শৈলী চোপড়া

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শৈলী চোপড়া
Shaili Chopra-WEF-India Economic Summit 2010.jpg
জন্ম (1981-07-21) ২১ জুলাই ১৯৮১ (বয়স ৩৮)
শিক্ষাসম্প্রচার এবং টেলিভিশন এমএ
পেশাউদ্যোক্তা, লেখিকা (পূর্বে সাংবাদিক)

শৈলী চোপড়া (জন্ম: ২১শে জুলাই ১৯৮১) হলেন একজন ভারতীয় ব্যবসা বিষয়ক সাংবাদিক, লেখিকা এবং উদ্যোক্তা। তিনি শিদ্যপিপল.টিভি-এর প্রতিষ্ঠাতা, যেটি আদর্শ ব্যক্তিদের গল্প সহ নারীদের ক্ষমতায়নের একটি মাধ্যম এবং তাদের কাছে কী গুরুত্বপূর্ণ তা নিয়ে খোলামেলা কথোপকথনের মাধ্যমে তাদের অনুপ্রাণিত করে থাকে। একজন ব্যবসা বিষয়ক সাংবাদিক হিসাবে, তিনি এনডিটিভি প্রফিট এবং ইটি নাওএ কাজ করার জন্য পরিচিত। তিনি বিভিন্ন পুরস্কার জয়ের পাশাপাশি ২০১২ সালে রামনাথ গোয়েঙ্কা অ্যাওয়ার্ড ফর এক্সেলেন্স ইন বিজনেস জার্নালিজম অর্জন করেছেন। সাংবাদিকতার পাশাপাশি তিনি একজন উদ্যোক্তাও।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

১৯৮১ সালের ২১শে জুলাই তারিখে, ভারতের পাঞ্জাবের জলন্ধরে অনিল চোপড়া ও সুমন চোপড়ার ঘরে শৈলী চোপড়া জন্মগ্রহণ করেছিলেন। অনিল চোপড়া ভারতীয় বিমানবাহিনীর একজন অবসরপ্রাপ্ত বিমান চালক যোদ্ধা। ১৯৯৮ সালে, শৈলী নতুন দিল্লির এয়ার ফোর্স গোল্ডেন জুবিলি ইনস্টিটিউট থেকে তাঁর স্কুল জীবনের পড়াশোনা সম্পন্ন করেছেন। ২০০২ সালে, শৈলী চেন্নাইয়ের দ্য এশিয়ান কলেজ অফ জার্নালিজম থেকে সম্প্রচার এবং টেলিভিশন বিভাগ হতে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেছেন। তিনি ব্রিটিশ ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশনের সাংবাদিকতার স্কুল থেকে সম্প্রচারের প্রশিক্ষণ নেন। তিনি সিএনবিসি, এনডিটিভি এবং ইটি নাও-এ কাজ করেছেন।[১][২]

পেশাগত জীবন[সম্পাদনা]

তিনি এনডিটিভি ২৪x৭-এর মার্কেটস অ্যান্ড কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স-এর সম্পাদক হিসাবে এবং এনডিটিভি প্রফিট-এর সিনিয়র নিউজ এডিটর-কর্পোরেট হিসাবে পাঁচ বছরেরও বেশি সময় ধরে কাজ করেছেন এবং পরবর্তীতে ইটি নাও-এর সাথে তিন বছর যাবত কাজ করেছেন। তিনি জি২০, ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম, দ্য ব্রেটন উডস কনফারেন্স ২০১১, ইন্ডিয়া ইকোনমিক সামিট এবং ওয়ার্ল্ড রিটেল কংগ্রেস-এর মতো বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক অনুষ্ঠানে যোগদান করেছেন। ইমপ্যাক্ট ম্যাগাজিন দ্বারা মিডিয়া, বিপণন ও বিজ্ঞাপনে ভারতের ৫০ জন প্রভাবশালী নারীদের মধ্যে তাঁকে স্থান দেওয়া হয়েছিল। ২০০৮ সালের ২৬/১১ এর মুম্বই জঙ্গি হামলার সময় মুম্বাইয়ের তাজ মহল প্যালেস হোটেলের বাইরে থেকে চোপড়া এবং তাঁর স্বামী শিবনাথ ঠুকরাল সরাসরি খবর পরিবেশন করেছিলেন।[৩] একজন উদ্যোক্তা হওয়ার পূর্বে তিনি ইটি নাও-এর প্রধান উপস্থাপক ছিলেন। তিনি "টি টাইম উইথ শৈলী" নামে গলফ বিষয়ক একটি অনুষ্ঠানের উপস্থাপনা করে থাকেন।[২]

রচনা ও উদ্যোক্তা[সম্পাদনা]

এছাড়াও তিনি চারটি বই লিখেছিলেন। তাঁর উদ্যোগগুলো মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ভারতের মহিলা চ্যানেল শিদ্যপিপল.টিভি এবং গলফিংইন্ডিয়ান.কম। তাঁর বইগুলোর মধ্যে পেঙ্গুইন দ্বারা প্রকাশিত ফেমিনিস্ট রানী, র‍্যান্ডম হাউজ দ্বারা প্রকাশিত হোয়েন আই ওয়াজ ২৫, টাইমস বুকস দ্বারা প্রকাশিত বার্ডিস ইন বিজনেস এবং র‍্যান্ডম হাউজ দ্বারা প্রকাশিত বিগ কানেক্ট - সোশ্যাল মিডিয়া অ্যান্ড ইন্ডিয়ান পলিটিকস অন্যতম।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Sawf.org"। Sawf.org। ২৬ জুলাই ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  2. www.exchange4media.com। "Anchor Shaili Chopra takes the entrepreneur road" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১১-১৮ 
  3. "TV's hits and misses of terror attacks"। Hindustan Times। ৫ ডিসেম্বর ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩