সাগারা সানাসুকে

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
সাগারা সানাসুকে
Wikisano.jpg
রুরোনি কেনশিন কাঞ্জেনবেন-এর ভলিয়ম ৫-এর কাভারে সাগারা সানাসুকে
চরিত্র চিত্রণ মনেতেকা অকি
Profile
ছদ্মনাম জাঞ্জা (斬左?)
অন্তর্ভুক্তি সেহিকো সেনাবাহিনী (সাবেক)

সাগারা সানাসুকে (相楽 左之助?)হল রুরোনি কেনশিন মাঙ্গাআনিমে সিরিজের একটি কাল্পনিক চরিত্র যার স্রষ্টা নবুহিরু ওয়াতসুকি। আনিমেটির ইংরেজি সংস্করণে সানাসুকে, সাগারা নামে পরিচিত এবং তার ডাকনাম হল সানো। ওয়াতসুকি একজন শিনসেনগুমি ভক্ত ছিলেন, সানাসুকে চরিত্রটিকে তিনি হারাদা সানাসুকে নামের একজন বাস্তব শিনসেনগুমি সদস্যের নাম ও চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যকে ভিত্তি করে তৈরি করেন।

কাহিনীটি মেইজি শাসনামলে জাপানের কাল্পনিক সংস্করণ, যেখানে সানাসুকে সেহিকো সেনাবাহিনীর প্রাক্তন সদস্য। মেইজিরা যখন এই দলটিকে ধ্বংস করে ফেলল, তখন তিনি ভাড়াটে যোদ্ধা হিসেবে কাজ শুরু করেন, লড়াই করার মাধ্যমে তিনি নিজের ক্রোধ প্রশমন করতেন। সিরিজটিতে প্রথম আগমনে তাকে দেখা যায় ভবঘুরে হিমুরা কেনশিনের মুখোমুখি হতে, যিনি তাকে সহজে পরাজিত করেন এবং নিজের লাভের জন্য কাজ না করে মানুষকে রক্ষা করার জন্য কাজ করতে উদ্বুদ্ধ করেন। এর পর থেকে সানাসুকে কেনশিনের সব থেকে ভালো বন্ধু হয়ে ওঠেন এবং তার বেশিরভাগ লড়াইয়ের সময় সঙ্গী হিসেবে ছিলেন।

সানাসুকে-কে সিরিজটির নির্বাচিত চলচ্চিত্র ও অন্যান্য রুরোনি কেনশিন সংশ্লিষ্ট মিডিয়াতে দেখা যায়, ইলেক্ট্রনিক গেইম ও অরিজিনাল ভিডিও অ্যানিমেশনে তার আধিক্য লক্ষ্য করা যায়। অসংখ্য আনিমেমাঙ্গা প্রকাশন সানাসুকে চরিত্রটির উপর মন্তব্য করেছে। ম্যানিয়া এন্টারটেইনমেন্ট চরিত্রটির বিকাশের ওপর প্রশংসা করেছে, ধারাবাহিকটির কাহিনী যতই সামনে এগিয়েছে, ততই তাকে বিশ্বাসযোগ্য ও নির্ভরযোগ্য হতে দেখা গেছে।[১] সাইফাই তাকে একজন ভিডিও গেইম আইকন হিসেবে উল্লেখ করেছে, আলাদাভাবে তাকে একজন দুর্ভাগা মূর্তি হিসেবে উপস্থাপন করা হয়েছে।[২] রুরনি কেনশিন পাঠকবৃন্দের মধ্যে সানাসুকে একটি জনপ্রিয় চরিত্র, প্রত্যেক জনপ্রিয়তার জরিপে তাকে দ্বিতীয় স্থান দেয়া হয়েছে। সানাসুকের ওপর ভিত্তি করে বেশ কিছু পণ্য বাজারে এসেছে, এর মধ্যে রয়েছে কি চেইন ও প্লাস ডল।

সৃষ্টি ও উৎপত্তি[সম্পাদনা]

কাঞ্জেবান ধারাবাহিকে সানাসুকে-এর পুনঃনকশা।

সানাসুকে ধারাবাহিকটির অন্যতম প্রধান চরিত্রগুলির মধ্যে অন্যতম। ওয়াতসুকি তাকে সৃষ্টি করেছেন কেনশিনের সব থেকে ভালো বন্ধু হিসেবে, যখন সে বিষণ্ণ তখন সে তাকে আঘাত করবে যাতে সে তার বিষণ্ণতা কাটিয়ে উঠতে পারে। যদিও সানাসুকে ধারাবাহিকটির একটি প্রধান চরিত্র, ওয়াতসুকি উপলব্ধি করেছিলেন তার সম্পর্কে যতটা লিখবেন ভেবেছিলেন ততটা তিনি লিখতে পারবেন না, তিনি ভেবেছিলেন, একটি ধারাবাহিকের এর নাম ভূমিকায় তাকে রাখতে পারলে তা আকর্ষণীয় হবে।[৩]

ওয়াতসুকি সানাসুকের চরিত্রটির প্রত্যক্ষ মূল উপাদান বিশ্লেষণ করতে উল্লেখ করেন তার নকশাকৃত মডেল ল্যাম্পকে, যা তাকেশি ওবাতার মাশিন বকেন তান ল্যাম্প –ল্যাম্প-এর চরিত্র ছিল। ওবাতার মাঙ্গাটি তে ওয়াতসুকি সহকারী হিসেবে কাজ করতেন, ল্যাম্প চরিত্রটিকে তিনি স্কেচ বুকে আঁকাজোকার মাধ্যমে, প্রস্তাবিত চরিত্রটির মাঝে সহযোজন-বিয়োজনের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত করিয়েছিলেন, অবশ্যই মূল শিল্পীর আশীর্বাদ নিয়ে। ওয়াতসুকি ভোতারও শিবার হারাদা সংস্করণ দেখেছিলেন, একে তার নকশার মডেল হিসেবে ব্যবহার করতে চেয়েছিলেন, এবং তিনি বলেছিলেন তার আঁকাজোকার মধ্যে সব থেকে অদ্ভুত জিনিস ছিল চরিত্রটির দীর্ঘ সুচালো চুল।[৪]

জুলাই ২০০৬-এ, রুরোনি কেনশিনের জাপানী প্রকাশক কানযেবান সংস্করণ প্রকাশ করে। পঞ্চম কানযেবানে, ওয়াতসুকি খসড়া সংস্করণে সানাসুকে চরিত্রটির পুনঃনকশা তৈরি করেন। মেইজি সরকারের প্রতি তার ঘৃণাকে তুলে ধরতে, ওয়াতসুকি সানাসুকের মূল ধারাবাহিকের জ্যাকেটের পেছনে জাপানী কাঞ্জি "অশুভ" ( aku?) এঁকেছিলেন, কিন্তু কানযেবান পুনঃনকশাতে ট্যাটুটি ছিল তার পোশাকের ভেতরে। মাঙ্গার মত সানাসুকে একটি বিশাল যানবাতো অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করতেন, ওয়াতসুকি তাকে আরও খাটি ঐতিহাসিক যানবাতো দিয়েছিলেন, উল্লেখযোগ্য ভাবে আরও সরু ও লম্বা নকশার একটি তলোয়ার। তিনি তাকে বর্মের মত একটি পোশাক দিয়েছিলেন যাতে তাকে আরও বেশি যোদ্ধার মত দেখতে মনে হয়।[৫]

রুরোনি কেনশিনের এনিম সংস্করণে, ওয়াতসুকির নকশার সাথে ইয়ুজি উয়েদা নামক কণ্ঠশিল্পীর কণ্ঠ সহযোজন করা হয়। সিরিজটির ইংরেজি ভাষার সংস্করণে, মিডিয়া ব্লাস্টার- লেক্স লাং নামক কণ্ঠশিল্পীকে সানাসুকের কণ্ঠ-দাতা হিসেবে নিযুক্ত করে। সানাসুকের কথোপকথন লেখার সময়, ইংরেজি পাণ্ডুলিপি অনুবাদক ক্লার্ক চেঙ্গ উল্লেখ করেন চরিত্রটি প্রথম অধ্যায়গুলির থেকে আরও স্মার্ট ছিল, তাই চেঙ্গ চেষ্টা করেছিলেন ধীরে ধীরে কথোপকথন পরিবর্তনের মাধ্যমে সানাসুকে-কে কম বুদ্ধিসম্পন্ন হিসেবে তুলে ধরতে যাতে জাপানী সংস্করণের চরিত্রটির সাথে মিল থাকে।[৬]

উপস্থিতি[সম্পাদনা]

রুরোনি কেনশিন[সম্পাদনা]

সানাসুকে সেহিকো সেনাবাহিনীর একজন প্রাক্তন সদস্য, তার জন্ম ফেব্রুয়ারি, ১৮৬০ সালে।[৭] তার ক্যাপ্টেন সাগারা সোজোর প্রতি শ্রদ্ধা রেখে তিনি সাগারা তার পারিবারিক নাম হিসেবে গ্রহণ করেন।[৭] কিন্তু যখন বিপ্লবী সরকার অর্থনৈতিক সমস্যায় পড়লো, তারা সেহিকো আর্মি কে প্রতারক হিসেবে চিহ্নিত করল যাতে তাদের দেয়া প্রতিশ্রুতিকে চাপা দেয়া যায়। সোযোকে শাস্তি দেয়া হয়, খুব অল্প লোক প্রাণে বেঁচে গিয়েছিলেন সানাসুকের মত। ঈশিন, শিশির প্রতি ঘৃণা পোষণ করে এবং নিজের নায়ককে রক্ষা না করতে পারার ব্যর্থতা নিয়ে সানাসুকে টোকিও শহরে একজন যুদ্ধের বেপারী হয়ে ওঠেন।[৮][৯] দশ বছর সময়ে তিনি শহরের অন্যতম একজন শক্তিশালী ভাড়াটে যোদ্ধার তকমা অর্জন করেন।[১০] সেহিকো সেনাবাহিনী ধ্বংস হওয়া এবং তার সব বন্ধুদের হারানোর কষ্ট তাকে মেইজি সরকারকে ঘৃণা করতে শিখিয়েছিল, তিনি জাপানী কাঞ্জি বা "অশুভ" ( aku?) চিহ্ন তার জ্যাকেটের পেছনে ধারণ করেছিলেন। চিহ্নটিকে তিনি তার প্রাক্তন সেহিকো সেনাবাহিনী-এর প্রতি বিশ্বস্ততার নিদর্শন হিসেবে ধারণ করতেন।[১১] সানাসুকে তার লড়াই-এ বিশালাকার যানবাতো ব্যবহার করতেন, তাকে যানযা সাক্ষর দিতেন। তলোয়ারটির কোনও ধার ছিল না, সানাসুকে এটিকে শুধু প্রতিপক্ষকে চূর্ণ- বিচূর্ণ করতে ব্যবহার করতেন।[১২]

সানাসুকে ফুটেই নো কিওইয়ামে চর্চা করছেন।

মাঙ্গাটিতে সানাসুকের পরিচয় পর্বে দেখা যায়, সানাসুকে-কে ভাড়া করা হয় কেনশিনের সাথে লড়াই করার জন্য।[১৩] কিন্তু সাবেক গুপ্তঘাতকের কাছে পরাজিত হবার পর, সানাসুকে কেনশিনের হত্যা না করার সত্য আদর্শকে জানতে পারেন এবং তার একজন বন্ধুতে পরিণত হন।[১৩] কেনশিন তাকে হারান ও তার যানবাতো ভেঙ্গে ফেলেন, এরপর সানাসুকে অস্ত্রহীন লড়াই করবার লক্ষস্থির করেন। যখন অপরাধী শিশিও মাকাতো জাপান দখল করবার চেষ্টা করেন, সানাসুকে কেনশিনকে তার বিরুদ্ধে লড়াই করতে সাহায্য করেন। কেনশিন কে সাহায্য করতে ইডো যাবার পথে, সানাসুকে কেনপো শিক্ষা লাভ করেন ইয়ুক্যুযান আঞ্জি নামের একজন সাধু যোদ্ধার কাছ থেকে। আঞ্জি তাকে ফুটেই নো কিওইয়ামে (二重の極み?, lit. "দুই স্তরের নিয়ন্ত্রণ") নামের একটি গোপন কৌশল শেখান।[১১] ফুটেই নো কিওইয়ামে একটি বিশেষ কৌশল যার সম্পাদনকারী নিজের শরীরের যে কোন অংশ ব্যবহার করে পর পর দুটি দ্রুত আঘাত সম্পাদন করেন। প্রথম আঘাতটিতে প্রক্সিমাল ইন্টারফ্যালাঞ্জিয়াল জয়েন্ট লক্ষবস্তুর কাঠিন্যকে নিরপেক্ষ করে ফেলে, তারপর দ্বিতীয় আঘাত, প্রক্সিমাল ফেলানক্স-এর সাথে সংঘর্ষের ফলে, লক্ষবস্তুটিকে প্রথম আঘাতের শক্তি কাটিয়ে ওঠার আগেই ভেঙ্গে ফেলে।[১৪] নিজের ডান হাতে এই কৌশল ব্যবহার করে সানাসুকে শিশিও আর্মি এর তৃতীয় শ্রেষ্ঠ যোদ্ধাকে পরাজিত করেন, যিনি ছিলেন আঞ্জি।[১৫]

মাসখানেক পর, কেনশিনের প্রতি প্রতিশোধ নেবার জন্য, ইয়ুকিশিরু এনিশি নামের একজন কামিয়া কাউরু এর মৃত্যুর মিথ্যা খবর প্রচার করে। কেনশিন তার বাঁচার ইচ্ছা হারিয়ে ফেলেন এবং সানাসুকে তার কাছে পোঁছানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হন, তিনি টোকিও থেকে যাত্রা করেন।[১৬] তার এই দীর্ঘ যাত্রায় শিনানো প্রদেশে (Shinshū) তিনি তার নিজের পরিবারের সাথে পুনরায় মিলিত হন।[১৭][১৮] সিরিজটি শুরু হবার কিছু বছর আগে, সানাসুকে সেহিকো আর্মিতে যোগদানের উদ্দেশ্যে ৯ বছর বয়সে নিজের পরিবারকে ত্যাগ করেন।[১৭][১৮] যদিও তিনি পরিবারের কাছে নিজের পরিচয় প্রকাশ করেননি, তাদের করুন অবস্থার কথা জানতে পেরে তিনি সাবেক একজন ইশিন শিশি কে আক্রমণ করেন যে তাদের ও শহরের লোকজনের সাথে দুর্ব্যবহার করছিল।[১৯] এই লড়াইয়ের সময় ফুটেই নো কিওইয়ামে কৌশলের অতিরিক্ত ব্যাবহারের ফলে সানাসুকের ডান হাত স্থায়ীভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়,[২০] এবং এই অক্ষমতাকে তিনি কাটিয়ে ওঠেন যখন তিনি আবিষ্কার করেন পর পর দুটি হাত ব্যবহার করতে, যা তার ক্ষতিগ্রস্ত হাতে ওপর চাপ কমায়।[২১] তার পরিবারকে রক্ষা করার পর, তিনি টোকিও ফিরে যান বন্ধুদের নিয়ে কাউরুকে উদ্ধার করার জন্য।[২২] উদ্ধারে সফল হবার পর সানাসুকে জাপান ছেড়ে যান এবং ইশিন শিশিকে আক্রমণ করার অপরাধে গ্রেপ্তার এড়াতে বিশ্ব ভ্রমণ করেন।[২৩] মাঙ্গা টি শেষ হয় বন্ধুদের কাছে সানাসুকের লেখা একটি চিঠির মাধ্যমে, যাতে সানাসুকে লেখেন বন্ধুদের সাথে পুনরায় মিলিত হতে তিনি জাপান ফিরছেন ।

অন্যান্য মিডিয়াতে[সম্পাদনা]

সামুরাই এক্স দ্য মোশন পিকচার, এ সানাসুকে সামুরাই তাকিমি শিগুরে কে মেইজি সরকারের পতন ঘটানো থেকে বিরত রাখতে সাহায্য করেন।[২৪] এই সিরিজের মূল ভিডিও এনিমেশনে তাকে আরও বেশি মানবিক রূপে এবং আরও আবেগপ্রবণ চরিত্রে দেখা গেছে। নন ক্যানন সামুরাই এক্স রিফ্লেকশনে, একজন বৃদ্ধ সানাসুকে এশিয়া ভ্রমণের সময় কেনশিনকে মৃতপ্রায় আহত অবস্থায় খুঁজে পান এবং কেনশিন কে তিনি নিজে টোকিও পাঠান, চরিত্রটির স্রষ্টা ওয়াতসুকির দ্বারা চরিত্রটির যে বিকাশ হয়েছিল তার সাথে এটির বৈসাদৃশ্য ছিল।[২৫] সবগুলি রুরোনি কেনশিন ভিডিও গেইমে সানাসুকে একজন খেলার উপযোগী চরিত্র,[২৬] শুধু জাম্প সুপার স্টার ও জাম্প আল্টিমেট স্টারস ছাড়া,[২৭] সেখানে তিনি খেলার যোগ্য নন কিন্তু ব্যাটেল কোমা হিসেবে তাকে পাওয়া যায়।[২৮]

রুরোনি কেনশিনঃ রেস্টোরেশনে, তাকেদা কানর‍্যু সানাসুকে-কে ভাড়া করেন কেনশিনকে হত্যা করার জন্য। কেনশিনের কাছে পরাজিত হবার পর সানাসুকে তাকে সাহায্য করতে এবং কউরু এর দোযো দেখাশোনা করতে সম্মত হন।

জুন ২৮,২০১১ তে ,রুরোনি কেনশিন ভিত্তিক একটি লাইভ অ্যাকশন ফিল্ম তৈরির ঘোষণা দেয়া হয়। ওয়ারনার ব্রস এটি তৈরি করে, মূল ফিল্মটি তৈরি করে স্টুডিও সোয়ান, পরিচালনা করেছিলেন কেইশি অতামা এবং অভিনয় শিল্পী ছিলেন তাকেরু সাতোহ (কামেন রাইডার দেন –ও ফেম) কেনশিনের ভূমিকায়, মুনেতাকা আওইকি ছিলেন সানাসুকে সাগারার ভূমিকায় এবং এমি তাকেই ছিলেন কাউরু এর ভূমিকায়। আগস্ট ২৫, ২০১৫ সালে চলচ্চিত্রটি জাপানে মুক্তি পায়। আগস্ট ২০১৩-এ ঘোষণা দেয়া হয়, এর পরপর দুটি সিকুয়েল নির্মাণের যা ২০১৪ তে মুক্তি পায়। থে গ্রেট কিয়তো ফায়ার (るろうに剣心 京都大火編 Kyoto Taika-hen?) এবং দি এন্ড অফ এ লিজেন্ড (るろうに剣心 伝説の最期編 Densetsu no Saigo-hen?) মাঙ্গাটির কিয়তো অংশ গুলির উপর ভিত্তি করে।

অভ্যর্থনা[সম্পাদনা]

রুরোনি কেনশিন পাঠকদের মধ্যে সানাসুকে একটি জনপ্রিয় চরিত্র, প্রত্যেকটি শনেন জাম্প জনপ্রিয়তা জরিপে তার স্থান দ্বিতীয়, এবং ফেভারিট কেনশিনস আরক-এনিমিস কেনশিনের প্রতিদ্বন্দ্বী দের মধ্যে জরিপে তিনি পঞ্চম স্থান পেয়েছেন।[২৯][৩০] সানাসুকের উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন পণ্য বাজারে আনা হয়েছে, তার মধ্যে রয়েছে সোয়েট ব্যান্ড[৩১], কি চেইন[৩২] ও প্লাস ডল।[৩৩][৩৪]

প্রকৃত সিডি বুক কণ্ঠশিল্পীরা, বিশেষ ভাবে তোমোকাযু সেকি এবং মেগুমি অগাতা ,যারা সানাসুকে ও কেনশিন কে সিডি বুকে কণ্ঠ দিয়েছেন, আলাদাভাবে, এনিম সংস্করণে তাদের করা চরিত্রগুলিতে কণ্ঠ দিতে পারেননি যা ওয়াতসুকিকে হতাশ করেছিল।[৩৫] উয়েদা, জাপানী এনিমে সানাসুকের কণ্ঠ দাতা বলেন, মূল ভিডিও এনিমেশনে সানাসুকের কণ্ঠ দেয়া বেশ ঝামেলার ছিল কারণ তার চরিত্রটি ছিল একটু বেশী বয়সের এবং তিনি এ ধরনের ভূমিকায় অনেকদিন কণ্ঠ দেননি। তিনি আরও বলেন, তিনি মূল এনিমেশন ভিডিও তে সানাসুকের আরও কিছু লড়াই দেখতে চাচ্ছিলেন, কিন্তু সানাসুকের আরও পরিণত চরিত্র দেখে খুশি হয়েছিলেন।[৩৬] লেক্স লেং, ইংরেজি এনিমে সানাসুকে চরিত্রের কণ্ঠ দাতা, মন্তব্য করেন তার প্রথম দেখায় সানাসুকে কে মনে হয়েছে লড়াই পাগল একজন যে ক্রোধ দ্বারা চালিত হয়, কিন্তু যতই গল্প এগিয়েছে, সানাসুকে ততই বন্ধুত্বপূর্ণ ও মধুর হয়ে ওঠেন। যেহেতু তার কণ্ঠ উয়েদার কণ্ঠ থেকে একেবারেই আলাদা ছিল, লেং চেষ্টা করেছিলেন সানাসুকে কে নিজের মত করে ব্যাখ্যা করতে। লেং উল্লেখ করেন, এপিসোড ২২ এর একটি দৃশ্যে সানাসুকে ট্রেনে ভ্রমণ করতে ভয় পাচ্ছিল, কারণ সে ভেবেছিল এটা অশুভ কিছু, এটি ছিল লেং এর কাছে রেকর্ড করা সব থেকে উপভোগ্য দৃশ্য, লেং যোগ করেন “আমি সম্প্রতি দৃশ্যটি দেখে খুব আনন্দ পেয়েছি”।[৩৭]

বিভিন্ন এনিম ও মাঙ্গা প্রকাশনা সানাসুকে চরিত্রটির প্রশংসা ও সমালোচনা দুই -ই করেছে। এনিম নিউজ নেটওয়ার্ক বলেছে ধারাবাহিকটিতে কেনশিনের বিপক্ষে সানাসুকের প্রথম লড়াই একটি অ্যাকশন সিরিজ অনুযায়ী গতানুগতিক ছিল, যেহেতু কেনশিন ও সানাসুকের চারিত্রিক পার্থক্য ছিল অনেক। এনিমে যে মিউজিক ব্যবহার করা হয়েছিল তাতে মনে হচ্ছিল কেনশিনই লড়াইটিতে জিতবে।[৩৮] সাইফাই মন্তব্য করে, সানাসুকে কমিক রিলিফের ভালো উৎস এবং তার উপস্থিতি একজন ভিডিও গেইম আইকনের। তৎসত্ত্বেও, তারা মন্তব্য করে, সে একজন “অভাগা চরিত্র যার বোকা তুচ্ছ দোষগুলির পেছনে কিছু নির্ভরযোগ্য কারণ রয়েছে” সেহিকো আর্মি কে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করতে না পারার পেছনে সে নিজেকে দোষী ভাবত। ম্যানিয়া এন্টারটেইনমেন্ট , কেনশিনের শত্রু থেকে সব থেকে ভালো বন্ধুতে পরিণত হওয়া সানাসুকে চরিত্রটির বিকাশের প্রশংসা করে।[১][২] এনিম নিউজ নেটওয়ার্ক এর মাইক ক্রান্দল উল্লেখ করেন, সামুরাই এক্স রিফ্লেক্সন এর মূল এনিমেশন ভিডিও তে সানাসুকের পরিবর্তিত নকশা বেশ উদ্ভট ছিল, ক্রান্দল মনে করতেন সানাসুকের মূল চরিত্রটির নকশা এই নতুন রূপান্তরের তুলনায়, একটু বেশি ই কার্টুন উপযোগী, নতুন ধরণ-এর তুলনায় সন্দেহাতীতভাবে বেশি বাস্তবিক রূপ বিকশিত হয়েছে সবগুলি সামুরাই এক্স মূল ভিডিও এনিমেশনে।[৩৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Lavey, Megan (২০০২-০১-২২)। "Mania.com Review: Rurouni Kenshin volume 6"। Mania Entertainment। সংগৃহীত ২০০৮-০১-২৫ 
  2. Robinson, Tasha। "Rurouni Kenshin TV The first steps down a very popular road"SciFi.comআসল থেকে ২০০৮-০৪-১৮-এ আর্কাইভ করা। সংগৃহীত ২০০৮-০৫-০১ 
  3. Tei, Andrew। "Anime Expo 2002: Friday Report"। Mania Entertainment। সংগৃহীত ২০০৮-০৫-০৮ 
  4. Watsuki, Nobuhiro (২০০৩)। "The Secret Life of Characters (6) Sagara Sanosuke"। Rurouni Kenshin, Volume 2Viz Media। পৃ: ৪৮। আইএসবিএন 1-59116-249-1 
  5. Watsuki, Nobuhiro (২০০৬)। Rurouni Kenshin Kanzenban, Volume 5Shueisha। পৃ: ২। আইএসবিএন 4-08-874154-4 
  6. "Interview with Clark Cheng"। Dub Review। নভেম্বর ২০০৩। আসল থেকে ২০০৮-০৫-০১-এ আর্কাইভ করা। সংগৃহীত ২০০৮-০৫-০৭ 
  7. Rurouni Kenshin ProfilesViz Media। ২০০৫। আইএসবিএন 978-1-4215-0160-4 
  8. Watsuki, Nobuhiro (২০০৩)। "Act 7: Mark of Evil"। Rurouni Kenshin, Volume 2Viz Mediaআইএসবিএন 1-59116-249-1 
  9. Watsuki, Nobuhiro (২০০৩)। "Act 8: And Then, Another"। Rurouni Kenshin, Volume 2Viz Mediaআইএসবিএন 1-59116-249-1 
  10. Watsuki, Nobuhiro (২০০৩)। "Act 6: Face Off: Sagara Sanosuke"। Rurouni Kenshin, Volume 1Viz Mediaআইএসবিএন 1-59116-249-1 
  11. Watsuki, Nobuhiro (২০০৪)। "Act 73: Encounter in the Forest (Part II)"। Rurouni Kenshin, Volume 9Viz Media। পৃ: ১৩৭। আইএসবিএন 978-1-59116-669-6 
  12. Watsuki, Nobuhiro (২০০৩)। "Act 6: Face Off: Sagara Sanosuke"। Rurouni Kenshin, Volume 1Viz Media। পৃ: ১৬০। আইএসবিএন 1-59116-220-3 
  13. Watsuki, Nobuhiro (২০০৩)। "Chapter 8"। Rurouni Kenshin, Volume 2Viz Mediaআইএসবিএন 1-59116-249-1 
  14. Watsuki, Nobuhiro (২০০৪)। "Act 72: Encounter in the Forest (Part I)"। Rurouni Kenshin, Volume 9Viz Media। পৃ: 122–123। আইএসবিএন 978-1-59116-669-6 
  15. Watsuki, Nobuhiro (২০০৫)। "Chapter 111"। Rurouni Kenshin, Volume 13Viz Mediaআইএসবিএন 978-1-59116-713-6 
  16. Watsuki, Nobuhiro (২০০৬)। "Chapter 209"। Rurouni Kenshin, Volume 24Viz Media। পৃ: ৫৬। আইএসবিএন 978-1-4215-0338-7 
  17. Watsuki, Nobuhiro. "Act 45: Extra: Sanosuke and Nishiki Paintings (1)." Rurouni Kenshin Volume 6. Viz Media. 110.
  18. Watsuki, Nobuhiro (২০০৬)। "Act 229: A Man's Back 2: Two Alike"। Rurouni Kenshin, Volume 26Viz Mediaআইএসবিএন 1-4215-0673-4 
  19. Watsuki, Nobuhiro (২০০৬)। "Chapter 234"। Rurouni Kenshin, Volume 26Viz Mediaআইএসবিএন 1-4215-0673-4 
  20. Watsuki, Nobuhiro (২০০৫)। "Chapter 159"। Rurouni Kenshin, Volume 19Viz Media। পৃ: ১৩। আইএসবিএন 978-1-59116-927-7 
  21. Watsuki, Nobuhiro (২০০৬)। "Chapter 159"। Rurouni Kenshin, Volume 27Viz Media। পৃ: 71–72। আইএসবিএন 978-1-4215-0674-6 
  22. Watsuki, Nobuhiro (২০০৬)। "Act 236: Landing"। Rurouni Kenshin, Volume 26Viz Mediaআইএসবিএন 1-4215-0673-4 
  23. Watsuki, Nobuhiro (২০০৬)। "Chapter 254"। Rurouni Kenshin, Volume 28Viz Mediaআইএসবিএন 978-1-4215-0675-3 
  24. Samurai X - The Motion Picture. [DVD]. ADV Films. 2001.
  25. Samurai X: Reflection. [DVD]. ADV Films. 2003.
  26. "Rurouni Kenshin: Enjou! Kyoto Rinne official website"Banpresto। সংগৃহীত ২০০৮-০২-০৬ 
  27. "Jump Super Stars official website"Nintendo। সংগৃহীত ২০০৮-০২-০৬ 
  28. "Jump Ultimate Stars official website"Nintendo। সংগৃহীত ২০০৮-০২-০৬ 
  29. Watsuki, Nobuhiro (২০০৫)। "Chapter 113"। Rurouni Kenshin, Volume 14Viz Media। পৃ: ২৮। আইএসবিএন 1-59116-767-1 
  30. Watsuki, Nobuhiro (২০০৫)। "Chapter 135"। Rurouni Kenshin, Volume 16Viz Mediaআইএসবিএন 1-59116-854-6 
  31. "Rurouni Kenshin: Sweat Band - Sanosuke"Amazon.com। সংগৃহীত ২০০৮-০১-২৮ 
  32. "Rurouni Kenshin, Karou, Sanosuke Group Key Chain"Amazon.com। সংগৃহীত ২০০৮-০৫-০১ 
  33. Watsuki, Nobuhiro (২০০৬)। "Chapter 237"। Rurouni Kenshin, Volume 26Viz Media। পৃ: ১৭০। আইএসবিএন 1-4215-0673-4 
  34. "Rurouni Kenshin: Sanosuke 8" Plush (Plush Doll Figure)"Amazon.com। সংগৃহীত ২০০৮-০৫-০১ 
  35. Watsuki, Nobuhiro (২০০৫)। Rurouni Kenshin, Volume 10Viz Media। পৃ: ৯৯। আইএসবিএন 978-1-59116-703-7 
  36. Ueda, Yūji. (2002). Rurouni Kenshin Seisouhen 1. [DVD]. Sony.
  37. "Interview with Lex Lang"। Dubreview.com। আসল থেকে ২০০৮-০৫-১৩-এ আর্কাইভ করা। সংগৃহীত ২০০৮-০৫-০৩ 
  38. Shepard, Chris। "Rurouni Kenshin Vol. 2 - Battle in the Moonlight"Anime News Network। সংগৃহীত ২০০৮-০২-১৩ 
  39. Crandol, Mike (২০০৪-০৯-০৮)। "Ruroni Kenshin second OAV series Seisouhen, part 1"Anime News Network। সংগৃহীত ২০০৮-০৫-০১ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]