সন্তোষ ট্রফি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সন্তোষ ট্রফি
সিনিয়র পুরুষ জাতীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ
প্রতিষ্ঠিত১৯৪১; ৮৩ বছর আগে (1941)
অঞ্চল ভারত
দলের সংখ্যা৩৮
সম্পর্কিত
প্রতিযোগিতা
ভারতীয় জাতীয় গেমস
বর্তমান চ্যাম্পিয়নকর্ণাটক (৫ম শিরোপা)
সবচেয়ে সফল দলপশ্চিমবঙ্গ (৩২টি শিরোপা)
টেলিভিশন সম্প্রচারকস্পোর্টসকাস্ট ইন্ডিয়া
সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন (ফেসবুক সম্প্রচার)
সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন (ইউটিউব সম্প্রচার)
১০০ স্পোর্টস টিভি
জি স্পোর্টস লাইভ
ওয়েবসাইটহিরো সিনিয়র এনএফসি
২০২৩–২৪ সন্তোষ ট্রফি

সন্তোষ ট্রফি বা সিনিয়র পুরুষ জাতীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ[১] হল ভারতের ফুটবল প্রতিযোগিতা যা রাজ্য ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনগুলোর মধ্যে খেলা হয়ে থাকে। এটির আয়োজক ও পরিচালক সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন। ১৯৯৬ পর্যন্ত এটি ছিল ভারতের সর্বোচ্চ ফুটবল লিগ। প্রাথমিক পর্ব থেকে বাছাইয়ের পর চূড়ান্ত পর্ব অনুষ্ঠিত হয়, যার মাধ্যমে বিজয়ী নির্ধারিত হয়।

সন্তোষের মন্মথনাথ রায়চৌধুরী, ভারতীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন-এর (আইএফএ) প্রাক্তন প্রেসিডেন্টের নামাঙ্কিত এই প্রতিযোগিতাটি। ট্রফিটির নাম কমলা গুপ্ত ট্রফি। প্রথম ও দ্বিতীয় পুরস্কার আইএফএ কর্তৃক দান করা হয়েছিল আর তৃতীয় পুরস্কার দান করেছিল কর্ণাটক রাজ্য ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (মহীশূর)।

বর্তমান দল[সম্পাদনা]

দলগুলি অন্তত একবার অংশ নিয়েছে।

  1. আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ
  2. অন্ধ্রপ্রদেশ
  3. অরুণাচল প্রদেশ
  4. আসাম
  5. বিহার
  6. চন্ডীগড়
  7. ছত্তিশগড়
  8. দমন ও দিউ এবং দাদরা ও নগর হাভেলি
  9. দিল্লি
  10. গোয়া
  11. গুজরাত
  12. হরিয়ানা
  13. হিমাচল প্রদেশ
  14. জম্মু ও কাশ্মীর
  15. ঝাড়খন্ড
  16. কর্ণাটক
  17. কেরালা
  18. লাক্ষাদ্বীপ
  19. লাদাখ
  20. মধ্যপ্রদেশ
  21. মহারাষ্ট্র
  22. মণিপুর
  23. মেঘালয়
  24. মিজোরাম
  25. পুদুচেরি
  26. নাগাল্যান্ড
  27. ওড়িশা
  28. পশ্চিমবঙ্গ
  29. রাজস্থান
  30. পাঞ্জাব
  31. সিকিম
  32. ত্রিপুরা
  33. তামিলনাড়ু
  34. উত্তরপ্রদেশ
  35. উত্তরাখণ্ড
  36. তেলেঙ্গানা
  37. ভারতীয় রেলওয়ে
  38. সার্ভিসেস

ফলাফল[সম্পাদনা]

ফাইনাল[২][সম্পাদনা]

মৌসুম আয়োজক চ্যাম্পিয়ন ফলাফল রানার্স-আপ
১৯৪১–৪২ কলকাতা বাংলা ৫–১ দিল্লি
১৯৪৪–৪৫ দিল্লি দিল্লি ২–০ বাংলা
১৯৪৫–৪৬ বম্বে বাংলা ২–০ বম্বে
১৯৪৬–৪৭ ব্যাঙ্গালোর মহীশূর ০–০, ২–১ বাংলা
১৯৪৭–৪৮ কলকাতা বাংলা ০–০, ১–০ বম্বে
১৯৪৯–৫০ কলকাতা বাংলা ৫–০ হায়দ্রাবাদ
১৯৫০–৫১ কলকাতা বাংলা ১–০ হায়দ্রাবাদ
১৯৫১–৫২ বম্বে বাংলা ১–০ বম্বে
১৯৫২–৫৩ ব্যাঙ্গালোর মহীশূর ১–০ বাংলা
১৯৫৩–৫৪ কলকাতা বাংলা ০–০, ৩–১ মহীশূর
১৯৫৪–৫৫ মাদ্রাজ বম্বে ২–১ সার্ভিসেস
১৯৫৫–৫৬ এর্নাকুলাম বাংলা ১–০ মহীশূর
১৯৫৬–৫৭ ত্রিবান্দ্রম হায়দ্রাবাদ ১–১, ৪–১ বম্বে
১৯৫৭–৫৮ হায়দ্রাবাদ হায়দ্রাবাদ ৩–১ বম্বে
১৯৫৮–৫৯ মাদ্রাজ বাংলা ১–০ সার্ভিসেস
১৯৫৯–৬০ নগাঁও বাংলা ৩–১ বম্বে
১৯৬০–৬১ কোঝিকোড় সার্ভিসেস ০–০, ১–০ বাংলা
১৯৬১–৬২ বম্বে রেলওয়ে ৩–০ বম্বে
১৯৬২–৬৩ ব্যাঙ্গালোর বাংলা ২–০ মহীশূর
১৯৬৩–৬৪ মাদ্রাজ মহারাষ্ট্র ১–০ অন্ধ্রপ্রদেশ
১৯৬৪–৬৫ গুয়াহাটি রেলওয়ে ২–১ বাংলা
১৯৬৫–৬৬ কোল্লাম অন্ধ্রপ্রদেশ ১–১, ১–০ বাংলা
১৯৬৬–৬৭ হায়দ্রাবাদ রেলওয়ে ০–০, ২–০ সার্ভিসেস
১৯৬৭–৬৮ কটক মহীশূর ১–০ বাংলা
১৯৬৮–৬৯ ব্যাঙ্গালোর মহীশূর ০–০, ১–০ বাংলা
১৯৬৯–৭০ নগাঁও বাংলা ৬–১ সার্ভিসেস
১৯৭০–৭১ জলন্ধর পাঞ্জাব ১–১, ৩–১ মহীশূর
১৯৭১–৭২ মাদ্রাজ বাংলা ৪–১ রেলওয়ে
১৯৭২–৭৩ গোয়া বাংলা ৪–১ তামিলনাড়ু
১৯৭৩–৭৪ এর্নাকুলাম কেরালা ৩–২ রেলওয়ে
১৯৭৪–৭৫ জলন্ধর পাঞ্জাব ৬–০ বাংলা
১৯৭৫–৭৬ কোঝিকোড় বাংলা ০–০, ৩–১ কর্ণাটক
১৯৭৬–৭৭ পাটনা বাংলা ১–০ মহারাষ্ট্র
১৯৭৭–৭৮ কলকাতা বাংলা ১–১, ৩–১ পাঞ্জাব
১৯৭৮–৭৯ শ্রীনগর বাংলা ১–০ গোয়া
১৯৭৯–৮০ কোয়েম্বাটুর বাংলা ১–০ পাঞ্জাব
১৯৮০–৮১ কটক পাঞ্জাব ০–০, ২–০ রেলওয়ে
১৯৮১–৮২ ত্রিশূর বাংলা ২–০ রেলওয়ে
১৯৮২–৮৩ কলকাতা বাংলাগোয়া ০–০, ০–০ ড্রয়ের পর শিরোপা ভাগ করে নেয়
১৯৮৩–৮৪ মাদ্রাজ গোয়া ১–০ পাঞ্জাব
১৯৮৪–৮৫ কানপুর পাঞ্জাব ৩–০ মহারাষ্ট্র
১৯৮৫–৮৬ জব্বলপুর পাঞ্জাব ০–০ (৪–১ পে.) বাংলা
১৯৮৬–৮৭ কলকাতা বাংলা ২–১ রেলওয়ে
১৯৮৭–৮৮ কোল্লাম পাঞ্জাব ০–০ (৫–৪ পে.) কেরালা
১৯৮৮–৮৯ গুয়াহাটি বাংলা ১–১ (৪–৩ পে.) কেরালা
১৯৮৯–৯০ মারগাও গোয়া ২–০ কেরালা
১৯৯০–৯১ পালাক্কাড় মহারাষ্ট্র ১–০ কেরালা
১৯৯১–৯২ কোয়েম্বাটুর কেরালা ৩–০ গোয়া
১৯৯২–৯৩ কোচি কেরালা ২–০ মহারাষ্ট্র
১৯৯৩–৯৪ কটক বাংলা ২–২ (৫–৩ পে.) কেরালা
১৯৯৪–৯৫ চেন্নাই বাংলা ২–১ (এ.এস.ডি.ই.টি.) পাঞ্জাব
১৯৯৫–৯৬ মারগাও বাংলা ১–০ গোয়া
১৯৯৬–৯৭ জব্বলপুর বাংলা ১–০ (এ.এস.ডি.ই.টি.) গোয়া
১৯৯৭–৯৮ গুয়াহাটি বাংলা ৫–১ গোয়া
১৯৯৮–৯৯ চেন্নাই বাংলা ১–০ গোয়া
১৯৯৯–০০ ত্রিশূর মহারাষ্ট্র ৩–২ কেরালা
২০০১–০২ মুম্বই কেরালা ৩–২ (এ.এস.ডি.ই.টি.) গোয়া
২০০২–০৩ ইম্ফল মণিপুর ২–১ (এ.এস.ডি.ই.টি.) কেরালা
২০০৪–০৫ দিল্লি কেরালা ৩–২ পাঞ্জাব
২০০৫–০৬ কোচি গোয়া ৩–১ (অ.স.প.) মহারাষ্ট্র
২০০৬–০৭ গুরগাঁও পাঞ্জাব ০–০ (অ.স.প.) (৫–৩ পে.) পশ্চিমবঙ্গ
২০০৭–০৮ শ্রীনগর পাঞ্জাব ১–০ সার্ভিসেস
২০০৮–০৯ চেন্নাই গোয়া ০–০ (অ.স.প.) (৪–২ পে.) পশ্চিমবঙ্গ
২০০৯–১০ কলকাতা পশ্চিমবঙ্গ ২–১ পাঞ্জাব
২০১০–১১ আসাম পশ্চিমবঙ্গ ২–১ মণিপুর
২০১১–১২ ওড়িশা সার্ভিসেস ৩–২ তামিলনাড়ু
২০১২–১৩ কোচি সার্ভিসেস ০–০ (অ.স.প.) (৪–৩ পে.) কেরালা
২০১৩–১৪ শিলিগুড়ি মিজোরাম ৩–০ রেলওয়ে
২০১৪–১৫ লুধিয়ানা সার্ভিসেস ০–০ (৫–৪ পে.) পাঞ্জাব
২০১৫–১৬ নাগপুর সার্ভিসেস ২–১ মহারাষ্ট্র
২০১৬–১৭ গোয়া পশ্চিমবঙ্গ ১–০ গোয়া
২০১৭–১৮ কলকাতা কেরালা ২–২ (৪–২ পে.) পশ্চিমবঙ্গ
২০১৮–১৯ লুধিয়ানা সার্ভিসেস ১–০ পাঞ্জাব
২০২১–২২ মালাপ্পুরম কেরালা ১–১ (৫–৪ পে.) পশ্চিমবঙ্গ
২০২২–২৩ সৌদি আরব রিয়াদ কর্ণাটক ৩–২ মেঘালয়
২০২৩–২৪ ইউপিয়া

পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

দল বিজয়ী রানার্স-আপ সর্বশেষ জয়
পশ্চিমবঙ্গ/বাংলা ৩২ ১৪ ২০১৬–১৭
পাঞ্জাব ২০০৭–০৮
কেরালা ২০২১–২২
সার্ভিসেস ২০১৮–১৯
গোয়া ২০০৮–০৯
কর্ণাটক/মহীশূর ২০২২–২৩
রেলওয়ে ১৯৬৬–৬৭
মহারাষ্ট্র/বম্বে ১২ ১৯৯৯–০০
হায়দ্রাবাদ/তেলেঙ্গানা ১৯৫৭–৫৮
অন্ধ্রপ্রদেশ ১৯৬৫–৬৬
দিল্লি ১৯৪৪–৪৫
মণিপুর ২০০২–০৩
মিজোরাম ২০১৩–১৪
তামিলনাড়ু/মাদ্রাজ -
মেঘালয় -

রেকর্ড[সম্পাদনা]

প্রতিযোগিতার সর্বাধিক গোল ইন্দের সিং (পাঞ্জাব) (৪৫টি গোল)[৩]
একক প্রতিযোগিতায় সর্বাধিক গোল ইন্দের সিং (পাঞ্জাব) (২৩ গোল – ১৯৭৪/৭৫)[৩]
একটি ম্যাচে সর্বাধিক গোল ফ্রেড পাগস্লে (বাংলা) বনাম রাজপুতানা (৭ গোল)
ইন্দের সিং (পাঞ্জাব) বনাম গুজরাত (৭ গোল)[৩][৪]

এএফসি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ[সম্পাদনা]

এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন ক্লাব টুর্নামেন্ট[সম্পাদনা]

বছর দল অগ্রগতি ফলাফল প্রতিপক্ষ মাঠ
১৯৬৭ ভারতীয় রেলওয়ে সেমি-ফাইনাল ও/ও ইসরায়েল হাপোয়েল তেল আভিভ প্রত্যাহার
১৯৬৯ মহীশূর চতুর্থ স্থান ০–২ জাপান তোয়ো কোগিও ব্যাংকক, থাইল্যান্ড
১৯৭০ বাংলা গ্রুপ পর্বের ৩য় ইসরায়েল হাপোয়েল তেল আভিভ, ইন্দোনেশিয়া মেডান, থাইল্যান্ড রয়্যাল থাই পুলিশ

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

  • Sarkar, Dhiman (২৫ মার্চ ২০১৮)। "India's football past gasping for survival"hindustantimes.com। Kolkata: Hindustan Times। ৬ জানুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ এপ্রিল ২০২৩ 
  • Santosh Trophy 2023-23 Schedule

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Hero Senior NFC"www.the-aiff.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-১২-০৫ 
  2. "Santosh Trophy Winners"RSSSF 
  3. "From the History Book"The All India Football Federation। ২৭ মে ২০১২। ২১ ডিসেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  4. "Memorable moments in the Santosh Trophy"Sportskeeda.com। সংগ্রহের তারিখ ৭ মার্চ ২০২১