সনি মলোনি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সনি মলোনি
Sonny Moloney 1937.jpg
১৯৩৭ সালে ইংল্যান্ড গমনে সনি মলোনি
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম(১৯১০-০৮-১১)১১ আগস্ট ১৯১০
ডুনেডিন, নিউজিল্যান্ড
মৃত্যু১৫ জুলাই ১৯৪২(1942-07-15) (বয়স ৩১)
এল আলামিন, মিশর
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনলেগ ব্রেক
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৩০)
২৬ জুন ১৯৩৭ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট১৪ আগস্ট ১৯৩৭ বনাম ইংল্যান্ড
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯২৯/৩০ - ১৯৩৪/৩৫, ১৯৩৮/৩৯ - ১৯৩৯/৪০ওতাগো
১৯৩৫/৩৬ - ১৯৩৭/৩৮ওয়েলিংটন
১৯৪০/৪১ক্যান্টারবারি
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৬৪
রানের সংখ্যা ১৫৬ ৩২১৯
ব্যাটিং গড় ২৬.০০ ২৮.৭৪
১০০/৫০ ০/১ ২/১৬
সর্বোচ্চ রান ৬৪ ১৯০
বল করেছে ১২ ৫১৭৬
উইকেট ৯৫
বোলিং গড় ৩৩.১৬
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৫/২৩
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৩/- ৩৫/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৯ মে ২০১৯

ডেনিস অ্যান্ড্রু রবার্ট সনি মলোনি (ইংরেজি: Sonny Moloney; জন্ম: ১১ আগস্ট, ১৯১০ - মৃত্যু: ১৫ জুলাই, ১৯৪২) ওতাগোর ডুনেডিনে জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা নিউজিল্যান্ডীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৩৭ সময়কালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে নিউজিল্যান্ডের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছিলেন। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর নিউজিল্যান্ডীয় ক্রিকেটে ওতাগো, ক্যান্টারবারি ও ওয়েলিংটন দলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, লেগ ব্রেক বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন সনি মলোনি

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯২৭-২৮ মৌসুম থেকে ১৯৪০-৪১ মৌসুম পর্যন্ত প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট জীবন চলমান ছিল সনি মলোনি’র। ১৯৩৫ থেকে ১৯৩৯ সাল পর্যন্ত নিউজিল্যান্ডের পক্ষে প্রতিনিধিত্বমূলক খেলায় অংশগ্রহণ করেছেন। মাঝারিসারিতে কিংবা ব্যাটিং উদ্বোধনে নামতেন তিনি। এছাড়াও, লেগ স্পিন বোলিংয়ে দক্ষ ছিলেন। ঘরোয়া ক্রিকেটে ওয়েলিংটনের নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান হিসেবে সবিশেষ পরিচিতি লাভ করেন।

১৯৩৮-৩৯ মৌসুমে স্যার জুলিয়েন কান ক্রিকেট দল নিউজিল্যান্ড গমন করে। তিনি নিউজিল্যান্ড একাদশ দলের নেতৃত্বে ছিলেন।[১]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে তিনটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করার সুযোগ পেয়েছিলেন সনি মলোনি। ১৯৩৭ সালে ইংল্যান্ড গমনকালে ঐ তিনটি টেস্ট খেলেছিলেন। ২৬ জুন, ১৯৩৭ তারিখে লর্ডসে স্বাগতিক ইংরেজ দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ১৯৩৭ সালে ইংল্যান্ডে চলে আসেন ও প্রভূতঃ সফলতার স্বাক্ষর রাখেন। সর্বমোট তিন টেস্ট খেলার সুযোগ পেয়ে ২৬ গড়ে রান তুলেছিলেন সনি মলোনি। সকল প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নিয়ে ৩৪.৮৩ গড়ে ১,৪৬৩ রান তুলেন। ফোকস্টোনে ইংরেজ একাদশের বিপক্ষে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ১৪০ রানের ইনিংস খেলেছিলেন। ১৯৩৭ সালের মার্চ মাসে জি. ও. অ্যালেনের নেতৃত্বাধীন দলের বিপক্ষে ৬০ রান করেছিলেন। বোলার হিসেবে সবিশেষ সফলতা পেয়েছেন। ২৬.৬৮ গড়ে ৫৭ উইকেট পেয়েছেন।

বিশ্বযুদ্ধে অংশগ্রহণ[সম্পাদনা]

জন মলোনি ও মেরি অ্যান মলোনি দম্পতির সন্তান ছিলেন তিনি। ২০শ ব্যাটলিয়ন নিউজিল্যান্ড পদাতিক বিভাগে নিয়োজিত ছিলেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন। যুদ্ধের এক পর্যায়ে আহত হলে যুদ্ধবন্দী হন।[২] মিশরের এল আলামিন এলাকায় যুদ্ধবন্দী থাকাবস্থায় ১৫ জুলাই, ১৯৪২ তারিখে ৩২ বছর বয়সে সনি মলোনি’র জীবনাবসান ঘটে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "New Zealand v Sir J Cahn's XI 1938–39"। CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭(সদস্যতা নেয়া প্রয়োজন (সাহায্য)) 
  2. "Lieutenant MOLONEY, DENIS ANDREW ROBERT"Commonwealth War Graves Commission। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১৯ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]