সিটি হান্টার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সিটি হান্টার
সিটি হান্টার ভলিউম ১.jpg
শুয়েশা কর্তৃক জাপানে প্রকাশিত প্রথম ট্যাঙ্কোবন খণ্ডের কভার, যেখানে রিও সায়েবা এবং কাওরি মাকিমুরা রয়েছে।
シティーハンター
(Shitī Hantā)
ধরনঅ্যাকশন, গোয়েন্দা, হাস্যরসাত্মক[১]
মাঙ্গা
লেখকসুকাসা হোজো
প্রকাশকশুয়েশা
ইংরেজি প্রকাশক
গুটসুন! এন্টারটেইনমেন্ট (অসম্পূর্ণ, বিলুপ্ত)
মুদ্রণজাম্প কমিক্স
ম্যাগাজিনসাপ্তাহিক শৌনেন জাম্প
ইংরেজি ম্যাগাজিন
জনতাত্ত্বিকশৌনেন
আসল চলিত২৬ ফেব্রুয়ারি ১৯৮৫১৯ নভেম্বর ১৯৯১
খণ্ড৩৫ (খণ্ডের তালিকা)
অ্যানিমে টেলিভিশন ধারাবাহিক
পরিচালককেনজি কোডামা
স্টুডিওসানরাইজ
লাইসেন্সকারী
মূল নেটওয়ার্কইয়োমিউরি টিভি
ইংরেজি নেটওয়ার্ক
আসল চালিত ৬ এপ্রিল ১৯৮৭ ২৮ মার্চ ১৯৮৮
পর্ব৫১ (পর্বের তালিকা)
অ্যানিমে টেলিভিশন ধারাবাহিক
সিটি হান্টার ২
পরিচালককেনজি কোডামা
স্টুডিওসানরাইজ
লাইসেন্সকারী
ডিস্কোটেক মিডিয়া
মূল নেটওয়ার্কইয়োমিউরি টিভি
ইংরেজি নেটওয়ার্ক
অ্যানিম্যাক্স
আসল চালিত ২ এপ্রিল ১৯৮৮ ১৪ জুলাই ১৯৮৯
পর্ব৬৩ (পর্বের তালিকা)
অ্যানিমে চলচ্চিত্র
.৩৫৭ ম্যাগনাম
পরিচালককেনজি কোডামা
স্টুডিওসানরাইজ
লাইসেন্সকারী
ডিস্কোটেক মিডিয়া
মুক্তি১৭ জুন ১৯৮৯
চলন সময়৮৭ মিনিট
অ্যানিমে টেলিভিশন ধারাবাহিক
সিটি হান্টার ৩
পরিচালককেনজি কোডামা
স্টুডিওসানরাইজ
লাইসেন্সকারী
ডিস্কোটেক মিডিয়া
মূল নেটওয়ার্কইয়োমিউরি টিভি
ইংরেজি নেটওয়ার্ক
অ্যানিম্যাক্স
আসল চালিত ১৫ অক্টোবর ১৯৮৯ ২১ জানুয়ারি ১৯৯০
পর্ব১৩ (পর্বের তালিকা)
অ্যানিমে চলচ্চিত্র
বে সিটি ওয়্যার্স
পরিচালককেনজি কোডামা
স্টুডিওসানরাইজ
লাইসেন্সকারী
ডিস্কোটেক মিডিয়া
মুক্তি২৫ আগস্ট ১৯৯০
চলন সময়৪৫ মিনিট
অ্যানিমে চলচ্চিত্র
মিলিয়ন ডলার কন্সপাইরেসি
পরিচালককেনজি কোডামা
স্টুডিওসানরাইজ
লাইসেন্সকারী
ডিস্কোটেক মিডিয়া
মুক্তি২৫ আগস্ট ১৯৯০
চলন সময়৪৩ মিনিট
অ্যানিমে টেলিভিশন ধারাবাহিক
সিটি হান্টার '৯১
পরিচালককিয়োশি এগামি
স্টুডিওসানরাইজ
লাইসেন্সকারী
ডিস্কোটেক মিডিয়া
মূল নেটওয়ার্কনিপ্পন টিভি
ইংরেজি নেটওয়ার্ক
অ্যানিম্যাক্স
আসল চালিত ২৮ এপ্রিল ১৯৯১ ১০ অক্টোবর ১৯৯১
পর্ব১৩ (পর্বের তালিকা)
অ্যানিমে টেলিভিশন চলচ্চিত্র
দ্য সিক্রেট সার্ভিস
পরিচালককেনজি কোডামা
স্টুডিওসানরাইজ
লাইসেন্সকারী
ডিস্কোটেক মিডিয়া
মূল নেটওয়ার্কনিপ্পন টিভি
ইংরেজি নেটওয়ার্ক
আনিমে নেটওয়ার্ক
মুক্তি৫ জানুয়ারি ১৯৯৬
চলন সময়৯০ মিনিট
অ্যানিমে টেলিভিশন চলচ্চিত্র
গুডবাই মাই সুইটহার্ট
পরিচালককাজুও ইয়ামাজাকি
স্টুডিওসানরাইজ
লাইসেন্সকারী
ডিস্কোটেক মিডিয়া
মূল নেটওয়ার্কনিপ্পন টিভি
মুক্তি২৫ এপ্রিল ১৯৯৭
চলন সময়৮৮ মিনিট
অ্যানিমে টেলিভিশন চলচ্চিত্র
ডেথ অব দ্য ভিসিয়াস ক্রিমিনাল রিও সায়েবা
পরিচালকমাসাহারু ওকুওয়াকি
স্টুডিওসানরাইজ
লাইসেন্সকারী
ডিস্কোটেক মিডিয়া
মূল নেটওয়ার্কনিপ্পন টিভি
মুক্তি২৩ এপ্রিল ১৯৯৯
চলন সময়৯১ মিনিট
অ্যানিমে চলচ্চিত্র
দ্য মুভি: শিনজুকু প্রাইভেট আইজ
পরিচালককেনজি কোডামা
লেখকইয়োচি কাতো
সঙ্গীততাকু ইওয়াসাকি
স্টুডিওসানরাইজ
লাইসেন্সকারী
ডিস্কোটেক মিডিয়া
মুক্তি৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
চলন সময়৯৫ মিনিট
অভিযোজিত মাধ্যম এবং স্পিন-অফ
প্রবেশদ্বার আইকন আনিমে এবং মাঙ্গা প্রবেশদ্বার

সিটি হান্টার (জাপানি: シティーハンター, হেপবার্ন: Shitī Hantā) হল সুকাসা হোজো লিখিত ও চিত্রিত একটি জাপানি মাঙ্গা ধারাবাহিক। এটি ১৯৮৫ থেকে ১৯৯১ পর্যন্ত জাপানি ম্যাগাজিন সাপ্তাহিক শৌনেন জাম্প-এ ধারাবাহিকভাবে প্রকাশিত হয়। মাঙ্গাটির প্রকাশক শুয়েশা কর্তৃক এগুলো ৩৫ ট্যাঙ্কোবন খণ্ডেও প্রকাশিত হয়। সিটি হান্টার অবলম্বনে সানরাইজ স্টুডিও ১৯৮৭ সালে অ্যানিমে টেলিভিশন ধারাবাহিক প্রকাশ করে। অ্যানিমে ধারাবাহিকটি অসংখ্য এশীয় এবং ইউরোপীয় দেশে জনপ্রিয় হয়েছিল।

সিটি হান্টার বিভিন্ন দেশের একাধিক অভিযোজিত মাধ্যম ও স্পিন-অফের সমন্বয়ে মাধ্যম ফ্র্যাঞ্চাইজি গড়ে তুলেছে। এই ফ্র্যাঞ্চাইজিতে রয়েছে চারটি আনিমে টেলিভিশন ধারাবাহিক, তিনটি আনিমে টেলিভিশন বিশেষ, দুটি মূল ভিডিও অ্যানিমেশন, একাধিক অ্যানিমেটেড পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র (ফেব্রুয়ারি ২০১৯ এর প্রকাশিত চলচ্চিত্র সহ), একাধিক লাইভ-অ্যাকশন চলচ্চিত্র (জ্যাকি চ্যান অভিনীত হংকংয়ের চলচ্চিত্র এবং একটি ফরাসি চলচ্চিত্র), ভিডিও গেম, এবং একটি সরাসরি মারপিটধর্মী কোরীয় টিভি নাটকঅ্যাঞ্জেল হার্ট নামক এর একটি স্পিন-অফ মাঙ্গাও রয়েছে, যা নিয়ে পরে আনিমে টেলিভিশন ধারাবাহিক, একটি লাইভ-অ্যাকশন ফিলিপিনীয় টিভি নাটক এবং সরাসরি মারপিটধর্মী জাপানী টিভি নাটক নির্মিত হয়েছে।

পটভূমি[সম্পাদনা]

এই ধারাবাহিক রিও সায়েবা নামক "সুইপার" চরিত্রের কাহিনী ঘিরে যে সবসময় সুন্দরী মেয়েদের পিছনে ঘুরে এবং সে একজন বেসরকারি গোয়েন্দা তথা নিজের সহযোগী বা পার্টনার হিদেইউকি মাকিমুরার সাথে টোকিও শহরে অপরাধমূলক কার্যক্রম বন্ধ করতে কাজ করে। তাদের "সিটি হান্টার" ব্যবসাটি একটি গোপন অর্থের বিনিময়ে প্রদত্ত সেবা, তাদের সাথে যোগাযোগ করতে হলে শিনজুকু স্টেশনের ব্ল্যাকবোর্ডে ইংরেজিতে তিনটি অক্ষর "এক্স ওয়াই জেড" লিখতে হয়।

একদিন হিদেইউকিকে খুন করা হয়, আর তাই রিওকে হিদেইউকির বোন পুরুষ গোছের মেয়ে কাওরিকে দেখে রাখতে হবে যে পরবর্তীতে তার সহযোগী হয়। তবে কাওরি খুব সন্দেহপ্রবন ও হিংসুটে, প্রায়শই রিওকে তার বৃহৎ হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করে যখন রিওকে অন্য মেয়ের পেছনে ঘুরতে দেখে। পর্দার অন্তরালের গল্পটি রিও এবং কাওরির মধ্যে প্রেম এবং প্রতিটি মিশনে তারা যেভাবে একে অপরকে সহযোগিতা করে তাও দেখিয়ে থাকে।

চরিত্র[সম্পাদনা]

রিও সায়েবা (冴羽 獠, সায়েবা রিও)
কণ্ঠ দিয়েছেন: আকিরা কামিয়া (জাপানি); মার্টিন ব্ল্যাকার; স্টিফেন ফু (ইংরেজি)
রিও এই ধারাবাহিকের প্রধান চরিত্র। তিন বছর বয়সে, মধ্য আমেরিকায় বিমান দূর্ঘটনায় রিও ছিল একমাত্র জীবিত মানুষ। নিজের পরিচয় সম্পর্কে অজ্ঞাত রিওকে গোরিলা যোদ্ধারা বড় করে। যুদ্ধ শেষে রিও টোকিওতে ফিরে যাওয়ার পূর্বে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে চলে যায়।[২]
জাপানে সে হিদেইউকি মাকিমুরার সাথে "সিটি হান্টার" দল গড়ে তুলে। কিন্তু হিদেইউকির মৃত্যুর পর কাওরি রিওর সহযোগীর জায়গাটা নিয়ে নেয়। দক্ষ বন্দুক যোদ্ধা হিসেবে খ্যাত রিও একটি ছিদ্রে সবগুলো গুলি করতে সক্ষম বলে জানা যায়। তার পছন্দের অস্ত্র হল কোল্ট পাইথন .৩৫৭ ম্যাগনাম
রিও তার সহকর্মী হায়াতো ইজুইনের ডাকনাম উমিবজু রেখেছিল, এবং উমিবজু রিওর নাম রেখেছিল "দ্য স্ট্যালিয়ন অফ শিনজুকু" (新宿の種馬, শিনজুকু নো তনুমা) (একটি বিদ্রূপাত্মক নাম, কারণ রিও একজন সত্যিকারের বদ স্বভাবের ব্যক্তি যে তার সাথে দেখা বা দেখা যে কোনো সুন্দরীকে ধরার চেষ্টা করে, এবং প্রতিবারই ব্যর্থ হয়)। রিও রিভলভার, আধা স্বয়ংক্রিয় বন্দুক, মেশিন-পিস্তল, রাইফেল, কার্বাইন এবং ক্রসবো সহ একজন দক্ষ মার্কসম্যান; সে খালি হাতে যুদ্ধ করতে জানে এবং প্রয়োজনের সময় একজন সত্যিকারের সাহসী হিসাবে ড্রাইভ করে; তার গাড়ি হল একটি মিনি
কাওরি মাকিমুরা (槇村 香, মাকিমুরা কাওরি)
কণ্ঠ দিয়েছেন: কাজু ইকুরা (জাপানি); পামেলা রিবন; মরগান গ্যারেট (ইংরেজি)
কাওরি হল রিও সায়েবার সহযোগী। সে মক্কেলদের ব্যবস্থা করা ও অন্যান্য ব্যবস্থাপনার জন্য দায়বদ্ধ। রিওর মেয়েদের স্কার্ট ধরাধরি সে সবচেয়ে বেশি অপছন্দ করে। তারা একে অপরের সাথে ঝগড়া মারামারিতে লিপ্ত থাকলেও দল হিসেবে তারা সেরা। সে হিদেউকির পালক বোন। তার আসল নাম কাওরি হিসাইশি (久石 香, হিসাইশি কাওরি)
হিদেইউকি মাকিমুরা (槇村 秀幸, মাকিমুরা হিদেইউকি)
কণ্ঠ দিয়েছেন: হিদেউকি তানাকা
হিদেউকি কাওরির পালক বড় ভাই এবং ধারাবাহিকের শুরুতে রিওর পার্টনার। কাওরি তার রক্তের সম্পর্কের বোন নয়, যখন সে ছোট ছিল তখন হিদেইউকির বাবা তাকে দত্তক নেয়। সে ছিল ন্যায়পরায়ণ একজন পুলিশ গোয়েন্দা। সন্ত্রাসীদের হাতে মারা যাওয়ার পর তার স্থানটি কাওরি নিয়ে নেয়। মৃত্যুর আগে রিওর কাছে তার শেষ ইচ্ছা ছিল যেন রিও তার বোনকে দেখে রাখে।
উমিবজু (海坊主)
কণ্ঠ দিয়েছেন: টেশো গেন্ডা (জাপানি); লু পেরিম্যান; ক্রিস রেজার (ইংরেজি)
উমিবজু আরেকজন "সুইপার" যে টোকিওতে কাজ করে। মধ্য আমেরিকার সংঘাতের সময় উমিবজু ছিল রিওর স্পেশাল ফোর্সের শত্রু। একে অপরের বিরোধী হওয়ার পরও দুজন দুজনের বন্ধু ও একে অপরকে সম্মান করে। চাকরি হিসেবে উমিবজু নিজের প্রাক্তন সেনা ও প্রেমিকা মিকির ক্যাটস আই ক্যাফের ওয়েটার হিসেবে কাজ করে।[২] কর্মজগতে তার নাম হল ফ্যালকন (ファルコン, ফারুকন) এবং তার আসল নাম হায়াতো ইজুইন (伊集院 隼人, ইজুইন হায়াতো); তার নামের কানজি হায়াকে হায়াবুসা (জাপানী ভাষায় ফ্যালকন) হিসেবেও পড়া যেতে পারে, তবে তার কর্মজগতে উমিবজু ডাকনামটি রিওর দেওয়া। তার প্রিয় অস্ত্র হল এসঅ্যান্ডডাব্লিউ এম২৯ .৪৪ ম্যাগনাল ছয় ইঞ্চি রিভলবার, সাকো-ডিফেন্স এম৬০ মেশিন গান (মাঝেমধ্যে সে এম২৪৯ ব্যবহার করে) এবং এম১৬ বাজুকা। তার ভয়ঙ্কর চেহারা থাকা সত্ত্বেও তার বিড়ালছানাদের প্রতি ভীতি রয়েছে, সে মহিলাদের প্রতি খুব লাজুক এবং রিওর চেয়ে অনেক বেশি উদার। যখন রিও ছিল একজন গেরিলা এবং উমিবজু ছিল একজন ভাড়াটে যোদ্ধা ছিল তখন মধ্য আমেরিকায় রিওর সাথে তার একটি লড়াই হয়েছিল যার ফলে উমিবজুর দৃষ্টিশক্তি খুবই দুর্বল; এরপর থেকে, উমিবজু গল্পটা শেষ করতে রিওর সাথে একটি দ্বৈত লড়াই করতে চাইত; ধারাবাহিক চলাকালে, সে চিরতরে অন্ধ হয়ে যাবে এবং তাকে শিখতে হবে যে কিভাবে অন্য চার ইন্দ্রিয় ব্যবহার করে লড়তে হয়; যদিও, সে ঠিক করে এই ব্যাপারটা শেষ না করে সে অবসর নিবেনা। পরবর্তীতে রিওর পালক পিতা, প্রাক্তন গেরিলা যোদ্ধা ও বর্তমান মাদক সম্রাট শিন কাইবারা জাপানে আসে; তার মাদকদ্রব্য তরুনকালে উমিবজু ও তার ইউনিটের উপর আক্রমণ করতে রিওর উপর প্রয়োগ করা হয়েছিল; রিওর পরিচিত ও জঙ্গলে তার আরেক পিতৃতুল্য ব্যক্তির মেয়ে ব্লাডি মেরির কাছে থেকে এটা শোনার পর, কাইবারার বিরুদ্ধে উমিবজু রিও ও কাওরির সাথে যোগ দেয়। শেষ গল্প আর্কে সে মিকিকে বিয়ে করে কিন্তু মিকিকে তার শত্রুর যোদ্ধারা গুলি করে; মিকি মারা যাবে না এই বিশ্বাস রেখে উমিবোজু অগ্নি লড়াইয়ে প্রবেশ করে।
উমিবজু হল জাপানী রূপকথার একটি ইয়োকাই (আত্মা); বলা হয় যদি বিদেশের কেউ তার সাথে কথা বলে তবে সে জাহাজ উলটে দেয়; তাকে বজু (বৌদ্ধ সন্ন্যাসী) এর ন্যায় কেশ শূন্য মাথার ব্যক্তি হিসেবে চিত্রিত হয়ে হয়; চরিত্রের নাম উমি এর অর্থ সমুদ্র
সায়কো নোগামি (野上 冴子, নোগামি সায়কো)
কণ্ঠ দিয়েছেন: ইয়োকো আসাগামি (জাপানি); জানা ব্রকম্যান; মারিসা লেন্টি (ইংরেজি)
সায়কো টোকিও পুলিশের গোয়েন্দা ও রেইকার বড় বোন যে প্রায়ই সিটি হান্টার টিমকে পুলিশের কাজ প্রদান করে। রিও সর্বদা তার কাছে সায়কোরকে সাহায্যের ফলে জমে থাকা নিজের পাওনার লম্বা তালিকা রাখে, যেগুলো সায়কো সবসময় না দিয়ে পালিয়ে যায়।
রেইকা নোগামি (野上 麗香, নোগামি রেইকা)
কণ্ঠ দিয়েছেন: ইয়োশিনো তাকামোরি (জাপানি); ক্যাথরিন ক্যাটমুল (ইংরেজি)
রেইকা হল সায়কোর ছোট বোন।

মাধ্যম[সম্পাদনা]

মাঙ্গা[সম্পাদনা]

মাঙ্গা ধারাবাহিকটি ১৯৮৫ সালের ১৩তম ইস্যু থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত সাপ্তাহিক শৌনেন জাম্প-এ প্রকাশিত হয়।[৩][৪] এটি ৩৫টি সংগৃহীত খণ্ডে জাম্প কমিক্স-এর অধীনে শুয়েশা ১৫ জানুয়ারি, ১৯৮৬ থেকে ১৫ এপ্রিল, ১৯৯২ পর্যন্ত প্রকাশ করে।[৫][৬] এসব খণ্ডগুলোতে ধারাবাহিকটি আসল স্বতন্ত্র অধ্যায়ে তুলে ধরার বদলে ৫৫ পৃথক গল্প বা পর্বে ভাগ করে দেওয়া হয়। প্রতিটি গল্প বিভিন্ন মহিলা চরিত্র বা "নায়িকা" কেন্দ্রিক।[৭][৮] ১৯৯৬ সালের ১৮ জুন থেকে ১৯৯৭ সালের ১৭ অক্টোবর পর্যন্ত শুয়েশা ১৮ খণ্ডের সংস্করণে ধারাবাহিকটি প্রকাশ করে।[৯][১০] ৩২ খণ্ডের একটি তৃতীয় সংস্করণ তোকুমা শোটেন ২০০৩ সালের ১৬ ডিসেম্বর থেকে ২০০৫ সালের ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত প্রকাশ করে।[১১][১২] ধারাবাহিকটির ত্রিশতম বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে ১২ খণ্ড সম্বলিত সিটি হান্টার এক্সওয়াইজেড সংস্করণ নামক একটি চতুর্থ সংস্করণ তোকুমা শোটেন কর্তৃক প্রকাশিত হয়।[১৩] প্রথম খণ্ডটি ২০১৫ সালের ১৮ জুলাই তারিখে প্রকাশিত হয়।[১৪] অষ্টম খণ্ডটি ২০১৫ সালের ২০ অক্টোবর প্রকাশিত হয়।[১৫]

তাকেহিকো ইনোয়ি ধারাবাহিকটির সহকারী ছিলেন।[১৬]

আশির দশকে মার্কিন কমিক বাজারে সিটি হান্টারের সত্ত্ব নেওয়ার প্রচেষ্টা দেখা গিয়েছিল; যদিও হোজো ডান থেকে বাম পদ্ধতিতে মাঙ্গা প্রকাশের প্রতি জোর দিতেন। ২০০২ সালে কোয়ামিক্স গুটসুন! এন্টারটেইনমেন্ট নামক একটি মার্কিন জোট কোম্পানি গড়ে তুলেন। সিটি হান্টার ছিল তাদের রাইজিন কমিক্স সংকলনের একটি ফ্ল্যাগশিপ শিরোনাম। রাইজিন ৪৬ ইস্যুর পরে প্রকাশ বন্ধ হয়ে যাওয়ার পূর্বে সাপ্তাহিক প্রকাশের পরিবর্তে মাসিক প্রকাশের পদ্ধতি বেছে নিয়েছিল।[১৭]

মাঙ্গা ধারাবাহিকটি এখন জাপানি ভাষায় আইফোনে রেইনবো অ্যাপসে পড়ার জন্য রয়েছে।[১৮]

২০০১ সালে হোজো অ্যাঞ্জেল হার্ট শিরোনামে সিটি হান্টারের একটি স্পিন-অফ ধারাবাহিক শুরু করে। এটি সিটি হান্টারের সমান্তরাল বিশ্বে স্থাপন করা হয়েছে যেখানে কাওরি মাকিমুরা চরিত্রটি মারা যায় এবং তার হৃদয় অ্যাঞ্জেল হার্টের প্রধান চরিত্র শিয়াং-ইং এর দেহে প্রতিস্থাপন করা হয়।[১৯]

কিয়ো কারা সিটি হান্টার নামক আরেকটি স্পিন-অফ মাঙ্গা ২০১৯ সালের ২৫ জুলাইয়ে তোকুমা শোটেনের মাসিক কমিক জেনোন ম্যাগাজিনে প্রকাশ করা শুরু হয়। এর কাহিনী একটি ৪০ বছর বয়সী অবিবাহিত মহিলাকে কেন্দ্র করে যে রিও সায়েবা এবং সিটি হান্টার মাঙ্গার ভক্ত, হঠাৎ একটি ট্রেন দুর্ঘটনায় মারা যায় এবং সিটি হান্টারের জগতে পুনর্জন্মের মাধ্যমে প্রবেশ করে।[১]

অ্যানিমে[সম্পাদনা]

সানরাইজের প্রযোজনায় ও কেনজি কোডামার পরিচালনায় নির্মিত মাঙ্গার অ্যানিমে ধারাবাহিক ইয়োমিউরি টেলিভিশনের পরিবেশনায় এটি সম্প্রচার করা হয়।[২০] সিটি হান্টার অ্যানিমে ৬ এপ্রিল, ১৯৮৭ থেকে ২৮ মার্চ ১৯৮৮ পর্যন্ত ৫১ পর্ব সম্প্রচার এবং ১০টি ভিএইচএস ক্যাসেটে প্রকাশ করা হয়।[২১][২২] ৬৩ পর্ব সম্বলিত সিটি হান্টার ২, ৮ এপ্রিল ও ১৪ জুলাইয়ের মধ্যে সম্প্রচারিত হয় এবং ১০টি ভিএইচএস ক্যাসেটে আগস্ট ১৯৮৮ থেকে মার্চ ১৯৯০ পর্যন্ত প্রকাশিত হয়।[২১][২২] সিটি হান্টার ৩, ১৩টি পর্ব নিয়ে ১৫ অক্টোবর, ১৯৮৯ থেকে ২১ জানুয়ারি, ১৯৯০ পর্যন্ত সম্প্রচারিত হয় এবং ৬টি ভিএইচএস ক্যাসেটে নভেম্বর ১৯৯০ থেকে এপ্রিল ১৯৯১ পর্যন্ত প্রকাশিত হয়।[২১][২২] সিটি হান্টার '৯১ ১৯৯১ সালের ২৮ এপ্রিল থেকে ১০ অক্টোবর পর্যন্ত সম্প্রচার এবং ১৯৯২ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে জুলাই পর্যন্ত ৬ ভিএইচএস ক্যাসেটে প্রকাশ করা হয়।[২১][২২] অ্যানিমে ধারাবাহিকটি পরবর্তীতে ২০টি ভিডিও ক্যাসেট সংকলনে আবার প্রকাশ করা হয়।[২০]

সিটি হান্টার কমপ্লিট নামক ৩২ ডিস্কের একটি ডিভিডি বাক্স সেট অ্যানিপ্লেক্স কর্তৃক জাপানে ৩১ আগস্ট, ২০০৫ সালে প্রকাশিত হয়। সেটটিতে সবগুলো ধারাবাহিক রয়েছে, এছাড়াও রয়েছে বিশেষ টিভি ভিডিও এবং অ্যানিমেটেড চলচ্চিত্র সহ রিও ও কাওরির চিত্র সমেত একটি ছবির বই।[২৩] চারটি ধারাবাহিকের ২৬টি ডিস্ক পৃথকভাবে পরে ২০০৭ সালের ১৯ ডিসেম্বর থেকে ২০০৮ সালের ২৭ আগস্ট পর্যন্ত প্রকাশিত হয়।[২৪] ৩০,০০০ বাক্স সেট বিক্রি হয়েছিল, যার মোট মূল্য জাপানে ছিল ¥৩ বিলিয়ন ($৩৮ মিলিয়ন)।[২৫]

উত্তর আমেরিকায় প্রকাশের জন্য ধারাবাহিকটি এডিভি ফিল্মস দত্তাধিকার প্রাপ্ত হয়। প্রথম সিটি হান্টার ধারাবাহিকটি এডিভি ফ্যানসাবস এর নামে ২০০০ সালের মার্চে প্রকাশিত হয়। নামটি ব্যবহারের উদ্দেশ্য ছিল দ্রুতগতিতে ভিএইচএসের জন্য স্বল্পমূল্যে সাবটাইটেলের ব্যবস্থা করা।[২৬] ধারাবাহিকটি ১৩টি টেপে প্রকাশ করা হয়, প্রতিটি টেপে ৪টি করে পর্ব রাখা হয়েছিল। টেপগুলি পৃথকভাবে বা সাবস্ক্রিপশন পরিষেবার অংশ হিসাবে অর্ডার করা হত।[২৭]

পরবর্তীতে এডিভি ডিভিডিতে ধারাবাহিকটি প্রকাশ করে। প্রথম ধারাবাহিকটি ৫টি ডিস্ক সম্বলিত দুই বক্সসেটে ২০০৩ সালের ২৯ জুলাই তারিখে প্রকাশিত হয়।[২৮][২৯] সিটি হান্টার ২, ৫টি ডিস্ক সম্বলিত আরো দুটি বক্সসেটে ২০০৩ সালের ২৮ অক্টোবর এবং ১৮ নভেম্বরে প্রকাশ করা হয়।[৩০][৩১] সিটি হান্টার ৩ এবং সিটি হান্টার '৯১ একটি বক্সসেটে যথাক্রমে ২০০৩ সালের ২ ডিসেম্বর ও ১৬ ডিসেম্বর তারিখে প্রকাশ করা হয়।[৩২][৩৩]

সিটি হান্টার মাঙ্গার ত্রিশতম বার্ষিকী উপলক্ষে সিটি হান্টার এক্সওয়াইজেড সংস্করণ-এর সবগুলো ১২টি খণ্ডের ক্রেতাদের একটি "মোশন গ্রাফিক অ্যানিমে" ডিভিডি প্রদান করা হয়। ডিভিডিতে একটি বিশেষ অ্যাঞ্জেল হার্ট-এর অধ্যায় অবলম্বনে অ্যানিমে ছিল যার নাম রিওর প্রস্তাব দেওয়া হয় এবং সিটি হান্টারের কলাকুশলীরা এতে কণ্ঠ দেন।[৩৪] ২০১৯ সালের ২০ এপ্রিলে ডিস্কোটেক মিডিয়া ঘোষণা দেয় যে তারা ২০১৯ সালের শিনজুকু প্রাইভেট আইজ সমেত সম্পূর্ণ সিটি হান্টার অ্যানিমেটেড ফ্র‍্যাঞ্চাইজের সত্ত্ব প্রাপ্ত হয়েছে।[৩৫] ২০২০ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারিতে প্রথম ২৬টি পর্ব প্রকাশ করা হয়।[৩৬]

চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

১৯৮৯ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত তিনটি হল প্রদর্শিত চলচ্চিত্র মুক্তি দেওয়া হয়: .৩৫৭ ম্যাগনাম ১৯৮৯ সালের ১৭ জুনে প্রকাশিত হয়, বে সিটি ওয়্যার্স মুক্তি পায় ১৯৯০ সালের ২৫ আগস্টে, এবং মিলিয়ন ডলার কন্সপাইরেসি মুক্তি পায় ১৯৯০ সালের ২৫ আগস্ট তারিখে।[২১]

এডিভি ফিল্মস ২০০৩ সালের ৩ জুন তারিখে বোনাস পর্ব সহ বে সিটি ওয়্যার্সমিলিয়ন ডলার কন্সপাইরেসি সম্বলিত একটি ডিভিডি প্রকাশ করে।[৩৭]

সিটি হান্টার দ্য মুভি: শিনজুকু প্রাইভেট আইজ অ্যানিপ্লেক্স প্রযোজিত একটি নতুন হল প্রদর্শিত চলচ্চিত্র জাপানে ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ তারিখে মুক্তি দেওয়া হয়।[৩৮] ক্যাটস আই-এর কিসুগি বোনেরা এই চলচ্চিত্রে ক্রসওভার হিসেবে আবির্ভূত হয়।[৩৯] তেরুও সাতোহ এবং তাকাহিকো কিয়ুগো এর পরিচালকের কাজ করেন, অন্যদিকে কুমিকো তাকাহাশি এর চরিত্র নির্মাণ এবং তাকু ইওয়াসাকি এর সঙ্গীত পরিচালনা করেন।[৪০] চলচ্চিত্রটি জাপানি বক্স অফিসের চতুর্থ স্থান দখল করে,[৪১] এবং ২০১৯ সালে ১৭ মার্চে এটি সর্বমোট ¥১,৪০,৪৭,৪৭,৩২০ ($১২.১৬ মিলিয়ন) আয় করে।[৪২] ছবিটি মুক্তি পাওয়ার দুই মাসের মধ্যে তথা ১৫ এপ্রিলের মধ্যে ¥১,৫০,২৬,৬৫,৪৪০ ($১,৩৭,৮৪,৬৯৯) আয় করার মাধ্যমে ২০১৯ সালে তৃতীয় সর্বোচ্চ মোট আয়ের জাপানি অ্যানিমে চলচ্চিত্রের স্থান দখল করে,[৪৩] ২০১৯ এর শেষের দিকে এটি জাপানে ¥১.৫৩ বিলিয়ন ($১৪ মিলিয়ন) আয় করে।[৪৪] শিনজুকু প্রাইভেট আইজ ফ্রান্সে ১৩ জুনে মুক্তি পায়। সিটি হান্টারের ফরাসি অবলম্বিত লাইভ-অ্যাকশন চলচ্চিত্র নিকি লারসন এবং পারফুম ডি কিউপিডন-এর পরিচালক ফিলিপ লাচেউ শিনজুকু প্রাইভেট আইজ-এর ফরাসি পরিবেশনার কাজে দায়িত্বরত ছিল।[৪৫] ডিস্কোটেক মিডিয়া ২০১৯ সালে ওটাকোনে ইংরেজি ডাব সহ প্রিমিয়ার করা হয়।[৪৬]

টেলিভিশন চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

তিনটি টেলিভিশন চলচ্চিত্র প্রযোজিত হয়: সিক্রেট সার্ভিস ১৯৯৬ সালের ৫ জানুয়ারিতে বের হয় যার পরে ১৯৯৭ সালের ২৫ এপ্রিলে গুডবাই মাই সুইটহার্ট প্রকাশিত হয়। এরপর ১৯৯৯ সালের ২৩ এপ্রিলে দ্য ডেথ অব ভিসিয়াস ক্রিমিনাল সায়েবা রিও প্রকাশ করা হয়।[২১]

এডিভি ফিল্মস গুডবাই মাই সুইটহার্ট চলচ্চিত্রটি ফ্র্যাঞ্চাইজি থেকে প্রথমবারের মত উত্তর আমেরিকায় সিটি হান্টার:দ্য মোশন পিকচার শিরোনামে প্রকাশ করে।[৪৭]

লাইভ অ্যাকশন[সম্পাদনা]

হংকং চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

১৯৯৩ সালে সিটি হান্টার ধারাবাহিকের লাইভ-অ্যাকশন হংকং চলচ্চিত্র প্রকাশিত হয়। চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেন ওং জিং এবং রিও সায়েবা চরিত্রে জ্যাকি চ্যান, কাওরি চরিত্রে জোই ওং এবং কুমিকো গোটো অভিনয় করেন।[২০][৪৮] চলচ্চিত্রের শুটিং চলাকালীন সময়, দূর্ঘটনাবশত জ্যাকি চ্যানের কাঁধ স্থানচ্যুত হয়।[৪৯] জ্যাকি চ্যান চলচ্চিত্রটির সমালোচনা করেন।[৫০] পরবর্তীতে ফরচুন স্টার ও টুয়েন্টিয়েথ সেঞ্চুরি স্টুডিওজ চলচ্চিত্রটি অন্যান্য সস্তা ক্লাসিক চলচ্চিত্রগুলোর সাথে আর১ ডিভিডিতে প্রকাশ করে।

সেভিয়র অব দ্য সোল (九一神鵰俠侶 গাউয়াত সান্দিও হাপ্লুই) ১৯৯১ সালে প্রকাশিত একটি লাইক-অ্যাকশন হংকং চলচ্চিত্র যা সিটি হান্টারের চরিত্রগুলো নিয়ে নির্মিত হলেও নতুন কাহিনী ব্যবহার করা হয়েছিল।[৫০] ১৯৯৬ সালে মিস্টার মাম্বল চলচ্চিত্রে সিটি হান্টারের ধারণা অক্ষুণ্ণ রাখা হলেও চরিত্রের নামগুলো পালটে দেওয়া হয়।[৫০]

চৈনিক চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

সিটি হান্টার অবলম্বনে একটি নতুন চীনা চলচ্চিত্র নির্মাণের কাজ বিদ্যমান। ২০১৬ সালে ঘোষণা করা হয় যে এই নতুন চলচ্চিত্রটি হংকংয়ের চলচ্চিত্র নির্মাতা স্ট্যানলি টং পরিচালনা করবেন এবং রিও সায়েবা চরিত্রে অভিনয় করবেন চীনের অভিনেতা হুয়াং জিয়াওমিং[৫১][৫২]

ফরাসি চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

একটি পৃথক ফরাসি মারপিটধর্মী-হাস্যরসাত্মক চলচ্চিত্র নিকি লারসন এট পারফুম ডি কিউপিডন (অর্থ "নিকি লারসন এবং কিউপিডের সুগন্ধি") ২০১৯ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি তারিখে ফ্রান্সে মুক্তি পায়।[৫৩] সিটি হান্টার অবলম্বনে নির্মিত এই ফরাসি চলচ্চিত্রে ফিলিপ লাচেউ একইসাথে নিকি লারসন (সিটি হান্টার অ্যানিমে ধারাবাহিকের ফরাসি ডাবে রিও সায়েবা নিকি লারসন নামে পরিচিত) চরিত্রে অভিনয় এবং চলচ্চিত্রের পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন। এলোডি ফন্টান লাচেউর সাথে এই চলচ্চিত্রে লরা মার্কোনি (কাওরি মাকিমুরা) চরিত্রে অভিনয় করার পাশাপাশি প্রাথমিক প্রচারমূলক কর্মের অংশ হিসেবে তারেক বৌদালী, জুলিয়েন আরুতিদিদিয়ের বোর্ডনদেরও এখানে দেখা গেছে।[৫৪][৫৫][৫৬] পামেলা অ্যান্ডারসনও এই চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।[৫৭]

টেলিভিশন ধারাবাহিক[সম্পাদনা]

২০০৮ সালে সিটি হান্টারের একটি লাইভ-অ্যাকশন টেলিভিশন ধারাবাহিক নির্মাণ করার ঘোষণা দেওয়া হয়েছিলো যা পরবর্তীতে ফক্স টেলিভিশন স্টুডিওজ ও দক্ষিণ কোরীয় মিডিয়া কোম্পানি এসএসডির যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হয়।[৫৮]

একাধিক হলিউড-ভিত্তিক অভিনয়শিল্পীদের সাথে জাং উ-সাংকে রিও চরিত্রে অভিনয়ের জন্য বাছাই করা হয়। এই ধারাবাহিকের দৃশ্যগুলো সিউলটোকিওতে ধারণ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।[৫৯] ২০১১ সালে এসবিএস ধারাবাহিকের ধারণাটিকে একটি একই নামে কোরীয় টিভি ধারাবাহিকে বাস্তবায়ন করে, এই নাটকে অভিনয় করেছে লি মিন-হোপার্ক মিন-ইয়াং[৬০] ধারাবাহিকটি ইংরেজি সাবটাইটেল সহ হুলু স্ট্রিমিং সেবায় দেখার সুযোগ রয়েছে।[৬১]

২০১৪ সালে সিটি হান্টার অবলম্বনে একটি চীনা টেলিভিশন ধারাবাহিক নির্মাণ করা হয় যার চীনা শিরোনাম ছিল 城市猎人 (শেং শি লি রেন)।[৬২] ২০১৫ সালে সিটি হান্টারের স্পিন-অফ মাঙ্গা অ্যাঞ্জেল হার্ট অবলম্বনে একটি লাইভ অ্যাকশন জাপানি টিভি নাটক নির্মাণ করা হয়।

ভিডিও গেম[সম্পাদনা]

১৯৯০ সালের মার্চে পিসি ইঞ্জিনের জন্য সানসফট সিটি হান্টার বাজারে ছাড়ে।[৬৩]

জাম্প ফোর্স ফাইটিং গেমে রিও গেমের চরিত্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে।[৬৪]

প্রতিক্রিয়া[সম্পাদনা]

মাঙ্গা[সম্পাদনা]

২০১৬ সালের মধ্যে, সিটি হান্টার মাঙ্গা ধারাবাহিক বিশ্বব্যাপী ৫ কোটি ট্যাঙ্কোবন খণ্ড বিক্রি করেছে।[৫২] এর পাশাপাশি, ধারাবাহিকটি ১৯৮৫ থেকে ১৯৯১ পর্যন্ত সাপ্তাহিক শৌনেন জাম্প মাঙ্গা সাময়িকীর মাধ্যমে আনুমানিক ৯০ কোটি সংখ্যক ছড়িয়েছে, সাথে এসব জাম্প সাময়িকী থেকে আনুমানিক $২০০ কোটি আয় হয়েছে।[ক] ধারাবাহিকটকে "শৌনেন জাম্প"-এ প্রদর্শিত ১৯তম "সবচেয়ে শক্তিশালী" ধারাবাহিক হিসেবে নির্বাচিত করা হয়েছিল।[৬৫]

মাঙ্গা: দ্য কমপ্লিট গাইড-এ, জেসন থম্পসন কে মাঙ্গার গল্পকে "ভালভাবে বর্ণনাকৃত এবং বিনোদনমূলক" হিসেবে উল্লেখ করেছেন।[৬৬] রাইটিং ফর ম্যানিয়া ডট কমের, এডুয়ার্ডো এম শ্যাভেজ ধারাবাহিকটিকে "মজার, সেক্সি, অ্যাকশন প্যাকড এবং মাঝে মাঝে শুধু প্লেইন হ্যাকড" এবং মারপিট এবং হাস্যরসের মিশ্রণ" হিসেবে প্রশংসা করে।[৬৭] অ্যানিমেফ্রিঞ্জের প্যাট্রিক রাজা ধারাবাহিকটিকে "সম্প্রতি দেখা সবচেয়ে বুদ্ধিদীপ্ত গল্পগুলোর একটি নয়" ব্যাখ্যা করলেও এটিকে "পড়ার জন্য অসাধারণ" বর্ণনা করেছেন।[৬৮]

আনিমে[সম্পাদনা]

টিভি আশাহিতে ২০০৫ সালের টিভি দর্শকদের প্রদত্ত ভোটে দেখা যায় সিটি হান্টার ১০০ সবচাইতে জনপ্রিয় অ্যানিমেটেড টিভি ধারাবাহিকের মাঝে ৬৬তম স্থানে ছিলো। আশাহি টিভির একটি ওয়েব ভোটে সিটি হান্টারকে ৬৫ তম অবস্থানে দেখানো হয়।[৬৯][৭০]

রিও এবং কাওরি চরিত্রগুলি ভক্তদের কাছে জনপ্রিয় প্রমাণিত হয়েছিল। ১৯৮৮ সালের অ্যানিমেজ অ্যানিমে গ্র‍্যান্ড প্রিক্স পাঠক ভোটে সায়বা রিওকে দ্বিতীয় সেরা পুরুষ চরিত্র হিসেবে মনোনীত করা হয়েছিল।[৭১] ১৯৮৯, ১৯৯০ ও ১৯৯১ সালে সায়বা প্রথম স্থান অধিকার করে।[৭২][৭৩][৭৪] ১৯৯২ সালের ভোটে সায়বা রিও ষষ্ঠ স্থানে ছিল।[৭৫] ১৯৮৯ সালে অষ্টম অবস্থানে আসার পূর্বে কাওরি মাকিমুরাকে সেরা মহিলা চরিত্র শ্রেণিতে ভোটে পঞ্চদশ অবস্থানে মনোনীত করা হয়।[৭১][৭২] কাওরি ১৯৯১ ও ১৯৯২ সালে যথাক্রমে ষষ্ঠ ও সপ্তম স্থানে নেমে যাওয়ার পূর্বে ১৯৯০ সালে পঞ্চম স্থান অধিকার করে।[৭৩][৭৪][৭৫]

এর ইংরেজি অনুবাদের মানের জন্য দ্য মোশন পিকচার-এর প্রশংসা করা হলেও চরিত্রের নাম পালটে দেওয়ার জন্য সমালোচনা করা হয়।[৭৬]

প্রথম অ্যানিমে সমাপ্তি সঙ্গীত, টিএম নেটওয়ার্কের "গেট ওয়াইল্ড" এবং এর পরবর্তী ১৯৮৯ সালের রিমিক্স জাপানে ৫,১৫,০১০ সংখ্যক বিক্রি হয়েছিল।[৭৭] এই অ্যানিমে ধারাবাহিকটি ফ্রান্সেও জনপ্রিয় ছিল যেখানে নিকি লারসন এর ১৪০টি পর্ব ১৯৯০ দশকের প্রথমে ডাব করার পর প্রকাশ করা হয়।[৭৮]

বক্স অফিস[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্র ধরণ দেশ বছর বক্স অফিসের মোট আয়
জাপান হংকং ফ্রান্স অন্যান্য দেশ
সেভিয়র অব দ্য সোল লাভ অ্যাকশন হংকং ১৯৯১ প্রযোজ্য নয় এইচকে$৩,৬৪,৭৬,৪৯৫ প্রযোজ্য নয় প্রযোজ্য নয়
সিটি হান্টার লাইভ অ্যাকশন হংকং ১৯৯৩ ¥১,৪৭,৩০,০০,০০০[৭৯][৮০] এইচকে$৩০,৭৬২,৭৮২[৮১] প্রযোজ্য নয় $৫৫৮১১৭৪[খ]
নিকি লারসন এট পারফুম ডি কিউপিডন লাইভ অ্যাকশন ফ্রান্স ২০১৯ ¥১৪,৪৫,৮৬,৬০০[৮৫] প্রযোজ্য নয় $১,২৮,৯৮,৭৪২[৮৬] $৪,৮২,১২৮[৮৬]
সিটি হান্টার: শিনজুকু প্রাইভেট আইজ অ্যানিমে জাপান ২০১৯ ¥১,৫০,০০,০০,০০০[৪৪] প্রযোজ্য নয় অজানা $১,৭৫৪[৮৭]
আঞ্চলিক মোট ¥৩,১১,৭৫,৮৬,৬০০ ($৩,৩৫,৪৭,৪৬৭) এইচকে$৬,৭২,৩৯,২৭৭ (মার্কিন $৮৭,০০,৭৩৫)[৮৮] $১,২৮,৯৮,৭৪২+ $৬০,৬৫,০৫৬
বিশ্বব্যাপী মোট $৬,১০,১৮,৮৭৩+

কিংবদন্তি[সম্পাদনা]

কাওরির "১০০ টনের হাতুড়ি" ২০০৭ সালে ইয়াহু অকশনে ¥১৮.৩২ লাখ ($১৭,১৫০) উঠেছিলো। এটি ছিল ইয়াহুর জন্য বছরের সর্বোচ্চ মূল্যে বিক্রিত দাতব্য বস্তু।[৮৯]

২০১২ সালে, রিও, কাওরি ও উমিবজু ভার্চুয়াল সঙ্গীতশিল্পী মানার ভিডিওতে উপস্থিত হয়েছিল। মানা হল টিএম নেটওয়ার্কের হোজো এবং তেতসুয়া কমুরোর মধ্যে একটি সহযোগিতামূলক প্রকল্প।[৯০]

২০১৫ সালে প্রকাশিত ক্রিস ব্রাউনের একক গান "জিরো"-এর প্রচ্ছদ হোজোর সিটি হান্টার প্রচ্ছদের নকশা থেকে নকল করা হয়ে বলে অভিযোগ রয়েছে।[৯১]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. দেখুন সাপ্তাহিক শৌনেজ জাম্প § প্রচলিত পরিসংখ্যান
  2. অন্যান্য দেশগুলোয় সিটি হান্টার (১৯৯৩ চলচ্চিত্র) বক্স অফিস:
    • তাইওয়ান  – NT$৪,৬৩,৬০,৯৫০[৮২] (মার্কিন $১৮,৬১,১৭৪)[৮৩]
    • দক্ষিণ কোরিয়া  – $৩৭,২০,০০০[৮৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "City Hunter Gets Spinoff Manga About Fan Reborn Into Manga's World"Anime News Network। মে ২৬, ২০১৭। মে ২৭, ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মে ২৬, ২০১৭ 
  2. McCarthy, Helen (২০০৬)। 500 Manga Heroes and VillainsCollins & Brown। পৃষ্ঠা 66। আইএসবিএন 1-84340-234-3 
  3. Tsukasa Hojo Illustrations pg 105
  4. City Hunter Perfect Guide Book। জানুয়ারি ২৫, ২০০০। পৃষ্ঠা 51। আইএসবিএন 4-08-782038-6 
  5. Hojo, Tsukasa (১৯৮৬)। City Hunter1Shueisha। পৃষ্ঠা 186। আইএসবিএন 4-08-852381-4 
  6. Hojo, Tsukasa (১৯৯২)। City Hunter35Shueisha। পৃষ্ঠা 121। আইএসবিএন 4-08-852196-X 
  7. City Hunter Perfect Guide Book। জানুয়ারি ২৫, ২০০০। পৃষ্ঠা 119। আইএসবিএন 4-08-782038-6 
  8. City Hunter Perfect Guide Book। জানুয়ারি ২৫, ২০০০। পৃষ্ঠা 186–189। আইএসবিএন 4-08-782038-6 
  9. "CITY HUNTER 1"Shueisha। সেপ্টেম্বর ২১, ২০০৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  10. "CITY HUNTER 18"Shueisha। সেপ্টেম্বর ২১, ২০০৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  11. "シティーハンター完全版 1"Tokuma Shoten। মার্চ ২, ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  12. "シティーハンター完全版 32"Tokuma Shoten। মার্চ ২, ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  13. "City Hunter Manga Gets New Original Anime DVD"Anime News Network। মে ২৩, ২০১৫। সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ১৯, ২০১৫ 
  14. "シティーハンター XYZ edition ①"Tokuma Shoten। জুলাই ১৭, ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ১৯, ২০১৫ 
  15. "シティーハンター XYZ edition ⑧"Tokuma Shoten। ডিসেম্বর ৮, ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ১৯, ২০১৫ 
  16. Yadao, Jason S. (২০০৯)। The Rough Guide to Mangaসীমিত পরীক্ষা সাপেক্ষে বিনামূল্যে প্রবেশাধিকার, সাধারণত সদস্যতা প্রয়োজনRough Guides। পৃষ্ঠা 184আইএসবিএন 978-1-85828-561-0 
  17. Thompson, Jason। "Jason Thompson's House of 1000 Manga – Raijin Comics"Anime News Network। সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৮, ২০১৪ 
  18. "シティーハンター コミコメ"। সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  19. https://www.animenewsnetwork.com/encyclopedia/manga.php?id=3256
  20. Clements, Jonathan; McCarthy, Helen (২০০৬)। The Anime EncyclopaediaStone Bridge Press। পৃষ্ঠা 102আইএসবিএন 1-84576-500-1 
  21. シティハンター完全読本Tokuma Shoten। আগস্ট ১০, ২০১৫। পৃষ্ঠা 101–107। আইএসবিএন 9784197204298 
  22. City Hunter Perfect Guide Book। জানুয়ারি ২৫, ২০০০। পৃষ্ঠা 182। আইএসবিএন 4-08-782038-6 
  23. "City Hunter Complete"। জুন ২৫, ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৫, ২০১৪ 
  24. "DVD Series City Hunter"। নভেম্বর ৯, ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৫, ২০০৭ 
  25. "Mihiko Suwa Interview"chizai-tank.com। ডিসেম্বর ১, ২০০৬। জুন ৮, ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৫, ২০১৮ 
  26. "Katsucon – ADV Films Announcements"। Mania.com। ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০০০। সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  27. "ADV Fansubs Subscription Page"ADV Films। মে ২, ২০০১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  28. Tei, Andrew (অক্টোবর ১৩, ২০০৩)। "City Hunter TV Season 1 Collection 1"। Mania.com। মে ৭, ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  29. Tei, Andrew (অক্টোবর ১৩, ২০০৩)। "City Hunter TV Season 1 Collection 2"। Mania.com। সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  30. Cruz, Luis (নভেম্বর ৩০, ২০০৩)। "City Hunter TV Season 2 Collection 1"। Mania.com। সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  31. Cruz, Luis (ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০০৩)। "City Hunter TV Season 2 Collection 2"। Mania.com। সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  32. Tei, Andrew (মার্চ ৮, ২০০৪)। "City Hunter TV Season 3"। Mania.com। সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  33. Cruz, Luis (এপ্রিল ১৫, ২০০৪)। "City Hunter TV Season 4"। Mania.com। জুন ২৫, ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  34. "City Hunter's 'Motion Graphic Anime' Reunites TV Anime's Cast"Anime News Network। জুন ২৫, ২০১৫। সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ১৯, ২০১৫ 
  35. Hodgkins, Crystalyn (এপ্রিল ১৯, ২০১৯)। "Discotek Licenses Entire City Hunter Anime Franchise Including City Hunter: Shinjuku Private Eyes Film (Updated)"Anime News Network (ইংরেজি ভাষায়)। এপ্রিল ২০, ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ২০, ২০১৯ 
  36. "City Hunter Season 1 Part 1 Blu-ray"Right Stuf Inc.। এপ্রিল ১৯, ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ২৩, ২০১৯ 
  37. Beveridge, Chris (মার্চ ৩১, ২০০৩)। "City Hunter: Bay City Wars & Million Dollar Conspiracy"। Mania.com। ডিসেম্বর ১৭, ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  38. "Sunrise Animates New City Hunter Film for Spring 2019"Anime News Network। মার্চ ১৯, ২০১৮। মে ২৫, ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ১৯, ২০১৮ 
  39. "Three Kisugi Sisters from Cat's Eye Make Special Appearance in New City Hunter Film"। জুলাই ২৯, ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুন ৩, ২০২০ 
  40. "New City Hunter Anime Film Reveals Teaser Video, More Returning Cast"Anime News Network। আগস্ট ১, ২০১৮। আগস্ট ২, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ১, ২০১৮ 
  41. "New City Hunter, Code Geass Films Debut at #4, #5"Anime News Network। ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৯। ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ৪, ২০১৯ 
  42. "39th Doraemon Film Stays at #1, Precure Miracle Universe Opens at #3"Anime News Network। মার্চ ১৯, ২০১৯। মার্চ ২২, ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ১৩, ২০১৯ 
  43. Komatsu, Mikikazu। "City Hunter The Movie Has Crossed 1.5 Billion Yen Mark in Japan"Crunchyroll (ইংরেজি ভাষায়)। এপ্রিল ১৬, ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ১৬, ২০১৯ 
  44. "2019"Eiren। Motion Picture Producers Association of Japan। ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২০ 
  45. Lafleuriel, Par Erwan (মে ২, ২০১৯)। "City Hunter Private Eyes sort le 13 juin dans les salles françaises"IGN France (ফরাসি ভাষায়)। IGN। জুলাই ২৮, ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুন ১২, ২০১৯ 
  46. @discotekmedia (জুলাই ১০, ২০১৯)। "Discotek Media is proud to present our brand-new English dubbed version of Sunrise's CITY HUNTER: SHINJUKU PRIVATE EYES at @Otakon 2019!" (টুইট) – টুইটার-এর মাধ্যমে। 
  47. Toole, Michael (মার্চ ২৪, ২০১৩)। "The Mike Toole Show – Out of Order"Anime News Network। জানুয়ারি ১, ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ২০, ২০১৫ 
  48. Animerica 1–2 pg13
  49. "Jackie's Aches and Pains"Random House। ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  50. Yadao, Jason S. (অক্টোবর ২০০৯)। The Rough Guide to MangaRough Guides। পৃষ্ঠা 203। আইএসবিএন 978-1-85828-561-0। জুলাই ২৯, ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৯, ২০১৮ 
  51. "Chinese actor buys rights to 'City Hunter'"China Daily। অক্টোবর ১৩, ২০১৬। ডিসেম্বর ৭, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৬, ২০১৮ 
  52. "北条司作品 漫画『シティーハンター』中国で実写映画化へ"। Hojo Tsukasa official website। অক্টোবর ১১, ২০১৬। জুন ২৯, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ১৮, ২০১৮ 
  53. "New 'City Hunter' Live-Action Film Reveals First Look"ComicBook.com। আগস্ট ২২, ২০১৮। সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮ 
  54. Peters, Megan (আগস্ট ২২, ২০১৮)। "New 'City Hunter' Live-Action Film Reveals First Look"comicbook/anime। সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮ 
  55. Ashcraft, Brian। "A Peek At The Upcoming Live-Action City Hunter Movie"Kotaku (ইংরেজি ভাষায়)। সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮ 
  56. "シティハンターの実写版がフランスで撮影中。フランスでの反応は?(今井佐緒里) – Yahoo!ニュース"Yahoo!ニュース 個人 (জাপানি ভাষায়)। সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮ 
  57. "Nicky Larson : Pamela Anderson chez Philippe Lacheau, c'est confirmé !"AlloCiné। আগস্ট ১৭, ২০১৮। ডিসেম্বর ৬, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৬, ২০১৮ 
  58. "New Live-Action City Hunter Reportedly Heading to USA"Anime News Network। ডিসেম্বর ২৩, ২০০৮। ডিসেম্বর ২৯, ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ২৩, ২০০৮ 
  59. "Chung Woo-sung First Asian Actor to Star in American TV Drama"। KBS Global। ডিসেম্বর ২৩, ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ২৩, ২০০৮ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  60. "Korean City Hunter Show Licensed for U.S. Hulu Streaming"Anime News Network। মে ২৫, ২০১১। জানুয়ারি ১৬, ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ১৮, ২০১৬ 
  61. "Watch City Hunter online – at Hulu"। ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ১৮, ২০১৬ 
  62. "Drama: City Hunter 2014"ChineseDrama.info। ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মে ৫, ২০২০ 
  63. "PC Engine Fan"। 3 (2)। Tokuma Shoten। ফেব্রুয়ারি ১৯৯০: 104। 
  64. Ressler, Karen (অক্টোবর ২৫, ২০১৮)। "Jump Force Game Trailer Reveals City Hunter's Ryo, Fist of the North Star's Kenshiro"Anime News Network। অক্টোবর ২৫, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ২৫, ২০১৮ 
  65. "Readers Vote for the Top 20 'Most Powerful' Jump Manga"Anime News Network। নভেম্বর ১৫, ২০১৪। মার্চ ৫, ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ১৮, ২০১৬ 
  66. Manga The Complete Guide Pg51
  67. Chavez, Eduardo M. (নভেম্বর ৩০, ২০০৩)। "City Hunter Vol. #02"। Mania.com। সেপ্টেম্বর ৩০, ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  68. King, Charles (অক্টোবর ২০০৩)। "City Hunter Vol.1"। Animefringe। মার্চ ৪, ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ১৮, ২০১৬ 
  69. "TV Asahi Top 100 Anime"Anime News Network। সেপ্টেম্বর ২৩, ২০০৫। জুন ১৫, ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ১, ২০০৭ 
  70. "TV Asahi Top 100 Anime Part 2"Anime News Network। সেপ্টেম্বর ২৩, ২০০৫। জুলাই ৯, ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ১, ২০০৭ 
  71. "10th Anime Grand Prix"Tokuma Shoten। অক্টোবর ১৪, ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  72. "11th Anime Grand Prix"Tokuma Shoten। অক্টোবর ১৪, ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  73. "12th Anime Grand Prix"Tokuma Shoten। অক্টোবর ১৯, ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  74. "13th Anime Grand Prix"Tokuma Shoten। মে ২৩, ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  75. "14th Anime Grand Prix"Tokuma Shoten। অক্টোবর ১৯, ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ৯, ২০১৪ 
  76. "City Hunter The Motion Picture"Anime News Network। এপ্রিল ৬, ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ১৮, ২০১৬ 
  77. "Get Wild (TM NETWORK)"Generasia। ডিসেম্বর ৬, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৫, ২০১৮ 
  78. "Hit anime City Hunter to get live-action adaptation – in France!"SoraNews24। জুলাই ১৭, ২০১৭। ডিসেম্বর ৬, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৬, ২০১৮ 
  79. "【ジャッキーチェン興行成績】 第12回:日本での興行収入"KungFu Tube (জাপানি ভাষায়)। ২০১২। নভেম্বর ২২, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ৩০, ২০১৮ 
  80. "Statistics of Film Industry in Japan"Eiren। Motion Picture Producers Association of Japan। ১৯৯৩। সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মে ৫, ২০২০ 
  81. "City Hunter (1993)"Hong Kong Movie DataBase। ডিসেম্বর ২, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ৩০, ২০১৮ 
  82. "1993 Taiwan Box Office"National Chengchi University। এপ্রিল ২১, ২০০১। এপ্রিল ২১, ২০০১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ৩০, ২০১৮ 
  83. "Historical currency converter with official exchange rates (TWD to USD)"fxtop.com। জানুয়ারি ২৬, ১৯৯৩। জুলাই ২৮, ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মে ৫, ২০২০ 
  84. "【ジャッキーチェン興行成績】 第10回:韓国での興行収入"KungFu Tube (জাপানি ভাষায়)। সেপ্টেম্বর ৫, ২০১০। ডিসেম্বর ৯, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৭, ২০১৮ 
  85. Pineda, Rafael Antonio (ডিসেম্বর ১৬, ২০১৯)। "6th Yo-kai Watch Film Opens at #4, Lupin III CG Film at #5"Anime News Network। ডিসেম্বর ১৭, ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ২৭, ২০১৯ 
  86. "Nicky Larson et le parfum de Cupidon"Box Office Mojo। সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ২৬, ২০১৯ 
  87. "City Hunter: Shinjuku Private Eyes"Box Office Mojo। জুলাই ২৮, ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মে ৫, ২০২০ 
  88. "Official exchange rate (LCU per US$, period average) - Hong Kong SAR, China"World Bank। ১৯৯৪। জুলাই ২৮, ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মে ৫, ২০২০ 
  89. "City Hunter Hammer Tops Yahoo! Japan Charity Auctions (Updated)"Anime News Network। ফেব্রুয়ারি ১, ২০০৮। সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ১৮, ২০১৬ 
  90. "City Hunter Plays Backup to Producer TK's Virtual Diva in Video"Anime News Network। জুলাই ২২, ২০১২। এপ্রিল ১৬, ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ১৮, ২০১৬ 
  91. Green, Scott (নভেম্বর ২, ২০১৫)। "Chris Brown Single Art Looks Familiar to "City Hunter" Manga Readers"Crunchyroll। ডিসেম্বর ৯, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৭, ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]