শেক্সপিয়রীয় ট্র্যাজেডি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(শেকসপিয়রীয় ট্র্যাজেডি থেকে পুনর্নির্দেশিত)
এডউইন অস্টিন অ্যাবি (১৮৫২-১৯১১), কিং লিয়ার, কর্ডেলিয়ার বিদায়-সম্ভাষণ

নাট্যকার উইলিয়াম শেকসপিয়রের অধিকাংশ ট্র্যাজেডিকে শেকসপিয়রীয় ট্র্যাজেডি (ইংরেজি: Shakespearean Tragedy) আখ্যা দেওয়া হয়। শেকসপিয়রের অনেকগুলি ঐতিহাসিক নাটকেও শেকসপিয়রীয় ট্রাজেডির লক্ষণগুলি দেখা যায়। কিন্তু সেই নাটকগুলি ইংল্যান্ডের ইতিহাসের বাস্তব চরিত্রগুলির জীবনের ভিত্তিতে রচিত বলে সেগুলিকে ফার্স্ট ফোলিওতে "হিস্ট্রি" অর্থাৎ ঐতিহাসিক নাটক আখ্যা দেওয়া হয়। তিনটি রোমান ট্র্যাজেডি—জুলিয়াস সিজার, অ্যান্টনি অ্যান্ড ক্লিওপেট্রাকোরিওলেনাস—বিভিন্ন ঐতিহাসিক ব্যক্তিত্বের জীবনীভিত্তিক নাটক হলেও সেগুলির উৎস ইংল্যান্ড-বহির্ভূত দেশের প্রাচীন কাহিনি হওয়ায় উক্ত নাটকগুলি প্রায় সব ক্ষেত্রেই ঐতিহাসিক নাটকের বদলে ট্র্যাজেডি হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়। শেকসপিয়রের রোম্যান্সগুলি (ট্র্যাজিকমিক নাটক) তাঁর কর্মজীবনের শেষ পর্যায়ের রচনা এবং এগুলি প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল ট্র্যাজেডি অথবা কমেডি হিসেবে। এই নাটকগুলির কেন্দ্রীয় চরিত্র একজন উচ্চ মর্যাদাসম্পন্ন ব্যক্তিত্ব এবং নাটকগুলিতে ট্র্যাজেডির কিছু উপাদানও বিদ্যমান; তা সত্ত্বেও এগুলির সমাপ্তি শেকসপিয়রীয় কমেডিগুলির ন্যায় মিলনান্তক। শেকসপিয়রের মৃত্যুর বেশ কয়েক শতাব্দী পরে নাট্যবিশারদ ফ্রেডেরিক এস. বোয়াস একটি পঞ্চম বর্গের অবতারণা করেন—"জটিল নাটক"। শেকসপিয়রের যে নাটকগুলিকে সেগুলির বিষয়বস্তু, প্রেক্ষাপট বা সমাপ্তির ধরনের জন্য পরিষ্কারভাবে কোনও একটি বর্গের অন্তর্ভুক্ত করা যায় না, সেগুলিকেই তিনি জটিল নাটক আখ্যা দিয়েছিলেন।[১][২] শেকসপিয়রের কোনও কোনও নাটকের বর্গীকরণ নিয়ে এখনও গবেষকদের মধ্যে বিতর্ক রয়েছে।

কালপঞ্জি[সম্পাদনা]

নিচে সম্ভাব্য রচনাকালের উল্লেখ সহ ফার্স্ট ফোলিওতে ট্র্যাজেডি হিসেবে চিহ্নিত শেকসপিয়রীয় নাটকগুলির তালিকা দেওয়া হল:[১][৩]

নাটক সময়কাল
যে সালের পরে যে সালের আগে
টাইটাস অ্যান্ড্রোনিকাস ১৫৯১ ১৫৯৩
রোমিও অ্যান্ড জুলিয়েট ১৫৯৪ ১৫৯৫
জুলিয়াস সিজার ১৫৯৯ ১৬০০
হ্যামলেট ১৬০০ ১৬০১
ট্রলিয়াস অ্যান্ড ক্রেসিডা[ক] ১৬০১ ১৬০২
ওথেলো ১৬০৪ ১৬০৫
কিং লিয়ার ১৬০৫ ১৬০৬
ম্যাকবেথ ১৬০৫ ১৬০৬
টাইমন অফ এথেন্স ১৬০৫ ১৬০৮
অ্যান্টনি অ্যান্ড ক্লিওপেট্রা ১৬০৬ ১৬০৭
কোরিওলেনাস ১৬০৭ ১৬০৮

ট্র্যাজেডি[সম্পাদনা]

অনেকেই অ্যারিস্টটলীয় ধারণায় এই ট্র্যাডেজিগুলিকে সংজ্ঞায়িত করেন: নায়ক বা মুখ্যচরিত্র এখানে একটি প্রশংসনীয় চরিত্র। তাঁর চরিত্রে কিছু দোষ আছে, যা দর্শকরা সহানুভূতির সঙ্গে গ্রহণ করেন। একথা সত্য, শেকসপিয়রীয় ট্র্যাজেডির নায়কের চরিত্রে ভাল ও মন্দ গুণ মিশ্রিত রয়েছে। উনিশ শতকের অন্যতম প্রসিদ্ধ শেকসপিয়র বিশেষজ্ঞের এ সি ব্র্যাডলির মতে, " the playwright always insists on the operation of the doctrine of free will; the (anti)hero is always able to back out, to redeem himself. But, the author dictates, they must move unheedingly to their doom."

প্রণয়মূলক ট্র্যাজেডি[সম্পাদনা]

রোমিও অ্যান্ড জুলিয়েট , অ্যান্টনি অ্যান্ড ক্লিওপেট্রা এবং ওথেলো প্রণয়মূলক ট্র্যাজেডি।[৪] এই ট্র্যাজেডিগুলি অন্যান্য ট্র্যাজেডির থেকে পৃথক। কারণ এখানে নায়ক নিজের দোষে পতিত হন না, তাঁর পতনের কারণ হয় বর্হিজগতের কোনো বাধা।

তালিকা[সম্পাদনা]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. ডান্টন-ডনার ও রাইডিং ২০০৪
  2. বোয়াস ১৯১০, পৃ. ৩৪৪–৪০৮।
  3. Brockett ও Hildy 2007, পৃ. 109।
  4. Charney, Maurice: Shakespeare on Love & Lust, page 106. Columbia University Press, 2000


উদ্ধৃতি ত্রুটি: "lower-alpha" নামক গ্রুপের জন্য <ref> ট্যাগ রয়েছে, কিন্তু এর জন্য কোন সঙ্গতিপূর্ণ <references group="lower-alpha"/> ট্যাগ পাওয়া যায়নি