শ্রীলঙ্কার কেন্দ্রীয় ব্যাংক

স্থানাঙ্ক: ৬°৫৬′০৪″ উত্তর ৭৯°৫০′৩৩″ পূর্ব / ৬.৯৩৪৫১৯° উত্তর ৭৯.৮৪২৩৯৬° পূর্ব / 6.934519; 79.842396
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
শ্রীলঙ্কার কেন্দ্রীয় ব্যাংক
ශ්‍රී ලංකා මහ බැංකුව
இலங்கை மத்திய வங்கி
Iconic CBSL Building.png
প্রধান কার্যালয়কলম্বো
স্থানাঙ্ক৬°৫৬′০৪″ উত্তর ৭৯°৫০′৩৩″ পূর্ব / ৬.৯৩৪৫১৯° উত্তর ৭৯.৮৪২৩৯৬° পূর্ব / 6.934519; 79.842396
প্রতিষ্ঠিত২৮ আগস্ট ১৯৫০; ৭১ বছর আগে (1950-08-28)
গভর্ণরইন্দ্রজিৎ কুমারাস্বামী
এর কেন্দ্রীয় ব্যাংকশ্রীলঙ্কা
মুদ্রাশ্রীলঙ্কার রূপী
LKR (আইএসও ৪২১৭)
পূর্বসূরিমুদ্রা বোর্ড পদ্ধতি
ওয়েবসাইটwww.cbsl.gov.lk

শ্রীলঙ্কার কেন্দ্রীয় ব্যাংক (সিংহলি: ශ්‍රී ලංකා මහ බැංකුව; উচ্চারণ: শ্রীলঙ্কা মহা ব্যাংকোয়া) হলো শ্রীলঙ্কার আর্থিক কর্তৃপক্ষ এবং দেশটির আর্থিক খাতের শীর্ষ সংস্থা। এটি ১৯৪৯ সালের অর্থ আইন নং-৫৮-এর অধীনে ১৯৫০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়, যা একটি আধা-স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা এবং ২০০২ সালের ডিসেম্বরে বিধানাবলী সংশোধনের পর এটি সরকার কর্তৃক গঠিত পাঁচ সদস্যের আর্থিক পর্যালোচনা বোর্ড কর্তৃক নিয়ন্ত্রিত হয় যাতে সভাপতি হিসাবে থাকেন গভর্নর এবং সদস্য হিসাবে যুক্ত থাকেন অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং অর্থমন্ত্রীর সুপারিশক্রমে সাংবিধানিক পরিষদের সম্মতির মাধ্যমে শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রপতি কর্তৃক নিযুক্ত অপর আরও তিন জন সদস্য।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

স্বাধীনতা লাভের দুই বছর পর ১৯৫০ সালে শ্রীলঙ্কার কেন্দ্রীয় ব্যাংকটি প্রতিষ্ঠিত হয়। শ্রীলঙ্কার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা গভর্নর ছিলেন জন এক্সটা এবং তখন অর্থমন্ত্রী হিসাবে দায়িত্বপালনরত ছিলেন জে. আর. জয়বর্ধনে। এটি ব্যাংকটির সাবেক নাম সিলোনের কেন্দ্রীয় ব্যাংক হিসাবে মুদ্রা বোর্ডের পরিবর্তে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল যেটি তখন দেশে মুদ্রা প্রচলন ও ছাপানো কাজে নিয়োজিত ছিল। এটি এশিয়ান ক্লিয়ারিং ইউনিয়ন এর সদস্য।

ব্যাংকটি শ্রীলঙ্কার মুদ্রানীতি পরিচালনা করার জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত এবং আর্থিক ব্যবস্থা খাতের উপর ব্যাপক তত্ত্বাবধান করার ক্ষমতাও রয়েছে এর।

ব্যাংকটি সেদেশে আর্থিক নীতিগুলো উন্নয়নের সাথে জড়িত এবং আর্থিক নীতিমালা উন্নয়নকারী সংগঠন Alliance for Financial Inclusion (AFI)-এর সদস্য।[১]

শ্রীলঙ্কার উত্পাদনশীল সম্পদগুলির উন্নয়নে উৎসাহিত ও প্রচারণার জন্য শ্রীলঙ্কার কেন্দ্রীয় ব্যাংক অর্থনৈতিক ও মূল্যমানের স্থিতিশীলতা এবং আর্থিক ব্যবস্থার স্থিতিশীলতা নিশ্চিত করতে কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে। এছাড়াও মুদ্রা প্রচলন, ছাপানো এবং ব্যবস্থাপনার জন্যও এটি দায়বদ্ধ।

পরিচালনা ও ব্যবস্থাপনা[সম্পাদনা]

শ্রীলঙ্কার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর এই প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। গভর্নর, দুইজন ডেপুটি গভর্নর এবং বিভিন্ন সহকারী গভর্নরগণ ও বিভাগীয় প্রধানগণ মিলে শ্রীলঙ্কার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন ব্যবস্থাপনা পরিষদ গঠন করেন। কার্যকরীভাবে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে বর্তমানে একজন পরিচালক (বা সমমানের পদবীধারীর অধীনে) ২৭টি বিভাগ রয়েছে যাদের মধ্যে কেবল ব্যবস্থাপনা নিরীক্ষা বিভাগের পরিচালক ছাড়া সকলেই একজন সহকারী গভর্নরের মাধ্যমে গভর্নর বা ডেপুটি গভর্নরের নিকট প্রতিবেদন দাখিল করেন; কেবল ব্যবস্থাপনা নিরীক্ষা বিভাগের পরিচালক গভর্নরের নিকট সরাসরি প্রতিবেদন দাখিল করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "AFI members"। AFI Global। ২০১১-১০-১০। ২০১২-০২-২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০২-২৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]