সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব কর্তৃপক্ষ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব কর্তৃপক্ষ
সংক্ষেপেপিপিটিএ
গঠিতআগস্ট ২০১০
সদরদপ্তরঢাকা, বাংলাদেশ
যে অঞ্চলে কাজ করে
বাংলাদেশ
দাপ্তরিক ভাষা
বাংলা
ওয়েবসাইটPublic-Private Partnership Authority

সরকারি-বেসরকারি অংশীদারত্ব কর্তৃপক্ষ সরকারী বেসরকারী সহযোগীতা জন্য ব্যবস্থাপনা এবং সমর্থনের জন্য দায়ীত্বপ্রাপ্ত স্বশাসিত সরকার সংস্থা।[১][২]  এটি বাংলাদেশের ঢাকায় অবস্থিত। এটি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অধীনে রয়েছে এবং এটি বাংলাদেশের পিপিপি ইউনিট হিসাবে কাজ করে।[৩][৪] সরকারী-বেসরকারী অংশীদারত্বের পরিমাণ বাংলাদেশে প্রতিবছর ৩.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, যার পরিকল্পনা রয়েছে সরকার ১২ বিলিয়ন ডলারে। [৫] ২০১৭ সালে বাংলাদেশ সরকার সরকারী-বেসরকারী অংশীদারত্বের জন্য করের উপর ১০ বছরের স্থিতি ঘোষণা করেছিল।[৬]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

সরকারী-বেসরকারী অংশীদারত্ব কর্তৃপক্ষ ২০১০ সালের আগস্টে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। এটি বাংলাদেশ সরকারের ২০২১ সালের ভিশনের একটি অংশ ছিল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অধীনে।[৩][৭]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Roehrich, Jens K.; Lewis, Michael A.; George, Gerard (২০১৪)। "Are public–private partnerships a healthy option? A systematic literature review"। Social Science & Medicine113: 110–119। ডিওআই:10.1016/j.socscimed.2014.03.037অবাধে প্রবেশযোগ্যপিএমআইডি 24861412 
  2. Caldwell, N.; Roehrich, J. K.; George, G. (২০১৭)। "Social value creation and relational coordination in public-private collaborations."। Journal of Management Studies54 (6): 906–928। ডিওআই:10.1111/joms.12268অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  3. "Public Private Partnership Authority Bangladesh"pppo.gov.bd। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  4. "Infrastructure Projects: Tokyo to invest under new arrangement"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ১১ ডিসেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  5. "Raise investment in PPP projects: expert"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২১ মে ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  6. "10-year tax holiday for PPP projects"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ৩০ জুন ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  7. "Japanese firms to invest in infrastructure"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭।