শর্মিলা বসু

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
শর্মিলা বসু
Replace this image female bn.svg
জন্ম (১৯৫৯-০৭-০৪)জুলাই ৪, ১৯৫৯
বস্টন, ম্যাসাচুসেটস
জাতীয়তা ভারতীয় আমেরিকান
পেশা সিনিয়র গবেষণা সহযোগী

শর্মিলা বসু (জন্ম: ৪ঠা জুলাই, ১৯৫৯ বস্টন, ম্যাসাচুসেটস), একজন ভারতীয় বংশোদ্ভুত আমেরিকান, বর্তমানে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজের একজন সিনিয়র গবেষণা সহযোগী।[১] তিনি বিতর্কিত[২] "ডেড রেকনিং: ১৯৭১ এর বাংলাদেশ যুদ্ধের স্মৃতি" বইয়ের লেখিকা।

শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

তিনি কোলকাতার মডার্ন হাই স্কুলে পড়াশোনা করেছেন। পরে তিনি Bryn Mawr College থেকে A. B. অর্জন করেছেন এবং হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাজনৈতিক অর্থনীতি বিষয়ে মাস্টার্স ও পিএইচডি লাভ করেছেন।

পরিবার[সম্পাদনা]

তার পিতার নাম শিশির কুমার বসু, যিনি একজন শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক। তার মায়ের নাম কৃষ্ণা বসু, যিনি একজন ইংরেজীর অধ্যাপক, লেখক ও রাজনীতিবিদ।[৩] কৃষ্ণা বসু যিনি ১৯৭১ সালের যুদ্ধে ক্ষতিগ্রস্তদের প্রতি অত্যন্ত সহানুভূতিশীল ছিলেন, তিনি শর্মিলা বসুর বই নিয়ে আলোচনায় অংশ নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন।[৩] তার পিতামহ শরৎ চন্দ্র বসু একজন ব্যারিস্টার ও প্রখ্যাত জাতীয়তাবাদী নেতা ছিলেন। তার পিতামহের ভাই ছিলেন নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসু

বিতর্কিত[সম্পাদনা]

বসু তার লেখা বিতর্কিত বই "ডেড রেকনিং: ১৯৭১ এর বাংলাদেশ যুদ্ধের স্মৃতি"-তে এবং অন্যান্য স্থানে দাবি করেছেন যে, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকালে পাকিস্তানী সেনাবাহিনী কর্তৃক যে ব্যাপক গণহত্যা ও ধর্ষণ সংঘটিত হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয় তা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ ও ভারত কর্তৃক অতিরঞ্জিত।[৪][৫][৬] পাকিস্তানীদের মধ্যে যারা ১৯৭১-এর পাকিস্তানীদের চালানো গনহত্যার সমালোচনা করে বই লিখেছেন, তাদের বর্ননাকে বসু 'সীমাবদ্ধ' আখ্যা দিয়েছেন।[৭] তিনি বহুসংখ্যক প্রত্যক্ষদর্শীর সাক্ষাতকার গ্রহনপূর্বক উপসংহার টেনেছেন যে, ১৯৭১ সালের যুদ্ধে পাকিস্তানী সেনাবাহিনী এবং মুক্তিবাহিনী উভয় পক্ষই ব্যাপক গণহত্যা চালিয়েছিল।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] তার এই দৃষ্টিভঙ্গী বাংলাদেশ ও ভারতে ইতিহাসবিদদের দ্বারা ব্যাপকভাবে সমালোচিত হয়েছে। অনেক গবেষক তার কাজে অনেক অসঙ্গতি রয়েছে বলে দাবি করেছেন।[৮][৯][১০][১১][১২] পাকিস্তানে বসুর বই কোন মহলে প্রশংসিত আর কোন মহলে সমালোচিত হয়েছে।[১৩] ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে অবস্থানরত বিদেশী সাংবাদিকরাও বসুর লেখা ইতিহাসের সমালোচনা করেছেন।[১১]

শর্মিলা বসু যুক্তরাষ্ট্র হতে পাকিস্তানে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান বিক্রয়ের সমর্থক।[১৪][১৫] তিনি পাকিস্তানি জেনারেল নিয়াজীর উচ্চকিত প্রশংসা করেছেন, যদিও অন্য পাকিস্তানি জেনারেলরা এর সাথে ভিন্নমত পোষন করেন। পাকিস্তানি ব্রিগেডিয়ার এফ বি আলীর ভাষ্যমতে, নিয়াজী একজন প্রতারক, লম্পট এবং কাপুরূষ। করাচিতে নিয়াজীর গাড়ী সবসময় নিষিদ্ধ পল্লির বাইরে পাওয়া যেত।[১১] আরেকজন পাকিস্তানী জেনারেল খাদিম হুসেন রাজার মতে, পাকিস্তানি জেনারেল নিয়াজী বাঙ্গালী নারীদের উপরে পাকিস্তান সেনাবাহিনী লেলিয়ে দিতে চেয়েছিলেন।[১৬] লিপিবদ্ধ ৯৩,০০০ পাকিস্তানি সৈন্যের আত্মসমর্পনকে নিয়াজির দাবির প্রেক্ষিতে ৩৪,০০০ দেখানোতে ইতিহাসবিদরা শর্মিলা ইচ্ছাকৃতভাবে সংখ্যা নিয়ে খেলা করছেন কিনা সেই প্রশ্ন তুলেছেন।[৩]

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক বইয়ের তালিকা[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Oxford University Faculty Bio
  2. Lawson, Alastair (১৬ জুন ২০১১)। "Controversial book accuses Bengalis of 1971 war crimes"BBC। সংগৃহীত ৩০ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  3. ৩.০ ৩.১ ৩.২ Bhaumik, Subir (২৯ এপ্রিল ২০১১)। "Book, film greeted with fury among Bengalis"aljazeera। সংগৃহীত ২১ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  4. Woodrow Wilson Center Woodrow Wilson Center Book Launch event
  5. Anatomy of Violence: Analysis of Civil War in East Pakistan in 1971 by Sarmila Bose in the Economic and Political Weekly, October 8, 2005
  6. Losing the Victims: Problems of Using Women as Weapons in Recounting the Bangladesh War by Sarmila Bose in the Economic and Political Weekly, September 22, 2007
  7. Dead Reckoning by Sarmila Bose, Pp 195
  8. Naeem Mohaiemen, "Flying Blind: Waiting for a real Reckoning on 1971", Economic & Political Weekly, vol xlvi no 36, September 3, 2011
  9. Sarmila Bose, "‘Dead Reckoning’: A Response"; Naeem Mohaiemen, "Another Reckoning"; Economic & Political Weekly, vol xlvi no 53, December 31, 2011.
  10. Sahgal, Gita (১৮ ডিসেম্বর ২০১১)। "Dead Reckoning: Disappearing stories and evidence"The Daily Star। সংগৃহীত ১৯ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  11. ১১.০ ১১.১ ১১.২ Zeitlin, Arnold (নভেম্বর ১৭, ২০১৩)। "Thoughts on Dead Reckoning"The Daily Star। সংগৃহীত ১৬ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  12. Unheard Voice blog has compiled some responses to Bose
  13. Zia, Afia (১২ জানুয়ারি ২০১২)। "Reading and writing 1971"The Express Tribune। সংগৃহীত ২০ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  14. Sobhan, Zafar। "Bose is more Pakistani than Jinnah the Quaid"The Sunday Guardian। সংগৃহীত ১৬ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  15. Milam, William (এপ্রিল ১১, ২০০৫)। "The right stuff: F-16s to Pakistan is wise decision"The Christian Science Monitor। সংগৃহীত ১৬ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  16. Ahmed, Khaled (জুলাই ৭, ২০১২)। "‘Genetic engineering’ in East Pakistan"The Express Tribune। সংগৃহীত ১৯ ডিসেম্বর ২০১৩