শিউলি আজিম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শিউলি আজিম
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম (2001-12-20) ২০ ডিসেম্বর ২০০১ (বয়স ১৭)
জন্ম স্থান কলসিন্দুর, ধোবাউড়া, ময়মনসিংহ
মাঠে অবস্থান ডিফেন্ডার
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান ক্লাব কলসিন্দুর উচ্চ বিদ্যালয়, ময়মনসিংহ
যুব পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন
দল
কলসিন্দুর উচ্চ বিদ্যালয়, ময়মনসিংহ
জাতীয় দল
বছর দল উপস্থিতি (গোল)
২০১৫ বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৪
২০১৬– বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৭

† উপস্থিতি(গোল সংখ্যা)।

‡ জাতীয় দলের হয়ে খেলার সংখ্যা এবং গোল September 21, 2016 তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

শিউলি আজিম (জন্ম ২০০১) বাংলাদেশের নারী ফুটবল দলের একজন ডিফেন্ডার[২] পূর্বে তিনি বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৪ দলের হয়ে খেলেছেন এবং তিনি ২০১৫ সালে নেপালে অনুষ্ঠিত এএফসি অনূর্ধ্ব-১৪ গার্লস রিজিওনাল চ্যাম্পিয়ানশিপ(দক্ষিণ ও মধ্যএশিয়া) বিজয়ী দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন। তিনি বর্তমানে ডিফেন্ডার হিসেবে ময়মনসিংহের কলসিন্দুর উচ্চ বিদ্যালয় এবং বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৭ নারী ফুটবল দলে খেলছেন। তিনি বাংলাদেশের ঢাকায় অনুষ্ঠিত ২০১৭ এএফসি নারী চ্যাম্পিয়ানশিপ কোয়ালিফিকেশনে গ্রুপ সি'র পাঁচটি ম্যাচের সবগুলোতেই অংশগ্রহণ করেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

শিউলি আজিম ২০০১ সালের ২০ ডিসেম্বর[৩] ময়মনসিংহ জেলার ধোবাউড়া উপজেলার কলসিন্দুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

খেলোয়াড়ি জীবন[সম্পাদনা]

শিউলি আজিম তার খেলোয়াড়ি জীবনে সর্বপ্রথম ২০১১ সালে কলসিন্দুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের হয়ে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব গোল্ড কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করেন।[৪]

আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

শিউলি আজিম জাতীয় পর্যায়ে সর্বপ্রথম বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৭ নারী ফুটবল দলে নির্বাচিত হন ২০১৭ এএফসি অ-১৬ নারী চ্যাম্পিয়ানশিপ কোয়ালিফিকেশনে গ্রুপ-সি'র ম্যাচগুলোর জন্য। তিনি এই টুর্নামেন্টে নিজের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের প্রথম ম্যাচটি খেলেন ২০১৬ সালের ২৭শে আগস্ট ইরান অনূর্ধ্ব-১৭ নারী ফুটবল দলের বিপক্ষে।[৫] তিনি অ-১৭ জাতীয় দলের হয়ে পাঁচটি ম্যাচে অংশগ্রহণ করেন। এসময়ে গ্রুপ সি চ্যাম্পিয়ান হিসেবে বাংলাদেশ ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ২০১৭ এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ নারী চ্যাম্পিয়ানশিপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে।[৬]

সম্মাননা[সম্পাদনা]

এএফসি ইউ-১৪ গার্লস রিজিওনাল চ্যাম্পিয়ানশিপ - দক্ষিণ ও কেন্দ্রীয়
বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৪ নারী '
  • চ্যাম্পিয়ন: ২০১৫

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Schedule & Results"Asian Football Confederation। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-১০-০২ 
  2. "Bangladesh girls want to move further in int'l arena"The Independent (Bangladesh newspaper)। Dhaka। ২০১৬-০৫-০৩। ২০১৬-০৯-২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৯-২১ 
  3. Hoque, Shishir (২০১৬-০৯-০২)। "Meet our supergirls"Dhaka Tribune। Dhaka। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৯-২১ 
  4. Parvez, Kamran (২০১৫-০৮-২২)। "Amazing football by Kalsindur girls"Prothom Alo। ২০১৬-০১-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৯-২১ 
  5. "AFC U-16 Women's Championship 2017"Asian Football Federation। ২০১৬-০৮-২৭। ২০১৬-০৮-৩০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৮-৩০ 
  6. "Bangladesh, Australia through to AFC U-16 Women's C'ship 2017"Asian Football Confederation। ২০১৬-০৯-০৪। ২০১৬-০৯-০৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৯-০৬