শহীদ শুক্কুর স্টেডিয়াম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শহীদ শুক্কুর স্টেডিয়াম
রাঙ্গামাটি পুরাতন স্টেডিয়াম
পুরোনো কোর্ট বিল্ডিং মাঠ
শহীদ শুক্কুর স্টেডিয়াম বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
শহীদ শুক্কুর স্টেডিয়াম
শহীদ শুক্কুর স্টেডিয়াম
বাংলাদেশ মানচিত্রে স্টেডিয়ামের অবস্থান
পূর্ণ নামশহীদ শুক্কুর স্টেডিয়াম
প্রাক্তন নামরাঙ্গামাটি পুরাতন স্টেডিয়াম
অবস্থানরিজার্ভ বাজার, রাঙ্গামাটি বাংলাদেশ
স্থানাঙ্ক২২°৩৮′৫২.২০″ উত্তর ৯২°১১′৪৭.২০″ পূর্ব / ২২.৬৪৭৮৩৩৩° উত্তর ৯২.১৯৬৪৪৪৪° পূর্ব / 22.6478333; 92.1964444স্থানাঙ্ক: ২২°৩৮′৫২.২০″ উত্তর ৯২°১১′৪৭.২০″ পূর্ব / ২২.৬৪৭৮৩৩৩° উত্তর ৯২.১৯৬৪৪৪৪° পূর্ব / 22.6478333; 92.1964444
মালিকজাতীয় ক্রীড়া পরিষদ
পরিচালকরাঙ্গামাটি জেলা ক্রীড়া সংস্থা
রাঙ্গামাটি জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থা
উপরিভাগঘাস
স্কোরবোর্ডনেই
নির্মাণ
নির্মাণ খরচসংস্কার ২০১১ঃ ২৩ লক্ষ টাকা
ভাড়াটিয়া
শহীদ আব্দুস শুক্কুর এ্যাথলেটিক্স ক্লাব(১৯৭২-বর্তমান)
রাইজিং স্টার ক্লাব

শহীদ শুক্কুর স্টেডিয়াম বাংলাদেশের একটি জেলা পর্যায়ের স্টেডিয়াম। স্টেডিয়ামটি রাঙ্গামাটি জেলারাঙ্গামাটি পৌরসভায় রিজার্ভ বাজারে প্রধান সড়কের পাশে রাঙ্গামাটি পার্কের দক্ষিণে, কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পশ্চিমে অবস্থিত। স্টেডিয়ামের স্থানটি মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত[১]। রাঙ্গামাটি জেলার দুইটি স্টেডিয়ামের মধ্যে এটি পুরাতন, তাই রাঙ্গামাটি পুরাতন স্টেডিয়াম নামে পরিচিত। এই স্থানে জেলার পুরোনো কোর্ট ভবন ছিল, তাই স্টেডিয়ামটি পুরোনো কোর্ট বিল্ডিং মাঠ নামেও পরিচিত। জেলার অপর স্টেডিয়ামটি পরবর্তীতে নির্মিত চিং হ্লা মং চৌধুরী মারি স্টেডিয়াম মারি স্টেডিয়াম নির্মাণের পূর্বে এই স্টেডিয়ামটি ছিল বাংলাদেশের জাতীয় দিবস সমূহের বিভিন্ন কর্মসূচী, কুচকাওয়াচ ও রাঙ্গামাটি জেলা ভিত্তিক খেলাধুলা প্রতিযোগিতা ও লিগ আয়োজনের কেন্দ্রীয় স্থান[২]। নতুন মারি স্টেডিয়াম নির্মাণ এবং উন্নয়ন ব্যয় বরাদ্দ না থাকায় ভেন্যুটিতে অদ্যাবধি পূর্নাঙ্গ গ্যালারি তৈরী হয়নি, তাই স্টেডিয়ামটি অদ্যাবধি অসম্পূর্ণ অবস্থায় রয়েছ। নতুন স্টেডিয়ামের পাশাপাশি এই ভেন্যুতেও স্থানীয় ও জেলা পর্যায়ের ফুটবল[৩], ক্রিকেট[৪], বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী বলি খেলা[৫][৬][৭], বর্ষ বরণ[৫] এবং বিভিন্ন মেলা অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশের অন্যান্য সকল ক্রীড়া ভেন্যুর মতই এই স্টেডিয়ামটি জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের অধিভুক্ত ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার তত্বাবধায়নে রয়েছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

স্টেডিয়ামের মাঠটির সাথে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের স্মৃতি জড়িত। ১৯৭১ সালের ১৭ ডিসেম্বর রাঙ্গামাটি জেলা পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর দখল মুক্ত হয়। বিজয়ের এক দিন পর রাঙ্গামাটিতে আনুষ্ঠানিকভাবে উত্তোলন করা হয় স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা। মিত্র বাহিনীর পূর্বাঞ্চল কমান্ডের অধিনায়ক জেনারেল সুজন সিং ও শেখ ফজলুল হক মনি হেলিকপ্টারযোগে ১৭ ডিসেম্বর, ১৯৭১-এ রিজার্ভ বাজার এলাকার তৎকালীন পুরোনো কোর্ট বিল্ডিং বর্তমান শহীদ শুক্কুর স্টেডিয়াম মাঠে অবতরণ করেন। এখানে তারা স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করেছিলেন[১]। জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ কর্তৃক ০৫ ডিসেম্বর, ২০১২ তারিখে রাঙ্গামাটি জেলার প্রখ্যাত মুক্তিযোদ্ধা শহীদ আব্দুস শুক্কুর-এর নামে এই স্টেডিয়ামের নাম পরিবর্তন করে 'শহীদ শুক্কুর স্টেডিয়াম' রাখা হয়[৮][৯][১০]

আয়োজন[সম্পাদনা]

  • প্রতিবছর বাংলাদেশের স্বাধীনতাবিজয় দিবসের সূচনা করতে এই স্টেডিয়াম হতে তোপধ্বনি দেয়া হয়।[১১][১২][১৩]
  • রাঙ্গামাটি জেলা পর্যায়ের বা স্থানীয় ফুটবল প্রতিযোগিতার জন্য এই ভেন্যু নিয়মিত ব্যবহার হয়।[৩][১৪][১৫]
  • রাঙ্গামাটি জেলা পর্যায়ের বা স্থানীয় ক্রিকেট প্রতিযোগিতার জন্য এই ভেন্যু নিয়মিত ব্যবহার হয়।[১৬][১৭]

সংস্কার[সম্পাদনা]

২০১১ সালে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের উদ্যোগে ২৩ লক্ষ টাকা ব্যয়ে এই ভেন্যুর মাঠে মাটি ভরাট, নতুন ঘাস রোপন, সীমানা প্রাচীর ও পয়নিষ্কাশন ব্যবস্থা সংস্কার করা হয়েছিল।[২]

সমস্যা[সম্পাদনা]

রক্ষণাবেক্ষণ না করায় স্টেডিয়ামের মাঠটি খেলার অনুপযোগি হয়ে পরার আশংকা রয়েছে।[১৮]

অন্যান্য ব্যবহার[সম্পাদনা]

এই স্টেডিয়ামটি জনসভার জন্য ব্যবহার হয়[১৯]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসুত্র[সম্পাদনা]

  1. "রাঙ্গামাটি হানাদারমুক্ত দিবস আজ – আলোকিত বাংলাদেশ"www.alokitobangladesh.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  2. "ঐতিহ্য হারাচ্ছে শহীদ শুক্কুর স্টেডিয়াম"parbatyachattagram.com। ২০১৪-১০-২৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  3. "চ্যাম্পিয়ন জহির স্মৃতি সংসদ"parbatyachattagram.com। ২০১৬-০১-২১। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  4. "হাজী আব্দুল বারী মাতব্বর স্মৃতি ক্রিকেটে চ্যাম্পিয়ন জেলা পুলিশ"pahar24.com। ২০১৯-০৪-০৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  5. "বর্ষবরণের ব্যাপক প্রস্তুতি রাঙামাটিতে"pahar24.com। ২০১৯-০৪-০৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  6. "বর্ষবরণের নানা প্রস্তুতি রাঙামাটিতে | কালের কণ্ঠ"Kalerkantho। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  7. "নববর্ষের বলী খেলায় নুর কামাল চ্যাম্পিয়ন"chtsports.com। ২০১৯-০৪-১৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  8. "প্রয়াত ফুটবলার মারীর নামে রাঙ্গামাটি স্টেডিয়াম"bangla.bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  9. "বিশিষ্ট ব্যক্তিদের নামে স্টেডিয়াম"The Daily Sangram। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  10. "ক্রীড়া ব্যক্তিত্বদের নামে স্টেডিয়াম"banglanews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  11. "রাঙামাটিতে স্বাধীনতা দিবসের কর্মসূচি"News24 TV। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  12. "রাঙামাটিতে স্বাধীনতা দিবসের কর্মসূচি"cvoice24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  13. "dailyrangamati.com – মহান বিজয় দিবস পালনের জন্য প্রস্তুত রাঙামাটি প্রশাসন"। ২০১৬-১২-১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  14. "রাঙামাটিতে বঙ্গবন্ধু কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট শুরু"Hill Report 24। ২০১৮-০৪-২২। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  15. "রিজার্ভ বাজারে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল শুরু"chtsports.com। ২০১৯-০৪-২০। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  16. "রাঙ্গামাটিতে স্বাধীনতা কাপ টি-টুয়েন্টি ক্রিকেট শুরু"Your Site NAME Goes HERE। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  17. "রাঙামাটিতে স্বাধীনতা কাপ টি-২০ ক্রিকেট শুরু"দৈনিক পূর্বদেশ। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  18. "আশাবাদ নেই, শুধুই হতাশা খেলার মাঠে"parbatyachattagram.com। ২০১৭-০১-০১। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 
  19. "সন্ত্রাস করে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বন্ধ হবে না: প্রধানমন্ত্রী"www.prothom-alo.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

রাঙ্গামাটি জেলার খেলাধূলা ও বিনোদন