শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম, গোপালগঞ্জ

স্থানাঙ্ক: ২৩°০০′৩৬.২৩″ উত্তর ৮৯°৪৯′৩৯.০৬″ পূর্ব / ২৩.০১০০৬৩৯° উত্তর ৮৯.৮২৭৫১৬৭° পূর্ব / 23.0100639; 89.8275167
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম
অবস্থানগোপালগঞ্জ, বাংলাদেশ
স্থানাঙ্ক২৩°০০′৩৬.২৩″ উত্তর ৮৯°৪৯′৩৯.০৬″ পূর্ব / ২৩.০১০০৬৩৯° উত্তর ৮৯.৮২৭৫১৬৭° পূর্ব / 23.0100639; 89.8275167
মালিকজাতীয় ক্রীড়া পরিষদ[২]
পরিচালকজাতীয় ক্রীড়া পরিষদ[২]
ধারণক্ষমতা২৮,০০০
আয়তন১৭৮ × ১৩৮ মিটার (৫৮৪ × ৪৫৩ ফুট)
আকারগোলাকার
ক্ষেত্রফল১০ একর (৪.০ হেক্টর; ৪,৪০,০০০ বর্গফুট)
উপরিভাগঘাস
নির্মাণ
কপর্দকহীন মাঠ১৯৯৬[১]
নির্মাণাধীন১৯৯৯
উদ্বোধন১৯৯৯ (1999)
পুনঃসংস্কার২০০৮
সম্প্রসারণ২০১৩

শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম গোপালগঞ্জ জেলায় অবস্থিত বাংলাদেশের একটি ক্রিকেট স্টেডিয়াম। স্টেডিয়ামটি ১৩ একর জায়গায় গড়ে তোলা হয়েছে। গোপালগঞ্জ জেলার বিভিন্ন ধরনের ক্রীড়া অনুষ্ঠান এখানে অনুষ্ঠিত হয়। এই স্টেডিয়ামটি ২০১৪ আইসিসি বিশ্ব টি-টোয়েন্টির জন্য পুনর্নবীকরণ করা হয়েছিল। স্টেডিয়ামটিতে একটি ভূগর্ভস্থ পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা, পুরো ছাদযুক্ত গ্যালারী, বড় পর্দা, তিনদিকে পার্শ্ব পর্দা, ফ্লাডলাইট এবং প্রেস বক্স রয়েছে। স্টেডিয়াম কমপ্লেক্সে সুইমিং পুল, বড় ব্যায়ামগার, পৃথক বিদ্যুৎ কেন্দ্র, গাড়ি পার্কিংয়ের সুবিধা এবং মহিলাদের জন্য ক্রীড়া কমপ্লেক্স ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৯৬ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসলে গোপালগঞ্জে স্টেডিয়াম নির্মাণের উদ্যোগ নেয়। পরবর্তীতে সরকার বদল হলে নির্মাণকাজ বন্ধ হয়ে যায়। ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকার হিসেবে ক্ষমতায় আসলে এই স্টেডিয়ামের নির্মাণকাজ আবার শুরু হয়। ৪৯ কোটি ৯৪ লাখ টাকা ব্যয়ে স্টেডিয়ামটি নির্মাণ করা হয়।[৩] ২০১৩ সালের ১২ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই স্টেডিয়াম উদ্বোধন করেন।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. http://www.onnews24.com/?p=52936[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. "আর্কাইভকৃত অনুলিপি"। ২০১৩-০৯-১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৯-১৬ 
  3. "'বাপ-মা' নেই গোপালগঞ্জ স্টেডিয়ামের"www.somoynews.tv। ৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮। [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  4. "শেখ কামাল স্টেডিয়ামের কান্না"প্রথম আলো। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১২ জানুয়ারি ২০২০