শ্রীজয়া নায়ার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শ্রীজয়া নায়ার
পেশাঅভিনেত্রী, নৃত্যশিল্পী
কার্যকাল১৯৯২-২০০০ (অভিনয়)
২০১৪ – বর্তমান (অভিনয়)
দাম্পত্য সঙ্গীমদন নায়ার
সন্তান
ওয়েবসাইটsreejaya.in

শ্রীজয়া নায়ার একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী ও নৃত্যশিল্পী। তিনি নব্বইয়ের দশকজুড়ে মালায়াম চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন এবং বিয়ের পর অবসর নেন। তবে ২০১৪ সালে তিনি পুনরায় অভিনয় জগতে ফিরে আসেন। তিনি একজন পেশাদার নৃত্যশিল্পী, বেঙ্গালুরুতে 'শ্রীজয়া'স স্কুল অব ক্লাসিক্যাল ড্যান্স' নামে তার একটি নাচ শেখানোর স্কুল আছে।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

শ্রীজয়ার শৈশব কেটেছে ভারতের কেরালা রাজ্যের কথামঙ্গলামে। তিনি পাঁচ বছর বয়স থেকে কলামণ্ডলাম সুমাথি ও কলামণ্ডলাম সরস্বতীর তত্ত্বাবধানে নাচ শেখা শুরু করেন। তিনি কেরালা কলামণ্ডলামে যোগ দিয়ে ভরতনাট্যম, মোহিনিয়াট্যম ও কুচিপুরী নাচের ওপর প্রশিক্ষণ নেন। পরবর্তীকালে তিনি চিত্রা চন্দ্রশেখর দাশরথীর তত্ত্বাবধানে প্রশিক্ষণ নেন। [১]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৯২ সালে মালায়াম নাট্য চলচ্চিত্র কমলাদলমে অভিনয়ের মাধ্যমে তার চলচ্চিত্রে অভিষেক হয়। সে সময় তিনি কেরালা কলমান্দালামে পড়াশোনা করতেন। পরবর্তীতে একই প্রতিষ্ঠান থেকে তিনি স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। [২] ১৯৯৮ সালে তিনি কমেডি নাটক "বেথেলহেমে গ্রীষ্ম"তে অভিনয় করেন। [৩] মালায়াম চলচ্চিত্র জগতের অনেক খ্যাতনামা অভিনেতা ও পরিচালক যেমন, মাম্মোথি, মোহনলাল, সুরেশ গোপী, জয়রামের সাথে তিনি কাজ করেছেন। তার অভিনীত বিখ্যাত চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে রয়েছে "পনথান মাদা", লীলাম, কানমাদাম, স্তালিন শিবাদাস, ভেন্দুম চিলা ভেত্তুকারজানগাল, অবতার, কেয়ারফুল ইত্যাদি। বিয়ের পর তিনি অভিনয় জগত থেকে ছুটি নেন।[১]

ব্যক্তিজীবন[সম্পাদনা]

ব্যক্তিজীবনে শ্রীজয়া ব্যবসায়ী মদন নায়ারের সাথে গাঁটছাড়া বেঁধেছেন। মিথিলি নামে এই দম্পত্তির একটি মেয়ে আছে। বিয়ের পর তারা প্রথমে কালিকটে ও পরবর্তীতে বেঙ্গালুরু ও কানাডায় বাস করেছেন। শেষ পর্যন্ত দেশে ফিরে তারা বেঙ্গালুরুতেই স্থায়ী হন। বেঙ্গালুরুতে শ্রীজয়া 'শ্রীজয়া'স স্কুল অব ক্লাসিক্যাল ড্যান্স' নামের একটি নাচের স্কুল চালান। শহরজুড়ে স্কুলটির ৫টি শাখা আছে, পাঁচ শতাধিক ছাত্রছাত্রী সেখানে নাচ শেখেন। স্কুলটিতে মূলত ঐতিহ্যবাহী ভরতনাট্যম নাচ শেখানো হয়, কয়েকজন পৃষ্ঠপোষক নিয়মিত প্রণোদনা প্রদানও করেন। স্কুলটির পক্ষ থেকে প্রতি বছর 'নৃত্য সন্ধ্যা' নামের একটি সান্ধ্যকালীন অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়, যেখানে বাছাইকৃত মেধাবী শিক্ষার্থীরা তাদের নৃত্য প্রতিভা প্রদর্শন করতে পারে। [১][৪]

স্টেজ শো[সম্পাদনা]

মালায়াম চলচ্চিত্র শিল্পী ও নৃত্যশিল্পী হিসেবে শ্রীজয়া বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ভ্রমণ করেছেন এবং বিভিন্ন স্টেজ শোতে নৃত্য পরিবেশন করেছেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, সুইজারল্যান্ড, বাহরাইন ও আরব আমিরশাহির মঞ্চে তিনি তার অভিনয় ও শাস্ত্রীয় নৃত্যের নৈপুণ্য প্রদর্শন করেছেন।

চলচ্চিত্র তালিকা[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

বছর নাম ভূমিকা পাদটীকা
১৯৯২ কমলাদলম নৃত্যশিল্পী, মালবিকার বান্ধবী
১৯৯৪ সাগরাম সাক্ষী ইন্দু
১৯৯৪ ভেন্ডর ড্যানিয়েল স্টেট লাইসেন্সি বালাগোপালানের বোন
১৯৯৪ পনথান মাদা রেশমি
১৯৯৫ অরমাকালুনদায়িরিক্কানাম আম্মু
১৯৯৫ বক্সার রিনা চেরিয়ান
১৯৯৭ সুপারম্যান নালিনী
১৯৯৭ ভামশাম মিনু/মীনাক্ষী
১৯৯৭ লীলামি আম্মিনি
১৯৯৮ কানমাদাম সুমা
১৯৯৮ বেথেলহেমে গ্রীষ্ম দেবিকা
১৯৯৮ মীনাক্ষী কল্যাণম লক্ষ্মী
১৯৯৮ অনুরাগাকোত্তারাম আন্না
১৯৯৮ আয়াল কাধা শোভা
১৯৯৮ রক্ষাসাক্ষীকাল সিন্দাবাদ আম্মিনি
১৯৯৯ প্রথম জেসি পিটার
১৯৯৯ পারাসসালা পাচান পারামু মনীষা
১৯৯৯ স্তালিন শিবাদাস ইন্দু
১৯৯৯ ভেন্দুম চিলা ভেত্তুকারজানগাল লিজি
২০০০ আনামুত্তাঠই অঙ্গলামার মামাথা মেনন
২০০০ আয়াপ্পানতাম্মা নেইয়াপ্পাম ছুত্তু তিশা
২০১৪ অবতারাম বালসালা জর্জ
২০১৭ কেয়ারফুল -
২০১৮ অরবিন্দান্তে আথিদিকাল
২০১৮ অধিয়ান থানকামানি বারাশিয়ার

টেলিভিশন[সম্পাদনা]

বছর অনুষ্ঠানের নাম ভূমিকা চ্যানেল পাদটীকা
আয়িরাথিল অরুবাল মাজহাবিল মনোরমা সিরিয়াল
বিরুথা আলা ভার্য মাজহাবিল মনোরমা রিয়েলিটি টিভি
ভানিতা মাজহাবিল মনোরমা
থারাপাকিত্তু কৌমুদী টিভি
আন্নি'স কিচেন নিজে অমৃতা টিভি টক শো

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. അേശാക്, അശതി। "നടന ചാരുതയില്‍ ശ്രീജയ"Mangalam Publications (মালায়ালাম ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০১৯ 
  2. "മമ്മൂട്ടിയെ സൈക്കിളിൽ നിന്നു വീഴ്ത്തിയ കഥ ശ്രീജയ പറയുന്നു"Mathrubhumi (মালায়ালাম ভাষায়)। ১৭ জুন ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০১৯ 
  3. "'സമ്മര്‍ ഇന്‍ ബത്‌ലഹേം' എന്ന ചിത്രത്തിന്റെ ക്ലൈമാക്‌സില്‍ ജയറാമിന് പൂച്ചയെ അയച്ചതാര്: ചിത്രത്തിലഭിനയിച്ച നടി ശ്രീജയ പറയുന്നു"Chandrika (মালায়ালাম ভাষায়)। ২৯ মে ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০১৯ 
  4. "'അന്നു ഞാൻ ഡിപ്രഷനിലേക്ക് വഴുതി വീണു, കാനഡയിൽ നിന്നു മകളുടെ കൈപിടിച്ചു വന്നപ്പോൾ സ്വന്തമായി ഒന്നും ഉണ്ടായിരുന്നില്ല!'; ശ്രീജയ പറയുന്നു ആ കാലഘട്ടത്തെക്കുറിച്ച്!"Vanitha (মালায়ালাম ভাষায়)। ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০১৯ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]