সারোগেসি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

একজন নারীর গর্ভে অন্য দম্পতির সন্তান ধারণের পদ্ধতিকে 'সারোগেসি' বলে। ইন ভিট্রো ফার্টিলাইজেশন পদ্ধতিতে নারীদেহ হতে ডিম্বাণু ও পুরুষ দেহ হতে শুক্রাণু দেহের বাইরে টেস্টটিউবে নিষিক্ত করে তা সারোগেট নারীর গর্ভাশয়ে প্রতিস্থাপন করা হয়।[১]

আধুনিক সারোগেসি প্রক্রিয়ায় সন্তান জন্ম দিচ্ছেন‌ একজন সারোগেট

সারোগেসি ব্যবস্থা তখনই একটি দম্পতি করতে পারে যখন কোন স্ত্রী গর্ভধারণে অক্ষম, গর্ভধারণ ঝুঁকিপূর্ণ অথবা যখন একজন অবিবাহিত পুরুষ বা নারী বা সমকামী দম্পতি সন্তান নিতে চান।[২] সারোগেসি শব্দের অর্থ হল গর্ভাশয় ভাড়া।সারোগেসি একটি আধুনিক প্রজনন ব্যবস্থা।

পদ্ধতি[সম্পাদনা]

সারোগেসি দুটি পদ্ধতি করা হয়। একটি হচ্ছে প্রথাগত সারোগেসি এবং অন্যটি হচ্ছে আধুনিক সারোগেসি।[৩]

প্রথাগত সারোগেসি[সম্পাদনা]

প্রথাগত সারোগেসি (আংশিক সারোগেসি বা প্রাকৃতিক বা সরাসরি সারোগেসি নামেও পরিচিত) হল এমন একটি যেখানে সারোগেটের ডিম্বাণু যৌনমিলনের মাধ্যমে পিতার বা দাতার শুক্রাণু দ্বারা নিষিক্ত হয়।[৩]

আধুনিক সারোগেসি[সম্পাদনা]

ইন ভিট্রো ফার্টিলাইজেশন প্রক্রিয়ায় আধুনিক সারগেসি হয়।প্রথম ১৯৮৬ সালের এপ্রিল মাসে এটি সফল ভাবে সম্পন্ন হয়েছিল। ইন ভিট্রো ফার্টিলাইজেশন (আইভিএফ) প্রযুক্তির দ্বারা সৃষ্ট একটি ভ্রূণ একটি সারোগেটে রোপণ করা হয়। [৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]