শ্রীলঙ্কায় হিন্দুধর্ম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
শ্রীলঙ্কান হিন্দু
Om symbol.svg
মোট জনসংখ্যা
২,৫৬১,২৯৯ (২০১২)
মোট জনসংখ্যার ১২.৬%
ধর্ম
হিন্দুধর্ম
ধর্মগ্রন্থ
বেদ, ভগবদ্গীতারামায়ণ
ভাষা
সংস্কৃত ভাষা এবং পুরাতন তামিল (পবিত্র)
তামিল এবং সিংহলি

হিন্দুধর্ম হল শ্রীলঙ্কার প্রাচীনতম ধর্মগুলির মধ্যে একটি ।মন্দিরগুলি ২,০০০ বছরেরও বেশি পুরনো ৷ ২০১১ সালের হিসাবে , শ্রীলঙ্কার জনসংখ্যার ১২.৬% হিন্দু ।[১] [২]

মঙ্গল প্রদীপ শিখা

১৯১৫ সালের আদমশুমারি অনুসারে , হিন্দুরা শ্রীলঙ্কার জনসংখ্যার প্রায় ২৫% ( বৃটিশদের দ্বারা আনা চুক্তিবদ্ধ শ্রমিক সহ)।[৩]  উত্তর ও পূর্ব প্রদেশে (যেখানে তামিলরা সবচেয়ে বেশি জনসংখ্যার দিক থেকে) কেন্দ্রীয় অঞ্চল এবং রাজধানী কলম্বোতে হিন্দু ধর্মের প্রাধান্য রয়েছে । ২০১১ সালের আদমশুমারি অনুসারে, শ্রীলঙ্কায় ২,৫৫৪,৬০৬ জন হিন্দু (দেশের জনসংখ্যার ১২.৬%) রয়েছে। শ্রীলঙ্কার গৃহযুদ্ধের সময় অনেক তামিল দেশত্যাগ করে শ্রীলঙ্কার তামিল প্রবাসীদের দ্বারা নির্মিত হিন্দু মন্দিরগুলি তাদের ধর্ম, ঐতিহ্য এবং সংস্কৃতি বজায় রাখে।[৪] [৫]

বেশিরভাগ শ্রীলঙ্কার হিন্দুরা শিবের ভক্ত। শ্রীলঙ্কায় শিবের পাঁচটি আবাস রয়েছে। যা পঞ্চ ঈশ্বরাম নামে পরিচিত । পবিত্র স্থানগুলি রাজা রাবণ দ্বারা নির্মিত বলে বিশ্বাস করা হয় । দেব সেনাপতি কার্তিক অন্যতম জনপ্রিয় হিন্দু দেবতা । বৌদ্ধ সিংহলী এবং আদিবাসী বেদরা দেবতা কাথারাগামা দেবীয়োর স্থানীয় প্রতিকৃতিকে পূজা করে ।[৬] [৭]

জনসংখ্যা[সম্পাদনা]

১৯৮১ সালের আদমশুমারি অনুসারে শ্রীলঙ্কায় 2,297,800 জন হিন্দু ছিল। ২০১২ সালের আদমশুমারিতে দেশে 2,554,606 জন হিন্দুর কথা বলা হয়েছে। ২০০৪ সালের সুনামির সময় শুধুমাত্র এলটিটিই নিয়ন্ত্রিত এলাকায় বিশ হাজার মানুষ মারা গিয়েছিল ।[৮][৯][১০]

শ্রী লঙ্কান হিন্দু
বছরজন.ব.প্র. ±%
১৮৮১ ৫,৯৩,৬০০—    
১৮৯১ ৬,১৫,৯০০+০.৩৭%
১৯০১ ৮,২৬,৮০০+২.৯৯%
১৯১১ ৯,৩৮,৩০০+১.২৭%
১৯২১ ৯,৮২,১০০+০.৪৬%
১৯৩১ ১১,৬৬,৯০০+১.৭৪%
১৯৪৬ ১৩,২০,৪০০+০.৮৩%
১৯৫৩ ১৬,১০,৫০০+২.৮৮%
১৯৬৩ ১৯,৫৮,৪০০+১.৯৮%
১৯৭১ ২২,৩৮,৬৬৬+১.৬৯%
১৯৮১ ২২,৯৭,৮০৬+০.২৬%
১৯৯১ ২৪,০৬,৮৫২+০.৪৬%
২০০১ ২৪,৮১,৪৯৫+০.৩১%
২০১২ ২৫,৬১,২৯৯+০.২৯%
*2001 সালের আদমশুমারি রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার কারণে সমস্ত অঞ্চলকে কভার করেনি; যাইহোক, সামগ্রিক জনসংখ্যা প্রতি বছর 1.02 শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।[১১]

দশকীয় পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

শ্রীলঙ্কান হিন্দু দশক অনুসারে [১২][১৩]
বছর শতকরা বৃদ্ধি
১৮৮১ 21.51% -
১৮৯১ 20.48%

-1.03%

১৯০১ 23.2%

+2.72%

১৯১১ 22.85%

-0.35%

১৯২১ 21.83%

-1.02%

১৯২৩ 22%

+0.17%

১৯৪৬ 19.83%

-2.17%

১৯৫৩ 19.9%

0.07%

১৯৬৩ 18.51% -1.39%
১৯৭১ 17.64% -0.87%
১৯৮১ 15.48% -2.16
১৯৯১ 14.32% -1.16
২০০১ 13.8% -0.52
২০১২ 12.58% -1.22

প্রধানত ব্রিটিশদের ভারতে আসা এবং শ্রীলঙ্কার গৃহযুদ্ধের কারণে অভিবাসনের কারণে হিন্দু শতাংশ ১৮৮১ সালে ২১.৫১ % থেকে ২০১২ সালে ১২.৫৮% এ হ্রাস পেয়েছে ।[১৪]

জেলাভিত্তিক জনসংখ্যা[সম্পাদনা]

S. No. জেলা মোট জনসংখ্যা হিন্দু জনসংখ্যা হিন্দু (%)
1. কলম্বো 2,324,349 274,087 Sri Lanka Hinduism.svg 11.79%
2. গাম্পাহা 2,304,833 112,746 4.89%
3. কালুতারা 1,221,948 114,556 9.37%
4. ক্যান্ডি 1,375,382 197,076 14.32%
5. মাতালে 484,531 45,682 9.42%
মোট 20,359,439 2,561,299 12.6%
Source: 2012 Census, পৃ. 1

কিংবদন্তি ইতিহাস[সম্পাদনা]

শ্রীলঙ্কার প্রথম প্রধান হিন্দু ধর্মের উল্লেখ পাওয়া যায় মহাকাব্য রামায়ণে[১৫]  শ্রীলঙ্কা শাসন করত যক্ষ রাজা কুবের । লঙ্কার সিংহাসন কুবেরের সৎ ভাই রাবণ । প্রধান প্রতিপক্ষ রাম ( বিষ্ণুর সপ্তম অবতার ) দ্বারা নিহত হন । [১৬] রামায়ণে ভারত ও শ্রীলঙ্কার মধ্যে রামের সেতুর কথাও উল্লেখ করা হয়েছে, যেটি হনুমান এবং অন্যদের সহায়তায় রাম পাথর দিয়ে তৈরি করেছিলেন । বর্তমান স্যাটেলাইট চিত্রগুলিতে লক্ষ্য করা যায় যে সেতুর অবশিষ্টাংশ শ্রীলঙ্কাকে ভারতের সাথে সংযুক্ত করছে ৷ প্রত্নতাত্ত্বিক প্রমাণ রাজকুমার বিজয় আগমনের আগে প্রাগৈতিহাসিক কাল থেকে শ্রীলঙ্কার কিছু অংশে শিবের উপাসনাকে সমর্থন করে । উল্লেখ যে রাবণও শিবের অনেক বড় ভক্ত ছিলেন ।[১৭]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Buddhism in Sri Lanka: A Short History"www.accesstoinsight.org। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৫-২৭ 
  2. "Census of Population and Housing, 2011"। Sri Lanka: Department of Census and Statistics। সংগ্রহের তারিখ ২৯ আগস্ট ২০২০ 
  3. "During Mahinda Rajapaksa's India visit, New Delhi likely to raise Sri Lankan Hindu Tamil's issues"The Indian Express (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০২-০৭। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৫-২৭ 
  4. Bradley, Mark (২০১৮)। "Sri Lankan Tamil Hindus and other Tamis in the Montréal diaspora" (ইংরেজি ভাষায়)। 
  5. "Success story of a 'victim diaspora'"The Hindu (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-১২-২৮। আইএসএসএন 0971-751X। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৫-২৭ 
  6. Goonasekera, Sunil (২০০৭)। Walking to Kataragama (ইংরেজি ভাষায়)। International Centre for Ethnic Studies। পৃষ্ঠা 520। আইএসবিএন 978-955-580-110-2 
  7. Obeyesekere, Gananath (১৯৭৭)। "Social Change and the Deities: Rise of the Kataragama Cult in Modern Sri Lanka"Man12 (3/4): 377–396। আইএসএসএন 0025-1496জেস্টোর 2800544ডিওআই:10.2307/2800544 
  8. 2012 Census, পৃ. 2।
  9. "Sri Lanka Statistics, 2006" (PDF)Government of Sri Lanka। ২০০৭-১০-০৭। পৃষ্ঠা 202। ২০০৭-১০-০৭ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৫-২৩ 
  10. "Sri Lanka Population Statistics" (PDF)Sri Lanka Statistics। সংগ্রহের তারিখ ২৭ মে ২০২১ 
  11. "Census of Population and Housing of Sri Lanka, 2012" (PDF)। Department of Census & Statistics, Sri Lanka। ২০১৫-০৪-০২ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  12. "Table 2.13: Population by religion and census years" (PDF)Statistical Abstract 2013। Department of Census & Statistics, Sri Lanka। ২০১৫-০৪-০২ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  13. "Population by religion"LankaSIS Sri Lanka Statistical Information Service। Department of Census & Statistics, Sri Lanka। ২০১৫-০৪-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  14. www.worldgenweb.org http://www.worldgenweb.org/lkawgw/slstats-religion.html। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৬-০৭  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)
  15. Henry ও Padma 2019, পৃ. 43।
  16. Heather (২০২১-০২-২৫)। "The Ramayana and Sri Lanka"Asian Art Newspaper (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-০৭ 
  17. Gokhale, Namita (২০১২-১০-২৩)। Book of Shiva (ইংরেজি ভাষায়)। Penguin Books। পৃষ্ঠা 104। আইএসবিএন 978-81-8475-863-4 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]