসব দ্বীপের ৯০ কি.মি. উত্তরে বার্ড দ্বীপ এবং ডেনিস দ্বীপ নামক দুটো দ্বীপ ইনার বা গ্রানাইটিক দ্বীপের বাকী অংশ গঠন করেছে।

ভূূতত্ত্ব

সেশেলস গ্রান্টিক ম্যাসকারেনা ( grantic mascarena) প্লেটের অংশ যেটা ৬৬ মিলয়ন বছর আগে ইন্ডিয়ান প্লেট (Indian Plate)থেকে ভেঙে গিয়েছিল। এই ফাটল গঠনটি রেউনিঁও হটস্পট এর সাথে সম্পর্কিত যা রেউনিঁও দ্বীপ ও ভারতের ডেক্কান খাতগুলোর (Deccan traps)জন্য দায়ী। ইন্ডিয়ান প্লেট থেকে দীর্ঘসময়ের বিচ্ছিন্নতার ফলে সেশেলস কোকো ডে মার মত বিভিন্ন প্রজাতির এবং পৃথিবির সর্ববৃহৎ জনসংখ্যার

দৈত্যকার কচ্ছপের (giant tortoise)একক বসবাসস্থলে পরিণত হয়েছে।

জলবায়ু

দ্বীপগুলো আকারে ছোট হওয়াই ও সমুদ্রের প্রভাবে প্রভাবিত হওয়াই জলবায়ু ভারসাম্যপূর্ণ এবং স্বাস্থ্যকর যদিও বেশ আর্দ্র।সারাবছরই তাপমাত্রার পরিবর্তন লক্ষণীয়। মাহের(mahe)তাপমাত্রা ২৪° থেকে ৩০°সেলসিয়াস (৭৫.২°-৮৬.০°ফারেনহাইট )পর্যন্ত উঠানামা করে এবং বাৎসারিক বৃষ্টিপাতের পরিমান ২৯০০ মি.মি.(১১৪.২ ইঞ্চি)থেকে ভিক্টোরিয়া পাহাড়ের (victoria)ঢালে ৩৬০০ মি.মি.(১৪১.৭ ইঞ্চি)পর্যন্ত হয়।অন্যান্য দ্বীপে বৃষ্টিপাত কিছুটা কম।শীতলতম মাস জুলাই ও আগস্টে তাপমাত্রা ২৪°সেন্টিগ্রেড(৭৫.২°ফারেনহাইট) এ নেমে আসে।মে থেকে নভেম্বর পর্যন্ত এসব দ্বীপগুলোর উপরদিয়ে দক্ষিণ-পূর্ব বায়ু প্রবাহিত হয় এবং এটা বছরের সবছেয়ে মনোমুগ্ধকর সময়।ডিসেম্বর থেকে এপ্রিলের গড় আর্দ্রতা ৮০% এর উপরে থেকে এমাসগুলোকে উষ্ণ করে তুলেছে। মার্চ এবং এপ্রিল বছরের সবছেয়ে উষ্ণ মাস হলেও তাপমাত্রা খুব কম ক্ষেত্রেই ৩১° সেলসিয়াস (৮৭.৮°ফারেনহাইট) ছাড়িয়েে যাই।বেশিরভাগ দ্বীপই ঘূর্ণিঝড় বেল্টের বাইরে থাকাই উচ্চবায়ুপ্রবাহ খুবই কম।

জীববৈচিত্র্য

১৯৯৩ সালে শুরু হওয়া জীববৈচিত্র সংরক্ষণ সামুদ্রিক দূষন দূরীকরণ শীর্ষক বিশ্বব্যাংকের গ্লোবাল এনভাইরনমেন্ট ট্রাস্ট ফান্ডের ( Global Environment trust fund) ১.৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের প্রকল্পে সেশেলসের বাস্তুতন্ত্রের স্বাতন্ত্র্য পরিলক্ষিত হয়েছে।এই প্রকল্পের জন্য বিশ্বব্যাংকের সমীক্ষায় বলা হয়েছে দ্বীপপুঞ্জটিতে মোট ১১৭০ টি প্রজাতি রয়েছে যার মধ্যে ৭৫ প্রজাতির ফুলের উদ্ভিদ,১৫প্রজাতির পাখি,৩ প্রজাতির স্তন্যপায়ী,সরীসৃপ ও

উভচর প্রজাতির ৩০ টি করে ও কয়েকশ প্রজাতির শামুক,পোকামাকড় ও মাকড়শা যা কেবল এখানেই পাওয়া যাই।সেশেলস এর প্রকৃতি সুরক্ষা ট্রাটস্

(এ দ্বীপেপুঞ্জের বিভিন্ন প্রজাতির বৈচিত্র নির্ধারণ করে যাচ্ছে।সেশেলস এ ১০০০ টির ও বেশি ধরনের মাছ রয়েছে যার মধ্যে এক তৃতীয়ংশেের ও বেশি প্রবাল প্রাচীরের মাছ।এ দ্বীপপুঞ্জের কিছু অনন্য পাখির মধ্যে ব্ল্যাক প্যারট( Black parrot),ব্ল্যাক প্যরাডাইস ফ্লাই ক্যাচার(black paradise flycatcher),ব্রাশ ওয়ার্বেলার এবং ফ্লাইটলেস রেল অন্যতম।সেশেলস এর সবছেয়ে বিখ্যাত প্রাণী হলো অলড্রাব্রাচেলিস (Aldrabrachelys) গোত্রের দৈত্যাকার কচ্ছপ।

পরিবেশগত হুমকি

অতিরিক্ত আমদানি রপ্তানিও টুনা ফিশিং এর ফলে সেশেলস এর পানির দূষণ হচ্ছে।অলডাব্রে দ্বীপপুঞ্জে ছাগলের অবাধ বিচরণ অনেক গুরুত্বপূর্ণ লতা ও গুল্মের হ্রাস ঘটাচ্ছে যেগুলার উপর দৈত্যাকার কচ্ছপগুলো ব্যাপকভাবে খাদ্য ও ছায়ার জন্য নির্ভর করে।অনেকগুলো দ্বীপে ইঁদুর জীববৈচিত্র্য নষ্ট করছে।জলবায়ু পরিবর্তন ও জীববৈচিত্র্য ধ্বংসের জন্য দায়ী।জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে স্থানীয় শামুক রাচিস্টিয়া অলডাব্রের (Rachistia Aldabrae)বিলুপ্তি ঘটতে চলেছে।

১৯৬০ এর শেষের দিকে সেশেলস প্রকৃতি সংরক্ষন কমিশন তৈরি করে জীববৈচিত্র সংরক্ষন করা শুরু করে পরে যাকে সেশেলস জাতীয় পরিবেশ কমিশন(Seychelles National Environment Commission) নামে নামকরন করা হই।

এদেশের ৪২% ভূমি জাতীয় উদ্যানের আওতাই। এ ভূমিসহ আশেপাশের প্রায় ২৬০ বর্গকিলোমিটার পানি এলাকা প্রাণী সংরক্ষণের জন্য সংরক্ষিত এলাকা হিসেবে ঘোষানা করা হয়েছে।এখানে বিশ্বব্যাংক এমন এক্টা প্রকল্প নিয়েছিল যেটা পরিবেশ ও পরিবহন ব্যবস্থার সমন্বয় সাধন করে যাতে পরিবহন ব্যবস্থা পরিবেশের ক্ষতি না করে। ১৯৯৪ সালে সাড়ে চার মিলিয়ন ডলার নিয়ে এ প্রকল্প শুরু হই।প্রকল্পটা এমনভাবে বাস্তবায়ন করা হই যাতে সেশেলসের রাস্তা,বিমানবন্দর,পর্যটনস্থানের উন্নয়ন করে পর্যটকদের আকৃষ্ট করার পাশাপাশি পরিবেশ সংরক্ষণ, ব্যবস্থাপনা ও দূষণ নিয়ন্ত্রণ করা যাই। এমন আরেকটা বড় প্রকল্প ফন্ডস ফ্রাঙ্কাইস পও'র ল'এনাভাইরনমেন্ট মন্ডিয়ালে (এফএফইএম) এর অর্থায়নে বাস্তবায়ন করা হইছে যার দায়িত্বে রয়েছে আইল্যান্ড কনজারভেশন সোসাইটি(Island Conservation Society)।এই প্রকল্পের আওতায়

উত্তর দ্বীপ থেকে ইঁদুর নির্মূল করা হয়েছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]