সিরিয়া-ফ্রান্স যুদ্ধ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ফ্রান্স-সিরিয়া যুদ্ধ
Maysaloun2.jpg
মায়সালুনের সিরিয়ান সৈনিক, ১৯২০
তারিখমার্চ ১৯২০[২][৩][৪][৫] – ২৫ জুলাই ১৯২০
অবস্থানসিরিয়া আরব রাজতন্ত্র
ফলাফল বাদশাহ ফয়সাল মেন্ডেটরি ইরাকে নির্বাসিত হন।
ফরাসিদের বিজয়; সিরিয়ায় ফরাসি মেন্ডেট স্থাপিত
যুধ্যমান পক্ষ

ফ্রান্স ফ্রান্স

সিরিয়া আরব রাজতন্ত্র

  • আরব মিলিশিয়া
সেনাধিপতি
ফ্রান্স হেনরি গোরাওড

বাদশাহ ফয়সাল
ইউসুফ আল-আজমা
আরব মিলিশিয়া:

শক্তি
৭০,০০০[১]
হতাহত ও ক্ষয়ক্ষতি
৫,০০০ নিহত

ফ্রান্স-সিরিয়া যুদ্ধ ১৯২০ সালে সংঘটিত হয়। যুদ্ধের ধারাবাহিক সংঘর্ষের পর ফরাসিরা বাদশাহ ফয়সালের বাহিনীকে পরাজিত করে এবং ১৯২০ সালের ২৪ জুলাই দামেস্কে প্রবেশ করে। ২৫ জুলাই আলাউদ্দিন আল-দারাওবিকে প্রধান করে একটি নতুন ফরাসিপন্থি সরকার গঠিত হয়।[৭] এরপর সিরিয়াকে কয়েকটি রাষ্ট্রে বিভক্ত করা হয়। ব্রিটিশরা পরবর্তীতে ফয়সালকে ইরাকের বাদশাহ হিসেবে অধিষ্ঠিত করে।

পটভূমি[সম্পাদনা]

প্রথম বিশ্বযুদ্ধের শেষদিকে এডমন্ড এলেনবির ইজিপশিয়ান এক্সপেডিশনারি ফোর্স‌ ১৯১৮ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর দামেস্ক দখল করে। এরপর ৩ অক্টোবর ফয়সাল দামেস্ক আসেন। ১৯১৯ সালের ৫ অক্টোবর এলেনবির সম্মতিক্রমে ফয়সাল দামেস্কে নতুন আরব সরকার গঠনের ঘোষণা দেন।

ফ্রান্স ও ব্রিটেনের মধ্যে সাইকস-পিকট চুক্তি বাস্তবায়নের পর ফরাসিরা লেভান্টে সামরিক প্রশাসন কায়েম করে। জেনারেল হেনরি গোরাওডকে মধ্যপ্রাচ্যে ফরাসি সরকারের প্রতিনিধি ও ফরাসি বাহিনীর কমান্ডার নিযুক্ত করা হয়।

সিরিয়ান জাতীয়তাবাদিরা নিজেদের পূর্ণ স্বাধীনতা দাবি করেছিল। ১৯১৯ সালের ৩ জুন প্রথম সিরিয়ান কংগ্রেস অনুষ্ঠিত হয় এবং হাশিম আল-আতাসি এর প্রেসিডেন্ট হন।[৮] ২৫ জুন কিং-ক্রেন কমিশন প্রতিবাদের মুখে দামেস্কে আসে। ২ জুলাই সিরিয়ান কংগ্রেস ফয়সালকে বাদশাহকে করে সিরিয়াকে একটি স্বাধীন সাংবিধানিক রাজতান্ত্রিক রাষ্ট্র হিসেবে গঠনের জন্য কয়েকটি প্রস্তাব পাস করে।[৮] ফয়সালের ধারণা ছিল যে ব্রিটিশ বা মার্কিনীরা তার সহায়তায় এগিয়ে আসবে এবং ফরাসিদের বিরুদ্ধে হস্তক্ষেপ করবে। কিন্তু তার ধারণা ভুল প্রমাণিত হয়। ইঙ্গ-ফরাসি চুক্তির ফলে ব্রিটিশরা সিরিয়া থেকে ফিরে আসে ফলে সিরিয়ায় তাদের সামরিক সংশ্লিষ্টতা শেষ হয়।

১৯২০ সালের জানুয়ারিতে ফয়সালের সাথে ক্লেমেনশর আলোচনা হয়। এতে তাকে জানানো হয় যে ফরাসিরা সিরিয়া রাষ্ট্রের অস্তিত্ব মেনে নেবে এবং সিরিয়ায় সেনা মোতায়েন করবে না যদি শুধুমাত্র ফরাসি সরকারকে উপদেষ্টা, পরামর্শক ও প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ সরবরাহ করতে দেয়া হয়।[৯] তবে ফরাসি বিরোধী স্বাধীনতাকামীরা তা মেনে নেয়নি।

যুদ্ধ[সম্পাদনা]

দেশব্যপী বিদ্রোহ[সম্পাদনা]

সিরিয়া আরব রাজতন্ত্রের মানচিত্র।

ক্লেমেনশর সাথে আলোচনার পর সিরিয়া জুড়ে ফরাসি বাহিনীর উপর হামলা শুরু হয়। সেই বছরের ৮ মার্চ সিরিয়ান কংগ্রেস ফয়সালকে বাদশাহ করে সিরিয়া আরব রাজতন্ত্র প্রতিষ্ঠার ঘোষণা করে এবং হাশিম আল-আতাসিকে প্রধানমন্ত্রী নিযুক্ত করা হয়।

এই পদক্ষেপ ব্রিটেন ও ফ্রান্স মেনে নেয়নি। সিরিয়ায় ফ্রান্সের মেন্ডেট প্রতিষ্ঠার জন্য এপ্রিলে লীগ অব নেশন্স সান রেমো সম্মেলন আহ্বান করে। আরব জাতীয়তাবাদিদের সাথে ফ্রান্সের সংঘাত তীব্রতর হতে থাকে।

মেন্ডেট প্রণীত হওয়ার পর ফরাসি জেনারেল গোরাওড সিরিয়ান সরকারকে সেনাবাহিনী ভেঙে দিয়ে ফরাসিদের হাতে নিয়ন্ত্রণ হস্তান্তরের সময়সীমা বেঁধে দেন। বাদশাহ ফয়সাল ১৯২০ সালের ১৪ জুলাই ফরাসিদের কাছে আত্মসমর্পণ করেন।[৮] কিন্তু তার প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেনারেল ইউসুফ আল-আজমা তাকে উপেক্ষা করে ফরাসিদের সাথে লড়াইয়ের জন্য মায়সালুনের দিকে নিজ সৈনিকদের নিয়ে অগ্রসর হন। দামেস্কের সরকার নিজেদের বাহিনী ভেঙে দিয়ে ফরাসিদের দাবি মেনে নেয়।

মায়সালুনের যুদ্ধ[সম্পাদনা]

ফয়সাল ফরাসিদের দাবি মেনে নিলেও ইউসুফ আল-আজমা তা মেনে নেননি। তিনি সৈনিক সংগ্রহ করে ফরাসিদের বিরুদ্ধে অগ্রসর হন। তাদের অস্ত্রশস্ত্র ফরাসিদের তুলনায় দুর্বল ছিল। অন্যদিকে ফরাসিরা উন্নত অস্ত্রে সজ্জিত ছিল। মায়সালুনে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘটিত যুদ্ধে সিরিয়ানরা পরাজিত হয়। ইউসুফ আল-আজমা যুদ্ধে নিহত হন।

চূড়ান্ত পর্যায়[সম্পাদনা]

ফরাসি সৈনিকদের পদক

১৯২০ সালের ২৪ জুলাই ফরাসিরা দামেস্কে প্রবেশ করে। পরেরদিন আরব রাজতান্ত্রিক রাষ্ট্র বিলুপ্ত করে ফরাসি শাসন প্রতিষ্ঠিত হয়।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

গ্রন্থপঞ্জি[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Caroline Camille Attié: Struggle in the Levant: Lebanon in the 1950s, I.B.Tauris, 2004, আইএসবিএন ১৮৬০৬৪৪৬৭৮, page 15-16.
  2. "The Franco-Syrian War of 1920 Participants: France vs. Syrians Dates: March, 1920, to August 7, 1920 Battle-Related Deaths: France—3,500; Syria—unknown; Where Fought: Middle East Initiator: France." [১]
  3. Peretz "In the meantime in 1919 Faisal's Arab force began to clash with French troops. In March 1920, the Syrian congress in Damascus directly challenged France by proclaiming Syria- including Lebanon, Palestine and Transjordan - independent and offering Faisal the crown... both sides immediately began to prepare for war." [২]
  4. Benny Morris. Victims. the date of the first attack of Arabs against French interest on March, 1st.
  5. Tom Segev in One Palestine. Complete. the date of the first attack of Arabs against French interest on March, 1st.
  6. Tauber E. The Formation of Modern Syria and Iraq. p.22
  7. Tauber E. The Formation of Modern Syria and Iraq. p.37
  8. Eliezer Tauber. The Formation of Modern Syria and Iraq. Frank Cass and Co. Ltd. Portland, Oregon. 1995.
  9. Elie Kedourie. England and the Middle East: The Destruction of the Ottoman Empire 1914-1921. Mansell Publishing Limited. London, England. 1987.