শেখ ফজলে নূর তাপস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শেখ ফজলে নূর তাপস
ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
৫ জানুয়ারি ২০১৪ – ২৯ ডিসেম্বর ২০১৯
পূর্বসূরীএ.কে.এম. রহমতুল্লাহ
সংখ্যাগরিষ্ঠবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
ঢাকা-১২ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
২৯ ডিসেম্বর ২০০৮ – ৫ জানুয়ারি ২০১৪
পূর্বসূরীদেওয়ান মোহাম্মদ সালাউদ্দিন
উত্তরসূরীআসাদুজ্জামান খাঁন কামাল
সংখ্যাগরিষ্ঠবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1971-11-19) ১৯ নভেম্বর ১৯৭১ (বয়স ৪৮)
ঢাকা
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
পেশারাজনীতিবিদ ও আইনজীবী

শেখ ফজলে নূর তাপস (জন্ম ১৯ নভেম্বর ১৯৭১) একজন বাংলাদেশী আইনজীবী ও রাজনীতিবিদ যিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়নে নির্বাচিত হয়ে নবম, দশম এবং একাদশ জাতীয় সংসদের সংসদ সদস্য দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৯ সালের ২৯ ডিসেম্বর ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী হিসেবে তাকে মনোনয়ন দেওয়ার পর একাদশ জাতীয় সংসদ থেকে পদত্যাগ করেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

তাপস ১৯৭১ সালের ১৯ নভেম্বর ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম শেখ ফজলুল হক মনি ও মাতার নাম আরজু মনি।[১] তিনি ১৯৯৬ সালে যুক্তরাজ্যের ওলভারহ্যাম্পটন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইনবিদ্যায় স্নাতক (এলএলবি) সম্পন্ন করেন।[২] ১৯৯৭ সালে ‘বার অব ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস’-এর জেনারেল কাউন্সিলের অধীনে বার ফাইনাল কোর্স সম্পন্ন করেন। তিনি লিংকনস্‌ ইনবাংলাদেশ বার কাউন্সিলের একজন সদস্য।[২]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

তাপস ২০০১ সাল থেকে হাইকোর্ট বিভাগের একজন আইনজীবী হিসেবে কাজ করছেন। তিনি ২০১০ সালের ২৪ আগস্ট আপিল বিভাগের একজন আইনজীবী হিসেবে নিয়োগ পান।[২] শেখ মুজিবুর রহমান হত্যা মামলায় তিনি সরকার পক্ষের আইনজীবী হিসেবে কাজ করেন। ২০০৭ সালে তৎকালীন সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে মামলা করার পর তাপস শেখ হাসিনার পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন। তিনি বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ১৯৯৮ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তিনি তার পিতার প্রতিষ্ঠিত ও বন্ধ হয়ে যাওয়া দৈনিক বাংলার বাণী পত্রিকার প্রকাশক ছিলেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটের সদস্য।[২]

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

তাপস ২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১২ আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে প্রথমবারের মত সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[৩] এ সময় তিনি সংসদে বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি এবং আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে ২০১৪ সালে দশম ও ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১০ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[৪][৫] দশম সংসদে তিনি খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য ছিলেন।

২০১৯ সালের ২৯ ডিসেম্বর ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী হিসেবে তাকে মনোনয়ন দেওয়ার পর তিনি জাতীয় সংসদ থেকে পদত্যাগ করেন।[৬]

ব্যক্তিগত ও পারিবারিক জীবন[সম্পাদনা]

আরও দেখুন: শেখ-ওয়াজেদ পরিবার

তাপস ব্যক্তিগত জীবনে আফরিন তাপসের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।[৭] এই দম্পতির দুই ছেলে রয়েছে।[২] তাপসের পিতা ফজলুল হক মনি আওয়ামী লীগের একজন রাজনীতিবিদ ছিলেন এবং এর অঙ্গসংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাগ্নে। এছাড়া, বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের অন্যতম গেরিলা বাহিনী মুজিব বাহিনী তার নির্দেশে ও প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে গঠিত এবং পরিচালিত হয়েছিল। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট শেখ মুজিবুর রহমান হত্যাকাণ্ডের সময় ফজলুল হক মনি ও আরজু মনিকে হত্যা করা হয়। এই দম্পতির দুই পুত্র যুবলীগের বর্তমান সভাপতি শেখ ফজলে শামস পরশ ও শেখ ফজলে নূর তাপস।[৬] শেখ মুজিবুর রহমান তাপসের দাদা এবং বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার ফুফু। শেখ ফজলুল করিম সেলিম তাপসের চাচা।[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Staff। "NATION IN MOURNING"thedailystar.net। The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুন ২০১৫ 
  2. "Barrister Sheikh Fazle Noor Taposh"sheikhfnoor-mp.info। সংগ্রহের তারিখ ২৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  3. "৯ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা"জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার 
  4. "১০ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা"জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার 
  5. "বাংলাদেশ গেজেট, অতিরিক্ত, জানুয়ারি ১, ২০১৯" (PDF)ecs.gov.bdবাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন। ১ জানুয়ারি ২০১৯। ২ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ জানুয়ারি ২০১৯ 
  6. "এমপি পদ থেকে ফজলে নূর তাপসের পদত্যাগ"যুগান্তর। সংগ্রহের তারিখ ২৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  7. "তাপস মেয়র হলে ঢাকা-১০ উপনির্বাচনে প্রার্থী তার স্ত্রী"ঢাকা টাইমস। সংগ্রহের তারিখ ২৯ ডিসেম্বর ২০১৯