শাম্মী (অভিনেত্রী)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
শাম্মী
Movie still from Halaku (1956) cropped on Shammi.jpg
১৯৫৬ সালে শাম্মী
জন্ম
নার্গিস রাবাদী

(১৯২৯-০৪-২৪)২৪ এপ্রিল ১৯২৯[১]
মৃত্যু৬ মার্চ ২০১৮(2018-03-06) (বয়স ৮৮)[১]
মুম্বই, মহারাষ্ট্র, ভারত
জাতীয়তাভারতীয়
কর্মজীবন১৯৪৯–২০১৮
দাম্পত্য সঙ্গীসুলতান আহমেদ

নার্গিস রাবাদী (২৪শে এপ্রিল ১৯২৯ – ৬ই মার্চ ২০১৮;[২] তাঁর মঞ্চের শাম্মী নামে অধিক পরিচিত)[৩] একজন ভারতীয় অভিনেত্রী ছিলেন, যিনি দুই শতাধিক হিন্দি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন। তিনি ১৯৪৯–১৯৬৯ এবং ১৯৮০–২০০২ সালে অভিনয়ের জন্য অধিক পরিচিত।[৪][৫] পার্শ্ব অভিনেত্রী হিসাবে তাঁর বিখ্যাত চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে দিল আপনা অর প্রীত পরাই, হাফ টিকিট, হালাকু, সমাজ কো বদল ডালো, খুদা গাওয়া, কুলি নম্বর ১, গোপী কিশান, হাম সাথ সাথ হ্যাঁয় এবং রাজেশ খান্নার সাথে দ্য ট্রেন, আঁচল, কুদরত অন্যতম। এছাড়াও তিনি রেড রোজ, আওয়ারা বাপ এবং স্বর্গ নামক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তিনি ১৯৪৯ সাল হতে ১৯৫৫ সাল পর্যন্ত হিন্দি চলচ্চিত্রে কেন্দ্রীয় নারী চরিত্র বা পার্শ্ব নারী চরিত্রে অভিনয় করে শীর্ষস্থানীয় অভিনেত্রীদের মধ্যে একজন হয়েছিলেন। পরে ১৯৮৬ সাল থেকে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত তিনি বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় টেলিভিশন ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন; যার মধ্যে দেখ ভাই দেখ, জবান সম্ভাল কে, শ্রীমান শ্রীমতী, কভি ইয়ে কভি ওহ এবং ফিল্মী চক্কর অন্যতম। বিচ্ছিন্ন হওয়ার আগে শাম্মী সাত বছর ধরে চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিচালক সুলতান আহমেদের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ ছিলেন।[৬] শাম্মীর ছোট বোন মণি রাবাদী একজন ফ্যাশন ডিজাইনার ছিলেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

নার্গিস রাবাদী ১৯২৯ সালের ২৪শে এপ্রিল তারিখে তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের বোম্বে প্রেসিডেন্সির বোম্বে (বর্তমানে মহারাষ্ট্রের মুম্বই)-এ জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তাঁর পিতা পার্সির অগ্নি মন্দির-এর পুরোহিত ছিলেন এবং যখন রাবাদী প্রায় তিন বছর বয়সী ছিলেন তখন তাঁর বাবা মারা যান। বাবার মৃত্যুর পরে, তাঁর মা অর্থ উপার্জনের জন্য, পার্সী সম্প্রদায়ের দ্বারা আয়োজিত সমস্ত ধর্মীয় অনুষ্ঠানে, খাবার রান্না করতেন। রাবাদীর এক বড় বোন মণি রাবাদী ফ্যাশন ডিজাইনার ছিলেন এবং ১৯৬৭ থেকে ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত হিন্দি চলচ্চিত্রে অভিনয়শিল্পীদের পোশাক পরিকল্পক হিসেবে অনেক অভিনয়শিল্পীর সাথে ব্যাপকভাবে কাজ করেছিলেন।[৭] তাঁর মায়ের ছোট বোন তাঁর সাথে থাকতেন। তাঁরা ১৯৩০–৪৭ সময়কালে দক্ষিণ মুম্বইয়ের পারেলের টাটা ব্লকে অবস্থান করেছিলেন। তাঁর বোন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পড়াশোনা শেষ করে জনসন অ্যান্ড জনসন-এ একজন সেক্রেটারি হিসাবে যোগদান করেছিলেন।

১৯৪২ সালে জনসন অ্যান্ড জনসন ট্যাবলেট তৈরি করত এবং রাবাদী উক্ত কাজের প্যাকিং বিভাগে নিযুক্ত ছিলেন। যেসকল ট্যাবলেট সিল করা হয়নি এবং মেশিন থেকে পড়ে গিয়েছিল, সেই ট্যাবলেটগুলো সংগ্রহ করা তাঁর কাজ ছিল। তাঁকে সেই ট্যাবলেটগুলোকে বড় বোতলে রাখতে হত, যেগুলি রোগীদের বিনামূল্যে বিতরণ করার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হতো। এই কাজটি করার জন্য তাঁকে প্রতি মাসে ১০০ টাকা দেওয়া হত।[৮]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

২০১৮ সালের ৬ই মার্চ তারিখে ৮৮ বছর বয়সে তিনি স্বাভাবিক ভাবেই ঘুমের মধ্যে মারা যান।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২১ জুন ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০২০  উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; আলাদা বিষয়বস্তুর সঙ্গে "republicworld.com" নামটি একাধিক বার সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে
  2. http://www.bollywoodlife.com/hi/news-gossip/shammi-pasess-away-at-89-here-are-some-intresting-fact-about-vetarn-actress/
  3. "Waheeda Rehman, Shammi Aunty & Asha Parekh at unveiling of hand impression for walk of the star event"। GlamSham.com। ৭ এপ্রিল ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ এপ্রিল ২০১৪ 
  4. "At 83, Shammi Aunty, hard of hearing, but frail"NDTV Movies। ২৭ মে ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০১৪ 
  5. "Acting is the only thing I know how to do: Shammi aunty"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০১৪ 
  6. "Rediff On The Net, Movies: An interview with Shammi, the heartthrob of the '50s"m.rediff.com 
  7. "RIP Mani Rabadi" 
  8. "Meet the 'other' Shammi of Bollywood- Page 2"Rediff। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০১৪ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]