সাইকুনো

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সাইকুনো
Sykkuno 2020.jpg
২০২০ সালে সাইকুনো
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম (1992-06-04) ৪ জুন ১৯৯২ (বয়স ২৯)
জাতীয়তামার্কিন
পেশাস্ট্রিমার
আদি নিবাসস্যান গ্যাব্রিয়েল, ক্যালিফোর্নিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
টুইচ তথ্য
চ্যানেল
কার্যকাল২০১৫–বর্তমান
ধারাগেমিং
অনুসারী২.৯৫ মিলিয়ন
মোট প্রদর্শন৪৩ মিলিয়ন
সহযোগী শিল্পী
উক্তি"ও জিজাস"
ইউটিউব তথ্য
চ্যানেল
কার্যকাল২০১১–বর্তমান
ধারাগেমিং
সদস্য২.৬ মিলিয়ন
মোট ভিউ২৭৫ মিলিয়ন
YouTube Silver Play Button 2.svg ১,০০,০০০ সদস্য ২০১৯
YouTube Gold Play Button 2.svg ১০,০০,০০০ সদস্য ২০২০
১৫ মার্চ ২০২১ পর্যন্ত সদস্য এবং মোট ভিউ সংখ্যা হালনাগাদকৃত

টমাস (ইংরেজি: Sykkuno; জন্ম: ৪ জুন ১৯৯২; অনলাইনে মাধ্যমে ছদ্মনাম সাইকুনো নামে সুপরিচিত) হলেন একজন মার্কিন টুইচ স্ট্রিমার এবং ইউটিউবার[১] তিনি টুইচে তার সরাসরি সম্প্রচারের জন্য পরিচিত।[২] ২০২১ সালের মার্চ মাস অনুযায়ী, তার টুইচ চ্যানেলটি সর্বাধিক অনুসরণকৃত চ্যানেলের মধ্যে ৩৮তম এবং সর্বাধিক সাবস্ক্রাইবকৃত চ্যানেলের মধ্যে ১১তম স্থানে রয়েছে।

টুইচ[সম্পাদনা]

যদিও তার টুইচ একাউন্ট ২০১১ সাল থেকে সক্রিয় (যা ২০১১ সালের ১৪ই নভেম্বর তারিখে তৈরি করা হয়েছে), সাইকুনো ২০১৮ সালের ৩রা জানুয়ারি তারিখে উক্ত চ্যানেলে প্রথমবারের মতো সরাসরি সম্প্রচার করা শুরু করেন। ২০১৯ সালের এপ্রিল মাস হতে, সাইকুনো নিয়মিত স্ট্রিমিং শুরু করেন। তিনি টুইচ প্ল্যাটফর্মে দ্রুত জনপ্রিয়তা অর্জন করেন; যার ক্ষেত্রে অনেকে তার শান্ত, পিছিয়ে পড়া আচরণকে একটি মাধ্যম হিসেবে মনে করেন।[৩] ২০২০ সালের আগস্ট মাসে সাইকুনো সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য অফলাইনটিভির বাসস্থানে বসবাসের জন্য আসেন এবং কিছু ভিডিওতে উক্ত দলের সহযোগিতা করেন। দুই মাস পর তিনি উক্ত বাসস্থান ত্যাগ করে তার পরিবারের সাথে বসবাস করতে চলে যান।[৪]

২০২০ সালের নভেম্বর মাসে সাইকুনোর টুইচ চ্যানেলটি ৬,২০,০০০-এর বেশি অনুসারী অর্জন করে, যা তাকে উক্ত মাধ্যমে দ্রুততম ক্রমবর্ধমান স্ট্রিমারে পরিণত করে।[৫][৬]

২০২০ সালের ২৭শে নভেম্বর তারিখে, সাইকুনো টুইচে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র প্রতিনিধি পরিষদের সদস্য আলেক্সান্দ্রিয়া ওকাসিও কোর্তেসের সাথে অ্যামাং আস খেলেন, যেখানে তারা খাদ্য নিরাপত্তাহীনতা মোকাবেলায় সাহায্য করার জন্য ২,০০,০০০ মার্কিন ডলারেরও বেশি সংগ্রহ করেছিল।[৭][৮] পরবর্তী বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে, সাইকুনোর টুইচ চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইবকৃত চ্যানেলের তালিকায় ১১তম স্থান অধিকার করে।[৯]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

তিনি চীনা এবং ভিয়েতনামী বংশোদ্ভূত।[১০] সাইকুনো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়ার বাসিন্দা। ২০২১ সালের জানুয়ারি মাসে তিনি জানান যে তিনি নেভাডার লাস ভেগাসে স্থানান্তরিত হবেন।[১১][১২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Colombo, Charlotte (১৩ ডিসেম্বর ২০২০)। "Sykkuno's blow up on Twitch & YouTube hits massive new milestone"Dexerto (ইংরেজি ভাষায়)। 
  2. Mustafa, Filiz (২৩ নভেম্বর ২০২০)। "Why was Sykkuno crying on live stream? Twitch star's fans share messages of support!"HITC 
  3. Bernal, Alan (৩ ডিসেম্বর ২০২০)। "Who is Sykkuno? The overnight success who's making Twitch a nicer place"Dexerto (ইংরেজি ভাষায়)। 
  4. Tsiaoussidis, Alex (২৮ নভেম্বর ২০২০)। "Sykkuno reveals new plans after leaving OfflineTV house"Dexerto (ইংরেজি ভাষায়)। 
  5. Fusci, Preston (৫ ডিসেম্বর ২০২০)। "Sykkuno is Now the Fastest-Growing Twitch Streamer"Game Rant 
  6. Peterson, Danny (৮ ডিসেম্বর ২০২০)। "Sykkuno gained 620,000+ Twitch followers in 30 days Record"Techarim 
  7. Iovine, Anna (২৮ নভেম্বর ২০২০)। "AOC raised $200,000 for charity on her 'Among Us' Twitch stream Friday"Mashable (ইংরেজি ভাষায়)। 
  8. Lee, Jonathan (১ ডিসেম্বর ২০২০)। "AOC's second Twitch stream raised $200k for eviction protection and more"In The Know 
  9. "Sykkuno"TwitchTracker (ইংরেজি ভাষায়)। 
  10. B, Rishabh (২৫ নভেম্বর ২০২০)। ""The Sykkuno effect": The meteoric rise of Twitch Streamer Sykkuno and his effect on people"www.sportskeeda.com (ইংরেজি ভাষায়)। 
  11. Miceli, Max (১৭ জানুয়ারি ২০২১)। "Sykkuno set to return to streaming today following move to Las Vegas"Dot Esports 
  12. Mukherjee, Sarjyo (১৬ জানুয়ারি ২০২১)। "Sykkuno confirms Las Vegas move » TalkEsport"TalkEsport 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]